শরীয়তপুরে গ্রেপ্তারের পর ‘বন্দুকযুদ্ধে ডাকাত’ নিহত

শরীয়তপুরে গ্রেপ্তারের পর ‘বন্দুকযুদ্ধে ডাকাত’ নিহত

শরীয়তপুরে জাজিরা উপজেলায় একজনকে গ্রেপ্তারের পর সঙ্গে নিয়ে পুলিশ অস্ত্র উদ্ধারে যাওয়ার পর কথিত বন্দুকযুদ্ধে তার মৃত্যু হয়েছে।

উপজেলার দাসার্তা গ্রামের তিন রাস্তার মোড়ের মসজিদের দক্ষিণ পাশের বাগানে ‍বুধবার রাত দেড়টার দিকে গোলাগুলির ওই ঘটনায় নিহত হাওলাদার ওরফে সাগর ওরফে কামাল ওরফে আসলামকে ডাকাত বলে দাবি করছে পুলিশ।

সালাউদ্দিন জেলার গোসাইরহাট উপজেলার ভোগকাঠি গ্রামের আলী আহম্মেদ হাওলাদারের ছেলে। পালং মডেল থানার ওসি মো.মনিরুজ্জামানের ভাষ্য, সালাউদ্দিন আন্তঃজেলা ডাকাত দলের সর্দার এবং তার বিরুদ্ধে ভেদরগঞ্জ গোসাইরহাট, পালং ও চাঁদপুর জেলায় থানায় ছয়টি ডাকাতির  মামলা রয়েছে।

ঘটনার বর্ণনায় ওসি বলেন, বুধবার দুপুরে জাজিরা উপজেলার কাজিরহাট এলাকা থেকে সালাউদ্দিনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। রাতে তাকে নিয়ে অস্ত্র উদ্ধারে যায় পুলিশ।

“এ সময় ডাকাত দলের সদস্যরা পুলিশকে লক্ষ্য করে হাতবোমা ও গুলি ছোড়ে। আত্মরক্ষার্থে পুলিশও পাল্টা গুলি করে। এক পর্যায়ে ডাকাতরা পিছু হটলে ঘটনাস্থল থেকে সালাউদ্দিনকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখা যায়।”

তাকে উদ্ধার করে শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসকেরা সালাউদ্দিনকে মৃত ঘোষণা করেন বলে এ পুলিশ কর্মকর্তা জানান।

এছাড়া ঘটনাস্থল থেকে একটি শুটারগান, ছয়টি হাতবোমা, চারটি রামদা, একটি ছোরা ও একটি চাইনিচ কুড়াল উদ্ধারের কথাও জানিয়েছে পুলিশ।