রাজধানীতে নৃত্য-গীত বাদ্যে শরৎকে বরণ

 রাজধানীতে নৃত্য-গীত বাদ্যে শরৎকে বরণ

স্টাফ রিপোর্টার  : নৃত্য-গীত-বাদ্যে নগরে শরৎকে বরণ করে নিল জাতীয় রবীন্দ্রসঙ্গীত সম্মিলন পরিষদ। গতকাল শুক্রবার ভোরে রাজধানীর ধানম-ির রবীন্দ্র সরোবর মঞ্চে পরিষদের এ ঋতুভিত্তিক অনুষ্ঠান হয়। নবীন ও প্রবীণ কণ্ঠশিল্পীদের নিয়ে সাজানো এই অনুষ্ঠানে পরিবেশিত হয় রবীন্দ্রনাথের প্রকৃতি ও পূজা পর্বের গান। একক গানের পর্ব ছাড়াও পরিষদের শিল্পীর সম্মিলিত কণ্ঠে গেয়ে শোনান শরৎ বন্দনার গান। জাতীয় রবীন্দ্রসঙ্গীত সম্মিলন পরিষদের ঢাকা মহানগর শাখার উদ্যোগে আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে সম্মেলক পর্ব পরিচালনা করেন সেমন্তী মঞ্জরী। অনুষ্ঠানের শুরুতে সম্মেলক কণ্ঠে পরিবেশিত হয় রবীন্দ্রসঙ্গীত ‘আলোর অমল কমলখানি’। সম্মেলক দল পরে গেয়ে শোনায় ‘শরতে আজ কোন অতিথি’। পরে তারা পরিবেশন করেন ‘আমার বেঁধেছি কাশের গুচ্ছ দেখো দেখো দেখো শুকতারা তোমার মোহন রূপে কোন খেলা যে খেলব এই তো তোমার প্রেম আজ ধানের ক্ষেতে। একক গানের পর্বে ছায়ানটের সাধারণ সম্পাদক লাইসা আহমেদ লিসা পরিবেশন করেন ‘আজি মেঘ কেটে গেছে’, অভীক দেব শোনান ‘শরত আলোর কমলবনে শুক্লা পাল সেতু শোনান ‘আমার মনের মাঝে যে গান বাজে’, শ্রেয়া ঘোষ শোনান ‘অমল ধবল পালে লেগেছে’। এরপর পার্থ প্রতীম রায় শোনান ‘শিউলি ফুল শিউলি ফুল অভয়া দত্ত শোনান  তোমার সোনার থালায় সাজাব’ গানগুলো। সেঁজুতি বড়ুয়া শোনান তবুও মনে রেখো রাজিন মুস্তাফা দীপ্র শোনান ‘আমার রাত পোহালো এ এস এম জাকারিয়া শোনান ‘আমি চিনি গো চিন  স্বাতী সরকার শোনান ‘ছুটির বাঁশি বাজাল’ গানগুলো। অনুষ্ঠানে একক ও সম্মেলক কণ্ঠে সঙ্গীত পরিবেশনার মধ্যেই শর্মিলা বন্দোপাধ্যায় ও তার দল নৃত্যনন্দন দলীয় নৃত্য পরিবেশন করে। জাতীয় রবীন্দ্রসঙ্গীত সম্মিলন পরিষদের ঢাকা মহানগর শাখার সাধারণ সম্পাদক সেমন্তী মঞ্জরী বলেন, আমরা প্রতি বছর ঋতুভিত্তিক নানা আয়োজন করি। রবীন্দ্রনাথের প্রেম, প্রকৃতি ও পূজা পর্বের গান নিয়ে সাজানো এই আয়োজনে নগরে শরৎ বন্দনা করলাম আমরা।