তারাগঞ্জে নৈশ্যকোচ-এ্যাম্বুলেন্স সংঘর্ষে ভাই-বোনসহ ৩ জন নিহত

তারাগঞ্জে নৈশ্যকোচ-এ্যাম্বুলেন্স সংঘর্ষে ভাই-বোনসহ ৩ জন নিহত

তারাগঞ্জ (রংপুর) প্রতিনিধি: রংপুরের তারাগঞ্জে ডিপজল নৈশকোচের সাথে এ্যাম্বুলেন্সের মুখোমুখি সংঘর্ষে ভাইবোনসহ তিনজন নিহত হয়েছেন। গতকাল বুধবার সকাল আটটার দিকে রংপুর-দিনাজপুর মহাসড়কের তারাগঞ্জ উপজেলার বাছুরবান্ধা এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন ঠাকুরগাঁও জেলা সদরের গিলাবাড়ী এলাকার সাথী আক্তার (২২), তার ভাই বিপ্লব মিয়া (২৬) ও দিনাজপুরের বীরগঞ্জ উপজেলার এ্যাম্বুলেন্সের চালক রুবেল মিয়া (২৭)। এতে আহতদের মধ্যে নিহত সাথী আক্তারের স্বামী ও দুই মাসের শিশু সন্তানকে গুরুতর আহত অবস্থায় রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। নিহতরা সবাই এ্যাম্বুলেন্সের যাত্রী ছিলেন। তারাগঞ্জ হাইওয়ে থানার ওসি মোহাম্মদ গোলাম কিবরিয়া এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা নৈশকোচ ডিপজল এন্টারপ্রাইজের বাসটি ঠাকুরগাঁও যাচ্ছিল। এসময় তারাগঞ্জ উপজেলার বাছুরবান্ধা এলাকায় পৌঁছালে চিকিৎসা নিতে ঠাকুরগাঁও থেকে ভোরে ছেড়ে আসা রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালগামী এ্যাম্বুলেন্সটির সাথে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই সাথী ও তার ভাই বিপ্লব মিয়া মারা যান। অপরদিকে রংপুর কলেজ হাসপাতালে এ্যাম্বুলেন্স চালক রুবেল মিয়া চিকিৎসাধীন অবস্থায় সকাল ৯টায় মারা যান।হাইওয়ে পুলিশের ওসি গোলাম কিবরিয়া জানান, নৈশকোচটি বেপরোয়া গতিতে চালানোর কারণে চালক গাড়ির নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেললে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নৈশকোচটি আটক করা হলেও চালক ও তার সহযোগী (হেলপার) পালিয়ে গেছেন।