বিকাল ৩:১০, রবিবার, ৩০শে এপ্রিল, ২০১৭ ইং
/ জাতীয়

ঢাকার সদরঘাটে লঞ্চ থেকে নামার সময় দুই লঞ্চের মাঝে চাপা পড়ে এক বৃদ্ধ নিহত হয়েছেন। নিহত মো. শাহজাহান (৬৫) ভোলার বোরহানউদ্দিন উপজেলার পদিয়া গ্রামের বাসিন্দা।

শনিবার সদরঘাটের লঞ্চ টার্মিনালে এ দুর্ঘটনা ঘটে বলে দক্ষিণ কেরাণীগঞ্জ থানার হাসনাবাদ নৌ পুলিশ ফাঁড়ির এসআই মো. সামসুল আলম জানান।

প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাত দিয়ে এসআই সামসুল বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, শাহজাহান স্ত্রী-সন্তানদের নিয়ে কেরাণীগঞ্জের জিনজিরা এলাকায় ভাড়া বাসায় থাকেন। শনিবার ভোলার গ্রামের বাড়ি থেকে লঞ্চে করে সদরঘাটে আসেন তিনি।

লঞ্চ থেকে নামার সময় দুই লঞ্চের মাঝে চাপা পড়ে গুরুতর আহত হন শাহজাহান। স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে প্রথমে স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও পরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে দায়িত্বরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণ করেন করেন বলে জানান তিনি।

 

রাজধানীতে বাসের ধাক্কায় নারীর মৃত্যু

ঢাকার গাবতলীতে বাসের ধাক্কায় এক নারীর মৃত্যু হয়েছে। নিহত সুফিয়া বেগম (৪০) লালমনিরহাট সদরের সাইফুল ইসলামের স্ত্রী। ঢাকা মেডিকেল ফাঁড়ি পুলিশের এসআই মো. বাচ্চু মিয়া জানান, সাইফুল শনিবার রাত ১টার দিকে সুফিয়াকে হাসপাতালে নিয়ে এলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

সাইফুলের বরাত দিয়ে বাচ্চু মিয়া বলেন, রাতে ঢাকায় এসে গাবতলীতে নামার পর উত্তরায় এক আত্মীয়র বাসায় যাওয়ার জন্য রাস্তা পার হওয়ার সময় একটি বাস সুফিয়াকে ধাক্কা দেয়।

সুফিয়ার লাশ হাসপাতালের জরুরি বিভাগের মর্গে রয়েছে বলে জানান বাচ্চু।

 

গুলিস্তানে টাকা ও স্বর্ণ ছিনতাই

রাজধানীর গুলিস্তানে এক নারীর কাছ থেকে ৭০ হাজার টাকা, সাত ভরি স্বর্ণ ও একটি মোবাইলফোনসহ ভ্যানিটি ব্যাগ ছিনিয়ে নিয়েছে ছিনতাইকারীরা। গতকাল শনিবার ভোর সাড়ে ৫টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। ছিনতাইয়ের শিকার ওই নারীর নাম সুলতানা আফরোজ (৩৫)। তাকে আহত অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ব্যানিটি ব্যাগ টান দিয়ে নেওয়ার সময় ওই নারীও সড়কে পড়ে গিয়ে আহত হন। তার ভাই নান্নু মিয়া জানান, সুলতানা খুলনা  সোনাডাঙ্গা উপজেলার নিজ বাড়ি থেকে ছেলে প্রত্যয়কে নিয়ে নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় ভাইয়েরর বাসায় বেড়াতে যাচ্ছিল। বাস থেকে নেমে গুলিস্তান শপিংমলের সামনে অন্য একটি গাড়ির জন্য অপেক্ষা করছিল। এমন সময় একটি প্রাইভেটকারে তিন ছিনতাইকারী তার সঙ্গে থাকা ভ্যানিটি ব্যাগ টান দিয়ে নিয়ে যায়। এ সময় সেও পড়ে গিয়ে ঠোঁট ও মাথায় আঘাত পায়। তিনি জানান, ব্যাগে ৭০ হাজার টাকা, সাত ভরি স্বর্ণ ও একটি  মোবাইলফোন ছিল। পুলিশ জানায়, ছিনতাইকারীদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

 

হাওর সংকটে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান

পারস্পরিক দোষারোপ ও পাল্টাপাল্টি অভিযোগ না করে হাওর সংকট মোকাবেলায় সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন।

 শনিবার জাতীয় প্রেসক্লাবে ‘হাওরাঞ্চলে মানুষের কান্না: বিপন্ন মানবতার পাশে দাঁড়ান’ শীর্ষক এক সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে এ আহ্বান জানান তিনি। লিখিত বক্তব্যে বন্যায় হাওরে সৃষ্ট সমস্যাকে জাতীয় সংকট হিসেবে মন্তব্য করে হাওয়ার বেষ্টিত জেলাগুলোকে দুর্গত এলাকা ঘোষণা ও জরুরি ত্রাণ ও পুনর্বাসন কার্যক্রম গ্রহণের দাবি জানান গণফোরাম সভাপতি। সংবাদ সম্মেলনে ড. কামাল হোসেনের পক্ষে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন গণফোরাম প্রেসিডিয়াম সদস্য তবারক হোসেন। হাওরবাসীর দুর্গতির প্রধান কারণ দুর্নীতি বলে মন্তব্য করে কামাল হোসেন বলেন, পানি উন্নয়ন বোর্ড বাঁধের দায়িত্ব গ্রহণ করে। দুঃখজনক হলো প্রক্রিয়ার প্রতিটি পদক্ষেপে ঘুষ দুর্নীতি হয়েছে বলে অভিযোগ রয়েছে। দুর্নীতির বিরুদ্ধে সবাইকে সক্রিয় হওয়ার আহ্বান জানিয়ে কামাল হোসেন বলেন, জনগণ ক্ষমতার মালিক। মালিক নিষ্ক্রিয় থাকলে এরকম হবে। মালিকদের সক্রিয় হতে হবে। হাওর এলাকায় মাছ, হাসসহ জলজ প্রাণী মড়ক নিয়ে বিভিন্ন মহলের ভিন্ন ভিন্ন বক্তব্য প্রসঙ্গে কামাল হোসেন বলেন, মড়কের কারণ উদ্ঘাটন করে ভবিষ্যতে যাতে এরকম মড়ক দেখা না যায় সেজন্য ব্যবস্থা গ্রহণ করা উচিত। প্রকৃত দুর্গত পরিবারের তালিকা করে তাদের কাছে সঠিক পরিমাণ ত্রাণ পৌছানো নিশ্চিত করা, হাওরের বাঁধ নির্মাণে দুর্নীতি শক্ত হাতে প্রতিরোধ ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা করা, নদী, খাল ও হাওর খনন, ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের সুদমুক্ত ঋণ, দুর্গতদের স্বাস্থ্য সেবা, গবাদি পশু খাদ্য ও চিকিৎসা নিশ্চিত করা, জলমহালের ইজারা বাতিল করে কৃষকদের মাছ ধরার সুযোগ দেয়া, ন্যায্যমূল্যে সার, বীজ, ক্ষতিগ্রস্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান মেরামত ও প্রয়োজনে পাঠ্য পুস্তক ও শিক্ষা উপকরণ সরবরাহ করার দাবি জানান কামাল হোসেন।

 

আবৃত্তিশিল্পী কাজী আরিফ ‘ক্লিনিক্যালি ডেড’

করতোয়া ডেস্ক: আবৃত্তিশিল্পী ও মুক্তিযোদ্ধা কাজী আরিফ ক্লিনিক্যালি ডেড বলে তার মেয়ে জানিয়েছেন। যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্কের একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন তিনি। খবর বিডিনিউজ। তার মেয়ে আনুশকা শনিবার বলেন, ‘চিকিৎসকরা বলেছেন, তিনি ক্লিনিক্যালি ডেড। আগামীকাল সকালে তার লাইফ সাপোর্ট খোলা হবে।’ নিউ ইয়র্কে অবস্থানরত বাংলাদেশ আবৃত্তি সমন্বয় পরিষদের সাধারণ সম্পাদক আহকাম উল্লাহ বিডিনিউজকে বলেন, ‘ডাক্তাররা তাকে (কাজী আরিফ) ক্লিনিক্যালি ডেড ঘোষণা করেছেন। আগামীকাল লাইফ সাপোর্ট খুলে নেওয়ার পর অন্য সব সব বিষয়ে সিদ্ধান্ত জানানো হবে।’ দীর্ঘদিন থেকে অসুস্থ কাজী আরিফের হার্টের বাল্ব অকেজো হলে তাকে ম্যানহাটনের মাউন্ট সিনাই সেন্ট লিওক্স হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। গত মঙ্গলবার বাল্ব পুনঃস্থাপন এবং আর্টারিতে বাইপাস সার্জারি করা হয়। পরে শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাকে নিবিড় পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রে নেওয়া হয়। এখনও সেখানে রয়েছেন তিনি। গত ২১ এপ্রিল কাজী আরিফ নিজেই তার অসুস্থতার খবর বিডিনিউজকে জানিয়েছিলেন। সেদিন এক টুকরো বার্তায় তিনি বলেছিলেন, ‘আমি এখন হাসপাতালের শয্যায়। এই ২৫ তারিখ আমার ওপেন হার্ট সার্জারি হবে। মিট্রাল ভাল্ব রিপ্লেস/রিপেয়ার করবে, আর একটা আর্টারি বাইপাসও করবে। এটি দ্বিতীয় দফা। হাসপাতালের নাম মাউন্ট সিনাই সেন্ট লুকস হসপিটাল।’

কাজী আরিফের জন্ম ৩১ অক্টোবর ১৯৫২ সালে ফরিদপুর রাজবাড়ীতে। বেড়ে উঠেছেন চট্টগ্রাম শহরে। পড়াশোনা, রাজনীতি, শিল্প-সাহিত্য এসব কিছুরই হাতেখড়ি হয় সেখানে।
তিনি একাধারে একজন সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ত্ব, আবৃত্তিকার, লেখক ও মুক্তিযুদ্ধ সংগঠক।

১৯৭১ সালে ১ নম্বর সেক্টরের মেজর রফিকুল ইসলামের কমান্ডে সরাসরি মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করেন। এরপর যুদ্ধ শেষে বুয়েটে লেখাপড়া শুরু করেন আর সাথে সমান তালে এগিয়ে যেতে থাকে তার শিল্প, সাহিত্য, সংস্কৃতি। তিনি বাংলাদেশের আবৃত্তিশিল্পের অন্যতম রূপকার।

শরীরের বিশেষ স্থানে ৪০টি সোনার বার, ২ নারী আটক

হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ৪০টি স্বর্ণের বারসহ দুই নারীকে আটক করেছেন শুল্ক গোয়েন্দা কর্মকর্তারা। তারা এসব স্বর্ণ শরীরের বিশেষ স্থানে লুকিয়ে এনেছিলেন। এর ওজন ৪ কেজি ৬৪০ গ্রাম এবং বাজার মূল্য প্রায় সোয়া দুই কোটি টাকা বলে দাবি সংশ্লিষ্টদের।  শনিবার সকালে স্বর্ণসহ পতেঙ্গার একটি গার্মেন্টসের কর্মী জেসমিন আক্তার (৩৫) ও পারভীন আক্তার (২৬) ধরা পড়েন।

শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদফতরের সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা (এআরও) এনামুল হক বলেন, মাস্কাট থেকে আসা একটি ফ্লাইটে চট্টগ্রাম হয়ে ডোমেস্টিক যাত্রী হিসেবে ঢাকায় আসেন ওই দুই নারী। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সকাল ৯টায় তাদের চ্যালেঞ্চ করলে তারা  শরীরের বিশেষ স্থান থেকে লুকিয়ে আনা ৪০টি সোনার বার বের করে দেন।

 

যুক্তরাজ্য-বাংলাদেশ সম্পর্কে প্রভাব ফেলবে না ব্রেক্সিট: ক্যামেরন

যুক্তরাজ্য ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে বেরিয়ে গেলে বাংলাদেশের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় সম্পর্কে কোনো প্রভাব পড়বে না বলে মন্তব্য করেছেন সাবেক ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরন।  বৃহস্পতিবার সকালে গণভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাতে তিনি এ কথা বলেন। প্রধানমন্ত্রীর প্রেসসচিব ইহসানুল করিম পরে বৈঠকের বিষয়ে সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন।

গতবছর গণভোটে যুক্তরাজ্যের জনগণ ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে বেরিয়ে যাওয়ার পক্ষে রায় দেওয়ার পর প্রধানমন্ত্রীর পদ থেকে সরে যান ডেভিড ক্যামেরন। ওই দায়িত্বে আসা টেরিজা মে ইতোমধ্যে ইইউ থেকে বিচ্ছেদের আলোচনার প্রক্রিয়া শুরু করেছেন। ইউরোপীয় ইউনিয়ন গঠনের পর যুক্তরাজ্যই প্রথম দেশ, যারা এই জোট থেকে বেরিয়ে যাচ্ছে। এই প্রক্রিয়াকে সংক্ষেপে বলা হচ্ছে ব্রেক্সিট। ইহসানুল করিম জানান, শেখ হাসিনা ও ডেভিড ক্যামেরনের বৈঠকে দুই দেশের বাণিজ্য ও বিনিয়োগ নিয়ে আলোচনা হয়।

সাবেক ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশের বর্তমান সরকারের বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজ এবং শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের আর্থসামাজিক অগ্রগতির প্রশংসা করেন বলে প্রেস সচিব জানান। তিনি বলেন, বাংলাদেশে যুক্তরাজ্যের বিনিয়োগের কথা তুলে ধরে দুই দেশের বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্কের বিষয়টিও ক্যামেরন আলোচনায় উল্লেখ করেন। এ সময় প্রধানমন্ত্রী তার দল আওয়ামী লীগ ও সরকারের বিভিন্ন নীতির কথা জানিয়ে বলেন, সে অনুযায়ীই বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে এবং সাফল্য অর্জন করছে। পরিকল্পনা অনুযায়ী নতুন ১০০টি অর্থনৈতিক অঞ্চল হলে বিপুল সংখ্যক মানুষের কাজের সংস্থান হবে বলেও সাবেক ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীকে জানান তিনি। ক্যামেরন বলেন, বাংলাদেশের এসব অর্থনৈতিক অঞ্চলে কর্মদক্ষতা বৃদ্ধির ক্ষেত্রে যুক্তরাজ্য সহযোগিতা করতে পারে। শেখ হাসিনা এ সময় বাংলাদেশ থেকে সরাসরি যুক্তরাজ্যে কার্গো পরিবহনে নিষেধাজ্ঞার বিষয়টি তুলে ধরে এর সমাধানের ওপর গুরত্ব আরোপ করেন। তিনি বলেন, যুক্তরাজ্যের ওই নিষেধাজ্ঞার কারণে বাংলাদেশের বেসরকারি খাত ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। ইহসানুল করিম জানান, বৈঠকে রোহিঙ্গা সমস্যা নিয়েও কথা হয়। শেখ হাসিনা প্রায় ৪ লাখ রোহিঙ্গার বাংলাদেশে অবস্থানের তথ্য তুলে ধরেন এবং তাদের মিয়ানমারে ফিরিয়ে নেওয়ার বিষয়েও আলোচনা হয়। অন্যদের মধ্যে প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা গওহর রিজভী ও ঢাকায় ব্রিটিশ রাষ্ট্রদূত অ্যালিসন ব্লেক এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

দুর্যোগের সময় বিদেশ যাওয়া হাওর কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা

দেশের হাওরাঞ্চলে মহাবিপর্যয়ের সময় হাওর অধিদপ্তর এবং মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা কেন বিদেশ সফরে গেলেন তা খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন পানিসম্পদ মন্ত্রী আনিসুল ইসলাম মাহমুদ।

একসঙ্গে বিদেশ সফরে হাওর অধিদপ্তরের মহাপরিচালকসহ বেশিরভাগ কর্মকর্তা- এ সংক্রান্ত একটি রিপোট প্রচারিত হয়। এরপরই শুরু হয় তোলপাড়।
সারা দেশে আলোচনা হাওরের এই বিপর্যয়ের মধ্যে অধিদপ্তরের ৫ কর্মকর্তার ৪ জন এবং মন্ত্রণালয়ের আরো ৫ কর্মকর্তা কেন বিদেশ ভ্রমণে?
এরপর বুধবার মন্ত্রণালয় থেকে ওই কর্মকর্তাদের দেশে ফেরার জন্য জরুরি তলব করা হয়। হাওর কর্মকর্তাদের বিদেশ ভ্রমণ নিয়ে কথা বলেছেন পানিসম্পদ মন্ত্রী আনিসুল ইসলাম মাহমুদ।
হাওরের এই পরিস্থিতির মধ্যে মন্ত্রণালয় কেন কর্মকর্তাদের বিদেশ যাওয়ার অনুমতি দিল তারও জবাব দিয়েছেন পানি সম্পদ মন্ত্রী আনিসুল ইসলাম মাহমুদ। এজন্য কিছুটা হলেও নিজের দায় স্বীকার করেছেন পানিসম্পদ মন্ত্রী।

অপহৃত শিশু সুমাইয়া ২৪ দিন পর মায়ের কোলে

ঢাকার কামরাঙ্গীরচর থেকে ২৪ দিন আগে অপহৃত পাঁচ বছরের সুমাইয়াকে পুলিশ যখন তার মায়ের কোলে ফিরিয়ে দিল, মা-মেয়ের কান্না যেন আর থামতে চাইছিল না। কাঁদছিলেন সুমাইয়ার বাবাও। শিশুটিকে উদ্ধার করা পুলিশ সদস্যরাও এ সময় আবেগতাড়িত হয়ে পড়েন। বুধবার গভীর রাতে রাজধানীর জুরাইনের এক বাসা থেকে সুমাইয়াকে উদ্ধার করে পুলিশ। গ্রেফতার করা হয় পাঁচজনকে, যাদের মধ্যে সুমাইয়াদের এক সময়ের প্রতিবেশী সাবিনা আক্তার বৃষ্টিও ছিলেন।  

 বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে সুমাইয়া ও তার মা-বাবাকে ঢাকার মিন্টো রোডে ঢাকা মহানগর পুলিশের মিডিয়া সেন্টারে নিয়ে আসা হলে আনন্দ-বেদনায় পুনর্মিলনের সেই দৃশ্য সাংবাদিকদেরও স্পর্শ করে। সুমাইয়া কিছুক্ষণ পরপরই মাকে বলছিল,‘মা, চুমু দেও আমাকে।’ চোখে অশ্রু, মুখে হাসি নিয়ে মেয়েকে আদরে ভরিয়ে দিচ্ছিলেন মা মুন্নি বেগম।
আদরে সিক্ত হতে হতে সুমাইয়া তার মাকে বলে, ‘আমি তোমাদের জন্য অনেক কেঁদেছি। কিন্তু বৃষ্টি আমাকে মেরেছে।’ আটকে থাকার দিনগুলোতে বৃষ্টিকে মা বলে ডাকার জন্য জোর করা হত বলে জানায় মেয়েটি। সুমাইয়ার কথা শুনে ফের ডুকরে কেঁদে ওঠেন তার মা-বাবা।

কামরাঙ্গীরচর থানার ওসি মো. শাহীন ফকির বলেন, ‘ভোরে যখন সুমাইয়াকে মা-বাবার কোলে তুলে দেওয়া হল, তখন তারা কাঁদছিলেন। এখন তো অনেকটা স্বাভাবিক।’ ওসি বলেন, এ ঘটনার ‘মূল আসামি’ সাবিনা আক্তার বৃষ্টি ও তার বাবা সিরাজ মিয়াকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এ ছাড়া, এই ঘটনায় আরও তিনজন আটক রয়েছেন। তাদের আরও জিজ্ঞাসাবাদ করতে হবে। সেদিন কীভাবে বাড়ি থেকে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল, সেই বিবরণও সাংবাদিকদের সামনে দেয় সুমাইয়া। সে বলে, ‘বৃষ্টি আগেও আমাদের বাসায় এসেছে।

প্রায়ই আমাকে তার বাসায় নিতে চাইত। ওইদিন বিকেলে বৃষ্টি আমাদের বাসায় আসলো। মা ঘরে ছিল। পরে আমাকে হাত ধরে রাস্তায় নিয়ে গেল।’ চিৎকার দিলে না কেন- এক সাংবাদিকের এমন প্রশ্নে সুমাইয়া বলে, ‘দিতে তো চাইছিলাম, কিন্তু আমাকে রিকশায় তুলে চেপে ধরে রাখছিল।’ সংবাদ সম্মেলনে বৃষ্টিকে কোনো কথা বলতে দেওয়া হয়নি। বেরিয়ে যাওয়ার সময় প্রশ্নেরও কোনো উত্তর তিনি দেননি। কেন সুমাইয়াকে অপহরণ করা হল- এ প্রশ্নে সুমাইয়ার বাবা জাকির হোসেনও কোনো ধারণা দিতে পারেননি। তিনি বলেন, ‘বৃষ্টিকে আমি আগে একবার দেখেছিলাম। কিন্তু তার সঙ্গে কোনো কথা হয়নি।’ মা মুন্নি বেগম বলেন, ‘ওইদিন বিকালে বৃষ্টি আমাদের বাসায় এসে বলে, বাড়িওয়ালার সঙ্গে দেখা করবে। সে আমাদের বারান্দায় ছিল। কিন্তু কিছুক্ষণ পর দেখি সে নাই, সুমাইয়াও নাই।’ গত ৩ এপ্রিল বিকাল ৫টার দিকে কামরাঙ্গীরচরের বড়গ্রামে বাসার সামনের রাস্তা থেকে নিখোঁজ হয় স্থানীয় একটি কারখানার কর্মী জাকিরের মেয়ে সুমাইয়া। ওইদিনই থানায় সাধারণ ডায়েরি করেন জাকির।

এরপর গত সোমবার তিনি কামরাঙ্গীরচর থানায় অপহরণের মামলা করেন। বড়গ্রামে জাকিরের বাসার তিন বাড়ি পরেই ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ৫৬ নম্বর ওয়ার্ডের কমিশনার মোহাম্মদ হোসেনের বাসা। ওই বাড়ির সিসি ক্যামেরার ভিডিওতে কালো বোরকা পরা এক নারীকে শিশুটির হাত ধরে হেঁটে যেতে দেখা যায়। পুলিশের লালবাগ বিভাগের উপ কমিশনার মোহাম্মদ ইব্রাহীম খান বলেন, ‘কী কারণে বৃষ্টি শিশুটিকে নিয়ে গিয়েছিল তা এখনও স্পষ্ট নয়। বৃষ্টি কয়েকবার ভারতে গিয়েছিলেন। তিনি মানবপাচার চক্রের সঙ্গে জড়িত কিনা- তাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে।’ বড়গ্রামে জাকিরের বাসার তিন বাড়ি পরেই ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ৫৬ নম্বর ওয়ার্ডের কমিশনার মোহাম্মদ হোসেনের বাসা। ওই বাড়ির ক্লোজড সার্কিট ক্যামেরার ভিডিওতে কালো বোরকা পরা এক নারীকে শিশুটির হাত ধরে হাঁটিয়ে নিয়ে যেতে দেখা যায়। জাকির বলেন, তাদের পাশের বাসায় এক দম্পতি ভাড়া থাকতেন আট মাস আগে। তার সন্দেহ ছিল প্রতিবেশী ওই নারীই সুমাইয়াকে নিয়ে গেছে। বৃহস্পতিবার মেয়েকে ফিরে পাওয়ার পর  তিনি বলেন, ‘যাদের গ্রেফতার করেছে, তাদের মধ্যে ওই নারীও আছে।’

 

বিচ্ছিন্ন সব এলাকা হবে ডিজিটাল: প্রধানমন্ত্রী

দেশের বিচ্ছিন্ন সব এলাকায় তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি অবকাঠামো তৈরি করে ডিজিটালাইজেশনের আওতায় আনা হবে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। গণভবন থেকে বৃহস্পতিবার সকালে ভিডিও কনফারেন্সে ‘ডিজিটাল আইল্যান্ড মহেশখালী’ প্রকল্পের উদ্বোধনের সময় তিনি একথা বলেন।

দেশের সব অঞ্চলে ডিজিটাল প্রযুক্তি সেবা প্রসারিত করতে আইসিটি বিভাগ ‘ডিজিটাল আইল্যান্ড মহেশখালী’ প্রকল্প গ্রহণ করে। এই প্রকল্প বাস্তবায়নে আইসিটি বিভাগের সাথে যৌথভাবে কাজ করেছে আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থা (আইওএম), কোরিয়া টেলিকম (কেটি) ও বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল।

এই প্রকল্প উদ্বোধন করতে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, “ডিজিটাল বাংলাদেশ আমরা প্রায় কার্যকর করে ফেলেছি। এখন এর আরও উন্নয়ন করতে হবে। … দেশের বিচ্ছিন্ন এলাকাগুলো ডিজিটাল করে দেওয়া হবে।”

কোরিয়া টেলিকমের গিগা ইন্টারনেট প্রযুক্তি ব্যবহার করে মহেশখালীতে উচ্চগতির ইন্টারনেট নেটওয়ার্ক স্থাপন করা হচ্ছে। এতে সেখানে ইন্টারনেটনির্ভর সেবার পরিধি বৃদ্ধি পাবে এবং অনলাইনে বিভিন্ন জনসেবা দেওয়া দ্বীপে অবস্থিত প্রতিষ্ঠানগুলোর সক্ষমতা বৃদ্ধি পাবে।

শেখ হাসিনা বলেন, “এই দ্বীপে বসে এখন বিশ্বটা হাতের মুঠোয় চলে আসবে। … আমাদের এই অঞ্চলটা বিশাল সম্পদের ভাণ্ডার। কিন্তু, আমরা তা কাজে লাগাতে পারি নাই।”

চর ও হাওরসহ প্রত্যন্ত অঞ্চলের দ্রুত উন্নয়নের সরকারের লক্ষ্যের কথা তুলে ধরেন প্রধানমন্ত্রী।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে কোরিয়া থেকে ভিডিও কনফারেন্সে কোরিয়া টেলিকমের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ও চেয়ারম্যান চ্যাং গিউ হোয়াং এবং মহেশখালী থেকে আইসিটি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক ও বাংলাদেশে আইওএমের মিশন প্রধান শরৎ চন্দ্র দাস বক্তব্য রাখেন।

এর আগে ডিজিটাল মহেশখালীর ওপর একটি প্রামাণ্যচিত্র দেখানো হয়।

মহেশখালীর বার্মিজ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকা রশীদা বেগম এবং স্থানীয় স্বাস্থ্য সেবা কেন্দ্রের চিকিৎসক সাজ্জাদ হোসেন চৌধুরীসহ চতুর্থ শ্রেণির এক ছাত্রীর সঙ্গেও কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ডিজিটাল মহেশখালী প্রকল্প বাস্তবায়ন হলে ওই অঞ্চলের চিকিৎসা সেবা আরও সহজ হবে।

উদ্বোধনীর সময় বঙ্গভবনে প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা হোসেন তৌফিক ইমাম, ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম এবং মহেশখালীতে বাংলাদেশে আইওএম কর্মকর্তা পেপ্পি সিদ্দিক উপস্থিত ছিলেন।

 

প্রধান বিচারপতিকে আলোচনায় বসার অনুরোধ আইনমন্ত্রীর

কোনো সমস্যার কথা পাবলিকলি না বলে ফাইন্ডিংস্ থাকলে সেগুলো নিয়ে সরকারের সঙ্গে আলোচনায় বসতে প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহাকে বিনয়ের সঙ্গে অনুরোধ জানিয়েছেন আইনমন্ত্রী অ্যাডভোকেট আনিসুল হক।  হবিগঞ্জে প্রধান বিচারপতির দেওয়া বক্তব্যের প্রেক্ষিতে গতকাল বুধবার সচিবালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এ অনুরোধ জানান তিনি।

গত মঙ্গলবার দুপুরে হবিগঞ্জে জেলা আইনজীবী সমিতির দেওয়া সংবর্ধনার জবাবে প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা বলেছিলেন, ‘বিচার বিভাগের সঙ্গে বিমাতাসুলভ আচরণ করেছে সব সরকার। প্রশাসন বিচার বিভাগের স্বাধীনতা চায় না। তারা বিচার বিভাগকে নিজেদের প্রতিদ্বন্দ্বী মনে করে। এটি সম্পূর্ণ ভুল’।
আইন মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে সংবাদ সম্মেলনে প্রধান বিচারপতির উদ্দেশ্যে আইনমন্ত্রী বলেন, ‘পৃথিবীর কোনো দেশেই প্রধান বিচারপতি এভাবে পাবলিকলি উষ্মা প্রকাশ করেন না। অতি বিনয়ের সঙ্গে প্রধান বিচারপতিকে বলবো, আপনার যদি কোনো ফাইন্ডিংস্ থাকে, তবে পাবলিকলি না বলে সরকারের সঙ্গে আলোচনায় বসুন। আমরা সমস্যার সমাধান করবো’।   

প্রধান বিচারপতি হবিগঞ্জে আরও বলেছিলেন, ‘অর্থনৈতিক উন্নয়ন হলেই দেশ উন্নয়নশীল দেশ হবে না। সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন আইনের শাসন’। পাশাপাশি দুর্নীতি প্রতিরোধ ও বিচার বিভাগের স্বাধীনতাও থাকতে হবে বলে মনে করেন তিনি। এ প্রসঙ্গে আইনমন্ত্রী বলেন, বিচার বিভাগ সম্পূর্ণ স্বাধীন। শেখ হাসিনার সরকার বিচার বিভাগের সঙ্গে বিমাতাসূলভ আচরণ করে না।

 

জনগণ যেন নির্যাতনের শিকার না হয় সেদিকে দৃষ্টি দিতে হবে

দেশপ্রেম, সততা ও পেশাদারিত্বের মনোভাব নিয়ে নিয়ম-কানুন মেনে অর্পিত দায়িত্ব পালন করতে র‌্যাব সদস্যদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। গতকাল বুধবার দুপুরে রাজধানীর কুর্মিটোলায় র‌্যাব ফোর্সেস সদর দপ্তরে সংস্থাটির ১৩তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন অনুষ্ঠানে এ আহ্বান জানান তিনি।
জনগণের জানমাল ও নিরাপত্তা নিশ্চিত করার ক্ষেত্রে সবাইকে আরো আন্তরিকতার সঙ্গে কাজ করার পরামর্শ দিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ‘যাতে জনগণের কোনোরকম কষ্ট না হয়, তারা যেন কোনোরকম অহেতুক নির্যাতনের শিকার না হয়, নিগৃহীত না হয়, সেদিকে সবাইকে দৃষ্টি দিতে হবে।’

‘এই জনগণ কারা আপনাদের-আমাদের সবারই তো আত্মীয়, পরিবার, আপনজন।’ প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘র্যাবের প্রতিটি সদস্যকে বলবো জনগণের জানমালের নিরাপত্তা বিধান করা আপনাদের মূল লক্ষ্য। আইন-কানুন, নিয়ম-নীতি মেনে অর্পিত দায়িত্ব পালন করবেন, এটাই আমাদের প্রত্যাশা।’

শেখ হাসিনা বলেন, ‘মনে রাখতে হবে আপনারা একটি শৃঙ্খলা-বাহিনীর সদস্য। প্রতিটি সদস্যকে দেশপ্রেম, সততা, কর্তব্যনিষ্ঠা, দক্ষতা ও পেশাদারিত্বের মনোভাব নিয়ে অর্পিত দায়িত্ব পালন করতে হবে।’  ‘নৈতিক স্খলন যেকোনো বাহিনীর মনোবল দূর্বল করে দেয়।’

তিনি বলেন, ‘মনে রাখবেন জনগণের পয়সায় আপনাদের- আমাদের সবার বেতন-ভাতা বা আমরা যাই পাই এটা কিন্তু সাধারণ মানুষের অর্থে আসে।’
দেশের উন্নয়নে শান্তিপূর্ণ পরিবেশের কথা উপেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘দেশ এগিয়ে যাচ্ছে, এগিয়ে যাবে। একটি দেশকে অর্থনৈতিকভাবে স্বাবলম্বী করতে হলে সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন আইন-শৃঙ্খলা, যাতে উন্নত হয়, দেশে শান্তিপূর্ণ পরিবেশ বিরাজ করে। দেশের মানুষের ভেতরে একটা আস্থা ও বিশ্বাস সৃষ্টি করতে হবে।’
‘মানুষকে আগামী দিনে সুন্দরভাবে বাঁচার, সুন্দর জীবনের স্বপ্ন দেখাতে হবে।’

প্রতিরক্ষায় বরাদ্দ ব্যয় নয়, বিনিয়োগ
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আমরা মনে করি প্রতিরক্ষা খাতে বরাদ্দ কোনো ব্যয় নয়, বিনিয়োগ। আর জনগণের জানমালের নিরাপত্তার জন্য যা যা করা হয় সেটাই মূলত বিনিয়োগ। গতকাল সকালে রাজধানীর কুর্মিটোলায় র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাব) সদর দফতরে বাহিনীটির প্রতিষ্ঠাবাষির্কীর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। শেখ হাসিনা বলেন, আমি স্মরণ করছি দায়িত্ব পালনে নিহত র‌্যাবসহ সব আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের। র‌্যাবের গোয়েন্দা বিভাগের প্রধান লে. কর্নেল আবুল কালাম আজাদ সিলেটে অভিযানে মারা গেছেন। আরও যারা মারা গেছেন তাদের আত্মার মাগফিরাত কামনা করছি।

জঙ্গিবাদ দমনে নিষ্ঠা ও আন্তরিকতার সঙ্গে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী কাজ করছে বলেও এ সময় মন্তব্য করেন প্রধানমন্ত্রী। র‌্যাবের উন্নয়নে ব্যাপক পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে জানিয়ে তিনি বলেন, জল-স্থল ও আকাশ পথে র‌্যাব কাজ করতে সক্ষম। আমরা গত আট বছরে এই বাহিনীকে আরও উন্নত করেছি। এছাড়া কাজ করতে গিয়ে যখনই প্রয়োজন তখনই র‌্যাব সার্বিক সহায়তা পাবে। বাড়িয়েছি বরাদ্দ, আমরা মনে করি প্রতিরক্ষায় বরাদ্দ ব্যয় নয়, বিনিয়োগ। কুমিল্লা ও ফরিদপুর পৃথক দুটি বিভাগ অতি দ্রুতই বাস্তবায়ন হবে বলেও জানান শেখ হাসিনা।

ভারি বর্ষণ কেটে ‘অস্বস্তির গরম থাকছে’

ঢাকাসহ দেশের অধিকাংশ এলাকায় টানা কয়েকদিনের ভারি বর্ষণ কেটে মঙ্গলবার তাপমাত্রা বেড়েছে, যা অব্যাহত থাকবে বলে আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে।

চলতি মাসের শেষ দিকে মৃদু তাপপ্রবাহ বয়ে যাওয়ার পূর্বাভাসও রয়েছে। আবহাওয়া অধিদপ্তর জানায়, মঙ্গলবার দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল রাজশাহীতে ৩৭ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এছাড়া ঈশ্বরদীতে ৩৬ দশমিক ৫, খুলনায় ৩৫ দশমিক ৩, মংলায় ৩৫ দশমিক ২, যশোর ৩৭, চুয়াডাঙ্গায় ৩৬ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা ছিল।

ঢাকায় সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস হলেও ভ্যাপসা গরম অনুভূত হয় দিনভর। আবহাওয়াবিদ আরিফ হোসেন বলেন, “ঢাকায় দিনভর অস্বস্তিকর গরম ছিল। বাসার মেঝের স্যাঁতসেতে ভাব কাটতে দুপুর গড়িয়েছে। বুধবারও এমন আবহাওয়া থাকতে পারে।”

এপ্রিলের শেষ নাগাদ আবহাওয়ার পূর্বাভাসে তিনি বলেন, বাতাসে প্রচুর জলীয় বাষ্প থাকায় আকাশ আংশিক মেঘলা থাকবে, এসময় কোথাও কোথাও বৃষ্টি হতে পারে।

এরমধ্যেই তাপপ্রবাহ বয়ে যাওয়ার শঙ্কা প্রকাশ করে তিনি বলেন, “ইতোমধ্যে কয়েকটি এলাকায় সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস ছাড়িয়েছে। রাজশাহী ও খুলনা বিভাগের অনেক জায়গায় ৩৫-৩৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস রয়েছে। এটা বাড়লে মৃদু তাপপ্রবাহ বয়ে যেতে পারে।”

এ বিষয়ে আবহাওয়া অধিদপ্তরের সাবেক পরিচালক সমরেন্দ্র কর্মকার  বলেন, “ভারি বর্ষণের পর তাপমাত্রা বাড়তে থাকে। এসময় জলীয় বাষ্প উপরে উঠে মেঘ হয়ে দুয়েকদিন পর বৃষ্টি ঝরাতে পারে। পরিস্থিতির কয়েকদিন উন্নতির হলেও ফের বৃষ্টি হতে পারে।”

দেশের বিস্তীর্ণ অঞ্চলে ভারি বর্ষণ থেমে গেলেও সিলেট ও ময়মনসিংহের কিছু কিছু জায়গায় বৃষ্টি অব্যাহত থাকছে বলে আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে। মঙ্গলবার দেশের সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাত হয়েছে নেত্রকোণায় ২৯ মিলিমিটার। এছাড়া ময়মনসিংহে ২৫ মিলিমিটার, রাঙ্গামাটিতে ১১ মিলিমিটার, সিলেটে ২৩ মিলিমিটার ও শ্রীমঙ্গলে ২৫ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়।

 

একনেকে ৫৬০ মডেল মসজিদ স্থাপনসহ ১৩ প্রকল্প অনুমোদন

বাসস: প্রতিটি জেলা ও উপজেলায় একটি করে ৫৬০টি মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্র স্থাপনসহ মোট ১৩ প্রকল্পের চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি(একনেক)। এসব প্রকল্প বাস্তবায়নে মোট ব্যয় ধরা হয়েছে ২০ হাজার ৪০২ কোটি ৭৫ লাখ ৭৯ হাজার টাকা। এর মধ্যে সরকারি ও সংস্থার নিজস্ব তহবিল থেকে ৯ হাজার ৬৭২ কোটি ৭৫ লাখ ৭৯ হাজার টাকা এবং বৈদেশিক সহায়তা থেকে ১০ হাজার ৭৩০ কোটি টাকা ব্যয় করা হবে।

মঙ্গলবার রাজধানীর শেরেবাংলানগরে এনইসি সম্মেলন কক্ষে একনেক চেয়ারপারসন ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত একনেক বৈঠকে এ অনুমোদন দেওয়া হয়।

বৈঠক শেষে পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল প্রকল্প সম্পর্কে সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন।
পরিকল্পনামন্ত্রী জানান, প্রধানমন্ত্রী প্রত্যেক জেলায় আইটি পার্ক তৈরি করতে বলেছেন। যাতে তথ্য প্রযুক্তিতে মানুষ আরো বেশি জ্ঞানী হতে পারে। এছাড়া এলএনজি টার্মিনাল এখন থেকে সমুদ্রে তৈরি না করে ভূমিতে তৈরির নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।

মন্ত্রী আরো জানান, একনেক বৈঠকে নগর দারিদ্র সংক্রান্ত একটি প্রকল্প অনুমোদন না দিয়ে ফেরত দেওয়া হয়েছে। এর কারণ হচ্ছে শহরে বস্তির সংখ্যা বাড়ুক এটা প্রধানমন্ত্রী চাননা। তিনি বলেছেন, বস্তিবাসীদের জন্য সুউচ্চ ভবন নির্মাণ করতে হবে। এ বিষয়টি প্রকল্পে সঠিকভাবে অন্তর্ভুক্ত করার নির্দেশনা দেন তিনি।
মুস্তফা কামাল বলেন, দেশের বিভিন্ন জেলা ও উপজেলায় আধুনিক সুবিধা সম্বলিত মসজিদ বা ইসলামী স্থাপনা নেই। এ বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে সরকার সৌদি আরবের সহায়তায় সারাদেশে আধুনিক মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্র স্থাপনের উদ্যোগ নিয়েছে। এতে লাইব্রেরী, কোরআন পঠন, শিশুদের শিক্ষা সুবিধা, হজ্জ যাত্রী ও ইমামদের প্রশিক্ষণসহ নানাবিধ সুবিধা থাকবে।

তিনি জানান, এপ্রিল ২০১৭ থেকে ডিসেম্বর ২০১৯ মেয়াদে প্রকল্পটি বাস্তবায়ন হবে। এতে মোট ব্যয় হবে ৯ হাজার ৬২ কোটি ৪১ লাখ টাকা। এর মধ্যে সৌদি সরকারের কাছ থেকে পাওয়া যাবে ৮ হাজার ১৬৯ কোটি ৭৯ লাখ টাকা। বাকী ৮৯২ কোটি ৬২ লাখ টাকা বাংলাদেশ  সরকার নিজস্ব তহবিল থেকে ব্যয় করবে।
অনুমোদিত অন্য প্রকল্পসমূহ হচ্ছে- জেলা পর্যায়ে আইটি/হাইটেক পার্ক স্থাপন প্রকল্প, এর ব্যয় ধরা হয়েছে এক হাজার ৭৯৬ কোটি ৪০ লাখ টাকা। পটুয়াখালী গোপালগঞ্জ ৪০০ কেভি সঞ্চালন লাইন এবং গোপালগঞ্চ ৪০০ কেভি গ্রীড উপকেন্দ্র নির্মাণ প্রকল্প,এর ব্যয় ধরা হয়েছে ৩ হাজার ২৯৪ কোটি ২৪ লাখ টাকা। মহেশখালী-আনোয়ারা গ্যাস সঞ্চালন সমান্তরাল পাইপলাইন নির্মাণ প্রকল্প, এর ব্যয় ধরা হয়েছে ১ হাজার ১০৯ কোটি ২৩ লাখ টাকা।
 
এছাড়া কর্ণফুলি নদীর তীর বরাবর কালুরঘাট সেতু হতে চাক্তাই খাল পর্যন্ত সড়ক নির্মাণ প্রকল্প, এর ব্যয় ধরা হয়েছে ১ হাজার ৯৭৮ কোটি ৮৮ লাখ টাকা। গুরুত্বপূর্ণ আঞ্চলিক মহাসড়ক যথাযথ মান ও প্রশস্থতায় উন্নীতকরণ প্রকল্প, এর ব্যয় ৭৯৮ কোটি ১৫ লাখ টাকা। থানচি-রিমাকরি-মদক-লিকরি সড়ক নির্মাণ প্রকল্প, এর ব্যয় ধরা হয়েছে ৪৬৯ কোটি ৫৩ লাখ টাকা। কক্সবাজার-টেকনাফ-মেরিন ড্রাইভ সড়ক নির্মাণ প্রকল্প তৃতীয় পর্যায় প্রকল্প, এর ব্যয় ধরা হয়েছে ৪৫৫ কোটি ৮২ লাখ টাকা। সিলেট শহর বাইপাস-গ্যারিসন লিংক টু শাহ পরাণ সেতুঘাট সড়ক ৪ লেন মহাসড়কে উন্নয়ন প্রকল্প, এর ব্যয় ধরা হয়েছে ২৩৫ কোটি ৬৬ লাখ টাকা। খালিশপুর-মহেশপুর-দত্তনগর-জিন্নানগর-যাদবপুর মহাসড়ক প্রশস্তকরণ ও উন্নয়ন প্রকল্প, এর ব্যয় ধরা হয়েছে ৭৮ কোটি ৪০ লাখ টাকা। সুনামগঞ্জ টেক্সটাইল ইনস্টিটিউট স্থাপন প্রকল্প, এর ব্যয় ধরা হয়েছে ৯৭ কোটি ২২ লাখ টাকা। ঢাকা শহরে ৩টি পাইকারি কাঁচা বাজার নিমার্ণ প্রকল্প, এর ব্যয় ধরা হয়েছে ৩৫০ কোটি টাকা। থ্রিজি প্রযুক্তিকরণ চালু এবং ২ দশমিক ৫ জি নেটওয়াক সম্প্রসারণ প্রকল্প,এর ব্যয় ৬৭৫ কোটি টাকা।

 

 

 

বাংলাদেশে গড় আয়ু বেড়েছে আরও

বাংলাদেশের মানুষের প্রত্যাশিত গড় আয়ু আরও খানিকটা বেড়ে ৭১ বছর ছয় মাস হয়েছে বলে জানিয়েছেন পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। মঙ্গলবার একনেক বৈঠকের পর এক সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর (বিবিএস) ২০১৬ সালের একটি জরিপ প্রতিবেদনের এই তথ্য তিনি তুলে ধরেন।

পরিসংখ্যানব্যুরোর হিসাবে ২০১১ সালে বাংলাদেশের মানুষের প্রত্যাশিত গড় আয়ু ছিল ৬৯ বছর। ২০১৫ সালের জরিপের তথ্যে তা বেড়ে ৭০ বছর নয় মাস হওয়ার কথা জানানো হয় গতবছর জুনে। এবারের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বাংলাদেশে পুরুষদের প্রত্যাশিত গড় আয়ু ৭০ বছর ৩ মাস; আর নারীদের ৭২ বছর নয় মাস। নারী-পুরুষের গড়ে বাংলাদেশের মানুষের প্রত্যাশিত আয়ু এখন বিশ্বের গড়ের চেয়ে দুই মাস বেশি বলে মুস্তফা কামাল জানান। ২০১৬ সালে বিশ্বে প্রত্যাশিত গড় আয়ু ছিল ৭১ বছর ৪ মাস।

 

স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য রাষ্ট্রপতি লন্ডনে পৌঁছেছেন

বাসস : রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য গতকাল  লন্ডনে পৌঁছেছেন। রাষ্ট্রপতির উপ-প্রেস সচিব আবুল কালাম আজাদ বলেন, ‘এমিরেটস এয়ারলাইন্সের একটি ভিভিআইপি ফ্লাইট রাষ্ট্রপতিকে নিয়ে সন্ধ্যা ৬টা ৫৫ মিনিটে (লন্ডনের স্থানীয় সময়) হিথ্রো বিমানবন্দরে অবতরণ করে।’

বিমানবন্দরে রাষ্ট্রপতিকে স্বাগত জানান যুক্তরাজ্যে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনার মোহাম্মদ নাজমুল কাওনাইন। এর আগে গত সোমবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ তাঁর পতœী রাশিদা খানম এবং প্রেস সচিব মোহাম্মদ জয়নাল আবেদিনকে নিয়ে এমিরেটস-এর একটি ফ্লাইটে লন্ডনের উদ্দেশ্যে যাত্রা করেন।

রাষ্ট্রপতি লন্ডনের মুরফিল্ডস আই হসপিটালে চোখের চিকিৎসা এবং বুপা ক্রমওয়েল হাসপাতালে স্বাস্থ্য পরীক্ষা করাবেন। উপ-প্রেস সচিব বলেন, রাষ্ট্রপতি আগামি ৩ মে লন্ডন থেকে ঢাকার উদ্দেশ্যে রওয়ানা হবেন এবং ৪ মে বিকাল সাড়ে ৫টায় হজরত শাহজালাল (র.) আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এসে পৌঁছাবেন।

 

ঋণের কিস্তির জন্য জোর করবেন না: মায়া

অকালের বন্যায় হাওর অঞ্চলের ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের কাছ থেকে জোর করে ঋণের কিস্তি আদায় না করতে ক্ষুদ্রঋণ কার্যক্রম পরিচালনা করা এনজিওগুলোর প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন ত্রাণ ও পুনর্বাসন মন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া।

তার সঙ্গে থাকা যুব ও ক্রীড়া উপমন্ত্রী আরিফ খান জয়ও এর সমর্থনে বক্তব্য দিয়েছেন। মঙ্গলবার নেত্রকোণার বারহাট্টা উপজেলার চিরাম তাহেরা মান্নান স্মৃতি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করেন মন্ত্রী।

তিনি বলেন, “হাওরে ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের পাশে সরকার আছে। ফসল ঘরে না ওঠা পর্যন্ত আপনাদের সব ধরনের সহযোগিতা করা হবে। এনজিও যারা আছেন, তাদের বলছি, আগামী একবছর কৃষকদের কাছ থেকে ঋণের কিস্তি আদায়ে জোরাজুরি করবেন না।”

এরপর নেত্রকোণার সাংসদ আরিফ খান জয় ত্রাণ নিতে আসা কৃষকদের উদ্দেশে বলেন, “আগামী একবছর এনজিওর ‍ঋণের কিস্তি দেবেন না।” দুর্যোগ ব্যাবস্থাপনা ও ত্রাণ সচিব শাহ কামাল অকাল বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের জন্য সরকারি ত্রাণ তৎপরতার বিভিন্ন তথ্য অনুষ্ঠানে তুলে ধরেন।

কৃষকদের উদ্দেশে তিনি বলেন, “সরকার আপনাদের জন্য কী কী ত্রাণ বরাদ্দ করেছে কতটুকু বরাদ্দ হয়েছে তা জেনে নিয়ে আপনারা ত্রাণ গ্রহণ করবেন। ত্রাণ বিতরণে কোনো অনিয়ম হলে সহ্য করা হবে না।”

ত্রাণ নিতে আসা বারহাট্টা উপজেলার সাবাদিয়াবাড়ি গ্রামের কৃষক আয়নাল হক (৫৫) জানান, তিনি এ বছর ১৬ কাঠা জমিতে বোরো চাষ করেছিলেন। ১৫ দিন আগে ঢলের পানিতে সব ধান তলিয়ে যায়।

সেই ঢলের পর এই প্রথম ত্রাণ পেলেন জানিয়ে  তিনি বলেন, “উপাস থাকছি। বর্তমানে বাঁচন যাইত না।” সাইফুদ্দিন (৬০) নামে আরেক কৃষক জানান, তার নয় কাঠা জমির ধান তলিয়ে গেছে। স্থানীয় চেয়ার‌ম্যান ও ইউপি সদস্যদের পক্ষ থেকে এর আগে তার এলাকায় ত্রাণ দেওয়া হলেও তা পাননি বলে জানান তিনি।

“বড় বড় যারা, তারাই পাইছে। আমরারে দেয় নাই।”

সালেহা বেগম নামে এক গৃহিনী জানান, কয়েকদিন আগে চেয়ারম্যানের কাছ থেকে তিনি দুই কেজি চাল পেয়েছিলেন। মন্ত্রী আসার খবর পেয়ে আবার এসেছেন ত্রাণের আশায়।

ত্রাণ বিতরণ অনুষ্ঠানে ৩৩০ জন ‍কৃষককে ১৫ কেজি করে চাল এবং ৫০০ টাকা করে নগদ সহায়তা দেওয়া হয়। তবে মাঠে ত্রাণ নিতে আসা মানুষের সংখ্যা ছিল আরও বেশি।

 

প্রধানমন্ত্রীর সহকারী প্রেস সচিব আশরাফ সিদ্দিকী

প্রধানমন্ত্রীর প্রেস উইংয়ের সহকারী সচিব হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন মু. আশরাফ সিদ্দিকী (বিটু)।  সোমবার জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব আফসারী খানম স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনে তাকে এ পদে নিয়োগ দেয়া হয়। প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, অন্যান্য প্রতিষ্ঠান ও সংগঠনের সঙ্গে কর্মসম্পর্ক পরিত্যাগের শর্তে তাকে যোগদানের তারিখ থেকে এক বছর মেয়াদে প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের প্রেস উইংয়ের সহকারী সচিব পদে চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ দেয়া হলো। ময়মনসিংহের সদর উপজেলার মাসকান্দার অ্যাডভোকেট আবু বকর সিদ্দিকের সন্তান আশরাফ সিদ্দিকী বিটু বর্তমানে আওয়ামী লীগের সেন্টার ফর রিসার্চ অ্যান্ড ইনফরমেশন (সিআরআই) এর পরিচালক হিসেবে কর্মরত। তিনি ২০০৬ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বায়োক্যামিস্ট্রিতে স্নাতোকোত্তর ডিগ্রি লাভ করেন।

রানা প্লাজার আহত কোনো শ্রমিক বেকার নেই: বিজিএমইএ

 রানা প্লাজা ধসে আহত পোশাককর্মীদের ৪৪ শতাংশ এখনও বেকার বলে যে দাবি একশন এইড তুলেছে, তা প্রত্যাখ্যান করেছে মালিকদের সংগঠন বিজিএমইএ। পোশাক শিল্প মালিকদের সংগঠনের সভাপতি সিদ্দিকুর রহমান বলেছেন, কর্মহীন থাকার প্রমাণ নিয়ে কেউ হাজির হলে তারা চাকরিরর ব্যবস্থা করবেন।

২০১৩ সালের ২৪ এপ্রিল সাভারে রানা প্লাজা ধসে পড়লে সেখানে থাকা পাঁচটি তৈরি পোশাক কারখানার শ্রমিকসহ ১১০০ জনের বেশি প্রাণ হারায়। আহত হন হাজারের বেশি শ্রমিক। একশন এইড গত ২২ এপ্রিল এক গবেষণা প্রতিবেদনে জানায়, আহত শ্রমিকদের ৪৪ শতাংশ চার বছর পরও বেকার আছেন। এর ২৬ শতাংশ জীবিকার জন্য কোনো পরিকল্পনা করতে পারছেন না।

সোমবার জুরাইন কবরস্থানে নিহত শ্রমিকদের কবরে ফুল দিয়ে বিজিএমইএ সভাপতি সিদ্দিকুর একশন এইডের তথ্যের সঙ্গে দ্বিমত প্রকাশ করে বলেন, প্রমাণ নিয়ে আসলে শ্রমিকদের চাকরি দিতে প্রস্তুত তারা। ক্ষতিগ্রস্ত শ্রমিকদের ক্ষতিপূরণ ও চাকরির ব্যবস্থা করা হয়েছে। ফান্ডে এখনও মিলিয়ন মিলিয়ন ডলার পড়ে আছে। আমরা প্রমাণের অভাবে বিতরণ করতে পারছি না। অনেকে আসেন, কিন্তু পর্যাপ্ত প্রমাণ তাদের কাছে নেই। সে কারণে টাকাও বিতরণ করতে পারি না। রানা প্লাজা দুর্ঘটনার পর ২০১৪ সালে বিদেশি ক্রেতা ও কয়েকটি আন্তর্জাতিক শ্রমিক সংগঠন হতাহতদের পরিবারকে সহায়তা দিতে ৪ কোটি ডলারের একটি তহবিল গঠনের ঘোষণা দিয়েছিল। পরে রানা প্লাজার ক্ষতিগ্রস্তদের সহযোগিতায় আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থা (আইএলও) গঠিত ‘ডোনার ট্রাস্ট ফান্ডে’ এক কোটি ৭০ লাখ ডলার অনুদান দেয় বিশ্বের বিভিন্ন ক্রেতা প্রতিষ্ঠান, যার কিছু অংশ বিতরণ করা হয়েছে। রানা প্লাজার আহত এক হাজার ৪০৩ জন শ্রমিকের ওপর জরিপ চালিয়ে প্রতিবেদনটি প্রকাশ করে একশন এইড। গবেষণায় ৬০৭ জন মৃত শ্রমিকের পরিবারকেও নমুনা হিসেবে নেওয়া হয়। সিদ্দিকুর বলেন, এই প্রতিবেদনের সঙ্গে আমি সম্পূর্ণরূপে দ্বিমত পোষণ করছি। রানা প্লাজায় আহত কোনো শ্রমিক এখনও বেকার নেই। যদি কেউ প্রমাণ দিতে পারে যে সে রানা প্লাজা দুর্ঘটনায় আহত, তাহলে তার পুনর্বাসনের ব্যবস্থা বিজিএমইএ করবে। বিজিএমইএর পক্ষ থেকে আমরা আগেও বলেছি, এখনও বলছি, অনেকে এসেছে, তাদের চাকরির ব্যবস্থা করা হয়েছে। এখনও কেউ আসলে চাকরির ব্যবস্থা করার প্রতিশ্রুতি আমরা দিচ্ছি। জুরাইন কবরস্থানে বিজিএমইএ সভাপতির সঙ্গে সহ-সভাপতি এস এম মান্নান কচি, মাহমুদ হাসান খান বাবু, পরিচালক মনির হোসেন, আ ন ম সাইফুদ্দিন, আনোয়ার কামাল পাশাসহ সংগঠনটির নেতারা ছিলেন।

 

বিরূপ আবহাওয়ায় নৌ-চলাচল বন্ধ

ঝড়ো হাওয়ার কারণে সারা দেশে অভ্যন্তরীণ নৌ চলাচল বন্ধ রেখেছে বিআইডব্লিউটিএ। দেশের অভ্যন্তরীণ নৌ-চলাচল নিয়ন্ত্রণকারী এ সংস্থার জনসংযোগ কর্মকর্তা মোহাম্মদ মোবারক হোসেন মজুমদার জানান, সোমবার সকাল ১০টা থেকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত অভ্যন্তরীণ সব রুটের নৌ চলাচল বন্ধ থাকবে।

তিনি বলেন, “আবহাওয়া খারাপ থাকায় নদী বন্দরগুলোতে দুই নম্বর সতর্কতা সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে। ঝড়ো হাওয়ার কারণে নৌ চলাচল বন্ধ রাখা হয়েছে।”

গত শুক্রবার থেকেই দেশের বিভিন্ন স্থানে মাঝারি থেকে ভারি বৃষ্টি চলছে। রোববার রাতে এবং সোমবার সকালে ঢাকার বিভিন্ন স্থানে কয়েক দফা কালবৈশাখীর সঙ্গে হয়েছে তুমুল বৃষ্টি।

ঢাকা সদরঘাটে কর্মরত বিআইডব্লিউটিএর পরিবহন পরিদর্শক (টিআই) মোহাম্মদ হুমায়ুন কবির  জানান, আবহাওয়ার পূর্বাভাসে ২ নম্বর সতর্কতা সংকেত দেখাতে বললে ৬৫ ফুটের বেশি দীর্ঘ নৌযানগুলো চলাচল করতে পারে।

“কিন্তু ঝড়ো হওয়া ও বৃষ্টির কারণে সকাল সাড়ে ১০টার পর সব নৌযান চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হয়।” তিনি জানান, সকাল সাড়ে ১০টার আগে সদরঘট থেকে পাঁচটি লঞ্চ দেশের দক্ষিণাঞ্চলের বিভিন্ন গন্তব্যের উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায়।

 

উপ সচিব হলেন ২৬৭ কর্মকর্তা

জ্যেষ্ঠ সহকারী সচিব পর্যায়ের ২৬৭ জন কর্মকর্তাকে উপ সচিব হিসেবে পদোন্নতি দিয়েছে সরকার। জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়  রোববার এই আদেশ জারি করে রেওয়াজ অনুযায়ী পরবর্তী পদায়নের জন্য তাদের ওএসডি করেছে। তবে উপ সচিবের স্থায়ী পদের চেয়ে কর্মকর্তার সংখ্যা বেশি হওয়ায় কীভাবে এই পদায়ন হবে তা এখনও স্পষ্ট নয়। এর আগে গতবছর ২৭ নভেম্বর একসঙ্গে প্রশাসনের ৫৩৬ কর্মকর্তাকে পদোন্নতি দেওয়া হয়। ওই সময় ২০৫ জন জ্যেষ্ঠ সহকারী সচিব পদোন্নতি পেয়ে উপসচিব হন। তখনই উপসচিবের মোট সংখ্যা দাঁড়িয়েছিল ১ হাজার ৪৭৯ জন, যদিও উপসচিবের স্থায়ী পদের সংখ্যা সাড়ে আটশর মত। জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের একজন কর্মকর্তা  বলেন, ‘নতুন করে ২২তম ব্যাচের কর্মকর্তাদের উপ-সচিব হিসেবে পদোন্নতি দেওয়া হয়েছে, পদোন্নতি পাওয়া বেশিরভাগ কর্মকর্তাই ওই ব্যাচের।’ এছাড়া পুরানো ব্যাচের পদোন্নতি বঞ্চিত হাতেগোনা কয়েকজন কর্মকর্তাকেও উপ-সচিব করা হয়েছে বলে জানান তিনি।

 

সরকার শিক্ষায় সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দিচ্ছে : প্রধানমন্ত্রী

করতোয়া ডেস্ক: শিক্ষার জন্য নানা সুযোগ সৃষ্টির কথা তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, একমাত্র শিক্ষাই পারে দেশকে দারিদ্র্যমুক্ত করতে। গতকাল রোববার নিজের কার্যালয়ে শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্টের উপদেষ্টা পরিষদের চতুর্থ সভায় প্রধানমন্ত্রী এ কথা বলেন। পরে প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম সাংবাদিকদের সামনে বৈঠকের বিভিন্ন তথ্য তুলে ধরেন। তিনি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, সরকার শিক্ষাকে সব থেকে বেশি গুরুত্ব দিচ্ছে।’ শেখ হাসিনা সভায় বঙ্গবন্ধুর শিক্ষানীতির কথা তুলে ধরে বলেন, তিনি প্রাথমিক শিক্ষাকে অবৈতনিক ও বাধ্যতামূলক করেছিলেন, নারী শিক্ষার ওপর গুরুত্ব দিয়েছিলেন। বঙ্গবন্ধুর সময়ে ৩৬ হাজারের বেশি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের জাতীয়করণ হয়েছিল। আর পরবর্তীতে আওয়ামী লীগ সরকারের সময়ে ২৬ হাজারের বেশি প্রাথমিক বিদ্যালয় জাতীয়করণের কথাও শেখ হাসিনা মনে করিয়ে দেন। তিনি বলেন, আওয়ামী লীগের সময়ে মানুষ শিক্ষার সুযোগ পেলেও যারা ‘অবৈধভাবে ক্ষমতা কুক্ষিগত’ করে রেখেছিল, তাদের সময়ে মানুষ ‘অবহেলিত’ ছিল। প্রেস সচিব বলেন, প্রধানমন্ত্রী বিনামূল্যে বই বিতরণ, সরাসরি অভিভাবকদের হাতে বৃত্তি-উপবৃত্তি পৌঁছে দেওয়া, কম্পিউটারের শুল্ক ছাড়সহ বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধার কথা তুলে ধরে সভায় বলেন, তার সরকার শিক্ষার্থীদের স্কুলে যাওয়ার সুযোগ সৃষ্টি করে দিচ্ছে। প্রত্যন্ত হাওর ও পাহাড়ি দুর্গম এলাকায় আবাসিক স্কুল চালুর কার্যক্রমের কথাও প্রধানমন্ত্রী সভায় তুলে ধরেন। প্রেস সচিব বলেন, ২০১৫-২০১৬ বছরে সরকার ২ হাজা ৪৬৬ কোটি ৪৬ লাখ টাকার মেধাবৃত্তি, বৃত্তি ও অন্যান্য বৃত্তি দিয়েছে। শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রী মোস্তাফিজুর রহমান, পরিকল্পনা মন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল, বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের চেয়ারম্যান অধ্যাপক আব্দুল মান্নান, এফবিসিসিআই সভাপতি আবদুল মাতলুব আহমাদ, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সচিব সুরাইয়া বেগম এ সভায় উপস্থিত ছিলেন।

রাষ্ট্রপতি চিকিৎসার জন্য লন্ডন যাচ্ছেন

করতোয়া ডেস্ক: চোখের চিকিৎসা ও স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য দশ দিনের সফরে যুক্তরাজ্য যাচ্ছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। তার প্রেস সচিব মো. জয়নাল আবেদীন  বলেন, সোমবার সন্ধ্যায় এমিরেটস এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইটে রাষ্ট্রপতি লন্ডনের উদ্দেশ্যে যাত্রা করবেন। লন্ডনের মুরফিল্ড আই হসপিটালে চোখের চিকিৎসা এবং বুপা ক্রমওয়েল হসপিটালে স্বাস্থ্য পরীক্ষা করাবেন রাষ্ট্রপতি। আগামী ৪ মে তার দেশে ফেরার কথা রয়েছে বলে প্রেস সচিব জানিয়েছেন। এর আগে গত বছর অগাস্টেও লন্ডন সফর করেন রাষ্ট্রপতি হামিদ। এবারের সফরে স্ত্রী রাশিদা খানম এবং পরিবারের কয়েকজন সদস্যও তার সঙ্গে থাকছেন। এছাড়া বঙ্গভবনের কয়েকজন কর্মকর্তাও তার সফরসঙ্গী হচ্ছেন। ৭৪ বছর বয়সী আবদুল হামিদ দীর্ঘদিন ধরে গ্লুকোমায় ভুগছেন। স্পিকার থাকা অবস্থায় চিকিৎসার জন্য নিয়মিত তাকে সিঙ্গাপুরে যেতে হত।

মুক্তিযোদ্ধা ও তাদের স্বজনদের অনুদান প্রধানমন্ত্রীর

করতোয়া ডেস্ক: একাত্তরের বীরশ্রেষ্ঠদের উত্তরাধিকারী এবং খেতাবপ্রাপ্ত মুক্তিযোদ্ধা ও তাদের উত্তরাধিকারীদের আর্থিক অনুদান দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। গতকাল রোববার সকালে প্রধানমন্ত্রী তার কার্যালয়ে তাদের হাতে অনুদানের চেক তুলে দেন।

বীরশ্রেষ্ঠ মোস্তফা কামালের মা মোছাম্মৎ মালেকা বেগম, বীরশ্রেষ্ঠ নুর মোহাম্মদের মা মোছা. ফজিলা খাতুন, বীর উত্তম শাহ আলমের স্ত্রী মোছা. ফাতেমা খাতুন, বীর উত্তম আব্দুস সাত্তার, বীর বিক্রম আবুল বাশারের ছেলে মহিন উদ্দিন, বীর বিক্রম জগৎ জ্যোতি দাসের বোন ফুলু রানী রায়, বীর প্রতীক খলিলুর রহমান, বীর প্রতীক আব্দুল আলিমের স্ত্রী মোছা. জরিনা খাতুন, বীর প্রতীক নজরুল ইসলামের স্ত্রী রওনক জাহান, বীর প্রতীক সামছুল হকের স্ত্রী আনোয়ারা বেগম, বীর প্রতীক মোক্তার আলী প্রধানমন্ত্রীর হাত থেকে চেক গ্রহণ করেন। একজন মুক্তিযোদ্ধা বিদেশে থাকায় তার পক্ষে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের একজন কর্মকর্তা চেক গ্রহণ করেন। প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম সাংবাদিকদের জানান, প্রত্যেককে তিন লাখ টাকা করে অনুদান দেওয়া হয়েছে। চেক প্রদানকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বীরশ্রেষ্ঠদের উত্তরাধিকারী এবং খেতাবপ্রাপ্ত মুক্তিযোদ্ধা ও তাদের উত্তরাধীকারীদের সঙ্গে কুশল বিনিময় করেন। প্রধানমন্ত্রীকে কাছে পেয়ে অনেকে আবেগাপ্লুত হন এবং তাকে জড়িয়ে ধরেন। শেখ হাসিনাও তাদের মনের কথা শোনেন।

 

পবিত্র লাইলাতুল মি’রাজ আজ

করতোয়া ডেস্ক: আজ সোমবার  পবিত্র লাইলাতুল মি’রাজ। যথাযোগ্য ধর্মীয় মর্যাদা ও ভাবগাম্ভীর্য পরিবেশে আজ দিবাগত রাতে (২৬ রজব দিবাগত রাতে) সারাদেশে পবিত্র লাইলাতুল মি’রাজ পালিত হবে।

এ উপলক্ষে ইসলামিক ফাউন্ডেশন আজ সন্ধ্যা ৬ টা ৪৫ মিনিটে (বাদ মাগরিব) বায়তুল মুকাররম জাতীয় মসজিদে ওয়াজ ও মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করেছে। ওয়াজ করবেন ঢাকার নারিন্দাস্থ দারুল উলুম আহছানিয়া কামিল মাদ্রাসার প্রিন্সিপাল হযরত মাওলানা আবু জাফর মুহাম্মদ হেলাল উদ্দিন এবং বায়তুল মুকাররম জাতীয় মসজিদের সিনিয়র পেশ ইমাম হাফেজ মাওলানা মুহাম্মদ মিজানুর রহমান।সভাপতিত্ব করবেন ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক সামীম মোহাম্মদ আফজাল।

রানা প্লাজা দুর্ঘটনার চার বছর পূর্তি আজ

রাজধানীর অদূরে সাভারে রানা প্লাজা দুর্ঘটনার চার বছর পূর্তি হচ্ছে আজ। ২০১৩ সালের ২৪ এপ্রিল সাভারে রানা প্লাজা ধসে সেখানে থাকা পাঁচটি তৈরি পোশাক কারখানার শ্রমিকসহ ১১০০ জনের বেশি প্রাণ হারায়। ধ্বংসস্তুপের নিচে পড়ে গুরুতরভাবে আহত ও পঙ্গু হওয়ার পাশাপাশি নিখোঁজ হন অনেকেই।

দিবসটি উপলক্ষে  রোববার রাজধানীতে আয়োজিত এক মানববন্ধন থেকে চার বছর আগের ওই মামলার বিচার শেষ করা নিয়ে সরকারের ‘আন্তরিকতা’ নিয়েও প্রশ্ন তোলা হয়। একই সাথে দুর্ঘটনায় শ্রমিক হতাহতের ঘটনায় দায়ের করা মামলার বিচারকাজ দ্রুত শেষ করার দাবি জানিয়েছেন শ্রমিক নেতারা।

জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে ‘গার্মেন্টস শ্রমিক ও শিল্প রক্ষা জাতীয় মঞ্চ’ আয়োজিত মানববন্ধনে সভাপতিত্ব করেন মঞ্চের সমন্বয়কারী আবুল হোসাইন। এতে বক্তব্য রাখেন শ্রমিক নেতা তপন সাহা, বাহরানে সুলতান বাহার, আব্দুল ওয়াহেদ, শফিকুল ইসলাম ও শহীদ্ল্লুাহ বাদল।তপন সাহা বলেন, দুর্ঘটনার চার বছর পার হলেও সরকার এখন পর্যন্ত দোষী ব্যক্তিদের শাস্তির ব্যবস্থা করতে পারেনি। সরকার বহু বছর আগের যুদ্ধাপরাধীদের বিচার করতে পেরেছে। কিন্ত রানাপ্লাজা দুর্ঘটনার বিচার শেষ করতে পারেনি। ধীর গতিতে বিচার চলছে বলেও অভিযোগ করেন তপন সাহা। ওই ঘটনায় ৪১ জনের নামে চার্জশিট দেওয়া হলেও তার মধ্যে সোহেল রানাসহ মাত্র তিনজন আটক আছে। বাকিরা জামিন নিয়ে বাইরে আছে।সরকার আন্তরিক উদ্যোগ নিলে বিচার প্রক্রিয়া অনেক আগেই শেষ হতো। রানাসহ দোষীদের দ্রুত শাস্তির ব্যবস্থা, ২৪ এপ্রিলকে ‘শ্রমিক শোক দিবস’ ঘোষণা এবং তৈরি পোশাক খাতসহ সব শ্রমিকের জন্য নিরাপদ কর্মস্থল দাবি করেন বক্তারা। রানা প্লাজা দুর্ঘটনার পর ভবন ধসে প্রাণহানির ঘটনায় হত্যার অভিযোগে একটি, ইমারত বিধি না মেনে রানা প্লাজা নির্মাণের অভিযোগে একটি এবং দুদকের পক্ষ থেকে ভবন নির্মাণে দুর্নীতির অভিযোগে আরেকটি মামলা করা হয়। এর মধ্যে ভবন ধসের ঘটনায় হত্যাসহ বিভিন্ন অভিযোগে ভবন মালিক সোহেল রানাসহ ৪১ আসামির বিরুদ্ধে ঢাকার জেলা দায়রা জজ আদালতে গত বছরের ১৮ জুলাই থেকে বিচারকাজ শুরু হয়েছে।

রামপালে বিদ্যুৎকেন্দ্র হলে জাতীয় বিপর্যয় নেমে আসবে

রামপালে কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণ হলে জাতীয় বিপর্যয় নেমে আসবে বলে মত দিয়েছেন বিশিষ্টজনেরা। একই সঙ্গে সরকারের প্রতি বিদ্যুৎকেন্দ্র প্রকল্পের পুনর্বিবেচনার আহ্বান জানিয়ে তারা বলেন, সারা পৃথিবীতে কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের পদ্ধতি পরিত্যক্ত ও ক্ষতিকর। যা বাংলাদেশের কোথাও হতে পারে না।

শনিবার দুপুরে সিরডাপ মিলনায়তনে সেভ দ্য সুন্দরবন ফাউন্ডেশনের আয়োজিত ‘রামপাল কয়লাভিত্তিক তাপ বিদ্যুৎকেন্দ্র: সুন্দরবনের জীববৈচিত্রের ওপর প্রভাব’ শীর্ষক বৈঠকে এসব মত প্রকাশ করেন তারা। অনুষ্ঠানে সাবেক রাষ্ট্রপতি ডা. একিউইউএম বদরুদ্দোজা চৌধুরী বলেন, এ প্রকল্পের বিরুদ্ধে যারা কথা বলছেন তারা দেশবিরোধী বা বিদ্যুৎবিরোধী নয়,  প্রধানমন্ত্রীর কাছে আহ্বান শেষবারের মতো বিশেষজ্ঞদের মাধ্যমে পরীক্ষা চালিয়ে বিষয়টি বিবেচনায় আনুন। বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান বলেন, কোনো ধরনের পরীক্ষা-নিরীক্ষা ছাড়া অনিয়ম দিয়ে এ প্রকল্প শুরু হয়েছে। গণ স্বার্থবিরোধী এ প্রকল্পের কাজ চলছে। আমরা ফারাক্কা বাঁধ রক্ষা করতে পারিনি, সুন্দরবন রক্ষা করতে না পারলে আমরা কেউ বাঁচবো না। বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান মেজর জে. খন্দকার ইব্রাহীম বীর প্রতীক বলেন, বর্তমান পররাষ্ট্রনীতির মাধ্যমে দেশের প্রতিরক্ষা ও নিরাপত্তাকে হুমকির মুখে ফেলেছে সরকার।

এর বিরুদ্ধে গণ আন্দোলনের বিকল্প নেই। নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না বলেন, আজকে ভয়ের সংস্কৃতিকে ভেঙে সাহস নিয়ে সবাইকে কথা বলতে হবে। বিকল্প চিন্তা করতে হবে। ১৩২০ মেগাওয়াট বিদ্যুতের জন্য সুন্দরবন ধ্বংস হতে দেবো না। সুন্দরবন রক্ষায় এ প্রকল্পের বিরুদ্ধে জনগণকে আরও সোচ্চার হতে হবে। এ প্রকল্পের বিরুদ্ধে জনগণকে সঙ্গে নিয়ে যুক্তফ্রন্ট গঠন করে সব রাজনৈতিক দলগুলোকে আন্দোলনে নামার আহ্বান জানান গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডাক্তার জাফরুল্লাহ চৌধুরী। সেভ দ্য সুন্দরবন ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান ড. খ ফরিদুল ইসলামের সভাপতিত্বে বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জেএসডি-রব) সভাপতি আসম আব্দুর রব, গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়ক জোনায়েদ সাকী প্রমুখ।

রাজধানীর ট্রাফিক নিয়ন্ত্রণে সেনাবাহিনীকে চায় জাতীয় কমিটি

রাজধানীর যানজট হ্রাস ও ত্রুটিপূর্ণ গাড়ি চলাচল বন্ধে সেনাবাহিনীকে ট্রাফিক ব্যবস্থাপনার দায়িত্ব দেওয়ার সুপারিশ করেছে নৌ, সড়ক ও রেলপথ রক্ষা জাতীয় কমিটি। গতকাল শনিবার রাজধানীর পুরানা পল্টনে মুক্তি ভবনে এক সংবাদ সম্মেলনে এ সুপারিশ তুলে ধরা হয়। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, সংগঠনের উপদেষ্টা নুরুর রহমান সেলিম, ভারপ্রাপ্ত সভাপতি তুষার রহমান, সাধারণ সম্পাদক আশীষ কুমার দে, সহ সভাপতি হাজী শহীদ, যুগ্মসম্পাদক সেকান্দার হায়াত, অর্থ সম্পাদক পুষ্পেন রায় ও প্রচার সম্পাদক জসি শিকদার প্রমুখ।

সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের নির্দেশে গত ১৬ থেকে ১৯ এপ্রিল পর্যন্ত রাজধানীতে বিআরটিএ পরিচালিত অভিযানে এক শ্রেণীর বাস মালিক ও শ্রমিকদের দৌরাত্ম্য আর তীব্র পরিবহন সংকটে যাত্রীদের অবর্ণনীয় দুভোগ-দুর্দশার চিত্র দেশের গণমাধ্যমে শীর্ষ সংবাদ হয়েছে। অথচ শক্তহাতে ও বিচক্ষণতার সঙ্গে পরিস্থিতি মোকাবিলা না করে পূর্বঘোষিত দীর্ঘমেয়াদী এই অভিযান স্থগিতের মধ্যদিয়ে পরিবহন মালিক শ্রমিকদের অন্যায্য দাবির কাছে সরকার নিলজ্জ্ব আত্মসমর্পণ করেছে।

সরকারের পিছুটানের এ ঘটনায় অরাজকতার চিত্র আরও স্পষ্ট হয়ে উঠেছে। তাই পরিবহন সেক্টরে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনতে কিছু সুপারিশ করা হয়েছে। সুপারিশগুলো হলো- রাজধানীর যানজট হ্রাস ও ত্রুটিপূর্ণ গাড়ি চলাচল বন্ধে সেনাবাহিনীকে ট্রাফিক ব্যবস্থাপনার দায়িত্ব দেওয়া, চাঁদাবাজির হাত থেকে সাধারণ পরিবহন মালিকদের রক্ষায় রাজধানীর বাস টার্মিনালে সেনা সদস্য মোতায়েন, সাংবিধানিক কিংবা সরকারের শীর্ষপদে অধিষ্ঠিতদের মালিক বা শ্রমিক সংগঠনের নেতৃত্বে না থাকার আইন প্রণয়ন, বিআরটিসি বাস বেসরকারি প্রতিষ্ঠানকে ইজারা দেওয়ার প্রথা বাতিল, বিআরটিসির বহরে আরও বাস যুক্ত করা, প্রয়োজনীয় সংখ্যক ট্যাক্সিক্যাব আমদানির ব্যবস্থা,

সিএনজি অটোরিক্সা মিটারে চলাচলে বাধ্যকরণ, রাজধানীর চারপাশে নৌপথ সচলকরণ, পরিবহন কর্মীদের লাইসেন্স ও নিয়োগপত্র প্রদান, টাউন সার্ভিসে শিক্ষার্থীদের হাফ ভাড়া, মহানগীরতে স্কুল শিক্ষার্থীদের জন্য শিক্ষা সার্ভিস চালু করা। এছাড়াও বিআরটিএ’র অভিযান সারা বছর পরিচালনা করা, দুর্ঘটনা কমাতে শ্রমিকদের প্রশিক্ষণ প্রদান, দুর্ঘটনার জন্য দায়ী চালক হেলপারের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা, মালিকপক্ষ থেকে ক্ষতিগ্রস্থদের জন্য ক্ষতিপূরণ আদায়ে আইন প্রণয়নেরও সুপারিশ করা হয়।

 

শাহজালালে ২৫৫ কার্টন সিগারেটসহ যাত্রী আটক

হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে আমদানি নিষিদ্ধ ২৫৫ কার্টন বিদেশী সিগারেটসহ বেলাল নামে এক যাত্রীকে আটক করেছেন শুল্ক গোয়েন্দারা। গত শুক্রবার দিনগত রাত আড়াইটার দিকে গ্রিন চ্যানেল এলাকা থেকে তাকে ওই ১৫ টি কার্টনে মোট ৫১ হাজার শলাকা সিগারেট রয়েছে। শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদফতরের মহাপরিচালক (ডিজি) ড. মইনুল খান বলেন, বেলাল দুবাই থেকে কুয়েত হয়ে কুয়েত এয়ারওয়েজের কেইউ-২৮৩ ফ্লাইটে রাত ২টা ২০ মিনিটের দিকে শাহজালালে বিমানবন্দরে নামেন। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তাকে আটক করা হয়।



Go Top