টঙ্গীতে গৃহবধূর আত্মহত্যা স্বামী পলাতক

টঙ্গীতে গৃহবধূর আত্মহত্যা স্বামী পলাতক

টঙ্গী (গাজীপুর) প্রতিনিধি : টঙ্গীর পাগাড় কটুর বাড়ি এলাকায় পারিবারিক কলহের জের ধরে নীলা আক্তার পাপিয়া ওরফে বুবলী (১৯) নামের এক গৃহবধূ গতকাল শনিবার সকালে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছে। পুলিশ লাশ উদ্ধার করেছে। ঘটনার পর থেকে আত্মহননকারী বুবলীর স্বামী সৈয়দ মহিউদ্দিন পলাতক রয়েছে।পুলিশ জানায়, ২/৩ বছর পূর্বে জনৈক মহিউদ্দিনের সাথে বুবলীর বিয়ে হয়। এর পর থেকে সে স্ত্রী বুবলীকে নিয়ে উল্লেখিত এলাকায় ইলারিশের বাড়ির ভাড়া বাসায় থাকতো। সাংসারিক খুটিনাটি বিষয়াদি নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে প্রায়ই কলহ লেগে থাকতো।

এরই জের ধরে গতকাল সকাল ৮টার দিকে বুবলী ঘরের ফ্যানের সাথে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করে। ঘটনার পর থেকে আত্মহননকারীর স্বামী মহিউদ্দিন পলাতক রয়েছে। খবর পেয়ে টঙ্গী থানাপুলিশ নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দিন আহমেদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেছে। এঘটনায় টঙ্গী মডেল থানায় একটি মামলা হয়েছে। বুবলী জয়পুরহাট জেলার আক্কেলপুর উপজেলার জালালপুর আমীরহাট গ্রামের  মোজাম্মেল হকের মেয়ে।এব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে টঙ্গী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মো. ফিরোজ তালুকদার বিষয়টি নিশ্চিত করেন।