জিয়ার সমাধিতে বিএনপির শ্রদ্ধা

জিয়ার সমাধিতে বিএনপির শ্রদ্ধা

৭ নভেম্বর উপলক্ষে দলের প্রতিষ্ঠাতা প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের সমাধিতে ফুলেল শ্রদ্ধা জানিয়েছে বিএনপি। একই সঙ্গে ফাতেহা পাঠ করে তার আত্মার শান্তি কামনা করেছেন দলটির নেতাকর্মীরা।

বুধবার (০৭ নভেম্বর) সকাল ১০টার দিকে কেন্দ্রীয় নেতাদের সঙ্গে নিয়ে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর রাজধানীর শেরে বাংলানগরে জিয়ার কবরে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। পরে সেখানে সমাধি প্রাঙ্গণে ওলামাদলের উদ্যোগে দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়।

এ সময় বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, ড. আব্দুল মঈন খান, নজরুল ইসলাম খান, ভাইস চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল (অব.) আলতাফ হোসেন চৌধুরী, ডা. এ জে ড এম জাহিদ হোসেন, ব্যারিস্টার শাহজাহান ওমর, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আমান উল্লাহ আমান, আব্দুস সালাম, হাবিবুর রহমান হাবিব, যুগ্ম-মহাসচিব ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন, খায়রুল কবির খোকন, সাংগঠনিক সম্পাদক শ্যামা ওবায়েদ, আইন বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট সানা উল্লাহ মিয়া, নির্বাহী সদস্য রফিক সিকদার, যুবদল, ছাত্রদল, মহিলাদল, কৃষকদল, মৎস্যজীবীদল, জাসাসসহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে ৭ নভেম্বর উপলক্ষে বিএনপি সাত দিনের কর্মসূচি ঘোষণা করেছে। এর মধ্যে ৭ নভেম্বর ভোরে কেন্দ্রীয় কার্যালয়সহ দেশের সব জেলা কার্যালয়ে দলীয় পতাকা উত্তোলন, সকাল ১০টায় দলের প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের কবরে ফুল দেওয়া, পরদিন ৮ নভেম্বর বেলা ২টায় রমনার ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে আলোচনা সভা উল্লেখযোগ্য।

এছাড়া বিএনপির সহযোগী সংগঠনগুলো আলাদাভাবে আলোচনা সভা, আলোকচিত্র প্রদর্শনী, রচনা প্রতিযোগিতা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান করবে বলে জানিয়েছে দলীয় সূত্র।

১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সপরিবারে হত্যা করা হয়। এক পর্যায়ে এক অভ্যূত্থানে সেনানিবাস থেকে মেজর জেনারেল জিয়াউর রহমান ৭ নভেম্বর মুক্ত হন।

ওই ঘটনায় ক্ষমতার কেন্দ্রবিন্দুতে চলে আসা জিয়াউর রহমান পরবর্তীতে রাষ্ট্রক্ষমতায় আসেন। একই সঙ্গে গঠন করেন বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি। সেই থেকে বিএনপি ৭ নভেম্বরকে ‘জাতীয় বিপ্লব ও সংহতি দিবস’ হিসেবে পালন করে আসছে।