ভোটের রাজনীতিতে জনগণের অনীহা গণতন্ত্রের জন্য শুভ নয়: কাদের

ভোটের রাজনীতিতে জনগণের অনীহা গণতন্ত্রের জন্য শুভ নয়: কাদের

ভোটের রাজনীতিতে জনগণের অনীহা গণতন্ত্রের জন্য শুভ নয় বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

মঙ্গলবার (০৪ ফেব্রুয়ারি) সচিবালয়ের সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের সম্মেলন কক্ষে সমসাময়িক ইস্যু নিয়ে ডাকা সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ মন্তব্য করেন।

কাদের বলেন, আওয়ামী লীগের এতো জনসমর্থন সেখানে আরও বেশি ভোট আশা করেছিলাম। এজন্য প্রধানমন্ত্রী দেশে ফিরলে ওয়ার্কিং কমিটির সভা করা হবে। তবে আওয়ামী লীগের ভোটারের যে পার্সেন্টেজ, সেজন্য এই ভোট আশান্বিত নয়। অনেকে দুইদিনের ছুটিতে গ্রামের বাড়িতে চলে গেছেন, পরীক্ষা, পরিবহন সংকট ও আমাদের সাংগঠনিক দুর্বলতা কিছুটা দায়ী। তবুও ভালো নির্বাচন হয়েছে। বর্তমানের ভুলগুলোর পুনরাবৃত্তি ভবিষ্যতে এড়ানো যাবে। এসময় সামগ্রিকভাবে মোটামুটি ভালো নির্বাচন হয়েছে বলেও মনে করেন তিনি।

ভোটের হার কম হওয়ার ক্ষেত্রে ভোটারদের ভোটে অনীহা কি-না, এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ভোট কম পড়ার ক্ষেত্রে আগেভাগে শঙ্কা তৈরি করা, ভোট দেওয়া যাবে না এ মেশিনে এমন সব প্রচারণাও বড় কারণ। ফলে কিছু মানুষের আগ্রহ তো কমতেই পারে। ইভিএম নিয়ে অপপ্রচার অনেক হয়েছে, সরকারি দল নিয়ে, নির্বাচন নিয়ে, বিএনপি সতর্ক থাকবে, বাইরে থেকে লোক এনেছে, এসব ইনফরমেশন তো ছিলই। তবে ভালো ইলেকশন হয়েছে। ভবিষ্যতে এই ভুলত্রুটি থেকে শিক্ষা নিয়ে রাজনৈতিক দলগুলো জনমত তৈরি করতে ভূমিকা রাখবে। কেননা, ভোটের রাজনীতিতে অনীহা গণতন্ত্রের জন্য শুভ নয়।

ওবায়দুল কাদের বলেন, দুই সিটিতে চট্টগ্রামের-৮ উপ-নির্বাচন থেকে বেশি ভোট পড়েছে। এখানে ২৭ প্লাস ভোট পড়েছে। ভোটের যে পার্সেন্টেজ, সে অনুযায়ী যে ভোট পড়ার কথা ছিল, তা যায়নি। সাংগঠনিক দুর্বলতার বিষয় আছে। ওয়ার্ড পর্যন্ত কমিটি ঢেলে সাজানো দরকার। আমি সবাইকে বলেছি, কমিটি পূর্ণাঙ্গ করা হোক। ওয়ার্ডে ও সিটিতে সম্মেলন করা দরকার। সাংগঠনিক দুর্বলতা বড় না হলেও কিছুটা দুর্বলতা রয়েছে।

দুই সিটি করপোরেশন নির্বাচন কীভাবে মূল্যায়ন করবেন জানতে চাইলে কাদের বলেন, মূল্যায়ন করার জন্য আওয়ামী লীগের ওয়ার্কিং কমিটির সভাপতি প্রধানমন্ত্রী দেশে ফিরলে বৈঠক করবেন। তখন ভোট নিয়ে মূল্যায়ন, বিশ্লেষণসহ সবকিছু নিয়ে আমরা আলোচনা করব, এমন চিন্তা রয়েছে। প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, ওভারঅল ভোটের দুর্বলতা নিয়ে দেশের ফিরলেই মিটিং করবেন তিনি। এবার ইভিএমে এত বড় এলাকায় ভোট হয়েছে, আগে বিক্ষিপ্তভাবে কোথাও কোথাও হয়েছে। কিন্তু এত বড় এলাকায় এটা নতুন অভিজ্ঞতা। ফলে কিছু ভুল-ত্রুটিও থাকতে পারে। তবে ভোট নিয়ে প্রতিক্রিয়ায় অনেকে বলেছেন, তারা সহজে ভোট দিতে পেরেছেন। এত বড় এলাকায় দু’একটি ভুলত্রুটি হয়েছে হয়তো।

তিনি আরও বলেন, বিএনপি যথেষ্ট এলোমেলো, নেতৃত্বহীন। সে অবস্থায় আমার মনে হয় বিএনপি নির্বাচনে ভালো করেছে। বিএনপির পারফরমেন্স বিবেচনা করলে এই ভোটেও তাদের ভোটের সংখ্যা কম নয়। বিরোধী দল হিসেবে তারা ব্যর্থ হয়েছে, তা নয়।