বাবাকে গলা কেটে হত্যা, ছেলেকে পুলিশে দিল গ্রামবাসী

বাবাকে গলা কেটে হত্যা, ছেলেকে পুলিশে দিল গ্রামবাসী

বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে এক ব্যক্তিকে গলা কেটে হত্যার পর তার ছেলেকে ধরে পুলিশে দিয়েছে এলাকাবাসী। শনিবার নিশানবাড়িয়া ইউনিয়নের জিউধরা গ্রামে এই ঘটনা ঘটে।

নিহত ইউনুস হাওলাদার (৬৫) জিউধরা গ্রামের বাসিন্দা। নিহতের ছেলে লাল মিঞা হাওলাদারকে (৪৫) পুলিশে সোপর্দ করার পর থানায় নেওয়া হয়েছে।  

মোরেলগঞ্জ থানার এসআই এস এম আবুল বাশার জানান, “সকাল সাড়ে ৭টার দিকে বাবা ও ছেলের মধ্যে বাকবিতন্ডা হয়। এক পর্যায়ে ছেলে ধারালো অস্ত্র দিয়ে তার বাবাকে জবাই করে হত্যা করে।

“প্রতিবেশীরা কান্নাকাটি ও চিৎকার শুনে ওই বাড়ি গিয়ে ইউনুসের মরদেহ দেখতে পায় এবং ছেলেকে ধরে পুলিশে খবর দেয়। আমরা সেখানে গিয়ে তাকে হেফাজতে নিয়েছি।”

এসআই বাশার বলেন, পারিবারিক কলহের জেরে এই হত্যার ঘটনা ঘটেছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হগচ্ছে। তবে এর সুনির্দিষ্ট কারণ জানা যায়নি।

মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য বাগেরহাট সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।