রাত ১:১৮, বৃহস্পতিবার, ২৮শে জুন, ২০১৭ ইং
/ আর্ন্তাজাতিক

করতোয়া ডেস্ক: সিরিয়া সরকার দেশটির ভেতরেই রাসায়নিক হামলা চালানোর পরিকল্পনা করছে বলে মার্কিন সরকার যে দাবি করেছে রাশিয়া তা নাকচ করে দিয়েছে। এ ধরণের অভিযোগ গ্রহণযোগ্য নয় বলে জানিয়েছে রাশিয়া।রুশ প্রেসিডেন্টের মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকোভ বলেছেন, সিরিয়ার বৈধ সরকারের বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ গ্রহণযোগ্য নয়। পাশাপাশি মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সরকার ‘আরেকটি রাসায়নিক হামলা চালানোর’ যে বাক্য ব্যবহার করেছে তারও নিন্দা করেন রুশ মুখপাত্র।

তিনি আরো বলেন, রাশিয়ার আহ্বান সত্ত্বেও এপ্রিল হামলার স্বতন্ত্র কোনো তদন্ত করা হয়নি। তাই মস্কো মনে করে সিরিয়ার সশস্ত্র বাহিনীর বিরুদ্ধে হামলার দায় চাপানো সম্ভব নয় বলে জানান তিনি। এদিকে, মস্কোর প্রবীণ আইন প্রণেতা ফ্রানতজ ক্লিনতসেভিচ এ সংক্রান্ত মার্কিন সতর্কতাকে নাকচ করে দিয়েছেন।

মার্কিন এ সতর্কতাকে উসকানি হিসেবে অভিহিত করেন রুশ সংসদের উচ্চকক্ষের প্রতিরক্ষা ও নিরাপত্তা কমিটির প্রথম উপ চেয়ারম্যান ক্লিনতসেভিচ। ‘আমরা এখানে থাকার সাহস পাচ্ছি না। মুসলিমরা আমাদের উপর হামলা করবে এমন গুজব ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়েছে।’

১৩১তম জন্মদিন পালন করলেন মুসলিম নারী

করতোয়া ডেস্ক: বিশ্বের সবচেয়ে বয়স্ক জীবিত নারী ‘আলিমিহান সেইটি’ পালন করলেন তার ১৩১ তম জন্মদিন। ২৫ জুন ৫৬ জন নাতী-নাতনিদের নিয়ে বেশ ভালোভাবেই জন্মদিন উদযাপন করলেন চীনের এই মুসলিম নারী।পশ্চিম চীনের জিনজিআঙ্গ প্রদেশে বসবাস করেন সেইটি ।

পরিচয় পত্র অনুযায়ি তার জন্ম তারিখ দেওয়া আছে ১৮৮৬ সাল। ওই সময় চীনে ছিল গুয়াঙজু সম্রাটের শাষন। বয়স অনুযায়ি এখনো বেশ তরতাজা রয়েছেন সেইটি। নিজ বাড়িয়ে পাঁচ প্রজন্ম মিলে এবারের জন্মদিন পালন করলেন তিনি। ডাক্তারদের মতে, সেইটি সম্পুর্ন সুস্থ। রক্ত চাপ, সুগার সবই আছে পরিমিত। এই বয়সে এতো ভালো শারীরিক অবস্থা থাকাও বেশ আশ্চর্যজনক।

কলম্বিয়ার ফার্ক বিদ্রোহীদের অস্ত্র প্রদান সমাপ্তি

করতোয়া ডেস্ক: কলম্বিয়ার ফার্ক বিদ্রোহীরা আনুষ্ঠানিকভাবে সরকারের কাছে অস্ত্র জমা দেওয়া শেষ করেছে। গত বছর ফার্ক সংগঠনের সঙ্গে এক শান্তি চুক্তি করে কলম্বিয়া সরকার। ওই চুক্তির শর্ত অনুযায়ি ফার্ক বিদ্রোহীদের অস্ত্র প্রদানের শেষ দিন ছিল সোমবার। কলম্বিায়ার মেসাটেস শহরে ফার্ক সংগঠনের একটি ঘাঁটিতে অস্ত্র জমা দেওয়ার শেষ দিনে বক্তব্য রাখেন প্রেসিডেন্ট জন ম্যানুয়াল সান্তোস ও বিদ্রোহী নেতা রোদ্রিগো লন্ডনো। এ সময় প্রেসিডেন্ট সান্তোস শান্তি চুক্তি সম্পর্কে বলেন, এটি ছিল বাস্তবসম্মত ও অপরিবর্তনীয়।

 আর ফার্ক নেতা রোদ্রিগো লন্ডনো বলেছেন , সংগঠনটি বৈধ ও গণতান্ত্রিক উপায়ে এর কার্যক্রম চালিয়ে যাবে। এই চুক্তির অন্যতম শর্ত ছিল ৯ হাজার বিদ্রোহীর অস্ত্র জমা দেওয়া। প্রায় ৭ হাজার ১ শ ৩২ টি অস্ত্র হস্তান্তর জমা দেয় সংগঠনটি। এর মধ্য দিয়ে দেশটিতে অর্ধ শতাব্দি ধরে চলা সহিংসতার অবসান ঘটিয়ে সশস্ত্র সংগঠনটি নতুন একটি রাজনৈতিক দল হিসেবে আত্মপ্রকাশ করতে যাচ্ছে।

 রিভোল্যুশনারি আমর্ড ফোর্সেস অব কলম্বিয়া নামে ফার্ক সংগঠনটি আত্ম প্রকাশ করবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। উল্লেখ্য, কলম্বিয়ায় ফার্ক বিতেদ্রাহীদের সঙ্গে সহিংসতায় গত ৫২ বছরে প্রায় ২ লাখ ৬০ হাজার মানুষ নিহত হয়। সহিংসতা থেকে মুক্তি পেতে কলম্বিয়ার প্রেসিডেন্ট ম্যানুয়েল ‘ফার্ক শান্তি চুক্তি’ পরিকল্পনা গ্রহণ করেন। অবশেষে শান্তিচুক্তি বাস্তবায়ন হয়। আর এ অবদানের জন্য প্রেসিডেন্ট ম্যানুয়েল গত বছর শান্তিতে নোবেল পান।

বেতন বাড়ছে ব্রিটেনের রাণীর

করতোয়া ডেস্ক: বেতন বাড়তে চলেছে ব্রিটেনের রানী দ্বিতীয় এলিজাবেথের! অবিশ্বাস্য মনে হলেও সত্যি! রানীর খরচ ব্যয় বেড়ে যাওয়ায় এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হচ্ছে। রানীর বেতন যায় সভারেন গ্রান্ট থেকে। যার দায়িত্বে রয়েছে যুক্তরাজ্যের ট্রেজারি। সেখান থেকেই রানীর যাতায়াত, প্রাসাদ ও দৈনন্দির খরচের ভার বহন করা হয়।

গ্রান্টের তরফে জানানো হয়েছে, ২০১৮-১৯ অর্থবর্ষে রানীর খরচের কথা মাথায় রেখে বেতন বছরে প্রায় ৮ শতাংশ বৃদ্ধি করা হতে পারে। প্রসঙ্গত, ক্রাউন এস্টেটের লাভ্যাংশের ২৫ শতাংশ রানীর বেতন হিসেবে রাখা হয়। ৯১ বছরের রানীর মালিকানাধীন ক্রাউন এস্টেটের লাভ গত বছর ২৪ মিলিয়ন পাউন্ড বৃদ্ধি পেয়ে ৩২৯ মিলিয়ন পাউন্ড ছুঁয়েছে। আর এই ক্রাউন এস্টেটের লাভ্যাংশের ২৫ শতাংশ রানীর বেতন হিসেবে রাখা হয়। সে হিসেবে বেতন বৃদ্ধি অস্বাভাবিক কিছু নয়।

মোদির স্ত্রী কোথায়? হতবাক

করতোয়া ডেস্ক: জুন মাসে ভারতকে স্বাধীনতা দিবসের শুভেচ্ছা জানিয়ে সম্প্রতি বিপাকে পড়েছিলেন হোয়াইট হাউস প্রেস সচিব শন স্পাইসার। সমালোচকরা একহাত নিয়েছিলেন তাকে। হোমওয়ার্ক ছাড়া ট্রাম্প প্রশাসন দিব্যি কাজ চালিয়ে যাচ্ছে বলে অভিযোগ করেছিলেন।সোমবার ভারতের প্রধানমন্ত্রী হোয়াইট হাউসে পা রাখার পরও একই দৃশ্য চোখে পড়ল।

 রেড কার্পেটে তাঁকে অভ্যর্থনা জানাতে হাজির ছিলেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও ফার্স্ট লেডি মেলানিয়া ট্রাম্প। গাড়ি থেকে নেমে তাঁদের সঙ্গে রওনা দেন মোদি। কিন্তু তাঁর স্ত্রীকে দেখতে না পেয়ে হতভম্ব হয়ে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা যায় ২ নৌ প্রহরীকে। সোশ্যাল মিডিয়ায় সেই ভিডিও ছড়িয়ে পড়েছে। তাতে দেখা গিয়েছে, মোদির গাড়ির জন্য অপেক্ষা করছেন ওই দুই প্রহরী। গাড়ি এসে থামতে প্রথমে সেলাম ঠোকেন। তারপর গাড়ির দুইদিকের দরজা খুলতে এগিয়ে যান। গাড়ির পিছনের আসনে ডানদিক ঘেঁষে বসেছিলেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী।

 সাধারণত রাষ্ট্র নেতার পাশের আসনটিতেই বসেন তাঁর স্ত্রী। কিন্তু মোদির ব্যক্তিগত জীবন সম্পর্কে বোধহয় বিন্দুমাত্র ওয়াকিবহাল নয় হোয়াইট হাউস। তাই গাড়ির দু’দিকেরই দরজা খুলতে এগিয়ে যান ওই প্রহরীরা। একজন ডানদিকের দরজাটি খুলে দিলে বেরিয়ে আসেন মোদি। তিনি বেরিয়ে আশার পরও বাঁদিকের দরজা খুলতে যান অপরজন। দরজাটি আটকে যাওয়ায় টানাহাঁচড়া শুরু করেন।

 কয়েক মিনিট পর দরজাটি খুলতে সমর্থ হন তিনি। কিন্তু ভিতরে কাউকে না দেখতে পেয়ে হতভম্ব হয়ে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা যায় তাঁকে। এমনকী মোদি হোয়াইট হাউস থেকে নৈশভোজ সেরে বেরনোর পরও একই কা  ঘটান তিনি। মোদি গাড়িতে উঠে যাওয়ার পরও কয়েক মিনিট বাঁ দিকের দরজাটি খুলে দাঁড়িয়েছিলেন তিনি। উৎসুক চোখে খুঁজছিলেন, যদি আর কেউ ওঠে! সেই দৃশ্য দেখে সোশ্যাল মিডিয়ায় হেসে খুন সাধারণ মানুষ।

ভেনিজুয়েলায় সুপ্রিম কোর্টে হেলিকপ্টার হামলা

(বাসস ডেস্ক) : ভেনিজুয়েলার সুপ্রিম কোর্ট ভবনে একটি হেলিকপ্টার থেকে দুটি গ্রেনেড ছোঁড়া হয়েছে। মঙ্গলবার প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরো এক বিবৃতিতে এই ঘটনাকে তার সরকারের বিরুদ্ধে চালানো একটি ‘সন্ত্রাসী হামলা’ হিসেবে অভিহিত করেছেন। খবর এএফপি’র।প্রেসিডেন্ট প্রাসাদ থেকে এক বক্তৃতায় মাদুরো বলেন, ‘আমি দেশের শান্তি বজায় রাখতে সকল সশস্ত্র বাহিনীকে মোতায়েন করেছি।

তিনি আরো জানান, হামলার প্রেক্ষিতে সেনাবাহিনীকে সতর্ক অবস্থায় রাখা হয়েছে।তিনি ঘোষণা দিয়েছেন, ‘আগে অথবা পরে আমরা ওই হেলিকপ্টার ও হামলাকারীদের পাকড়াও করবই।তিনি জানান, এই ঘটনায় কেউ হতাহত হয়নি। একটি গ্রেনেডও বিস্ফোরিত হয়নি।

বক্তৃতায় ৫৪ বছর বয়সী মাদুরো আরো বলেন, ভেনিজুয়েলার উচ্চ আদালতে হামলা ছাড়াও হেলিকপ্টারটি বিচার ও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ওপর দিয়ে উড়ে গেছে।মাদুরো বলেন, হেলিকপ্টারটিতে মাত্র একজন চালক ছিল। তিনি মাদুরোর সাবেক স্বরাষ্ট্র ও বিচারমন্ত্রী মিগুয়েল রডরিগুয়েজ টোরেসের জন্য কাজ করতেন। এখন তিনি সেই চাকরীতে নেই।

 

সৌদি জোটের শর্ত প্রত্যাখ্যান কাতারের

করতোয়া ডেস্ক: কাতার সংকট নিরসনে সৌদি আরবের নেতৃত্বে মধ্যপ্রাচ্যের চারটি দেশের দেয়া শর্ত বাস্তবতা বিবর্জিত এবং বাস্তবায়ন অযোগ্য বলে জানিয়েছে দোহা। ১৩ শর্ত সম্বলিত ওই তালিকা বৃহস্পতিবার কাতারের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে এসে পৌঁছেছে। এই শর্তগুলোর বিষয়ে অনেক আগে থেকেই কাতারের অবস্থান পরিষ্কারভাবে জানানো হয়েছে। জঙ্গিবাদ সমর্থনের কথা বলে অবৈধভাবে আমাদের সার্বভৌমত্ব সংকুচিত করা হচ্ছে; আমাদের পররাষ্ট্রনীতির ব্যাপারেও এটা হস্তক্ষেপ। কাতার সরকারের জনসংযোগ দফতরের পরিচালক শেখ সাইফ আল-সানি শুক্রবার এক বিবৃতিতে এসব কথা জানান।

 তিনি আরও বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী রেক্স টিলারসন সম্প্রতি অবরোধের ব্যাপারে যুক্তিযুক্ত ও পদক্ষেপমূলক চুক্তির তালিকা তৈরির আহ্বান জানিয়েছিলেন। ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রীও দাবি জানিয়েছিলেন পরিমিত ও বাস্তবসম্মত দাবি উপস্থাপনের। কিন্তু একপেষে এই তালিকা আমাদের সন্তুষ্ট করতে পারেনি।

আঞ্চলিক নিরাপত্তার স্বার্থে বাস্তবসম্মত না হওয়া সত্ত্বেও প্রস্তাবের প্রতি সম্মান জানানোর জন্য এগুলো বিবেচনা করে দেখা হচ্ছে। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় খুব শিগগিরই এ ব্যাপারে আনুষ্ঠানিক প্রতিক্রিয়া জানাবে বলেও জানান তিনি। কাতারের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্নের পর আরোপিত নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয়ার শর্ত দিয়েছে মধ্যপ্রাচ্যের চার দেশ। সৌদি আরব, সংযুক্ত আরব আমিরাত, মিসর ও বাহরাইন এজন্য কাতারকে ১৩ টি শর্ত দিয়েছে।

চীনে ভূমিধসে ১৪০ জনের প্রাণহানির আশঙ্কা

করতোয়া ডেস্ক: ভূমিধসে ১৪০জন মানুষ নিখোঁজ হয়েছে চীনে। দেশটির দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলীয় শিচুয়ান প্রদেশের জিনমো গ্রামে এই দুর্ঘটনাটি ঘটে। ভূমি ধসে পড়ায় মাটির নিচে চাপা পড়েছে শতাধিক মানুষ। নিখোঁজদের উদ্ধার করতে উদ্ধার অভিযান চলছে। চীনের সংবাদপত্র পিপলস ডেইলির খবরে বলা হয়, বুল্ডুজার দিয়ে উদ্ধারকর্মীরা তাদের উদ্ধার কাজ করছে। নিখোঁজদের মাটি চাপা থেকে বের করতে মাটি সরানো হচ্ছে বলেও জানিয়েছে পত্রিকাটি।

 ভূমিধসের কারণে প্রায় দুই কিলোমিটার নদী বন্ধ হয়ে পড়েছে। স্থানীয় কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে চীনের রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম সিনহুয়া নিউজ জানিয়েছে। শিচুয়ান প্রদেশের শিনমো গ্রামের প্রায় ৪০টি বাড়ি ধসে নিশ্চিহ্ন হয়েছে। তিব্বত সীমান্তের পর্বতের একটি অংশ সম্পূর্ণ ধসে যায়। প্রায় ২ কিলোমিটার জুড়ে হয়েছে এই ধস। সকালের দিকে ঘটনাটি ঘটায় বেশিরভাগ মানুষ ঘুমন্ত অবস্থাতেই মাটি চাপা পড়েছেন।

বেলজিয়ামে আমিরাতের ৮ রাজকুমারীর কারাদন্ড

করতোয়া ডেস্ক ঃ গৃহকর্মিদের সঙ্গে রূঢ় আচরণ করার দায়ে  সংযুক্ত আরব আমিরাতের ৮ রাজকুমারীকে শুক্রবার স্থগিত কারাদন্ডাদেশ দিয়েছে বেলজিয়ামের একটি আদালত। রায়ে রাজ কন্যাদের ১৫ মাসের কারাবাসের স্থগিত দন্ডাদেশ এবং জরিমানা করা হয়েছে।

প্রায় এক দশক ধরে তদন্ত ও বিচার চলার পর এ রায় দেয়া হলো। এক বছর আগে বেলজিয়ামের ব্রাসেলসে বিলাস বহুল হোটেলে অবস্থানকালে নিজস্ব কাজের মানুষদের সঙ্গে রূঢ় আচরণ করায় তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করে বেলজিয়াম কর্তৃপক্ষ। এ রাজকুমারীরা হলো- আবুধাবির সাবেক শাসক আন নাইয়ান পরিবারের সদস্য এক মা এবং তার সাত মেয়ে।

পাকিস্তানে ভয়াবহ বিস্ফোরণ নিহত ৫৪

করতোয়া ডেস্ক: পাকিস্তানের পশ্চিম, পূর্ব ও দক্ষিণাঞ্চলে বোমা হামলা ও গুলিবর্ষণের ঘটনায় অন্তত ৫৪ জন নিহত হয়েছে। জঙ্গিদের গুরুত্বপূর্ণ আস্তানাগুলোতে সেনা অভিযানের প্রতিশোধ নিতেই দৃশ্যত পবিত্র রমজান মাসে এসব হামলা চালিয়েছে উগ্র সন্ত্রাসীরা। পাকিস্তানের উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় কুররম এজেন্সি এলাকার পারাচিনার শহরের একটি ব্যস্ত মার্কেটে শুক্রবার সাধারণ ক্রেতাদের লক্ষ্য করে চালানো দু’টি ভয়াবহ বোমা হামলায় অন্তত ৩৭ জন নিহত হয়। শুক্রবার সন্ধ্যায় তিন মিনিটের ব্যবধানে চালানো ওই দুই শক্তিশালী বোমা বিস্ফোরণে আরো প্রায় দেড়শ’ মানুষ আহত হয়েছে।

প্রাথমিক খবরে পারাচিনারে ২৫ জন নিহত হয়েছে বলে জানানো হয়েছিল। হামলায় হতাহত ব্যক্তিরা শুক্রবার সন্ধ্যার আগে ইফতার সামগ্রী কেনার জন্য ওই মার্কেটে গিয়েছিলেন। আফগানিস্তানের সীমান্তবর্তী পারাচিনার শহরে এ হামলার দায় এখনো কেউ স্বীকার করেনি।

এদিকে, পাকিস্তানের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলীয় বেলুচিস্তান প্রদেশের রাজধানী কোয়েটায় শুক্রবার এক গাড়িবোমা বিস্ফোরণে ১৩ জন নিহত হয়েছে। একটি চেকপোস্টে বিস্ফোরক ভর্তি গাড়িটিকে থামানোর নির্দেশ দেয়া হলে এর চালক বোমার বিস্ফোরণ ঘটায়। এ ঘটনায় নিহতদের মধ্যে সাত পুলিশ কর্মকর্তা রয়েছেন।

কাবায় ‘সন্ত্রাসী হামলার পরিকল্পনা নস্যাৎ’

মুসলমানদের পবিত্রতম স্থান কাবা শরিফ ঘিরে থাকা মসজিদ আল-হারামে একটি সন্ত্রাসী হামলার পরিকল্পনা নস্যাৎ করে দেওয়ার কথা জানিযেছে সৌদি আরব কর্তৃপক্ষ।

শুক্রবার মসজিদ এলাকার দুটি ভবনসহ মোট তিনটি এলাকায় নিরাপত্তা রক্ষীরা অভিযান চালায় বলে আরব নিউজের এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে।

বিবিসির এক প্রতিবেদনে বলা হয়, এর মধ্যে একটি ভবন ঘিরে নিরাপত্তা বাহিনীর অভিযানের মধ্যেই একজন আত্মঘাতী জঙ্গি বিস্ফোরণ ঘটিয়ে নিজেকে উড়িয়ে দেয় বলে সৌদি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ভাষ্য।

ওই ঘটনায় ভবনটি বিধ্বস্ত হয়ে ১১জন ব্যক্তি আহত হন। ঘটনাস্থল থেকে সন্দেহভাজন পাঁচ জঙ্গিকে গ্রেপ্তার করার কথাও কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে। সৌদি নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা জানায়, আল হারাম মসজিদ এলাকার যে দুটি ভবনে জঙ্গিরা অবস্থান নিয়েছিল সেগুলো আসিলাহ ও আজইয়াদ আল-মাসাফি এলাকায় অবস্থিত।

এর একটিতে এক আত্মঘাতি জঙ্গিকে চারপাশ থেকে ঘিরে ফেলার পর সে পুলিশের দিকে গুলি চালায়; পুলিশ পাল্টা গুলি চালানোর পর ওই জঙ্গি আত্মঘাতী বিস্ফোরণে নিজেকে উড়িয়ে দিলে ভবনটি ধসে পড়ে। এতে পাঁচ নিরাপত্তারক্ষীসহ ১১ জন আহত হয়।

মক্কার বাইরে জেদ্দা থেকেও এক জঙ্গিকে আটকের কথা জানিয়েছে আরব নিউজ।  এক গ্যাস স্টেশন থেকে সৌদি আরবের স্পেশাল ইমার্জেন্সি ফোর্সের সদস্যরা ওই জঙ্গিকে আটক করার পর তার বাড়ি থেকে অস্ত্র ও গোলাবারুদ উদ্ধার করার কথা জানানো হয়েছে।

এসব জঙ্গিরা মসজিদ আল হারামের নিরাপত্তা ব্যবস্থা ভেঙে ফেলার চেষ্টা করছিল বলে সৌদি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে। দেশটির নিরাপত্তা বাহিনীর এক মুখপাত্র জানান, জঙ্গিদের বিরুদ্ধে অভিযান এখনও চলছে, এক নারীসহ পাঁচজনকে আটক করা হয়েছে।

তবে জঙ্গিদের পরিচয় বা তাদের পরিকল্পনার বিষয়ে বিস্তারিত আর কোনো তথ্য সৌদি কর্তৃপক্ষ জানায়নি। রমজান মাসের শেষ দশ দিনে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে কয়েক লাখ মানুষ ওমরাহ পালন করতে মক্কায় যান।

সুন্নি প্রধান দেশ সৌদি আরবে সাম্প্রতিক সময়ে বেশ কয়েকটি সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা ঘটেছে, যার মধ্যে বেশ কয়েকটির দায় স্বীকার করেছে ইসলামিক স্টেট (আইএস)।

এসব হামলার অধিকাংশই হয়েছে সংখ্যালঘু শিয়া এবং সৌদি নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যদের লক্ষ্য করে। ২০১৬ সালের জুলাইয়ে মদিনায় মসজিদে নববীর কাছে এক আত্মঘাতী বোমা হামলায় চার নিরাপত্তারক্ষী নিহত হয়েছিলেন।

 

বিখ্যাত আল-নুরি মসজিদ ধ্বংস পরস্পর বিরোধী দাবি

করতোয়া ডেস্ক: জঙ্গি সংগঠন ইসলামিক স্টেট (আইএস) ইরাকের দক্ষিণাঞ্চলীয় শহর মসুলে অবস্থিত ঐতিহাসিক ‘আল-নুরি’ মসজিদ গুঁড়িয়ে দিয়েছে বলে দাবি করেছে দেশটির সরকারি বাহিনী। তবে এ দাবি প্রত্যাখ্যান করে নিজস্ব সংবাদমাধ্যম ‘আমাক’-এ এক বিবৃতিতে আইএস বলছে, যুক্তরাষ্ট্রের বিমান হামলায় মসজিদটি ধ্বংস হয়েছে। ইরাকের প্রধানমন্ত্রী হায়দার আল আবাদি এক বিবৃতিতে বলেছেন, পরাজয় নিশ্চিত দেখে সবকিছু ধ্বংস করছে আইএস। মসুলে নিকটবর্তী সেনাবাহিনী দেখে তারা আল-নুরি মসজিদ উড়িয়ে দিয়েছে।

 তিনি এই মসজিদ ধ্বংসকে এক অপূরণীয় ক্ষতি বলেও বর্ণনা করেন। আইএসের বার্তা সংস্থা ‘আমাক’ এক বিবৃতিতে জানায়, গত ২১ জুন বুধবার যুক্তরাষ্ট্রের বিমান থেকে ফেলা এক বোমার আঘাতে ওই মসজিদ উড়ে যায়। তবে যুক্তরাষ্ট্রের কর্মকর্তারা আইএসের এই দাবিকে এক হাজার শতাংশ মিথ্যা বলে আখ্যা দিয়েছেন। মসুল ও ইরাকের বিখ্যাত স্থাপনাটি আইএস গুঁড়িয়ে দিয়েছে দাবি করে ইরাকে অবস্থানরত জ্যেষ্ঠ মার্কিন কমান্ডর মেজর জেনারেল জোসেফ মার্টিন বলেছেন, বিষয়টি শুধু মসুলের জনগণই নয়, পুরো ইরাকবাসীর বিরুদ্ধে চালানো অপরাধ।

 বিমান থেকে তোলা ছবিতে দেখা গেছে, লম্বা মিনারওয়ালা মসজিদটির একটি ছোট্ট ধ্বংসাবশেষ কেবল অবশিষ্ট রয়েছে। মসজিদটি প্রার্থনাকেন্দ্র ছাড়াও প্রাচীন গ্রন্থ সংগ্রহশালা ও গবেষণাকেন্দ্র হিসেবে ব্যবহৃত হতো। মসজিদটি ঐতিহ্যবাহী মসুল শহরের একেবারে কেন্দ্রে অবস্থিত ছিল। ২০১৪ সালে এই মসজিদ থেকেই আইএসপ্রধান আবু বকর আল বাগদাদি ‘খিলাফত’ ঘোষণা করেছিলেন।

থেরেসা মে’র ‘ প্রেমের দূত’ ছিলেন বেনজির ভুট্টো!

করতোয়া ডেস্ক: ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে’র সহপাঠী ছিলেন পাকিস্তানের প্রয়াত প্রধানমন্ত্রী বেনজির ভুট্টো। দু’জনের মধ্যে সে সময় গড়ে উঠেছিল চমৎকার সম্পর্ক। সেই সুবাদে বেনজির ভুট্টো থেরেসার ‘প্রেমের দূত’ বা ‘ঘটকের’ ভূমিকাও পালন করেছিলেন। ২১ জুন বেনজির ভুট্টোর ৬৪তম জন্মবার্ষিকীতে এ খবর প্রকাশ করেছে একটি ব্রিটিশ দৈনিক। ১৯৭৬ সালে অক্সফোর্ডের ছাত্রী ছিলেন বেনজির ভুট্টো।

 তার সঙ্গেই পড়তেন থেরেসা মে। সে সময় অক্সফোর্ডের ছাত্রনেতা ছিলেন ফিলিপ মে। তিনি ইউনিয়নের প্রেসিডেন্ট ও কনজারভেটিভ পার্টির উদীয়মান নেতা। তাকেই পছন্দ করেছিলেন থেরেসা। মনের কথা বান্ধবী বেনজিরকে খুলে বলেন থেরেসা। বেনজির সোজা গিয়ে ফিলিপের কাছে থেরেসার প্রসঙ্গ তোলেন।

প্রস্তাব পেয়ে দ্বিতীয়বার ভাবেননি থেরেসার থেকে দুই বছরের ছোট ফিলিপ। শুরু হলো শতাব্দী প্রাচীন অক্সফোর্ডের রোমান্টিক ইতিহাসের এক পর্ব। ১৯৮০ সালে বিয়ে করেন তারা। সেই শুরু থেকে দীর্ঘ সময় পার করে দু’জনই এখনও সুখী দাম্পত্য জীবন কাটাচ্ছেন।

আফগানিস্তানে ব্যাংকে গাড়িবোমা হামলায় নিহত ২০

আফগানিস্তানের দক্ষিণাঞ্চলীয় হেলমান্দ প্রদেশে একটি ব্যাংকের বাইরে শক্তিশালী এক গাড়িবোমা বিস্ফোরণে অন্তত ২০ জন নিহত হয়েছে। বৃহস্পতিবারের এ ঘটনায় আরো বহু মানুষ আহত হয়েছে বলে জানিয়েছেন কর্মকর্তারা, খবর বিবিসির।

গাড়িবোমাটির বিস্ফোরণ ঘটানোর পর সশস্ত্র হামলাকারীরা ব্যাংকটির ভিতরে প্রবেশ করে নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে বন্দুক যুদ্ধে লিপ্ত হয় বলে জানিয়েছে টোলো নিউজ। হতাহতদের মধ্যে বেসামরিক ও নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্য আছে বলে জানা গেছে।

তাৎক্ষণিকভাবে কোনো পক্ষ হামলার দায় স্বীকার করেনি, তবে সাম্প্রতিক মাসগুলোতে আফগানিস্তানজুড়ে বহু প্রাণঘাতী হামলা চালিয়েছে জঙ্গিগোষ্ঠী তালেবান ও ইসলামিক স্টেট (আইএস)।

 

২০ কোটি মার্কিন নাগরিকের ব্যক্তিগত তথ্য ফাঁস!

করতোয়া ডেস্ক: একেই বলে ভুল! আর সেই ভুলের মাশুল গুণতে হচ্ছে ২০ কোটি মার্কিন নাগরিককে। চাঞ্চল্যকর এমন ঘটনার পর রীতিমত চাপে পড়েছেন ২০ কোটি মার্কিন নাগরিক। অসাবধনতাবশতই মূলত এই ঘটনা ঘটেছে। রিপাবলিকান ন্যাশনাল কমিটির পক্ষ থেকে ডিপ রুট অ্যানালিটিক্স নামে এক মার্কেটিং সংস্থাকে প্রায় ৬১ শতাংশ মার্কিন নাগরিকের তথ্য সংগ্রহের বরাত দেওয়া হয়েছিল।

 টেকনোলজি নিউজ ওয়েবসাইট ‘গিজমোডো’ গেছে, আর তা করতে গিয়েই দুর্ঘটনাবশত সেই সব তথ্য ফাঁস হয়ে গেছে। আমেরিকার ইতিহাসে এমন কেলেঙ্কারির ঘটনা এই প্রথম। মার্কিন নাগরিকদের ব্যক্তিগত তথ্যের পাশাপাশি তাদের ধর্ম, জাত, রাজনৈতিক প্রবণতা সবই প্রকাশ্যে এসেছে। 

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বন্দুক ব্যবহারের উপর নিয়ন্ত্রণ, গর্ভপাতের অধিকারের, স্টেম সেল নিয়ে গবেষণার মতো বিতর্কিত বিষয়ে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের কী মতামত ছিল, তাও ফাঁস হয়ে গিয়েছে। যদিও যুদ্ধকালীন তৎপরতায় সমস্ত পরিস্থিতি ঠিক করার চেষ্টা হচ্ছে। ফাঁস হয়ে যাওয়া তথ্য দিয়ে যাতে কেউ কোনো ভুল কাজ করতে না পারে তা ঠেকানোর চেষ্টা করা হচ্ছে।

প্রধান বিচারপতিকে সাজা দেয়া কলকাতার সেই বিচারক গ্রেফতার

করতোয়া ডেস্ক: ভারতের প্রধান বিচারপতিকে পাঁচ বছরের কারাদন্ড  দেয়া কলকাতা হাইকোর্টের সেই বিচারক এক মাস পালিয়ে থাকার পর অবশেষে গ্রেফতার হয়েছেন। আদালত অবমাননার দায়ে ছয় মাসের কারাদন্ডের বিরুদ্ধে করা আপিলের শুনানির পর মঙ্গলবার তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ। কারনানের আইনি পরামর্শক ম্যাথিউস জে নেদুমপারা বলেছেন, বিচারপতি কারনান ২-৩ দিন আগে তামিলনাড়ুতে যান। পরে তাকে কোয়িমবাটর থেকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

 বর্তমানে তাকে কলকাতায় নিয়ে যাচ্ছে পুলিশ। ভারতের প্রধান বিচারপতিসহ দেশটির সুপ্রিম কোর্টের সাত বিচারকের বিরুদ্ধে জামিন অযোগ্য গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছিলেন কারনান। কলকাতার এই বিচারকের মানসিক স্বাস্থ্য পরীক্ষার নির্দেশ দেয়ার পর গত ৯ মে পাল্টা সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতিসহ সাত বিচারকের বিরুদ্ধে ওই পরোয়ানা জারি করেন তিনি।


কলকাতা হাইকোর্টের এক বিচারপতি কারনানের মানসিক স্বাস্থ্য পরীক্ষা করে দেখার নজিরবিহীন নির্দেশ দেয়ার পরে ওই বিচারক বলেছিলেন, তিনি মানসিক স্বাস্থ্য পরীক্ষা করাতে দেবেন না। বরং ভারতের প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বাধীন সুপ্রিম কোর্টের যে বেঞ্চ ওই নির্দেশ দিয়েছিলেন, সেই সদস্যদের মানসিক স্বাস্থ্য পরীক্ষার নির্দেশ জারি করেন সিএস কারনান।

 ভারতের বিচার বিভাগের ইতিহাসে এ ধরনের নজিরবিহীন টানাপোড়েনের ঘটনা এর আগে দেখা যায়নি। কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি সিএস কারনান নিজের বাসভবনে এক বিশেষ আদালত বসিয়ে পাল্টা নির্দেশনা জারি করেছিলেন। এদিকে কারনানকে গ্রেফতারের পর তার বিষয়ে সংবাদ পরিবেশন করা থেকে গণমাধ্যমকে বিরত থাকার আহ্বান জানিয়েছেন দেশটির আদালত।

রাষ্ট্রপতির গাড়িবহর থামিয়ে অ্যাম্বুলেন্সকে যেতে দিলেন তিনি

করতোয়া ডেস্ক: প্রধানমন্ত্রী কিংবা রাষ্ট্রপতির মতো ভিভিআইপিরা কোনো পথ দিয়ে যাওয়ার অন্তত কয়েক ঘণ্টা আগেই সাধারণের চলাচলের জন্য রাস্তা বন্ধ করে দেয়ার ঘটনা হরহামেশাই চোখে পড়ে। এতে সাধারণ মানুষের পাশাপাশি রোগিরাও ভয়াবহ কষ্টের মধ্যে আটকা পড়েন।

এতে আইন- শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের প্রচুর তৎপরতা থাকে। কিন্তু ব্যতিক্রমী এক ঘটনা ঘটেছে ভারতে। রোগিবাহী অ্যাম্বুলেন্সকে আগে যাওয়ার রাস্তা করে দিতে দেশটির রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জির গাড়িবহর থামিয়ে দিলেন কর্ণাটকের রাজধানী বেঙ্গালুরু পুলিশের এক উপ-পরিদর্শক।

 গত শনিবার এমএল নিজলিঙ্গাপ্পা নামে ওই পুলিশকর্মি তথ্যপ্রযুক্তি নগরীর ট্রিনিটি সার্কেল এলাকায় ট্রাফিক নিয়ন্ত্রণের দায়িত্ব পালন করছিলেন। সেদিনই রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জি বেঙ্গালুরুতে মেট্রোর গ্রিন লাইনের উদ্বোধনের জন্য যান। রাষ্ট্রপতি মুখার্জি ট্রিনিটি সার্কেল হয়ে অনুষ্ঠানস্থলে যাওয়ার কথা ছিল। আর এ পথে যানচলাচল পুরোপুরি স্বাভাবিক রাখার দায়িত্ব ছিল নিজলিঙ্গাপ্পার। সেটা মাথায় রেখেই কাজ করছিলেন তিনি।

 রাষ্ট্রপতির গাড়িবহর যখন রাজভবনের দিকে এগোচ্ছিল, নিজলিঙ্গাপ্পার নজরে পড়ে, অ্যাম্বুলেন্সটি গাড়ির ভিড়ে আটকে রয়েছে। রোগিবাহী অ্যাম্বুলেন্সটি হিন্দুস্তান এয়ারোনটিক্স লিমিটেড (হ্য়াল)-এর কাছের একটি বেসরকারি হাসপাতালে যাচ্ছিল। সাহসী সিদ্ধান্ত নিতে দ্বিধা করেননি পুলিশের ওই কর্মকর্তা। মানবিকতার খাতিরে রাষ্ট্রপতির গাড়িবহর আটকে রেখে আগে অ্যাম্বুলেন্সকে চলে যাওয়ার অনুমতি দেন তিনি।

 পরে দেশটির একটি দৈনিককে দেয়া সাক্ষাৎকারে এসআই নিজলিঙ্গাপ্পা বলেন, ইমার্জেন্সি কেস, তাই ওপর মহলের কর্তাদের জানিয়ে আগে চলে যেতে দিয়েছিলাম ওই অ্যাম্বুলেন্সকে। হাতে যথেষ্ট সময় ছিল, রাস্তায়ও জায়গা ছিল যথেষ্ট। ঠিক করি, রাষ্ট্রপতির গাড়িবহরের আগে অ্যাম্বুলেন্সকে যেতে দেব। এরপর যা হলো, সেটাও কম বিস্ময়কর নয়।

 বেঙ্গালুরু পুলিশ নিজলিঙ্গাপ্পার অ্যাম্বুলেন্সটিকে আগে ছেড়ে দেয়ার সিদ্ধান্তের ভূয়সী প্রশংসা করে তাকে পুরস্কার দেয়ার ঘোষণা দিয়েছে। ঊধ্বর্তন কর্মকর্তারাও নিজলিঙ্গাপ্পার প্রশংসায় পঞ্চমুখ। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টুইটারেও বাহবা পাচ্ছেন তিনি। পুলিশ কমিশনার প্রবীণ সুদ টুইট করে বলেন, ওয়েল ডান। ওই পুলিশকর্মিকে এমন পদক্ষেপের জন্য পুরস্কৃত করা উচিত।

এক হাজার লাইকের জন্য বাবার এমন কান্ড?

করতোয়া ডেস্ক: বহুতল ভবনের কক্ষের জানালা দিয়ে বাইরে সন্তানকে ঝুলিয়ে ছবি তুলে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে বেশি লাইক পাওয়ার আশা করেছিলেন আলজেরিয়ার এক ব্যক্তি। সন্তানকে ঝুঁকিতে ফেলে লাইক পাওয়ার এ চেষ্টার অভিযোগে দেশটির একটি আদালত ওই বাবাকে দুই বছরের কারাদন্ড দিয়েছেন। রাজধানী আলজিয়ার্সের ওই ব্যক্তি বহুতল ভবনের জানালায় সন্তানকে ঝুলিয়ে ছবি তোলার পর ফেসবুকে পোস্ট করেন।

 ছবিতে ক্যাপশন জুড়ে দেন, ১ হাজার লাইক না হলে আমি তাকে ফেলে দিবো। তবে লাইক পাওয়ার এই আশায় গুঁড়েবালি পড়েছে ওই ব্যক্তির। ফেসবুক ব্যবহারকারীরা ওই ছবি দেখার পর সন্তানকে নিপীড়নের অভিযোগে তাকে গ্রেফতারের দাবি জানান। সন্তানের সুরক্ষা বিপদের মুখে ফেলার অভিযোগ আনা হয়েছে তার বিরুদ্ধে। পরে রোববার তাকে গ্রেফতার করে দেশটির আইন-শৃঙ্খলাবাহিনীর সদস্যরা।

হুঁশিয়ারি: সিরিয়ার আকাশে মার্কিন বিমান দেখলেই গুলি করবে রাশিয়া

করতোয়া ডেস্ক: সিরীয় বাহিনীর বোমারু বিমানের ওপর মার্কিন হামলায় ক্ষুব্ধ রাশিয়া। রুশ বিমান বাহিনীর নিয়ন্ত্রণে থাকা সিরীয় আকাশ সীমায় উড়ন্ত কোন বস্তু দেখলেই তা গুলি করে ধ্বংস করার হুমকি দিয়েছে রাশিয়া। রাশিয়ার এমন হুঁশিয়ারি ঘিরে ক্রমশ বাড়ছে উত্তেজনা।

এমনকি অনেকে যুদ্ধের আশঙ্কাও করতে শুরু করে দিয়েছেন।রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে বলা হয়, সিরিয়ায় বিমান বিধ্স্ত হওয়া ঠেকাতে ১৯ জুন থেকে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে পারস্পরিক যোগাযোগের ভিত্তিতে অভিযান পরিচালনা স্থগিত করছে রাশিয়া।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছিল, রবিবার রাক্কায় আইএসের বিরুদ্ধে অভিযান চালাচ্ছিল সিরীয় বিমানটি। তখনই মার্কিন জোট গুলি চালায়। তবে পরে পেন্টাগনের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়, মার্কিন সমর্থিত সিরীয় ডেমোক্র্যাটিক ফোর্সের ওপর বিমানটি অব্যাহত বোমা বর্ষণ করছিল বলেই সেটাকে ভূপাতিত করা হয়েছে।

সিরিয়ার পক্ষ থেকে এ ঘটনাকে ‘উদ্ভট আক্রমণ’ হিসেবে উল্লেখ করে বলা হয়, এটি একটি ‘বিপদজনক প্রতিক্রিয়া’। উল্লেখ্য, মার্কিন কর্তৃপক্ষের দাবি অনুযায়ী সিরীয় যুদ্ধে মার্কিন নেতৃত্বাধীন জোটের অংশগ্রহণের পর থেকেই এবারই প্রথম সিরীয় বিমান ভূপাতিত করেছে তারা।

লন্ডন হামলায় সন্দেহভাজনের নাম প্রকাশ

করতোয়া ডেস্ক: লন্ডনে মসজিদের কাছে মুসল্লিদের ওপর কাভার্ড ভ্যান হামলাকারীর নাম প্রকাশ করেছে পুলিশ। মুসল্লিদের ওপর হামলা চালানো ওই ব্যক্তির নাম ড্যারেন অসবোর্নে। বয়স ৪৭। নাম প্রকাশ হওয়া ওই ব্যক্তির পরিবার এই ঘটনায় তার জড়িত হওয়ার বিষয়ে দুঃখ প্রকাশ করেছে। একই সঙ্গে এমন ঘটনায় তার বিস্মিত ও হতবাক হয়েছে। ড্যারেন চার সন্তানের জনক।

 সোমবার স্থানীয় সময় রাত ১২টা ২০ মিনিটে লন্ডনের সেভেন সিস্টারস রোডে মুসল্লিদের ওপর কাভার্ড ভ্যান চালিয়ে দেন তিনি। তারাবি নামাজ শেষে বাড়ি ফিরছিলেন হামলার শিকার ওই মুসল্লিরা। এ ঘটনায় প্রবাসী বাংলাদেশি এক নাগরিক নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও ১০ জন। ওই হামলার ঘটনায় ওই হামলাকারীর বিরুদ্ধে হত্যা চেষ্টা এবং সন্দেহভাজন সন্ত্রাসী হিসেবে অভিযোগ আনা হয়েছে।


মুসলিমদের হত্যা করতে চেয়েছিলন ওই হামলাকারী। তবে মসজিদের এক ইমাম ও মুসল্লিদের হাতে আটক হওয়ার পর তিনি তাকে মেরে ফেলার অনুরোধ করেন। পুলিশ প্রধান ক্রেসিডা ডিক জানিয়েছেন, এটা মুসলিমদের ওপর হামলা। এই সম্প্রদায়ের নিরাপত্তার জন্য পুলিশ এবং সেনা মোতায়েন করা হয়েছে। হামলাকারীর মা, বোন এবং তার স্বজনরা এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন, আমরা শোকাহত। এটা মেনে নেয়া সম্ভব নয়। হামলায় হতাহতদের প্রতি তারা সমবেদনা জানিয়েছেন।

ধ্বংসস্তুপের মাঝে সিরীয়দের ইফতার

করতোয়া ডেস্ক: সিরিয়ার অবরুদ্ধ শহর দৌমার বাসিন্দারা ধ্বংসস্তুপের মাঝেই ইফতার করেন। শহরের বাসিন্দাদের এক সঙ্গে ইফতারের এমন কিছু ছবি সামাজিক মাধ্যমে বেশ আলোড়ন তুলেছে। রাজধানী দামেস্কের কাছেই অবস্থিত বিদ্রোহী নিয়ন্ত্রিত দৌমা এলাকা। এই এলাকার বেশিরভাগই এখন ধ্বংসস্তুপে নিমজ্জিত। কিন্তু এরই মধ্যে সেখানকার বাসিন্দারা এক সঙ্গে ইফতার করার ব্যবস্থা করেছেন।বাসিন্দাদের জন্য এরকম ইফতারের আয়োজন করেছেন সিরিয়ান আদালেহ ফাউন্ডেশন। এই প্রতিষ্ঠানটি ২০১২ সালে তার কার্যক্রম শুরু করে।

 বিদ্রোহী নিয়ন্ত্রতি পূর্বাঞ্চলীয় ঘৌটা এলাকায় সহায়তা দেবার লক্ষ্যেই এই প্রতিষ্ঠানটির কাজ শুরু হয়। প্রায় চার বছর ধরে অবরুদ্ধ অবস্থায় আছে দৌমা এলাকা। ২০১৬ সালের অক্টোবরের পর গত মাসে প্রথমবারের মতো একটি সাহায্য সংস্থা দৌমায় প্রবেশ করতে পারে। বিদ্রোহী নিয়ন্ত্রিত এই এলাকাটি নিয়ন্ত্রণ করছে জায়েশ আল ইসলাম। গত কয়েক বছর ধরেই এই এলাকাকে লক্ষ্য করে সিরীয় বাহিনী অনবরত বিমান ও বোমা হামলা চালিয়ে আসছে।

প্যারিসে পুলিশের ওপর হামলায় ব্যবহৃত গাড়িতে ‘অস্ত্র, গ্যাস’

একটি গাড়ি ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসের কেন্দ্রস্থলে পুলিশের একটি ভ্যানকে ইচ্ছাকৃতভাবে ধাক্কা দেওয়ার পর সেটিতে আগুন ধরে যায়। দেশটির পুলিশ কর্মকর্তাদের বরাতে বিবিসি জানিয়েছে, ফ্রান্সের পার্লামেন্ট নির্বাচনের দ্বিতীয় দফা ভোট গ্রহণের পরের দিন সোমবার ফ্রান্সের প্রেসিডেন্টের সরকারি বাসভবন ও যুক্তরাষ্ট্রের দূতাবাসের কাছে শঁস এলিজে অ্যাভিনিউয়ে এ ঘটনা ঘটেছে।

এ ঘটনায় ওই গাড়িটির চালকের মৃত্যু হয়।

নিহত চালকের নাম নিরাপত্তা বিভাগের পর্যবেক্ষণ তালিকায় ছিল বলে জানিয়েছেন ওই কর্মকর্তারা। আগুন নেভানোর পর পুলিশ গাড়িটিতে তল্লাশি চালিয়ে একটি কালাশনিকোভ রাইফেল, কয়েকটি পিস্তল ও গ্যাসের বোতল উদ্ধার করেছে।

এ ঘটনায় ওই চালক নিহত হওয়া ছাড়া আর কেউ কোনো আঘাত পায়নি। “ফ্রান্সে নিরাপত্তা বাহিনীকে ফের লক্ষ্যস্থল করা হল,” ঘটনাস্থল পরিদর্শনের পর এক সংবাদ সম্মেলনে বলেছেন ফ্রান্সের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জেরা কলম্ব। এ ঘটনাকে ‘হামলার চেষ্টা’ বলে বর্ণনা করেছেন তিনি।

গাড়িটি থেকে অস্ত্র ও বিস্ফোরক পাওয়া গেছে জানিয়ে তিনি বলেন, “বিস্ফোরকগুলো দিয়ে পুলিশের গাড়িটি উড়িয়ে দেওয়া সম্ভব ছিল।” ঘটনাস্থল থেকে বিবিসির প্যারিস প্রতিনিধি জানিয়েছিলেন, ফাঁকা ওই অ্যাভিনিউয়ের মাঝখানে একটি সাদা গাড়ি দাঁড়িয়ে আছে, যার একটি দরজা খোলা। পাশেই স্থানীয় পুলিশ স্টেশন হওয়ায় ওই জায়গায় সব সময়ই পুলিশ ও সশস্ত্র রক্ষীদের অনেক গাড়ি দাঁড়িয়ে থাকে।

ওই গাড়িটিতে তল্লাশি চালানো জন্য বোমা নিষ্ক্রিয়করণ স্কোয়াডের বিশেষজ্ঞদের পাঠানো হয়েছিল। গাড়িটির দরজার কাঁচ ভেঙে দরজা খুলে নিহত চালকের লাশ বের করে পুলিশ।

ঘটনার তদন্তের সঙ্গে জড়িত সূত্রগুলো জানিয়েছে, ‘কট্টরপন্থি একটি ইসলামি আন্দোলনের’ সঙ্গে জড়িত থাকার কারণে ২০১৫ সাল থেকে ওই গাড়ির চালক নিরাপত্তা পর্যবেক্ষণের আওতায় ছিল।

প্যারিসের দক্ষিণে এসওনে তার বাড়িতে পুলিশ তল্লাশি চালাচ্ছে বলে জানা গেছে। ঘটনার বিষয়ে একটি তদন্ত শুরু করেছে প্রসিকিউটর দপ্তরের সন্ত্রাসবিরোধী সেকশন।

সাম্প্রতিক বছরগুলোতে বেশ কয়েকটি প্রাণঘাতী সন্ত্রাসী হামলার পর থেকে ফ্রান্সজুড়ে জরুরি অবস্থা জারি আছে।

 

উত্তর কোরিয়া থেকে ফেরা মার্কিন ছাত্রের মৃত্যু

উত্তর কোরিয়ার কারাগারে ১৭ মাস আটক থেকে দেশে ফেরার এক সপ্তাহের মাথায় মৃত্যু হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী ওটো ওয়ার্মবিয়ারের। বিবিসির এক প্রতিবেদনে বলা হয়, দেশে ফেরার পর সিনসিনাটির একটি হাসপাতালে ছিলেন ২২ বছর বয়সী এই তরুণ। তার পরিবার সোমবার দুপুরে ওয়ার্মবিয়ারের মৃত্যুর খবর জানায়।

ভার্জিনিয়া ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থী ওয়ার্মবিয়ার একটি পর্যটক দলের সঙ্গে উত্তর কোরিয়া গিয়েছিলেন। সেখানে হোটেল থেকে একটি প্রোপাগান্ডা পোস্টার চুরির অভিযোগে ২০১৬ সালের মার্চে তাকে ১৫ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দেয় উত্তর কোরিয়ার একটি আদালত।

উত্তর কোরিয়া কর্তৃপক্ষ ‘মানবিক কারণে’ মুক্তি দেওয়ার পর গত ১৩ জুন তাকে যুক্তরাষ্ট্রে ফেরত পাঠানো হয়। তখন জানা যায়, প্রায় এক বছর ধরে কোমায় রয়েছেন ওয়ার্মবিয়ার।

উত্তর কোরিয়ার পক্ষ থেকে বলা হয়,  খাদ্যে বিষক্রিয়ার কারণে ওয়ার্মবিয়ার অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে একটি ঘুমের ওষুধ দেওয়া হয়েছিল। তারপরই তিনি কোমায় চলে যান।

কিন্তু পরিবারের অভিযোগ, উত্তর কোরিয়ায় নির্মম নির্যাতনের কারণেই তাদের ছেলের এই পরিণতি। যুক্তরাষ্ট্রের চিকিৎসকরাও বলেছেন, খাদ্যে বিষক্রিয়ার কোনো লক্ষণ ওয়ার্মবিয়ারের শরীরে তারা পাননি। বরং তার মস্তিষ্কের কোষ মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত ছিল।

ওয়ার্মবিয়ারের মৃত্যুর পর এক বিবৃতিতে শোক প্রকাশের পাশাপাশি আবারও উত্তর কোরিয়ার সমালোচনা করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। তিনি বলেছেন, আইনের শাসন আর মানবাধিকারের প্রতি যাদের ন্যূনতম শ্রদ্ধা নেই, তাদের হাতে নিরাপরাধ মানুষের এমন পরিণতি বন্ধে যুক্তরাষ্ট্র প্রশাসনকে আরও দৃঢ়প্রতিজ্ঞ করেছে ওয়ার্মবিয়ারের মৃত্যু।

 

ইয়েমেনে সৌদি হামলায় প্রাণ গেল ২৫ জনের

করতোয়া ডেস্ক: ইয়েমেনের উত্তরাঞ্চলের সাদা প্রদেশে সৌদি নেতৃত্বাধীন জোটের বিমান হামলায় অন্তত ২৫ জনের প্রাণহানি ঘটেছে। ২৭ মাস ধরে ইয়েমেন সংঘাত চলে আসছে। তবে সৌদি জোটের সর্বশেষ এই হামলার বিষয়ে জোটের কোনো কর্মকর্তাকে তাৎক্ষণিকভাবে মন্তব্যের জন্য পাওয়া যায়নি।

সৌদি নেতৃত্বাধীন জোট সমর্থিত দেশটির প্রেসিডেন্ট আব্দ রাব্বু মনসুর আল হাদি হুথি বিদ্রোহীদের হামলার মুখে দেশত্যাগে বাধ্য হয়েছেন। তাকে ক্ষমতায় ফেরাতে সৌদি জোট ইরান সমর্থিত হুথি বিদ্রোহীদের লক্ষ্য করে হামলা চালিয়ে আসছে ২০১৫ সাল থেকে। তখন থেকেই গৃহযুদ্ধে বিধ্বস্ত হয়ে পড়েছে ইয়েমেন।

লন্ডনে ভ্যান হামলায় নিহত ব্যক্তি বাংলাদেশি

যুক্তরাজ্যের রাজধানী লন্ডনে মসজিদের কাছে মুসল্লিদের ওপর ভ্যান হামলায় নিহত ব্যক্তি প্রবাসী বাংলাদেশি নাগরিক। প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাত দিয়ে ব্রিটেনের প্রভাবশালী দৈনিক দ্য টেলিগ্রাফ এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে। তবে নিহত ওই ব্যক্তির পরিচয় এখনও জানা যায়নি।

সোমবার লন্ডনের স্থানীয় সময় রাত ১২টার দিকে লন্ডনের সেভেন সিস্টারস রোডের মুসলিম ওয়েলফেয়ার মসজিদের মুসল্লিদের ওপর ভ্যান হামলা চালানো হয়। তারাবি নামাজ শেষে বাড়ি ফেরার পথে হামলার শিকার হন মুসল্লিরা।

রয়টার্স বলছে, লন্ডনে ভ্যান হামলায় এক ব্যক্তি নিহত ও অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন। ঘটনায় জড়িত সন্দেহে এক চালককে গ্রেফতার করেছে স্থানীয় আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা।

টেলিগ্রাফ বলছে, লন্ডনের সেভেন সিস্টারস রোডের মুসলিম ওয়েলফেয়ার মসজিদের মুসল্লিদের ওপর হামলায় নিহত ব্যক্তি বাংলাদেশি প্রবীণ।

দাতব্য কর্মী সুলতান আহমেদ টেলিগ্রাফকে বলেছেন, আমার চাচা যখন মসজিদ ত্যাগ করেন তখনই মুসল্লিদের ওপর ভ্যানটি চালিয়ে দেয়া হয়। এসময় বাংলাদেশি এক বয়স্ক প্রবাসী ভ্যানচাপায় মারা যান।

তিনি বলেন, মসজিদের একদল মুসল্লি তাকে (ভ্যানচাপায় আহত বাংলাদেশিকে) সহায়তা করতে এগিয়ে আসেন। এসময় তাদের ওপরও ভ্যানটি চালিয়ে দেয়া হয়। ভ্যানচাপায় অন্তত দুজনকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখা যায়।

মুসল্লিদের ওপর ভ্যান চালিয়ে দেয়ার সময় চালককে চিৎকার করে বলতে শোনা যায়, তিনি সব মুসলিমকে হত্যা করবেন।

রয়টার্স বলছে, ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে লন্ডনের মসজিদের এ হামলাকে সন্ত্রাসী হামলা হিসেবে বিবেচনা করছেন। তবে থেরেসা মের এই দাবি যদি সত্যি হয় তাহলে গত মার্চ থেকে দেশটিতে এখন পর্যন্ত চতুর্থ হামলা এটি।

লন্ডনের গ্রেনফেল টাওয়ারের নিখোঁজদের কেউ বেঁচে নেই

করতোয়া ডেস্ক: লন্ডনের গ্রেনফেল টাওয়ারের ভয়াবহ অগ্নিকান্ডের ঘটনায় যারা নিহত হয়েছেন তাদের কাউকে আর হয়তো চেনা যাবে না বলে জানিয়েছিল পুলিশ। এখন পর্যন্ত নিখোঁজ থাকা ব্যক্তিদেরসহ ৫৮ জনকে আর জীবিত দেখা যাবে না। কারণ তাদের কেউ যে আর বেঁচে নেই। শনিবার লন্ডন পুলিশ এ তথ্য জানিয়েছে।


এই ৫৮ জনের মধ্যে নিহত ৩০ জনও রয়েছেন। এতে করে মোট ৫৮ জন মারা গেছেন। মৃতের সংখ্যা আর বাড়ার আশঙ্কা করা হচ্ছে। উদ্ধারাভিযান শেষ হতে আরও কয়েক সপ্তাহ লাগার কথা জানিয়েছে পুলিশ। ৭০ জন নিখোঁজ থাকার আশঙ্কা করা হচ্ছে। নিরাপত্তা ঝুঁকির কারণে শুক্রবার উদ্ধারাভিযান স্থগিত রেখে পুনরায় তা শুরু হয়েছে।

ভবনে অগ্নিকা  নিয়ে এখন লন্ডনে উত্তেজনা বিরাজ করছে। এই দুর্ঘটনা কীভাবে হল, সেটাই এখন বড় প্রশ্ন। ভবন নির্মাণে দুর্নীতিরও অভিযোগ উঠছে। বিল্ডিংকোড না মানার কথাও বলা হচ্ছে।

পর্তুগালের দাবানলে নিহত ৫৭

করতোয়া ডেস্ক: পর্তুগালের দাবানলে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৫৭ জন হয়েছে। কেন্দ্রীয় পর্তুগালের পেডারোগাও গ্রান্ডি এলাকার বনে এ দাবানল ছড়িয়ে পড়ে বলে খবর দিয়েছে। আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম জানায় গতকাল রোববারের এ ঘটনায় পালাতে গিয়ে ৫৭ নিহত এবং ৫৯ জন আহত হয়েছেন। হতাহতের এ সংখ্যা আরো বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। এদের অনেকেই গাড়িতে আটকা পড়ে নিহত হয়েছেন।

কেউ কেউ আগুনের লেলিহান শিখায় এবং কেউ কেউ ধোঁয়ায় দম বন্ধ হয়ে মারা গেছেন। দেশটির প্রধানমন্ত্রী এন্টোনো কোস্টা বলেছেন, সাম্প্রতিক বছরগুলোর মধ্যে দাবানলে নিহত হওয়ার ঘটনা আমাদের জন্য বড় ট্রাজেডির ঘটনা। তিনি বলেন, নিহতের সংখ্যা আরো বাড়তে পারে। স্বরাষ্ট্র সচিব জর্জ গোমেজ বলেছেন, নিহতদের মধ্যে ৩০ জন তাদের গাড়িতে আটকা পড়ে এবং অন্যান্য ১৭ জন বিভিন্ন যানবাহনে আগুন ছড়িয়ে পড়লে নিহত হন।

উত্তাল দার্জিলিং: পুলিশ কর্মকর্তাকে কুপিয়ে হত্যা, সেনা মোতায়েন

করতোয়া ডেস্ক: আলাদা রাজ্যের দাবিতে আন্দোলনে উত্তপ্ত পশ্চিমবঙ্গের দার্জিলিংয়ে চলমান বিক্ষোভ আরও ব্যাপক ও সহিংস আকার ধারণ করছে। শনিবার বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষের ঘটনায় প্রায় অর্ধশত গাড়িতে আগুন দেওয়া হয়েছে, বিক্ষোভকারীরা ধারালো অস্ত্রের আঘাতে নিহত হয়েছে এক পুলিশ কর্মকর্তা। তবে নিরপেক্ষ সূত্র থেকে এ খবরের সত্যতা যাচাই করা সম্ভব হয়নি। আন্দোলনকারী ও পুলিশ একে অপরের দিকে গুলি ছোড়ারও অভিযোগ করেছে। পরিস্থিতি সামাল দিতে সেনা মোতায়েন করেছে কর্তৃপক্ষ।

আন্দোলনরত গোর্খা জনমুক্তি মোর্চার (জিজেএম) অনির্দিষ্টকালের হরতালের মধ্যে বৃহস্পতিবার দলটির প্রেসিডেন্ট বিমাল গুরুংয়ের বাসভবনে অভিযান চালায় নিরাপত্তা বাহিনী। তারপর জিজেএম’র পক্ষ থেকে পুরো জেলায় শাটডাউন (অচল করে দেওয়ার ঘোষণা) ডাকা হলে ১৬ জুন শুক্রবার সেনাবাহিনী মোতায়েন করা হয়। এ বিষয়ে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছেন, এ বিক্ষোভের পেছনে গভীর ষড়যন্ত্র রয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে দার্জিলিংয়ে সেনা মোতায়েন করা হয়েছে।

প্যারিসের রাস্তায় নারীকে চড় মেরে গ্রেফতার মেয়র

করতোয়া ডেস্ক: নাতালিয়ে কসিজকো-মরিয়েট ফরাসী রাজনীতিতে বেশ পরিচিত নাম। ফ্রান্সের সাবেক প্রেসিডেন্ট নিকোলাস সারকোজির আমলে তিনি পরিবেশমন্ত্রী ছিলেন। শনিবার তাকে চড় মেরে রাজধানী প্যারিসের রাস্তায় ফেলে দেন ডানপন্থী মেয়র ভিনসেন্ট দেব্রাইজ। এ ঘটনায় দেব্রাইজকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

ডেইলি মেইলে প্রকাশিত একটি ছবিতে দেখা যায়, দেব্রাইজ প্রকাশ্য দিবালোকে রাস্তার মধ্যেই সজোরে চড় মারছেন নাতালিয়াকে। অন্য ছবিতে দেখা যায় দুই সন্তানের জননী ডিভোর্সী নাতালিয়া লুটিয়ে পড়েছেন রাস্তায়। ৪৪ বছরের ওই নারী রাজনীতিক তার চেতনা হারিয়েছিলেন। তাকে সহযোগীতা করার জন্য এগিয়ে এসেছিলো পথচারীরা। তাকে নিকটবর্তী হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।



Go Top