সরিষাবাড়ীতে সন্ত্রাসী হামলায় আহত সেনা সার্জেন্টের মৃত্যু

সরিষাবাড়ীতে সন্ত্রাসী হামলায় আহত সেনা সার্জেন্টের মৃত্যু

সরিষাবাড়ী (জামালপুর) প্রতিনিধি : জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে সন্ত্রাসী হামলায় আহতের ৬ দিন পর সেনা সার্জেন্ট শফিকুল ইসলাম (৪৫) গত বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে আটটার দিকে ঢাকা সামরিক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু বরণ করেছেন।জানা গেছে, সরিষাবাড়ী পৌরসভার সাতপোয়া গ্রামের বসবাসরত আব্দুল মালেক সরকারের ছেলে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর (এলপিআর) সেনা সার্জেন্ট শফিকুল ইসলাম ঈদের পর দিন ১৭ জুন তার নিজ জন্মস্থান সিরাজগঞ্জ জেলার কাজীপুর উপজেলার কুমারিয়াবাড়ী গ্রামের বাড়িতে যান। ওই দিন রাত আনুমানিক ১১টার দিকে শফিকুল ইসলাম সরিষাবাড়ী ও কাজীপুর উপজেলার সীমান্তবর্তী ব্রাহ্মনজানী অবস্থান করছিলেন। এ সময় সন্ত্রাসী কামাল হোসেন তাকে ডেকে নিয়ে মারপিট করে মৃত ভেবে একটি গর্তে ফেলে দেয়।

 পরে তাকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে প্রথমে সরিষাবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আনা হলে অবস্থার বেগতি দেখে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে এবং পরে ঢাকা সামরিক হাসপাতালে পাঠানো হলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন। তাকে নিজ বাড়ি সিরাজগঞ্জ জেলার কাজীপুর উপজেলার মনছুর নগর ইউনিয়নের কুমারিয়াবাড়ী গ্রামে গতকাল শুক্রবার দাফন সম্পন্ন  করা হয়েছে।

জীবিত থাকা অবস্থায় শফিকুল ইসলাম মারপিট ঘটনায় জড়িত জামালপুর জেলার সরিষাবাড়ী উপজেলার পোগলদিঘা ইউনিয়নের টাকুরিয়া গ্রামের মৃত কছিম উদ্দিনের ছেলে কামাল হোসেনকে প্রধান আসামি করে ১৩/১৪ ও অজ্ঞাতনামা ৬/৭ জনকে আসামি করে গত ২০ জুন সরিষাবাড়ী থানায় অভিযোগ দায়ের করে গেছেন বলে সরিষাবাড়ী থানার এএসআই আমিনুল ইসলাম জানিয়েছেন। সন্ত্রাসী কামাল হোসেন ও তার সহযোগীরা শফিকুল ইসলামকে কেন ডেকে নিয়ে মারপিট করে গুরুতর আহত করা হয়েছে এ রহস্য খুজে পাওয়া যায়নি। শফিকুল ইসলাম এর মৃত্যু খবরে হামলাকারী কামাল হোসেন ও তার সহযোগীরা গা ডাকা দিয়েছে। তিনি স্ত্রী, ১ ছেলে, ১ মেয়েসহ অসংখ্য গুনগ্রাহী রেখে গেছেন।