ভিক্ষা নয় মেহনতি মানুষের শ্রমের মজুরি চাই : সেলিম

ভিক্ষা নয় মেহনতি মানুষের শ্রমের মজুরি চাই : সেলিম

স্টাফ রিপোর্টার : আমরা ভিক্ষা চাইতে আসিনি, মেহনতি মানুষের শ্রমের মজুরি চাইতে রাস্তায় এসেছি। শ্রমিকের দাবি নূন্যতম ১৬ হাজার টাকা মেনে নিতে হবে। নইলে আগামী নির্বাচনে শ্রমিকরা আপনাকে ক্ষমতা থেকে নামিয়ে দেবে। গতকাল শুক্রবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে গার্মেন্টস শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্র আয়োজিত সড়ক অবরোধ ও সমাবেশে সরকারের উদ্দেশ্যে এসব ঘোষণা দেন বাংলাদেশ কমিউনিস্ট পার্টির সভাপতি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম। সেলিম বলেন, আমাদের প্রস্তাব ছিল নূন্যতম মজুরি ১৬ হাজার টাকা করার। কিন্তু সব শ্রমিকের আশাকে উপেক্ষা করে অর্ধেকের প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে। আমরা সরকারের এ প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করছি। তিনি বলেন, আগামী নির্বাচনে ফান্ড আদায় করতেই মালিক পক্ষের স্বার্থ দেখছে সরকার।

 আজ সুইপারের বেতন ১৭ হাজার টাকা, কিন্তু গার্মেন্টস শ্রমিকের মজুরি ৮ হাজার টাকা। এটা মানা যায় না। গার্মেন্টস শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের সভাপতি কাজী রুহুল আমিনের সভাপতিত্বে আয়োজিত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন সংগঠনটির সাধারণ সম্পাদক জলি তালুকদার, সহ-সভাপতি সাদেকুর রহমান প্রমুখ। একই সময় গার্মেন্টস শ্রমিক অধিকার আন্দোলন আয়োজিত সমাবেশে শ্রমিকনেত্রী মুশরেফা মিশু বলেন, আমরা দুই বছর আগে ১৬ হাজার টাকা শ্রমিকের মজুরির প্রস্তাব করেছিলাম। দুই বছরে সব পণ্যের দাম বেড়েছে অথচ শ্রমিকের মজুরি করা হলো ৮ হাজার টাকা। আমরা সরকারের প্রস্তাবের সঙ্গে একমত না। আমাদের দাবি ১৬ হাজার টাকা না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চলবে। আন্দোলনের মাধ্যমে মেহনতি মানুষের দাবি আদায় করেই আমরা ঘরে ফিরব।