সকাল ১০:৪৪, সোমবার, ২১শে আগস্ট, ২০১৭ ইং
/ সিলেট

সিলেট প্রতিনিধি : সিলেট নগরীর কুমারপাড়ার ঝর্ণারপাড় এলাকায়  রোববার ভোররাতে নিজ কক্ষ থেকে এক যুবকের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহত যুবক রাজন মিয়া (৩০) ওসমানী শিশু উদ্যানে চাকরি করতেন। তিনি ঝর্ণারপাড়ের ৯৩/এ নম্বর বাসার বাসিন্দা।

জানা যায়, যুবক রাজন মিয়া শয়ন কক্ষে তার স্ত্রী ভোর ৫টায় ঝুলন্ত অবস্থায় তার স্বামীর মৃতদেহ দেখতে পান। পরে পুলিশে খবর দিলে পুলিশ তার লাশ উদ্ধার করে। এ ঘটনায় তার স্ত্রী রাণী বেগম একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করেছেন

সিলেট এসএমপি’র কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) গৌছুল আলম বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরির পর সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। তবে তিনি আত্মহত্যা করেছেন কিনা আমরা বিষয়টি তদন্ত করে দেখব।

এই বিভাগের আরো খবর

হবিগঞ্জে ট্রাক্টরের ধাক্কায় পুলিশ কনস্টেবল নিহত

হবিগঞ্জ সদরে ট্রাক্টরের ধাক্কায় মোটরসাইকেল আরোহী এক পুলিশ কনস্টেবল নিহত হয়েছেন। মঙ্গলবার দুপুরে উপজেলার বৈদ্যার বাজারে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত ইমরান আহমেদ (২৫) হবিগঞ্জ সার্কেল অফিসে কর্মরত ছিলেন। তিনি সিলেটের গোলাপগঞ্জ উপজেলার রানাদির গ্রামের বাসিন্দা।

হবিগঞ্জ সদর থানার ওসি ইয়াছিনুল হক জানান, কনস্টেবল ইমরান হবিগঞ্জ থেকে মোটরসাইকেলে গ্রামের বাড়ি সিলেটে যাচ্ছিলেন।

“বৈদ্যারবাজারে ঈদগাঁহ-এর কাছে রাবিশ বহনকারী একটি ট্রাক্টর তার মোটরসাইকেলকে ধাক্কা দিলে তিনি রাস্তায় ছিটকে পড়েন। ওই সময় মোটরসাইকেলে আগুন ধরে যায়।”

ওসি জানান, স্থানীয় লোকজন কনস্টেবল ইমরানকে উদ্ধার করে হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এদিকে ঘটনার পর স্থানীয় জনতা ট্রাক্টরটি আটক করলেও গাড়ি চালক পালিয়ে গেছে বলে তিনি জানান।

 

এই বিভাগের আরো খবর

কুলাউড়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ২

মৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলার ভাটেরা কৃষ্ণপুর এলাকায় অটো রিকশা ও পিকআপ ভ্যানের মুখোমুখি সংঘর্ষে দুজন নিহত হয়েছেন।

সোমবার বিকালের এই দুর্ঘটনায় আরও তিনজন আহত হন বলে  জানিয়েছেন কুলাউড়া থানার ওসি মো. শামিম মোছা।

তিনি বলেন, “অটো রিকশা ও পিকআপ ভ্যানের মুখোমুখি সংঘর্ষে পাঁচজন গুরুতর আহত হন। তাদের  মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যা হাসপাতালে নেওয়া হয়। দুজনের অবস্থার অবনতি হলে তাদের সিলেট পাঠানো হয়। সেখানে রাতে তাদের মৃত্যু হয়।”

নিহতরা হলেন বরমচাল এলাকার উত্তরভাগের দরচ ওময়ার ছেলে ময়না মিয়া (৫৮) এবং সিলেটের ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলার নাছির মিয়ার স্ত্রী তছলিমা  বেগম (৪৮)।

আহতরা হলেন- গোলপগঞ্জের ভাদেশ্বর এলাকার মৃত খলিলুর রহমানের ছেলে মোবারক আলী (৭০), ভাটেরার ইসলাম নগরের রেদওয়ানুল হকের স্ত্রী তানজিনা (৪০) ও সিএনজি চালক হোসেন (৩০)।

 

এই বিভাগের আরো খবর

সিলেটে ছাত্রলীগের স্মরণ সভায় গুলিবিদ্ধ ৩

সিলেটে এক ছাত্রলীগ নেতার স্মরণ সভায় যুবলীগের দুই পক্ষের বাক-বিতণ্ডা থেকে গুলিতে তিনজন আহত হয়েছেন। আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ ও সিলেট মহানগর সভাপতি বদরউদ্দিন আহমদ কামরানের উপস্থিতিতে শুক্রবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে দক্ষিণ সুরামার কুশিঘাটের একটি মাঠে সভায় এ ঘটনা ঘটে বলে পুলিশ জানিয়েছে।

গুলিবিদ্ধ ছাত্রলীগ নেতা জাকির আহমদ খোকা, জামিল আহমদ, সুহেল আহমদকে ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

মোগলাবাজার থানার ওসি খায়রুল ফজল বলেন, গত মার্চে শিববাড়ির আতিয়া মহলে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর জঙ্গিবিরোধী অভিযান চলাকালে পাশে বোমা বিস্ফোরণে নিহত ছাত্রলীগ নেতা জান্নাতুল ফাহিমের স্মরণে রাত সাড়ে ৭টার দিকে সভা শুরু হয়।

“সভা চলাকালে যুবলীগের দুই পক্ষ বাক-বিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়ে। এরপরে যুবলীগ নেতাকর্মীদের ছোড়া গুলিতে ওই তিনজন আহত হয়।”

এ সময় ঘটনাস্থলে উপস্থিত মহানগর যুবলীগ নেতা ও স্থানীয় বাসিন্দা জাকিরুল আলম জাকির বলেন, “দুইপক্ষের মধ্যে ঝামেলা হয়েছে বলে শুনেছি। তবে কারা গুলি করেছে, তা জানি না।”

সিলেট মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার জেদান আল মুসা বলেন, “যুবলীগের নিজেদের মধ্যে বিরোধ থেকে এই ঘটনা ঘটেছে বলে শুনেছি।”

 

এই বিভাগের আরো খবর

শাহজালালে ছাত্রলীগের দুই পক্ষের সংঘর্ষে আহত ৪

সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগের দুই পক্ষের সংঘর্ষে চারজন আহত হয়েছেন। বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের স্থগিত কমিটির সাধারণ সম্পাদক ইমরান খান ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাজিদুল ইসলাম সবুজের অনুসারীদের মধ্যে শনিবার সন্ধ্যা থেকে মধ্যরাত পর্যন্ত কয়েক দফা সংঘর্ষ হয় বলে সহকারী প্রক্টর আবু হেনা পহিল  জানান।

আহতরা হলেন- ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আশরাফুল ইসলাম অন্তু, সাংগঠনিক সম্পাদক জাহিদ হোসেন নাইম, ছাত্রলীগ কর্মী আব্দুউল্লাহ আল মাসুদ ও সীমান্ত।

ওই চারজনই সাধারণ সম্পাদক ইমরান খানের অনুসারী হিসেবে পরিচিত। তাদের সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, সন্ধ্যায় বিশ্ববিদ্যালয়ের গোলচত্বর এলাকায় ধূমপান করা নিয়ে ইমরান গ্রুপের অনুসারী সাজ্জাদ ও তন্ময়ের সঙ্গে সবুজ গ্রুপের অনুসারী মনিরুজ্জামান মনির বাকবিতণ্ডা হয়।

একপর্যায়ে মনিরের সঙ্গে থাকা কর্মীরা তন্ময়কে মারধর করলে উভয়পক্ষ সংঘবদ্ধ হয়ে দফায় দফায় সংঘর্ষে জড়ায়।

এসময় সবুজের অনুসারীরা শাহপরাণ হলে গিয়ে ইমরানের গ্রুপের নিয়ন্ত্রণে থাকা কয়েকটি কক্ষ ও দুটি মোটরসাইকেল ভাংচুর করে বলে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাজিদুল ইসলাম সবুজ বলেন, “জুনিয়রদের মধ্যে ভুল বোঝাবুঝির কারণে একটু ঝামেলা হয়েছে। পরে সিনিয়রদের হস্তক্ষেপে বিষয়টি মিটমাট হয়েছে।”

আর সাধারণ সম্পাদক ইমরান খান বলেন, “এটা জুনিয়রদের অর্ন্তকোন্দল। সমাধান হয়ে গেছে।” প্রক্টর জহির উদ্দিন আহমেদ বলেন, “আহতদের চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। আমরা বিষয়টি সমাধানের চেষ্টা করছি।”

গত ৮ এপ্রিল শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে বেড়াতে গিয়ে দুই তরুণ-তরুণী ছাত্রলীগ কর্মীদের মারধরের শিকার হন। এর প্রতিবাদ করায় বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সভাপতি সঞ্জীবন চক্রবর্তী পার্থের অনুসারীরা দুই সাংবাদিকের ওপরও হামলা করেন।

ওই ঘটনার পর গত ১২ এপ্রিল বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের কমিটি কেন্দ্র থেকে স্থগিত করা হয়।

 

এই বিভাগের আরো খবর

ওসমানী বিমানবন্দরে সাড়ে ৩ কেজি সোনা উদ্ধার

সিলেটের ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে আবুধাবি থেকে আসা বিমানের একটি ফ্লাইট থেকে সাড়ে তিন কেজি ওজনের সোনা উদ্ধার করেছেন শুল্ক গোয়েন্দারা।

সিলেট শুল্ক গোয়েন্দা বিভাগের সহকারী পরিচালক প্রভাত কুমার সিংহ জানান, রোববার সকালে উড়োজাহাজের লাগেজ হোল্ডে ওই সোনা পাওয়া যায়।

তিনি জানান, সংযুক্ত আরব আমিরাতের আবুধাবি থেকে আসা বাংলাদেশে বিমানের ফ্লাইট বিজি-০১২৮ সিলেট হয়ে ঢাকা যাচ্ছিল।

সকাল সাড়ে ৬টায় উড়োজাহাজটি ওসমানীতে নামার পর গোপন সংবাদের ভিত্তিতে শুল্ক গোয়েন্দারা বিমানে তল্লাশি চালিয়ে টেপ মোড়ানো ৩০টি সোনার বিস্কুট পান।

উদ্ধার সোনার বিস্কুটগুলোর মোট ওজন সাড়ে তিন কেজি; দাম প্রায় পৌনে দুই কোটি টাকা বলে প্রভাত কুমার সিংহ জানান। তবে এ ঘটনায় কাউকে আটক করতে পারেননি শুল্ক গোয়েন্দারা।

 

এই বিভাগের আরো খবর

গভীর রাতে বিলে বেড়াতে গিয়ে নৌকা ডুবি, নিহত ২

সিলেটের ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলায় গভীর রাতে বিলের পানিতে বেড়াতে গিয়ে নৌকা ডুবে দুই তরুণের মৃত্যু হয়েছে। ফেঞ্চুগঞ্জ থানার ওসি নাজমুল হক জানান, মঙ্গলবার রাতে উপজেলার নূরপুর এলাকায় গাড়ুনি বিলে নৌকা ডুবির এ ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন – সিলেট শহরের ফাজিলচিস্ত এলাকার আব্দুল মতিনের ছেলে রিয়াজ আহমদ (২৪) ও খালাত ভাই শিহান উদ্দিন (২৭)। ওসি হক বলেন, নূরপুর এলাকায় শিহানদের বাড়িতে সপরিবার বেড়াতে আসেন রিয়াজ আহমদ।

“রাত সোয়া ১১টার দিকে পাঁচজন মিলে ছোট খেয়া নৌকা নিয়ে স্থানীয় গাড়ুনি বিলে বেড়াতে যান। হঠাৎ বাতাস উঠলে নৌকা ডুবে যায়। এ সময় তিনজন সাঁতরে তীরে উঠলেও রিয়াজ ও শিহান নিখোঁজ হন।”

পরে রাত ১টার দিকে পুলিশ ও স্থানীয়রা লাশ উদ্ধার করে বলে জানান ওসি হক।

 

এই বিভাগের আরো খবর

সিলেটে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে নিহত ১

সিলেটে প্রতিনিধি :  আধিপত্য বিস্তারকে  কেন্দ্র করে সিলেটের বিয়ানীবাজার সরকারি কলেজে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষে এক কর্মীকে  শ্রেণিকক্ষে ঢুকে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। নিহত ছাত্রলীগ কর্মীর নাম খালেদ আহমদ লিটু (২৩)। লিটু ছাত্রলীগের সিলেট  জেলা শাখার আপ্যায়ন বিষয় সম্পাদক পাভেল মাহমুদ গ্রুপের কর্মী বলে জানা  গেছে।

 সোমবার দুপুরে ছাত্রলীগের পল্লব ও পাভেল গ্রুপের মধ্যে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। আহত হয়েছেন অন্তত ৫ জন। নিহতের বিষয়টি নিশ্চিত করে সিলেটের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (মিডিয়া) সুজ্ঞান চাকমা জানিয়েছেন, গুলি খালেদ আহমদ লিটুর মাথায়  লেগেছে। খবর  পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এনেছে।

জানা যায়, সকালে কলেজের প্রথম বর্ষের দুই ছাত্রের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। এতে কলেজ ক্যাম্পাসে উত্তেজনা ছড়ায়। খবর  পেয়ে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে। এসময় পুলিশের পাঁচ সদস্য কলেজের প্রধান ফটকে দায়িত্বে ছিলেন।  বেলা ১২টার দিকে ইংরেজি বিভাগের একটি কক্ষ  থেকে গুলির শব্দ শুনে ক্যাম্পাসে থাকা পুলিশ সদস্যরা ঘটনাস্থলে গিয়ে যুবকের রক্তাক্ত লাশ  দেখতে পান। যুবকের ডান  চোখের উপরে গুলির আঘাত  লেগে মাথার  পেছন  থেকে  বেরিয়ে যায়। এ সময় কক্ষে অন্য কাউকে পায়নি পুলিশ। এমনকি কক্ষে  কোন ধরনের আগ্নেয়াস্ত্র পাওয়া যায়নি। নিহত যুবক লিটন আহমদ লিটু  পৌরশহরের নয়াগ্রাম  রোডে একটি  মোবাইল  দোকানের মালিক।  সে  পৌরসভার খাসা পন্ডিত পাড়া এলাকার খলিলুর রহমানের পুত্র। তবে  কেন তিনি কি কারণে কলেজের ওই কক্ষে অবস্থান করছিলেন তা তাৎক্ষণিকভাবে জানা যায়নি। তার মৃত্যুটি  চোরাগোপ্তা হামলা না ছাত্রলীগের বিবদমান গ্রুপের মধ্যে অভ্যন্তরীণ কোন্দল থেকে ঘটেছে এ বিষয়ে কিছু জানাতে পারেনি পুলিশ।

পুলিশ লাশ উদ্ধার করে সুরতহাল রিপোর্টের পর সিএনজিযোগে তার লাশ বিয়ানীবাজার হাসপাতালে প্রেরণ করে। হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. শাহরিয়ার জানান, ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়েছে বলে ধারণা করছি। গুলিতে তার মাথার মগজ  বের হয়ে যায়। পরে পুলিশ ময়নাতদন্তের জন্য তার লাশ সিলেট মর্গে প্রেরণ করে।

উদ্ভুত পরিস্থিতির কারণে কলেজের স্নাতক প্রথম বর্ষের পরীক্ষা স্থগিত  ঘোষণা করেছেন কলেজ কর্তৃপক্ষ। একই সাথে কলেজ ছুটি  দেয়া হয়। এদিকে খুন করার ঘটনায় তিন জনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে পুলিশ। হত্যাকান্ডের পরই তাদের আটক করা হয়। তারা হচ্ছে ছাত্রলীগ  নেতা পাভেল গ্রুপের কর্মী কামরান, ফাহাদ ও এমদাদ।

এই বিভাগের আরো খবর

সিলেটে দুদক কর্মচারীর লাশ উদ্ধার

সিলেটে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) এক সহকারী উপ-পরিদর্শকের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। রোববার সকালে নগরীর বাগবাড়ি এলাকার দুদক ব্যারাকের একটি কক্ষে লাশটি যাওয়া যায় বলে জানিয়েছেন কোতোয়ালি থানার ওসি গৌছুল হোসেন।

মৃত লেহাজ উদ্দিন (৫৩) দুদক সিলেট আঞ্চলিক কার্যালয়ে কর্মরত ছিলেন। তার বাড়ি গাজীপুরের কাপাসিয়া উপজেলায়। ওসি বলেন, নিজ কক্ষে ফ্যানের সঙ্গে ঝুলন্ত অবস্থায় লেহাজের লাশ পাওয়া যায়। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে পর ময়নাতদন্তের জন্য সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে।

“তিনি আত্মহত্যা করেছেন বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে।” লেহাজ ব্যারাকে পরিবার ছাড়া একাই থাকতেন। তার স্ত্রী, এক ছেলে ও দুই মেয়ে গাজীপুরে থাকেন।

লেহাজের লাশ নিতে তার ছেলে গাজীপুর থেকে সিলেটে আসছেন বলে জানান ওসি।

 

এই বিভাগের আরো খবর

অবশেষে লন্ডন গেলেন ইলিয়াস আলীর স্ত্রী

সিলেট প্রতিনিধি : আদালতের আদেশের পর ছেলের স্নাতক সমাপনীর অনুষ্ঠানে যোগ দিতে লন্ডন গেছেন নিখোঁজ ইলিয়াস আলীর স্ত্রী তাহসিনা রুশদীর লুনা। বুধবার সকালে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে বাংলাদেশ বিমানের একটি ফ্লাইটে ছোট ছেলে লাবিব সারার ও ছোট মেয়ে সাইয়ারা নাওয়ালকে নিয়ে ঢাকা ছেড়েছেন তিনি। এর আগে গত রোববার ইমিগ্রেশন বিভাগ লন্ডনে যেতে বাধা দেওয়ার পর হাই কোর্টে রিট করেন লুনা। সোমবার হাইকোর্টের বিচারপতি মো. তারিক উল হাকিম ও মো. ফারুকের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ তাকে বিদেশে যেতে বাধা না দেওয়ার নির্দেশ দিয়ে আদেশ জারি করেন। ইলিয়াস আলীর বড় ছেলে ব্রিস্টলে ইউনিভার্সিটি অব ওয়েস্ট অব ইংল্যান্ডে আইনে স্নাতক শেষ করেছেন। আগামী ১৪ জুলাই তার স্নাতক সমাপনী অনুষ্ঠান।

২০১২ সালের ১৭ এপ্রিল রাতে রাজধানীর মহাখালীতে বাসার কাছে ইলিয়াসের গাড়ি পাওয়া যায়। তখন থেকে নিখোঁজ ইলিয়াস ও তার গাড়িচালক আনসার আলী। ইলিয়াস বিএনপির গত কমিটির সিলেট বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ছিলেন। সিলেট জেলা কমিটির সভাপতিও ছিলেন তিনি। লুনা বর্তমানে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য।

এই বিভাগের আরো খবর

সিলেটে অজ্ঞাত যুবকের লাশ উদ্ধার

সিলেট প্রতিনিধি : সিলেটের দক্ষিণ সুরমার  মোল্লারগাও ইউনিয়নের খালপার গ্রামের সুরমা নদীর তীরে অজ্ঞাত এক যুবকের (২৮/৩০ বছর) লাশ পাওয়া  গেছে। বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে  পথচারীরা খালপার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনে সুরমা নদীর তীরে ওই যুবককে পড়ে থাকতে  দেখে।  সেখানে গিয়ে  দেখা যায় যুবকটি হালকাভাবে শ্বাস নিচ্ছে পায়। এ সময় যুবকের শরীর  থেকে রক্ত ঝরছিল। সাথে সাথে স্থানীয় ইউপি সদস্য শরীফ উদ্দিনকে খবর দিলে তিনি ঘটনাস্থলে পৌছে পুলিশকে খবর দেন। এ খবর এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে লোকজন ভিড় করতে থাকেন যুবকটিকে এক নজর দেখার জন্য।  লোকজন জড়ো হবার আগেই যুবকটি মারা যায়। তবে  লোকটি নাম পরিচয় এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত পাওয়া যায়নি।

এই বিভাগের আরো খবর

সিলেটে বন্যা পরিস্থিতির আরও অবনতি পানিবন্দী কয়েক লাখ মানুষ

এমএ.সাবলু হৃদয়, সিলেট : সিলেটে বৃষ্টি ও অব্যাহত পাহাড়ি ঢলের কারণে বন্যা পরিস্থিতির আরো অবনতি হয়েছে। সিলেটে নদনদীগুলোর পানি বেড়েছে। এতে সিলেটে কয়েক লাখ মানুষ পানিবন্দী হয়ে পড়েছেন। নতুন করে তলিয়ে গেছে আরো কয়েকটি এলাকা। এদিকে দক্ষিণ সুরমার ১৪টি গ্রাম বন্যায় প্লাবিত হয়েছে। এদিকে বালাগঞ্জে উপজেলার ৬টি ইউনিয়নের ৮০ ভাগ লোকই পানিবন্দী অবস্থায় জীবনযাপন করছে। কুশিয়ারা ডাইক একাধিক স্থানে ভেঙে গিয়ে পানি প্রবেশ করছে।

পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী সিরাজুল ইসলাম জানান, কুশিয়ারা নদীর পানি আমলসিদ পয়েন্টে বিপদসীমার ৯৬ সেন্টিমিটার ও ফেঞ্চুগঞ্জ পয়েন্টে বিপদসীমার ১৪১ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে বইছে। সুরমার পানিও বিপদসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। তিনি জানান, নদীর পানি তীর উপচে প্রবেশ করায় প্রায় এক সপ্তাহ ধরে ছয় উপজেলার সুরমা ও কুশিয়ারা অববাহিকায় নদীর তীরের দুই শতাধিক গ্রামের নিম্নাঞ্চল পানির নিচে আছে। নতুন করে প্লাবিত হয়েছে দক্ষিণ সুরমা, বালাগঞ্জ ও কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার কয়েকটি এলাকা।

পানি উন্নয়ন বোর্ডের তথ্যমতে, উজানে ভারতের মেঘালয় পাহাড়ে টানা বর্ষণের কারণে সিলেটের কুশিয়ারা ও সুরমা নদীর পানি বাড়তে থাকে। বর্তমানে দু’টি নদীর সবকটি পয়েন্টে বিপদসীমার উপর দিয়ে পানি প্রবাহিত হচ্ছে। এর মধ্যে কুশিয়ারা নদীর পানি ঢুকে জেলার দক্ষিণ সুরমা, ফেঞ্চুগঞ্জ, বিয়ানীবাজার, বালাগঞ্জ, ওসমানীনগর, গোলাপগঞ্জ ও জকিগঞ্জ উপজেলায় বন্যা দেখা দেয়। উজানে টানা বর্ষণ হওয়ায় বন্যা পরিস্থিতি আরও অবনতি হয়েছে।

জেলা প্রশাসন জানিয়েছে, বন্যার কারণে জেলার ১৭৪টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে, যার মধ্যে রয়েছে ১৬১টি প্রাথমিক ও ১৩টি মাধ্যমিক বিদ্যালয়।
সিলেট জেলা প্রশাসক রাহাত আনোয়ার জানান, কুশিয়ারা অববাহিকায় ফেঞ্চুগঞ্জ, বালাগঞ্জ, গোলাপগঞ্জ, বিয়ানীবাজার, ওসমানীনগর উপজেলার বন্যার পানি কিছুটা বেড়েছে। গোয়াইনঘাট উপজেলায় অপরিবর্তিত থাকলেও নতুন করে প্লাবিত হয়েছে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার নিম্নাঞ্চল। বাড়িঘর ডুবে যাওয়ায় অনেকে আশ্রয় কেন্দ্রে উঠছেন। জেলায় নয়টি আশ্রয় কেন্দ্রে ৮৯টি পরিবার আশ্রয় নিয়েছে। প্রতিটি উপজেলায় মেডিকেল টিম গঠন করা হয়েছে। পানিবন্দি জনসাধারণ যাতে সরকারি সাহায্য থেকে বঞ্চিত না হয় সেদিকে সবাই সজাগ থাকতে হবে। সবাইকে নিজ নিজ দায়িত্ব থেকে পানি বন্দি মানুষের পাশে থাকার আহ্বান জানিয়ে বলেন, ত্রাণের কোন অভাব হবে না। ত্রাণের জন্য কোন লোক যেন মারা না যায় সেদিকে লক্ষ্য রাখতে হবে। দুর্যোগের সময় নিজের মন থেকে অসহাদের পক্ষে কাজ করলে আনন্দ লাভ করা যায়।

 

এই বিভাগের আরো খবর

সিলেটের ৭ উপজেলায় বন্যা পরিস্থিতি অবনতি

সিলেট প্রতিনিধি: ভারী বর্ষণ আর উজানের পাহাড়ি ঢলে সিলেটের সাত উপজেলায় বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হয়েছে। সুরমা ও কুশিয়ারা নদীর পানি বেড়েছে। কয়েকটি নতুন এলাকা প্লাবিত হয়েছে। জেলা প্রশাসন জানিয়েছে, বন্যার কারণে জেলার ১৭৪ টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে, যার মধ্যে রয়েছে ১৬১টি প্রাথমিক ও ১৩টি মাধ্যমিক বিদ্যালয়।
সিলেট জেলা প্রশাসক রাহাত আনোয়ার জানান, কুশিয়ারা অববাহিকায় ফেঞ্চুগঞ্জ, বালাগঞ্জ, গোলাপগঞ্জ, বিয়ানীবাজার, ওসমানীনগর উপজেলার বন্যার পানি কিছুটা বেড়েছে।

গোয়াইনঘাট উপজেলায় অপরিবর্তিত থাকলেও নতুন করে প্লাবিত হয়েছে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার নিম্নাঞ্চল। পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী  সিরাজুল ইসলাম জানান, কুশিয়ারা নদীর পানি অমলসিদ পয়েন্টে বিপদসীমার ৯৬ সেন্টিমিটার ও ফেঞ্চুগঞ্জ পয়েন্টে বিপদসীমার ১৪১ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে বইছে। সুরমার পানিও বিপদসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। তিনি জানান, নদীর পানি তীর উপচে প্রবেশ করায় প্রায় এক সপ্তাহ ধরে ছয় উপজেলার সুরমা ও কুশিয়ারা অববাহিকায় নদীর তীরের দুই শতাধিক গ্রামের নিম্বাঞ্চল পানির নীচে আছে। নতুন করে প্লাবিত হয়েছে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার কয়েকটি এলাকা।

ঘরবাড়ি, দোকান পাট ডুবেছে। তলিয়ে গেছে প্রায় তিন হাজার হেক্টর আউশ জমির ফসল। জেলা প্রশাসক জানান, বাড়ি-ঘর ডুবে যাওয়ায় অনেকে আশ্রয় কেন্দ্রে উঠছেন। জেলায় নয়টি আশ্রয় কেন্দ্রে ৮৯টি পরিবার আশ্রয় নিয়েছে। বন্যাদুর্গত এলাকায় মানুষের অভিযোগ, অনেকেই অনাহারে-অর্ধাহারে দিন কাটাচ্ছে। ত্রাণের আশায় পথ চেয়ে থাকলেও দেখা মিলছে না কারও। বালাগঞ্জের দেওয়ান বাজার এলাকার মন্তাজ আলী বলেন, বানবাসী মানুষের পাশে কেউ নেই। বাড়ি-ঘর বন্যায় ডুবে গেছে। এখন পর্যন্ত কোনো ত্রাণ বা সাহায্য পাইনি। বালাগঞ্জ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আব্দাল মিয়া বলেন, বন্যায় যত মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে সে অনুপাতে ত্রাণ দেওয়া সম্ভব হচ্ছে না। তাই কেউ পাচ্ছে আবার কেউ পাচ্ছে না। জেলা প্রশাসক জানিয়েছেন, দুর্গত এলাকায় এ পর্যন্ত ১৩৭ মেট্রিকটন চাল ও প্রায় তিন লাখ টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। পর্যাপ্ত ত্রাণ মজুদ রয়েছে। দুর্গত মানুষদের কাছে ত্রাণ পৌঁছে দেওয়া হবে। ফেঞ্চুগঞ্জের চণ্ডিপ্রসাদ মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে আশ্রয় নেওয়া হাবিবা আক্তার বলেন, পানি ঢুকে বাড়ি-ঘর ধসে পড়েছে। কোনো আশ্রয় না থাকায় বাচ্চাদের নিয়ে এ স্কুলে আশ্রয় নিয়েছি। ঘরে খাবার নেই। কী করব, কোথায় যাব বুঝতে পারছি না।

এই বিভাগের আরো খবর

প্রস্তুত হচ্ছে সিলেট শাহী ঈদগাহ

সিলেট প্রতিনিধি : আর মাত্র কয়েকদিন বাকি পবিত্র ঈদুল ফিতরের। সিলেটের প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত হবে সিলেটের ঐতিহাসিক শাহী ঈদগাহ ময়দানে। তাই ঈদের জামাতকে সফল করে তুলতে চলছে ব্যাপক প্রস্তুতি।  সেখানে ঈদের প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত হবে সকাল ৯টায়।
শাহী ঈদগাহে গিয়ে দেখা যায়, পরিচ্ছন্নকর্মীরা  সেখানে কাজ করছেন। চলছে ঝাড়ু  দেয়া, ঘাস পরিষ্কার করা, চলছে মাইকিং এর লাইন তৈরির কাজ, ময়দানের  দেয়ালে ও মিনারে রঙ লাগানোর কাজ।

সিলেটের প্রধান জামাত এখানে অনুষ্ঠিত হয় বিধায় মানুষের চাপ থাকে বেশি। তাই ময়দান থেকে মানুষের চাপ রাস্তা পর্যন্ত চলে যায়। তাই নগরীর স্কলার্সহোম স্কুল পর্যন্ত নামাজের উপযোগী করে  তোলার জন্যও কাজ করে যাচ্ছেন পরিচ্ছন্ন কর্মীরা।
এদিকে সিলেটে ঈদের জামাত নির্বিঘœ করতে কড়া নিরাপত্তা ব্যবস্থা থাকবে বলে জানিয়েছেন সিলেট  মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (মিডিয়া)।
 

সিলেটের ডাকের প্রকাশনা অনুমতি বাতিল

সিলেট প্রতিনিধি: সিলেটের বিতর্কিত শিল্পপতি রাগীব আলীর মালিকানাধীন পত্রিকা দৈনিক সিলেটের ডাকের প্রকাশনার অনুমোদন (ডিক্লেরেশন) বাতিল করে দিয়েছে জেলা প্রশাসন। জেলা প্রশাসক রাহাত আনোয়ার জানান, বৃহস্পতিবার পত্রিকাটির ডিক্লেরেশন বাতিল করা হয় এবং রোববার ওই নোটিশ সিলেটের ডাক কর্তৃপক্ষের কাছে পাঠানো হয়েছে। প্রকাশক রাগীব আলী আদালতের রায়ে সাজাপ্রাপ্ত হওয়ায় আইন অনুযায়ী পত্রিকাটির প্রকাশনার অনুমোদন বাতিল করা হয়েছে বলে জানান তিনি। ডিক্লেরেশন বাতিলের ফলে সিলেটের প্রকাশ সংখ্যায় শীর্ষে থাকা পত্রিকাটি আর প্রকাশ করা যাবে না বলেও জানান জেলা প্রকাশক।

এ ব্যাপারে পত্রিকাটির ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মো. আব্দুল হান্নান ও নির্বাহী সম্পাদক আব্দুল হামিদ মানিকের সঙ্গে মোবাইল ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তারা কল রিসিভ করেননি। সিলেটের ডাকের প্রকাশক ও সম্পাদক মণ্ডলীর সভাপতি রাগীব তিন মামলায় ভিন্ন ভিন্ন মেয়াদে দণ্ডিত হয়ে বর্তমানে কারাগারে রয়েছেন। পত্রিকাটির সম্পাদকের দায়িত্ব থাকা রাগীব আলীর ছেলে আব্দুল হাইও সিলেট কারাগারে দণ্ডিত হয়ে কারাবন্দি রয়েছেন।

দেবোত্তর সম্পত্তি বন্দোবস্তের নামে ভূমি মন্ত্রণালয়ের স্মারক জালিয়াতি মামলার রায়ে গত ২ ফেব্রুয়ারি রাগিব আলী ও তার ছেলেকে ১৪ বছরের কারাদণ্ডাদেশ দেয় আদালত। প্রতারণার আরেক মামলায় গত ৬ এপ্রিল রাগীব আলীর ১৪ বছর, ছেলে আবদুল হাই, জামাতা আবদুল কাদির, মেয়ে রুজিনা কাদির ও নিকটাত্মীয় দেওয়ান মোস্তাক মজিদকে ১৬ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত। তাছাড়া গ্রেফতারি পরোয়ানা জারির পর পলাতক থাকা অবস্থায় পত্রিকা প্রকাশের কারণে রাগীব আলী ও তার ছেলের বিরুদ্ধে দায়ের আরেক মামলায় তাদের এক বছর করে কারাদণ্ডও দেওয়া হয়েছে।

মৌলভীবাজারে পাহাড় ধসে মা-মেয়ের মৃত্যু

মৌলভীবাজারের বড়লেখা উপজেলায় পাহাড় ধসে মা ও মেয়ের মৃত্যু হয়েছে। উপজেলার ডিমাই এলাকায় রোববার ভোরে এ ঘটনা ঘটে বলে বড়লেখা থানার ওসি  শহীদুল ইসলাম জানান।

নিহতরা হলেন- আছিয়া বেগম (৪০) ও তার মেয়ে ফাহমিদা (১৩)। ওসি বলেন, “প্রবল বর্ষণের কারণে রোববার ভোর ৩টা থেকে ৪টার মধ্যে ডিমাই এলাকার বেশ কয়েকটি পাহাড়ে ধস নামে। এ সময় আছিয়া বেগমের ঘরের ওপর মাটি ধসে পড়লে তিনি ও তার মেয়ে চাপা পড়েন।”

খবর পেয়ে পুলিশ, ফায়ার সার্ভিস ও স্থানীয়রা ঘটনাস্থলে গিয়ে সকাল ৯টার দিকে মাটি সরিয়ে লাশ উদ্ধার করে বলে জানান শহীদুল। স্থানীয় বাসিন্দা লিটন শরিফ বলেন, ডিমাই এলাকায় আরও কয়েকটি পাহাড় ধসে কয়েকটি ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত হয়েছে। তবে সেখানে হতাহতের কোনো খবর পাওয়া যায়নি।

 

কোম্পানিগঞ্জে পাহাড়ি ঢলে ২ শিশুসহ ৩ জনের মৃত্যু

সিলেট প্রতিনিধি: সিলেটের কোম্পানিগঞ্জে পাহাড়ি ঢলে দুই শিশুসহ তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে দুইজনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। শনিবার দুপুর ১টার দিকে মরদেহ দু’টি উদ্ধার করা হয়। নিহত দুই শিশু হলো- তামান্না (৩) ও সুলতানা (১)। অপর নিহত হলেন ৫৬ বছর বয়সী ফারুক মিয়া। এর মধ্যে নিহত শিশু সুলতানার মরদেহ উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি। কোম্পানিগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আলতাফ হোসেন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

স্থানীয়রা জানান, শনিবার সকালে অতিবৃষ্টিতে উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে উপজেলার পশ্চিম কালাইরাগ গ্রামের সেলিম মিয়ার বসতঘর ভেঙে নিয়ে যায়। এ সময় ঢলের পানিতে ভেসে যান সেলিম মিয়ার দুই শিশু কন্যা তামান্না (৩) ও সুলতানা (১)। একই সময় পাশ্ববর্তী মৃত ইউসুব আলীর ছেলে ৫৬ বছর বয়সী ফারুক মিয়াও নিখোঁজ হন। পরে তামান্না ও ফারুক মিয়ার মরদেহ উদ্ধার করা হলেও সুলতানার মরদেহ এখনও পাওয়া যায়নি। স্থানীয়রা সুলতানার মরদেহ উদ্ধারে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। স্থানীয় বাসিন্দা ডা. হারুন অর রশিদ  বলেন, সকাল থেকে মুষলধারে বৃষ্টি হচ্ছিল। সকালে হঠাৎ করে উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে সেলিম মিয়ার কাঁচা বাঁশ-বেতের ঘর ভাসিয়ে নিয়ে যায়। ওসি আলতাফ হোসেন আরও বলেন, স্থানীয় লোকজনের সহায়তায় স্রোতের তোড়ে ভেসে যাওয়া মরদেহ দু’টি দুপুর ১টার দিকে উদ্ধার করা সম্ভব হয়েছে। তবে সুলতানা নামের এক শিশুর মরদেহ এখনও পাওয়া যায়নি। ঘুমন্ত অবস্থায় দুই শিশু ও বৃদ্ধ পাহাড়ি ঢলে ঘরের সঙ্গে ভেসে যায় বলেন তিনি।

সিলেটে ঘাস কাটা নিয়ে বিরোধে ‘ছুরিকাঘাতে হত্যা’

সিলেটের ওসমানীনগরে ঘাস কাটা নিয়ে কথা কাটাকাটির মধ্যে দুই প্রতিবেশীর ছুরিকাঘাতে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। নিহত ছোরাব খাঁ (৬০) উপজেলার সন্ন্যাসীপাড়া গ্রামের বাসিন্দা।

ওসমানীনগর থানার ওসি সহিদ উল্লাহ জানান, উপজেলার সন্ন্যাসীপাড়া গ্রামে বৃহস্পতিবার সকালে এ ঘটনায় ছোরার দুই ছেলেও আহত হয়েছেন। এরা হলেন- জগলু ও শিবলু। তাদের সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

ওসি সহিদ বলেন, সকালে স্থানীয় রুনিয়ার হাওরে গরুর জন্য ঘাস কাটতে যান ছোরাব। এ সময় পাশের বাড়ির ফারুক আলী ও সেবুল আহমদ তাকে বাধা দিলে তাদের মধ্যে কথা কাটাকাটি শুরু হয়।

“এক পর্যায়ে তারা ধারালো অস্ত্র দিয়ে ছোরাব আলীকে কুপিয়ে জখম করেন। তাকে উদ্ধার করে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে সেখানে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।”

এ ঘটনায় জড়িতদের গ্রেপ্তারে পুলিশ অভিযান শুরু হয়েছে বলে জানান ওসি।

লাশ ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে।

 

সিলেটে ‘মসজিদের বাতি জ্বালানো নিয়ে’ সংঘর্ষ, নিহত ১

সিলেটের বিয়ানীবাজারে মসজিদের বাতি জ্বালানো নিয়ে ঝগড়া থেকে সংঘর্ষে একজন নিহত হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। উপজেলার পাতন গ্রামে রোববার রাতে এ ঘটনায় আরও আটজন আহত হয়েছেন বলে বিয়ানীবাজার থানার ওসি চন্দন কুমার চক্রবর্তী জানান।

নিহত মুহিদুর রহমান মিন্টু (৫৫) ওই গ্রামের ছওয়াব আলীর ছেলে।

আহতদের চিকিৎসার জন্য বিয়ানীবাজার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠানো হয়েছে। তবে তাদের নাম-পরিচয় তাৎক্ষণিকভাবে জানাতে পারেনি পুলিশ। ওসি চন্দন বলেন, রোববার রাত ১১টার দিকে মসজিদের বাতি জ্বালানো নিয়ে স্থানীয় রেজা আহমদ ও নোমান মিয়ার মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়।

“এক পর্যায়ে দুই পক্ষের অনুসারীরা দেশীয় অস্ত্র-শস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এ সময় রেজার ভাই মিন্টু গুরুতর আহত হন।” সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে মিন্টুর মৃত্যু হয় বলে জানান ওসি।

তিনি বলেন, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে ঘটনাস্থলে বাড়তি পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। তবে সোমবার দুপুর পর্যন্ত থানায় কেউ লিখিত অভিযোগ করেননি।

 

হবিগঞ্জে স্কুলছাত্রীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি: হবিগঞ্জ শহরের নোয়াহাঠি এলাকায় মুক্তা দেব নামে এক স্কুলছাত্রীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। গতকাল শুক্রবার দুপুরে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়। মুক্তা ওই এলাকার দিরেন্দ্র দেবের মেয়ে এবং স্থানীয় বিকেজিসি উচ্চ বিদ্যালয়ের ১০ম শ্রেণির ছাত্রী।

হবিগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইয়াছিনুল হক  জানান, সকালে স্থানীয়রা বাসার রান্না ঘরে ওই ছাত্রীর মরদেহ ঝুলতে দেখে পুলিশে খবর দেয়। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য হবিগঞ্জ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায়। তবে তার মৃত্যুর কারণ জানা যায়নি।

 

সিলেটে অস্ত্রসহ সন্ত্রাসী এনামুল আটক

সিলেট প্রতিনিধি : সিলেটে অস্ত্রসহ সন্ত্রাসী এনামুলকে আটক করেছে  র‌্যাপিড অ্যাকশান ব্যাটালিয়নের (র‌্যাব) সদস্যরা। গতকাল শুক্রবার দুপুরে র‌্যাব-৯ এর সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (মিডিয়া) মাঈন উদ্দিন চৌধুরী স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানান।

এতে বলা হয়, বৃহস্পতিবার (০৮ জুন) রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানা যায় শেখ পাড়ার তেমুখী সুরমা নদীর সেতুর উপর উত্তর চন্ডিপুল বাইপাস এলাকায় সন্ত্রাসীরা অস্ত্র বেচাকেনা করছে।

 এ সময় ঘটনাস্থলে অভিযান চালিয়ে একটি শর্টগানসহ সন্ত্রাসী এনামুলকে আটক করা হয়। আটক এনামুল সদর উপজেলার জালালাবাদ পাইকরাজ গ্রামের মো. আব্দুল বারিকের ছেলে।

র‌্যাবের জিজ্ঞাসাবাদে এনামুল জানায়, ভারতীয় সীমান্তবর্তী এলাকা থেকে অস্ত্র চোরাচালানের মাধ্যমে দীর্ঘদিন ধরে অস্ত্র কেনাবেচা করে আসছে। বিভিন্ন জেলায় অস্ত্র সরবরাহ করেন। এছাড়া অস্ত্র দিয়ে সন্ত্রাসী কার্যকলাপ, চুরি, ডাকাতি, ছিনতাইসহ নানা অপরাধ করে তিনি। তার বিরুদ্ধে মহানগরীর জালালাবাদ থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে বলেও জানায় র‌্যাব।

সিলেটে বোনকে জবাই করে হত্যা : ঘাতক ভাই আটক

সিলেট প্রতিনিধি : সিলেটের গোয়াইনঘাটে কিশোরী  বোনকে জবাই করে খুন করেছে এক ভাই। নিহত তামান্না আক্তার (১৬) উপজেলার পশ্চিম জাফলং ইউনিয়নের আলীছড়া গ্রামের আব্দুল হাসিমের  মেয়ে। বুধবার সকালে হত্যাকান্ডের এঘটনা ঘটে। নিহতের পরিবার ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায় তামান্নার সাথে একই গ্রামের চান মিয়ার  ছেলে জাফর মিয়ার (২০)  প্রেমের সম্পর্ক ছিল। গত মঙ্গলবার রাত ১২টার দিকে বাড়িতে ফিরে তামান্না ও জাফরকে ঘনিষ্ঠ অবস্থায়  দেখতে  পেয়ে ক্ষিপ্ত হয় তামান্নার ভাই তাজুল ইসলাম। এনিয়ে ভাই বোনের মধ্যে ঝগড়া হয়। এর জের ধরে সকাল ৮টার দিকে তাজুল বাড়ির পাশে তামান্নাকে জবাই করে খুন করে। ঘটনার পর ঘাতক ভাই তাজুল ইসলামকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে স্থানীয় এলাকাবাসী। খবর পেয়ে থানার ওসি (তদন্ত) হিল্লোল রায় ঘটনাস্থল পরিদর্শন ও লাশের প্রাথমিক সুরতহাল রিপোর্ট তৈরি করে ময়না তদন্তের জন্য সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেন।

বাঁধ ভেঙে মৌলভীবাজারে শতাধিক গ্রাম প্লাবিত

উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢল ও বৃষ্টিতে মৌলভীবাজারের মনু ও ধলই নদীর প্রতিরক্ষা বাঁধ ভেঙে রাজনগর, কুলাউড়া ও কমলগঞ্জ উপজেলার শতাধিক গ্রাম প্লাবিত হয়েছে।

রোববার রাত সাড়ে ১১টার দিকে মৌলভীবাজার পানি উন্নয়ন বোর্ডের নিবার্হী প্রকৌশলী বিজয় ইন্দ্র শংকর চক্রবর্তী ও স্থানীয় চেয়ারম্যানরা এ তথ্য নিশ্চিত করছেন।

কুলাউড়া উপজেলার টিলাগাও ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. মালিক  বলেন, রোববার রাত পৌনে ১১টায় তার ইউনিয়নের মিয়া পাড়ায় মুন নদীর বাঁধ ভেঙে প্লাবিত হয়েছে খন্দকার গ্রাম, তাজপুর, লারাজপুর, সালন, লাল পুর, পাল্লাকান্দিসহ ২০টি গ্রাম।

“এতে ডুবে গেছে স্কুল-কলেজ, ফসলি জমি।রাতে হঠাৎ পানি ঢুকে পড়ায় বিপাকে পড়েছে গ্রামবাসীরা।”  

শরিফপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো: আব্দাল মিয়া বলেন, “দুপুরে নিশ্চিন্তপুরে এলাকায় মনু নদীর প্রতিরক্ষা বাঁধ ভেঙে পানি প্রবেশ করে আমার ইউনিয়নের নিশ্চিন্তপুর, সোনাপুর, দত্তগ্রাম ও হাজিপুর ইউনিয়নের দাউদপুর, ভুঁইগাও, সুলতানপুর, রনচাপ, পাইকপাড়াসহ ১৫ গ্রাম তলিয়ে গেছে।”

এদিকে দুপুরে রাজনগর উপজেলার কামারচাক ইউনিয়নের ভোলানগর এলাকায় মনু নদীর বাঁধ ভেঙে প্রায় ১৫টি গ্রামে পানি প্রবেশ করেছে।

কামারচাক ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. নজমুল হক সেলিম জানান, ভোলানগরে প্রতিরক্ষা বাঁধ ভেঙে যাওয়ায় ভোলানগর, খাস প্রেমনগর, মিঠিপুর, গোবিন্দপুর, পঞ্চানন্দপুর, চিক বিশালী, শ্যামর কোনা, হাতি কড়াইয়া ও মৌলভীর চকসহ প্রায় ২০টি গ্রাম প্লাবিত হয়েছে।

তার দাবি, এখনও ভাঙনের ঝুঁকিতে রয়েছে কালাই কোনা, দস্তিদার চক, কমার চাক, টুপির মহল ও ছাতি কোনা গাওসহ বাঁধের ১০টি পয়েন্ট।

কমলগঞ্জ উপজেলার উত্তর আলেপুর, চৈতন্যগঞ্জ ও প্রতাপি এলাকা দিয়ে ধলই নদীর প্রতিরক্ষা বাঁধ ভেঙে অর্ধ শতাধিক গ্রাম প্লাবিত হয়েছে বলে জানিয়েছেন, কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মাহমুদুল হক।

এখনও ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ সমর্পকে জানা যায়নি বলে জানান তিনি।

পানি উন্নয়ন বোর্ডের নিবার্হী প্রকৌশলী বিজয় ইন্দ্র শংকর চক্রবর্তী বলেন, টানা বৃষ্টি ও উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলের কারণে ধলই ও মনু তিনটি পয়েন্টে ভাঙনের খবর পেয়েছি। পানি কমে গেলে ওই বাঁধ মেরামতের কাজ করা হবে।

 

মৌলভীবাজারে পাহাড়ি ঢলে নিখোঁজ স্কুলছাত্রের লাশ উদ্ধার

মৌলভীবাজারের বড়লেখায় একদিন আগে পাহাড়ি ঢলে ভেসে গিয়ে নিখোঁজ স্কুলছাত্রের লাশ উদ্ধার হয়েছে। মৃত রাকিবুল হাসান বড়লেখার মুছেগুল গ্রামের আবুল হোসেনের ছেলে। মুছেগুল সরকারি প্রাথামিক বিদ্যালয়ের প্রথম শ্রেণির ছাত্র।

রোববার সন্ধায় স্কুলের পাশের একটি জলাশয় থেকে তার লাশ উদ্বার করা হয় বড়লেখা থানার বড়লেখা থানার এসআই লিটন চন্দ্র পাল জানান । ওই ছাত্রের পরিবারের বরাত দিয়ে এসআই লিটন বলেন, শনিবার সকালে বৃষ্টি ও পাহাড়ি ঢল দেখতে সহপাঠীদের সঙ্গে বাড়ি থেকে বের হয়ে স্রোতে ভেসে যায় রাকিবুল।

“ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা শনিবার সন্ধ্যা পর্যন্ত খোঁজাখুঁজি করে তার সন্ধান পায়নি। সিলেট থেকে আসা ডুবুরি দল রোববার দুপুর পর্যন্ত রাকিবুলের খোঁজে অভিযান চালিয়ে ব্যর্থ হয়। বিকাল ৫টার দিকে মুছেগুল স্কুলের পাশের জলাশয়ে রাকিবুলের লাশ ভেসে উঠে।”

পাহাড়ি ঢলে ভেসে গিয়ে ওই ছাত্রের মৃত্যু হয়েছে বলে জানান তিনি।

 

সিলেটে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে নানা-নাতির মৃত্যু

সিলেটের গোয়াইনঘাট উপজেলায় বিদ্যুতের তারে জড়িয়ে নানা-নাতির মৃত্যু হয়েছে। নিহতরা হলেন – উপজেলার তুরুকভাগ গ্রামের শরফ আলীর ছেলে ফখর উদ্দিন (৭০) ও তার নাতি মিজানুর রহমান (১৪)।

গোয়াইনঘাট থানার ওসি দেলোয়ার হোসেন বলেন, নানাবাড়ি বেড়াতে আসা মিজানুর শুক্রবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে বাড়ির পাশের খালে মাছ ধরতে যায়।

“এ সময় বিদ্যুতের ছেঁড়া তারে জড়িয়ে যায় সে। তাকে উদ্ধার করতে গিয়ে নানাও বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হন। তারা ঘটনাস্থলেই মারা যান।”

 

সিলেটে বজ্রপাতে ২ জনের মৃত্যু

সিলেটের বিশ্বনাথে বজ্রপাতে স্কুল ছাত্রসহ দুই জনের মৃত্যু হয়েছে। বুধবার উপজেলার লামাকাজী ইউনিয়েনের দিঘলী এলাকায় এ ঘটনা ঘটে বলে বিশ্বনাথ থানার ওসি মনিরুল ইসলাম জানিয়েছেন।

নিহতরা হলেন দিঘলী মাধবপুর গ্রামের শমসর নুরের ছেলে গোবিন্দগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্র মিলন মিয়া (১৮) ও একই গ্রামের মৃত নুর মিয়ার ছেলে আকমল হোসেন (৩৫)।

ওসি জানান, সকালে মিলন মিয়া ও আকমল হোসেন পার্শ্ববর্তী নলিয়াপুর জাইদরমার ডর এলাকায় মাছ ধরতে যান। বজ্রপাতে ঘটনাস্থলেই তাদের মৃত্যু হয়।

 

মৌলভীবাজারে শ্যালিকাকে হত্যার অভিযোগ

মৌলভীবাজারের কুলাউড়ায় পারিবারিক কলহের জেরে শ্যালিকাকে ছুরিকাঘাতে হত্যার পর স্ত্রী ও সন্তানকে কুপিয়ে জখমের অভিযোগ উঠেছে এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে।

কুলাউড়া থানার এসআই সাব্বির আহমদ জানান, হাজীপুর ইউনিয়নের পাবই গ্রামে মঙ্গলবার সকালে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত মনি বেগম (১৬) ওই এলাকার গ্রামের মছলু মিয়ার মেয়ে। এ ঘটনায় মনির ভগ্নিপতি মো. সালাউদ্দীনকে (৩২) আটক করছে পুলিশ। তিনি কমলগঞ্জ উপজেলার আদমপুর ইউনিয়নের জাঙ্গালিয়া গ্রামের মো.আলাউদ্দীনের ছেলে।

আহতরা হলেন- সালাউদ্দীনের স্ত্রী রায়না ও তাদের ছয় মাস বয়সী ছেলে সন্তান মাছুম মিয়া।তাদের কুলাউড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

হাজীপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল বাছিত বাচ্চু জানান, এক বছর আগে রায়নার সঙ্গে সালাউদ্দীনের দ্বিতীয় বিয়ে হয়।পারিবারিক কলহের জেরে কিছুদিন আগে রায়না তার বাবার বাড়ি চলে যান।

“সোমবার সন্ধ্যায় স্ত্রী ও সন্তানকে ফিরিয়ে আনতে শ্বশুর বাড়ি গেলে রায়নার বাড়ির লোকজনের সঙ্গে সালাউদ্দীনের কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে ছুরি দিয়ে কুপিয়ে শ্যালিকা মনিকে হত্যা করেন তিনি।

“পরে স্ত্রী ও সন্তানকে ছুরি দিয়ে জখম করে সালাউদ্দিন নিজে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন।” খবর পেয়ে স্থানীয়রা রায়না ও তার শিশু সন্তান মাসুমকে উদ্ধার করে কুলাউড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায় বলে জানান তিনি।

রায়নার মা রাবেয়া বেগম ও বড় ভাই মজিদ মিয়া জানান, ঘটনাটি কুলাউড়া থানায় জানালে পুলিশ গিয়ে সালাউদ্দীনকে আটক করে। ঘটনাস্থল থেকে একটি ছুরি জব্দ করা হয়েছে বলে কুলাউড়া থানার এসআই সাব্বির জানান।

 

হবিগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ২

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি: হবিগঞ্জে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সভাপতিসহ ২ জন নিহত ও অন্তত ২০ জন আহত হয়েছেন।
পুলিশ জানায়, সোমবার দুপুর ১২টার দিকে সদর উপজেলার লস্করপুরে কুমিল্লা থেকে সিলেটগামী কুমিল্লা ট্রান্সপোর্টের একটি বাসের চাকা বিস্ফোরণ ঘটে। এতে বাসের চালক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেললে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের পাশে খাদে পড়ে যায়। দুর্ঘটনায় ওই বাসের যাত্রী ১ মহিলা নিহত হন। এ ঘটনায় আহত হয় অন্তত ২০ জন। খবর পেয়ে পুলিশ এবং হবিগঞ্জ ও শায়েস্তাগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের দু’টি দল ঘটনাস্থল থেকে হতাহতদের উদ্ধার করে আধুনিক সদর হাসপাতালে পাঠায়। নিহত মহিলার পরিচয় জানা যায়নি। তার আহত শিশু পুত্রটি পুলিশের হেফাজতে রয়েছে। অপরদিকে হবিগঞ্জ-লাখাই সড়কে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সভাপতি আশরাফ আলী নিহত হন।

সিলেটে পরিবহন ধর্মঘটে ভোগান্তি

সিলেট বিভাগে পাঁচ দফা দাবিতে পরিবহন শ্রমিকদের অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘটে ভোগান্তিতে পড়েছে সাধারণ মানুষ। বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশন সিলেট বিভাগীয় কমিটির ডাকে রোববার সকাল ৬টা থেকে এই ধর্মঘট শুরু হয় বলে সংগঠনের সভাপতি সেলিম আহমদ ফলিক জানান।

সকাল থেকে এ বিভাগের চার জেলা থেকে কোনো দূরপাল্লার বাস ছেড়ে যায়নি। আঞ্চলিক বাস চলাচলও বন্ধ থাকায় বিভিন্ন জেলায় যাত্রীরা অনিশ্চয়তার মধ্যে পড়েছেন।

সিলেট কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল থেকে কোনো বাস ছেড়ে না গেলেও নগরীতে যান চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে। অটোরিকশা ও হালকা যানবাহনও চলাচল করতে দেখা গেছে।

সেলিম আহমদ জানান, গত মে দিবসে অটোরিকশা শ্রমিকদের উপর হামলা ও তাদের বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলা প্রত্যাহার, বিভিন্ন পৌরসভার পরিবহন কর প্রত্যাহার, সিলেট-কোম্পানিগঞ্জ সড়কে মোটরসাইকেলে যাত্রী পরিবহন বন্ধ করা এবং জেলা শ্রমিক লীগ সভাপতি এজাজুল হক এজাজের ট্রেড ইউনিয়নের নিবন্ধন বাতিলের দাবিতে তাদের এই ধর্মঘট।

এই পাঁচ দফা দাবিতে গত ১১ মে বিভাগীয় কমিশনারের কাছে স্মারকলিপি দেয় সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনের সিলেট বিভাগীয় কমিটি। কিন্তু প্রশাসন সমাধানের কোনো উদ্যোগ নেয়নি বলে অভিযোগ করেন সেলিম আহমদ।

এদিকে দূরপাল্লার বাস চলাচল না করায় অনেক যাত্রী ট্রেনে করে গন্তব্যে পৌঁছানোর চেষ্টা করছেন। তবে  টিকেট না পেয়ে রেলস্টেশন থেকে ফিরে যেতে হয়েছে তাদের অধিকাংশকেই।

সিলেট রেলওয়ে স্টেশনের ব্যবস্থাপক আব্দুর রাজ্জাক বলেন, পর্যাপ্ত টিকেট না থাকায় সবাইকে দেওয়া সম্ভব হচ্ছে না।

বগুড়া থেকে তিন বন্ধুসহ সিলেটে বেড়াতে আসা রবিন বলেন, “সকালে বাস টার্মিনালে গিয়ে শুনি ধর্মঘট। এখন কীভাবে যাব বুঝতে পারছি না; কখন বাস ছাড়বে তাও কেউ বলতে পারছে না।”

ঢাকা থেকে আসা আলফাজ আহমদ বলেন, “সকালে ঢাকা ফিরতে বাস টার্মিনালে এসে দেখি ধর্মঘট। কথায় কথায় ধর্মঘট ডাকলে মানুষের যে ভোগান্তি হয়- সেদিকে কারও খেয়াল নেই। এ ব্যাপারে সরকারের উদ্যোগ নেওয়া দরকার।”

সিলেটের জেলা প্রশাসক রাহাত আনোয়ার বলেন, “পরিস্থিতি স্বাভাবিক করতে শ্রমিক নেতাদের সাথে বৈঠকে বসার কথা চলছে। আশা করি দ্রুত সমস্যার সমাধান হবে।”

 



Go Top