রাত ৮:৪০, শুক্রবার, ২১শে জুলাই, ২০১৭ ইং
/ বিনোদন

অভি মঈনুদ্দীন: চ্যানেলের কাজেই তাকে ছুটতে হয় প্রতিনিয়ত। তিনি অনন্যা রুমা। সংস্কৃতি অঙ্গনের শিল্পীদের কাছে অতিপ্রিয় একটি নাম। একযুগেরও বেশি সময় ধরে চ্যানেল আইতে চাকুরী করছেন তিনি। নিরলস পরিশ্রম করেন প্রতিনিয়ত নিজের সাফল্যের ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে। কিন্তু এবারের চ্যালেঞ্জটা একটু ভিন্ন। একটি স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র নির্মাণে যেন ভীষণ পরিশ্রম করতে হচ্ছে তাকে।

সঙ্গে যে মানুষটি তার পাশে এসে দাঁড়িয়েছেন তিনি উর্মিলা। ছোটপর্দার দর্শকের কাছে দিনদিন এই প্রজন্মের আলোচিত অভিনেত্রী উর্মিলা শ্রাবন্তী করের দর্শকপ্রিয়তা যেন বেড়েই চলেছে। গত ঈদে বেশ কয়েকটি আলোচিত নাটকের অভিনেত্রী তিনি। সেই ধারাবাহিকতায় উর্মিলা শ্রাবন্তী করকে নিয়ে এবার চ্যানেল আইয়ের ম্যানেজার, প্রোগ্রাম অনন্যা রুমা নির্মাণ করছেন একটি চলচ্চিত্র। অনন্যা রুমার চলচ্চিত্রেই অভিনয় করছেন উর্মিলা শ্রাবন্তী কর।

 অনন্যা রুমার কাহিনী, সংলাপ, চিত্রনাট্য ও পরিচালনায় উর্মিলা দ্বিতীয়বারের মতো স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রে অভিনয় করছেন। নির্মাতা তার নির্মিত এই চলচ্চিত্রের নাম রেখেছেন ‘এই শহরে’। নাম শুনেই খুব সহজেই অনুমেয় কী হবে চলচ্চিত্রটির গল্প। তবে গল্প প্রসঙ্গে এখনই কিছু জানাতে চান না নির্মাতা অনন্যা রুমা। চলচ্চিত্রটিতে ফ্যাশন ডিজাইনার শ্রেয়সী চরিত্রে অভিনয় করছেন উর্মিলা।

এতে অভিনয় প্রসঙ্গে উর্মিলা বলেন,‘ লাক্স চ্যানেল আই সুপারস্টার প্রতিযোগিতা থেকে বের হবার পর অনন্যা রুমা আপুর আদর, ভালোবাসায় বড় হয়েছি। তারই তত্ত্বাবধানে তারকা কথন, গানে গানে সকাল শুরু এবং গানের উৎসব অনুষ্ঠানে উপস্থাপনা করেছি। তাই তারসঙ্গে আমার সম্পর্কটা আতœার। সেই প্রিয় মানুষটি যখন আমাকে নিয়ে এমন একটি চলচ্চিত্র নির্মাণে আগ্রহ দেখান আমি সবিনয়ে তার কাজটি করতে সম্মত হই শুরুতেই। শুরু হলো শুটিং, বেশ উচ্ছাস নিয়েই আমি কাজটি করছি।’ অনন্যা রুমা বলেন,‘ আমার গল্পের জন্য উর্মিলাকেই খুব প্রযোজন ছিলো।

 যে কারণে তাকে ঘিরেই শ্রেয়সী চরিত্রটির ভাবনা ছিলো আমার। আমার ভাবনার সঙ্গে উর্মিলার আগ্রহ এবং পরবর্তীতে তার একান্ত আন্তরিকতায় মুগ্ধ হয়েছি। উর্মিলা এতো ভালো অভিনয় করে তা নিজে নির্মাতা হিসেবে তাকে নিয়ে কাজ করতে গিয়ে উপলদ্ধি করেছি। ’ আসছে আগস্ট মাসেই ইউটিউবে অনন্যা রুমা পরিচালিত ‘এই শহরে’ স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রটি পাওয়া যাবে। পাশাপাশি দেশ বিদেশের বিভিন্ন চলচ্চিত্র উৎসবেও এটি প্রদর্শিত হবে বলে জানান রুমা। এদিকে গেলো ১৮ জুলাই উর্মিলা তার জন্মদিনে তারই ভাই অনন্য চন্দ্র শেখর করের চাকুরী জীবনের পদোন্নতির খবরটি পান।

 নিজের জন্মদিনে বড় ভাই অনন্য’র মেজর পদে পদোন্নতি যেন জন্মদিনকে স্মরনীয় করে তোলে। বাবাকে হারিয়ে এবারের জন্মদিনে মন খারাপ থাকলেও ভাইয়ের এমন অর্জনে যেন তাকে গর্বিত করে তুলে। গেলো ঈদে উর্মিলা অভিনীত এর আগে উর্মিলা সিয়াম আহমেদ’র বিপরীতে ‘আড়াল’ নামে একটি স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছিলেন। গতকাল থেকে ‘এই শহরে’ চলচ্চিত্রের শুটিং শুরু করেছেন উর্মিলা। আগামী ২৪ জুলাই দ্বিতীয় দিনের শুটিং-এ এর কাজ সম্পন্ন করবেন তিনি।  ছবি ঃ মোহসীন আহমেদ কাওছার।

এই বিভাগের আরো খবর

একই অনুষ্ঠানে চঞ্চল-সাজু

বিনোদন প্রতিবেদক : ভিন্ন ধরনের অনুষ্ঠান প্রচার শুরু হয়েছে স্যাটেলাইট চ্যানেল এনটিভিতে। আর নতুন এই অনুষ্ঠানের নাম ‘রঙ্গিন পাতা’। সাপ্তাহিক এই অনুষ্ঠানটিতে প্রত্যেক পর্বে একজন  জনপ্রিয় তারকা ও একজন জনপ্রিয় সাংবাদিক অতিথি হয়ে আসেন । দুই সপ্তাহ ধরে এনটিভিতে প্রচার হয়ে আসছে অনুষ্ঠানটি। এই অনুষ্ঠানেরই একটি পর্বে অতিথি হিসেবে আসছেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত অভিনেতা চঞ্চল চৌধুরী ও ডেইলি স্টার পত্রিকার সাংবাদিক ও জনপ্রিয় সাহিত্যিক শাহআলম সাজু ।  চঞ্চল চৌধুরী ও সাজুর রঙ্গিন পাতার পর্বটি খুব শিগগিরই এনটিভিতে প্রচার হবে বলে চ্যানেলে সূত্রে জানা গেছে । এরইমধ্যে চঞ্চল ও সাজুর পর্বটির শুটিং সম্পন্ন হয়েছে এনটিভির স্টুডিওতে । উপস্থাপনা করেছেন শ্রাবন্য তৌহিদা ।

 রঙ্গিন পাতা অনুষ্ঠানটিতে একজন তারকা ও একজন সাংবাদিক দীর্ঘ সময় ধরে আড্ডা দিবেন। তাদের সম্পর্কের গল্প,তাদের কাজের গল্প,তাদের মধুর স্মৃতির গল্প,চলতি সময়ের অভিনয় ও চলতি সময়ের সাংবাদিকতার গল্পসহ নানা কথা উঠে আসবে রঙ্গিন পাতা অনুষ্ঠানে । চঞ্চল চৌধুরী বলেন, ‘রঙ্গিন পাতা অনুষ্ঠানটির ভাবনাটা ভালো লেগেছে । সাজু আমার ছোট ভাইয়ের মতো, প্রিয় একজন সাংবাদিকও বটে । তার সাথে আড্ডা দিয়েও ভালো লেগেছে।’  সাংবাদিক সাজু বলেন, ‘চঞ্চল দাদা আমার অসম্ভব প্রিয় মানুষ ও প্রিয় শিল্পী । তার সাথে গল্প করে ভালো লেগেছে ।

 এনটিভির রঙ্গিন পাতা অনুষ্ঠানটির ভাবনাটা আমার ভালো লেগেছে। আমার কেবলই মনে হয় অনুষ্ঠানটি দিন দিন দর্শকপ্রিয়তা বাড়বে। কারণ এই ধরনের অনুষ্ঠান চোখেই পড়ে না। অনুষ্ঠানের প্রযোজক কাজী মোঃ মোস্তফাকে অনেক ধন্যবাদ আমাকে এই অনুষ্ঠানে নিমন্ত্রিত করার জন্য। সেইসাথে ধন্যবাদ এনটিভি অনলাইনের সাংবাদিক নাইস নূরকেও।’ এর আগে একুশে টিভিতে তানভীর তারেকের উপস্থাপনায় ‘মিডিয়া গসিপ’ নামের একটি অনুষ্ঠান প্রচার হতো। এতে একজন বা দু’জন শিল্পী এবং একজন সাংবাদিক উপস্থিত থাকতেন। আশা করা যাচ্ছে ‘রঙ্গিন পাতা’ও তেমনি জনপ্রিয় একটি অনুষ্ঠান হবে। 

এই বিভাগের আরো খবর

আনুষ্ঠানিকভাবেই ডিভোর্স হচ্ছে তাহসান মিথিলার

বিনোদন প্রতিবেদক : অবশেষে আনুষ্ঠানিকভাবে ডিভোর্স হতে যাচ্ছে দেশের জনপ্রিয় তারকা দম্পতি তাহসান-মিথিলার। গত বেশ কিছু দিন ধরেই তাদের বিচ্ছেদের গুঞ্জন শোনা গেলেও অবশেষে এটি সত্যি হলো। তাহসান ও মিথিলা একসঙ্গে থাকছেন না কয়েক মাস ধরে। এবার বিচ্ছেদের সত্যতার কথা স্বিকার করে নিলেন দুজনই। এ বিষয়ে গতকাল দুপুরে কথা হয় তাহসানের। তিনি বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

 খুব শিগগিরই তাদের ডিভোর্স এর আনুষ্ঠানিকতা শুরু হবে বলেও জানিয়েছেন তিনি। এ বিষয়ে তাহসান ও মিথিলা একই সুরে বলেন, আমরা একসঙ্গে ঘোষনা দিচ্ছি যে খুব শিগগিরই  আনুষ্ঠানিক ডিভোর্সে যাচ্ছি আমরা। গত কয়েকমাস ধরেই আমরা বিষয়টি নিয়ে ভাবছিলাম। অবশেষে সিদ্ধান্ত নিলাম কোন চাপে না থেকে আলাদা আলাদা থাকার। আমরা জানি আমাদের এই সিদ্ধান্তে অনেকে ব্যাথিত হবেন।

সে জন্য দুঃখ প্রকাশ করছি। এ বিষয়ে তাহসান-মিথিলা আরো বলেন, আমরা সব সময়ই আমাদের সম্পর্কটা ভালোবাসা ও নীতিবোধের মধ্যে রেখেছিলাম। আশা করবো এই সিদ্ধান্তের পরও সেটা অব্যহত থাকবে। আমাদের এই কঠিন সময়ে আমাদের ভক্তরা আমাদের সাথে থাকবেন বলেই বিশ্বাস করি আমরা।

এই বিভাগের আরো খবর

হুমায়ূন আহমদকে শ্রদ্ধা জানিয়ে গাইবেন আশিক ও লিজা

বিনোদন প্রতিবেদক : ছোটবেলা থেকেই হুমায়ূন আহমেদ’র লেখা গল্প উপন্যাসের দারুণ ভক্ত শ্রোতাপ্রিয় কন্ঠশিল্পী লিজা। তাই এই মানুষটির সৃষ্টির প্রতি লিজার ভাবাবেগ ভীষণভাবে জড়িত। তার স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে যেকোন কাজই তাকে আনন্দ দেয়।

অনুরূপভাবে আশিকের ক্ষেত্রেও তাই। নিজের গানের মাঝে প্রায়শই হুমায়ূন আহমেদকে খুঁজে বেড়ান। আশিকের ভাষায়, হমায়ূন আহমেদ চলে গেলেও তিনি আছেন বাংলাদেশের আনাচে কানাচে।  গতকাল ছিলো প্রখ্যাত কথাসাহিত্যক হুমায়ূন আহমেদ’র পঞ্চম মৃত্যুবার্ষিকী। তাকে শ্রদ্ধা জানিয়ে আরটিভি আয়োজন করেছে বিশেষ সরাসারি সঙ্গীতানুষ্ঠান ‘মিউজিক স্টেশন’।

এতে হুমায়ূন আহমেদকে শ্রদ্ধা জানিয়ে গান গাইবেন কন্ঠশিল্পী আশিক ও লিজা। রাত ১১.২০ মিনিট থেকে ২.২০ পর্যন্ত লিজা ও আশিক সঙ্গীত পরিবেশন করবেন। শ্রোতাপ্রিয় কন্ঠশিল্পী লিজা গাইবেন ‘আমার আছে জল’, ‘বাদলা দিনে মনে পড়ে’, ‘চলোনা যাই বসি নিরিবিলি’, ‘যে থাকে আঁখি পল্লবে’। আশিক গাইবেন ‘শোয়া চান পাখি’ , ‘মানুষ ধরো মানুষ ভজ’, ‘ও কারিগর দয়ার সাগর’, ‘আমি কুল ’হারা কলঙ্কিনী’, ‘চাঁদনী পসর রাইতে’। ‘মিউজিক স্টেশন’-এ হমায়ূন আহমেদ’র স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে গান গাওয়া প্রসঙ্গে লিজা বলেন,‘ হমায়ূন স্যারের ভীষণ ভক্ত আমি। তার লেখা গল্প উপন্যাস পড়ে মুগ্ধ হয়েছি কতো বার তার কোন হিসেবে নেই। কিন্তু দুঃখ কিংবা কষ্ট আমার একটাই। স্যারের সঙ্গে কখনো দেখা হলো না। ইচ্ছে ছিলো দেখা করার।

 কিন্তু সেই সময় সুযোগও হলো না। তবে ভালোলাগা এই যে এর আগেও স্যারের গান গেয়েছি। স্যারের প্রতি শ্রদ্ধা রেখে আজ স্যারের ভালোলাগার গানগুলো গাইবো। এটাও অনেক বড় পাওয়া। আশাকরি দর্শক অনুষ্ঠানটি প্রাণভরে উপভোগ করবেন।’ কন্ঠশিল্পী আশিক বলেন, ‘স্যারের সঙ্গে আমারও দেখা হয়নি। তাই এই দুঃখবোধটা সারা জীবনই রয়ে যাবে। তবে আমি বিশেষত বলতে চাই, স্যারের গানগুলোর মধ্যে এক অন্যরকম ভালোলাগা ভালোবাসা অনুভব করি আমি।

আতœা থেকেই গানগুলোর প্রতি শ্রদ্ধা চলে আসে। স্যার নেই। কিন্তু স্যার বেঁচে আছেন তার গানে গানে। সেই গানই গাইবো আজ তার স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা রেখে। স্যার যেখানেই থাকুন ভালো থাকুন। ’ উল্লেখ্য ‘মিউজিক স্টেশন’ অনুষ্ঠানে আরো গাইবেন অনুপমা মুক্তি ও রাজীব। অনুষ্ঠানটি প্রযোজনা করেছেন শাহ আমির খসরু। ছবি ঃ মোহসীন আহমেদ কাওছার

এই বিভাগের আরো খবর

উত্তর আমেরিকা ও ইউরোপে শশী’র ‘দাগ’

বিনোদন প্রতিবেদক : ভীষণ উচ্ছসিত অর্ভিনেত্রী শারমীন জোহা শশী। এবারই প্রথম তার অভিনীত কোন চলচ্চিত্র আন্তর্জাতিক উৎসবে প্রদর্শিত হতে যাচ্ছে। ৭০তম কান উৎসবের শর্টফিল্ম কর্নারে অংশ নেওয়া বাংলাদেশের স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র শমী অভিনীত ‘দাগ’ এবার মুক্তি পাচ্ছে উত্তর আমেরিকা ও ইউরোপের দেশগুলোতে। আসছে নভেম্বর-ডিসেম্বরের মধ্যে শর্টসটিভি (দ্য গ্লোবাল হোম অব শর্ট মুভিজ) তাদের ৪ কোটি সাবস্ক্রাইবারের কাছে পৌঁছে দেবে ‘দাগ’।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ছবিটির পরিচালক জসিম । তিনি জানান, প্রচারের এক সপ্তাহ আগে সময়সূচি থাকবে শর্টসটিভির ওয়েবসাইটে। এদিকে আমেরিকা ও ইউরোপের দর্শকরা কয়েকটি টিভি চ্যানেল, ক্যাবল নেটওয়ার্ক ও আইপি টিভিতে দেখতে পারবেন ছবিটি। মার্কিন চ্যানেলগুলো হলো- ডিরেকটিভি- চ্যানেল ৫৭৩, এটি অ্যান্ড টি ইউ-ভার্স- চ্যানেল ১৭৮৯, ইউএস সনেট- চ্যানেল ২৯২, সেঞ্চুরি লিংক- চ্যানেল ১৭৮৯, ফ্রন্টিয়ার কমিউনিকেশন্স- চ্যানেল ১৭৮৯ ও গুগল ফাইভার- চ্যানেল ৬০৩।


এছাড়া নেদারল্যান্ডের জিগো, ডেলটা ও ইউফোন, বেলজিয়ামের টেলিনেট, জার্মানির ম্যাজিন টিভি এবং রোমানিয়া টেলিকম-চ্যানেল ২০১ ও স্লোভাকিয়ার টেলিকম-চ্যানেল ৩১২ প্রচার করবে ‘দাগ’। শশী বলেন,‘ খুব খুশী আমি খবরটি শুনার পর। ভালোলাগছে যে নিজের অভিনীত একেটি চলচ্চিত্র আন্তর্জাতিক উৎসবে প্রদর্শিত হবে। ’ পরিচালক জসিম বলেন, ‘ব্যক্তিগত আলাপচারিতা, ফোন এবং ফেসবুকের ইনবক্সে অনেকেই জানতে চান বাংলাদেশের দর্শকরা কবে ‘দাগ’ দেখতে পাবেন। এর কোনও সুনির্দিষ্ট উত্তর দিতে পারছিলাম না।

 প্রবল ইচ্ছা ছিল, সবার আগে বাংলাদেশের দর্শকদের কাছে ছবিটি পৌঁছাবো। আমাদের আবেগের জায়গা মহান মুক্তিযুদ্ধের পটভূমির ছবিটি দেশের দর্শকদের জন্যই তো নির্মিত। কিন্তু আন্তর্জাতিক পরিবেশনার স্বার্থে ও পরিবেশকের সঙ্গে স্বাক্ষরিত চুক্তির কিছু বাধ্যবাধকতায় প্রথমে উত্তর আমেরিকা ও ইউরোপের দেশগুলোতে মুক্তি দিতে হচ্ছে ছবিটি।’ আমেরিকা ও ইউরোপ প্রিমিয়ারের ছয় মাসের মধ্যেই বাংলাদেশসহ দক্ষিণ এশিয়া ও মধ্যপ্রাচ্যে স্বল্পদৈর্ঘ্য ছবিটির প্র্রিমিয়ার হবে বলে জানিয়েছেন নির্মাতা জসিম।

এতে মুখ্য তিনটি চরিত্রে অভিনয় করেছেন শশী, শতাব্দী ওয়াদুদ ও বাকার বকুল। এর গল্পে দেখা যায়, ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধে ধর্ষণের শিকার হওয়া একটি মেয়ে অনেক বছর পর বিয়ের রাতেও একই পরিস্থিতিতে পড়ে। কিন্তু তখন সে প্রতিবাদী হয়ে ওঠে। এ ছবির আবহসংগীত পরিচালনা করেছেন পার্থ বড়ুয়া।

এই বিভাগের আরো খবর

‘খাজানা-এ ফ্যাস্টিভ্যাল অব গজলস’ এবং মিতালী মুখার্জি

বিনোদন রিপোর্টার : ১৬ বছর যাবত মুম্বাইতে অনুষ্ঠিত হয়ে আসছে ‘খাজানা-এ ফ্যাস্টিভ্যাল অব গজলস’। পঙ্কজ উদাসের উদ্যোগেই মূলত আজ থেকে ১৬ বছর আগে এই ফ্যাস্টিভ্যালের যাত্রা শুরু হয়। আয়োজকদের একজন মিতালী মুখার্জিও। মুম্বাই থেকে মুঠোফোনে তিনি জানান আসছে ২১ ও ২২ জুলাই দু’দিন ব্যাপী মুম্বাইয়ের নারিমান পয়েন্টের হোটেল ট্রাইডান্ট-এ প্রতিদিন সন্ধ্যা সাতটা থেকে এই ফ্যাস্টিভ্যাল অনুষ্ঠিত হবে। মূলত ক্যান্সার ও থ্যালাসেমিয়ায় আক্রান্ত রোগীদের সাহায্যার্থে এই গজল ফ্যাস্টিভ্যাল অনুষ্ঠিত হয়ে থাকে। আগত শিল্পীরা বিনা পারিশ্রমিকে গজল পরিবেশন করেন। অনুষ্ঠানে সংগৃহিত অর্থ দিয়ে ক্যান্সার ও থ্যালাসেমিয়ায় আক্রান্ত রোগীদের সহায়তা করা হয়। তবে মিতালী মুখার্জির জন্য এবারের ফ্যাস্টিভ্যাল একটু আনন্দেরই বটে।

 কারণ তার স্বামী মুম্বাইয়ের কিংবদন্তী গজল শিল্পী ভূপেন্দর সিং এবারের ফ্যাস্টিভ্যাল-এ লাইফ টাইম এচিভম্যান্ট অ্যাওয়ার্ড পেতে যাচ্ছেন। তাই মিতালী মুখার্জি বেশ উচ্ছসিত। মুঠোফোনে মিতালী মুখার্জি বলেন, ‘আয়োজকদের প্রতি কৃতজ্ঞ আমি এবং আমার পরিবার। সেই মাহেন্দ্রক্ষণের প্রতীক্ষায় আছি আমরা সবাই। সেইসাথে খাজানা ফ্যাস্টিভ্যালে আসার জন্য সবাইকে বিনীত অনুরোধ করছি।

গজল শুনুন, মানুষের পাশে দাঁড়ান। কারণ মানুষের পাশে মানুষকেই দাঁড়াতে হয়।’ এদিকে আজ মিতালী মুখার্জির জন্মদিন। জন্মদিনে সবার কাছে দোয়া চেয়েছেন মুম্বাইয়ের এই গজল স¤্রাজ্ঞী। জন্মদিনে দুপুরে অথবা রাতে স্বামী এবং একমাত্র সন্তান আমান দ্বীপকে সঙ্গে নিয়ে একত্রে বাসাতেই খাওয়া দাওয়া করবেন।

 এদিকে ‘সেরা কন্ঠ-সিজন সিক্স’র পরিচালক ইজাজ খান স্বপন জানান আগষ্টের মাঝামাঝিতে সেরা কন্ঠ’রই প্রধান বিচারকদের একজন হয়ে আবারো ঢাকায় আসছেন মিতালী মুখার্জি। এবার ঢাকায় তিনি দু’সপ্তাহ অবস্থান করবেন। মিতালী মুখার্জির গজলের প্রথম অ্যালবাম ছিলো ‘সাহিল’। এটি ১৯৮৩ সালে প্রকাশ হয়। সর্বশেষ তিন বছর আগে ‘আকসার’ অ্যালবামটি প্রকাশ হয়।

আলাউদ্দিন আলীর সুর সঙ্গীতে আমজাদ হোসেন পরিচালিত ‘এই দুনিয়া এখনতো আর সেই দুনিয়া নাই’ গানটি গেয়ে তিনি জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে ভূষিত হন। তার একমাত্র ছেলে আমান দ্বীপ একজন গীটারিস্ট। সাম্প্রতিক সময়ে তিনি ‘দাঙ্গাল’ চলচ্চিত্রের জন্য কাজ করেছেন। পাশাপাশি জাজ মিউজিকে পড়াশুনাও করছেন তিনি। ছবি ঃ মোহসীন আহমেদ কাওছার।

এই বিভাগের আরো খবর

দুই বাংলাতেই খুব ব্যস্ত সোহানা সাবা

অভি মঈনুদ্দীন : এই সময়ের দর্শকপ্রিয় অভিনেত্রী সোহানা সাবা, কখন ঢাকায় থাকেন আবার কখন কলকাতায় থাকেন তা বুঝার কোনই উপায় নেই। কারণ দুই বাংলাতেই সমানতালে ব্যস্ত রয়েছেন তিনি। গতকাল পর্যন্ত তিনি কলকাতাতেই তার অভিনীত নতুন চলচ্চিত্র সুদীপ্ত সিংহ রায়ের নির্দেশনায় নতুন একটি চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন। এতে তার বিপরীতে আছেন সৌরভ চক্রবর্তী। সাবা জানান এখনো তার অভিনীত এই চলচ্চিত্রের নাম ঠিক হয়নি।

এই লটের কাজ শেষ করে গতকালই সোহানা সাবা কলকাতা থেকে ঢাকায় ফিরেছেন। কলকাতা যাবার আগে তিনি এই বাংলায় ব্যস্ত ছিলেন ঈদের নাটকের কাজ নিয়ে। কলকাতা যাবার আগে তিনি প্রজ্ঞা নীহারিকা, শ্রাবণী ফেরদৌস, এহসান এলাহী বাপ্পী ও সাজ্জাদ সনি’র নির্দেশনায় পাঁচটি নাটকের কাজ করার ব্যাপারে চুড়ান্ত হয়েছেন। এরমধ্যে কিছু নাটকের কাজ করেছেন। আবার আগামী ২১ জুলাই থেকে নাটকের শুটিং শুরু করবেন।

 প্রজ্ঞা নীহারিকার নির্দেশনায় দুটি নাটকের কাজ করবেন। এছাড়া শুরু করবেন দুটি নতুন ধারাবাহিক নাটকেরও কাজ। তাই বলা যায় এপার বাংলা আর ওপার বাংলা-দুই বাংলাতেই সমানতালে ব্যস্ত রয়েছেন সোহানা সাবা। নিজের কাজের ব্যস্ততা প্রসঙ্গে সোহানা সাবা বলেন,‘ সবমিলিয়েই দুই বাংলাতে বেশ ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছি। কখনো কলকাতায় আবার কখনো ঢাকা এবং ঢাকার আশেপাশে শুটিং-এ ব্যস্ত থাকতে হচ্ছে। আমি অভিনেত্রী, মনেপ্রাণে অভিনয়টাই ভালোভাবে করে যেতে চাই। দর্শকের কথা ভাবনায় রেখেই ভালো ভালো কাজ করার চেষ্টা করি সবসময়।

 আমার সকল কাজের প্রেরণাই দর্শক। কারণ দর্শকই কিন্তু আমাকে আজকের এই অবস্থানে নিয়ে এসেছেন। দর্শকের চাহিদার কারণেই দুই বাংলাতেই সমানতালে কাজ করছি।’ সোহানা সাবা অভিনীত সর্বশেষ ধারাবাহিক নাটক দীপ্ত টিভিতে প্রচারিত ‘খেলাঘর’। এদিকে এরইমধ্যে হরনাথ চক্রবর্তীর নির্দেশনায় কলকাতার চলচ্চিত্র ‘এপার ওপার’র কাজ প্রায় শেষ করেছেন তিনি।  

২০০৬ সালে কবরী অভিনীত ‘আয়না’ চলচ্চিত্রে অভিনয়ের মধ্যদিয়ে চলচ্চিত্রে অভিনয়ে সাবার সম্পৃক্ততা ঘটে। এরপর তিনি মোরশেদুল ইসলামের ‘খেলাঘর’, ‘প্রিয়তমেষু’, মুরাদ পারভেজ’র ‘চন্দ্রগ্রহণ’, ও ‘বৃহন্নলা’ চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন।

প্রতিটি চলচ্চিত্রেই তার অনবদ্য অভিনয় দর্শককে মুগ্ধ করে। কলকাতায় তিনি প্রথম অয়ন চক্রবর্ত্তীর নির্দেশনায় ‘ষড়রিপু’ চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন। একজন চলচ্চিত্রাভিনেত্রী হিসেবেও দর্শকের কাছে সাবার একটি বিশেষ অবস্থানও তৈরী হয়েছে। আর তা নিয়ে বেশ খুশি সোহানা সাবা।

এই বিভাগের আরো খবর

শিল্পকলা পদক ২০১৬ পাচ্ছেন ৭ গুণী

বিনোদন রিপোর্টার : শিল্পকলা একাডেমি প্রবর্তিত ২০১৬ সালের শিল্পকলা পদক ঘোষণা করা হয়েছে। এ বছর এ পদক পাচ্ছেন দেশের ৭ গুণীজন। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে এক সংবাদ সম্মেলনে পদকপ্রাপ্তদের নাম ঘোষণা করেন একাডেমির মহাপরিচালক লিয়াকত আলী লাকী। এ বছর যন্ত্রসংগীতে পবিত্র মোহন দে, নৃত্যকলায় মো. গোলাম মোস্তফা খান, আলোকচিত্রে গোলাম মুস্তাফা, চারুকলায় কালিদাস কর্মকার, লোকসংস্কৃতিতে সিরাজউদ্দিন খান পাঠান, নাট্যকলায় অধ্যাপক সৈয়দ জামিল আহমেদ এবং কণ্ঠসংগীতে মিতা হক পুরস্কার পাচ্ছেন।

 নির্বাচিত গুণীজনদের প্রত্যেককে স্বর্ণপদক, এক লাখ টাকা ও সনদপত্র প্রদান করা হবে। আগামী ২০শে জুলাই বিকালে শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় নাট্যশালার মূল মিলনায়তনে পদকপ্রাপ্তদের হাতে পদক তুলে দেবেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। একাডেমির মহাপরিচালক লিয়াকত আলী লাকী জানান, ২০১৩ সাল থেকে শিল্পকলা পদক প্রদান করা হচ্ছে। এটি একটি জাতীয় কার্যক্রম। দেশের শিল্প ও সংস্কৃতির ক্ষেত্রে জাতীয় পর্যায়ে বিশেষ অবদানের জন্য গুণীজন এবং তাদের কর্মকে চিহ্নিত করে সংস্কৃতির পৃষ্ঠপোষকতা ও বিকাশ সাধনের লক্ষ্যে সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের শিল্পকলা পদক প্রদান নীতিমালা অনুযায়ী বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি কর্তৃক ‘শিল্পকলা পদক’ প্রদান করা হয়ে থাকে।

 নীতিমালা অনুযায়ী বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির মহাপরিচালক, একাডেমির সচিব, একাডেমির ৬ জন পরিচালক, ৭  জন বিশিষ্ট সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব এবং সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের ১ জন প্রতিনিধি (যুগ্ম- সচিব পদমর্যাদার নীচে নয়) সমন্বয়ে সর্বমোট ১৬ সদস্যের কমিটি প্রতি বছর পদক প্রদানের ক্ষেত্রে এবং পদকের জন্য গুণীজন নির্বাচন করে থাকেন। ‘শিল্পকলা পদক’-এর জন্য নির্বাচিত গুণীজনদের প্রত্যেককে একটি স্মর্ণপদক, ১ লাখ টাকা সম্মানী ও একটি সনদ প্রদান করা হয়। পদক প্রদানের জন্য দশটি বিষয় রয়েছে। এগুলো হচ্ছে কণ্ঠসংগীত, যন্ত্রসংগীত, নৃত্যকলা, নাট্যকলা, চারুকলা, আবৃত্তি, আলোকচিত্র, যাত্রাশিল্প, চলচ্চিত্র ও লোকসংস্কৃতি। আগামী বছর থেকে এর সঙ্গে সাংস্কৃতিক গবেষণা ও সৃজনশীল সংগঠক বিষয় দুটি যুক্ত হবে বলেও জানান তিনি।

এই বিভাগের আরো খবর

জাহিদ হাসানের বিপরীতে নিশা ও আইরিন তানি

অভি মঈনুদ্দীন : জনপ্রিয় অভিনেতা জাহিদ হাসানের বিপরীতে প্রথমবারের মতো একসঙ্গে অভিনয় করছেন লাক্স তারকাভিনেত্রী নিশা ও আইরিন তানি। জাহিদ হাাসনের নির্দেশনায় এটিএন বাংলার প্রচার চলতি ধারাবাহিক ‘রাজু ৪২০’ ধারাবাহিকে তারা দু’জন প্রথমবারের মতো একসঙ্গে জাহিদ হাসানের বিপরীতে অভিনয় করছেন।

নাটকের গল্পে দেখা যায় রাজু সমাজে অবৈধভাবে যারা বিত্তশালী হয়েছে, ধনী হয়েছে তাদের কাছ থেকে নানানভাবে কৌশলে টাকা আদায় করে গরীব, অসহায়দের মধ্যে টাকা দিয়ে সাহায্য করে। রাজুর সঙ্গে সবসময়ই থেকে এসব কাজে সহযোগিতা করেন নিশা ও আইরিন তানি। নাটকটি প্রসঙ্গে জাহিদ হাসান বলেন,‘ এরইমধ্যে নাটকটিতে অভিনয়ের জন্য বেশ ভালো সাড়া পাচ্ছি।

 গল্পটা সমসাময়িক, যে কারণে দর্শকেরও ভালোলাগছে নাটকটি। এতে আমার বিপরীতে নিশা ও আইরিন তানি খুব চমৎকার অভিনয় করছে। ওরা বেশ মেধাবী। আমি মনেকরি এই ধরনের সম্ভাবনাময় শিল্পীদের ভালো ভালো কাজ করার সুযোগ করে দেয়া উচিত।’ নিশা বলেন, ‘জাহিদ ভাইয়ার নির্দেশনায় এর আগেও আমি বেশ কয়েকটি নাটকে অভিনয় করেছি।

অভিনেতা হিসেবে জাহিদ ভাই খুবই সহযোগিতা পরায়ণ। নির্মাতা হিসেবেও জাহিদ ভাই বেশ যতœ নিয়েই নাটক নির্মাণ করেন। আমি তার নির্দেশনায় তার সঙ্গে কাজ করে ভীষণ গর্ববোধ করি।’ আইরিন তানি বলেন,‘ জাহিদ ভাই আসলে কতো বড় মাপের অভিনেতা-এটা আসলে আমার ব্যাখা করার মতো সাহস নেই। তিনি আমাকে তারসঙ্গে কাজ করার সুযোগ করে দিয়েছেন, এটাই আমার জন্য অনেক বড় পাওয়া।

 রাজু-৪২০’এ কাজ করছি, মন থেকেই ভীষণ উপভোগ করছি আমি কাজটি।’। এদিকে জাহিদ হাসান নির্দেশিত ‘ভ্যাগাব-’ ধারাবাহিকটিও একটি স্যাটেলাইট চ্য্যানেলে প্রচার হচ্ছে। গেলো ঈদের পর নিজের ধারাবাহিকের কাজ নিয়েই ব্যস্ত সময় পার করছেন জাহিদ হাসান। তবে আসছে কোরবানীর ঈদের জন্যও বেশ কয়েকটি নাটক-টেলিফিল্মে অভিনয় করবেন তিনি। এদিকে লাক্স তারকা নিশার নাটকে অভিনয় করলেও প্রবল আগ্রহ তার চলচ্চিত্রে অভিনয় করার।

কিন্তু ব্যাটে বলে মিলছেনা বিধায় তিনি চলচ্চিত্রে অভিনয় করছেন না। আইরিন তানি অভিনীত শামীম জামান পরিচালিত ‘ঝামেলা আনলিমিটেড’ নিয়মিতভাবে আরটিভিতে প্রচার হচ্ছে। এছাড়া শিগগিরই প্রচারে আসবে তার অভিনীত রহমতুল্লাহ তুহিন পরিচালিত ধারাবাহিক ‘কক্ষ নাম্বার ৫২’। ছবি ঃ মোহসীন আহমেদ কাওছার

এই বিভাগের আরো খবর

দেবদাস-পার্বতী ও চন্দ্রমুখীকে নিয়ে গাইলেন দিঠি আনোয়ার

বিনোদন রিপোর্টার : শ্রোতাপ্রিয় কন্ঠশিল্পী দিঠি আনোয়ার চলতি বছরের প্রথম নতুন মৌলিক গান নিয়ে তার ভক্ত শ্রোতাদের মাঝে হাজির হচ্ছেন। তবে এবারের গানের বিষয় শরৎ চন্দ্রের বিখ্যাত সেই তিন চরিত্র, দেবদাস-পার্বতী ও চন্দ্রমুখী। দিঠি আনোয়ারের বাবা একুশে পদক ও বহুবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত গীতিকার গাজী মাজহারুল আনোয়ার তার মেয়ে দিঠির জন্য গানটি লিখেছেন। গানের কথা হচ্ছে ‘দেবদাস তুমি পার্বতীকে ভালোবেসোনা, চন্দ্রমুুখীর কাছে এসো না’। গানটির কথা যখন দিঠি প্রথম হাতে পান তখন ভীষণ উচ্ছসিত হয়ে পড়েন তিনি।

 ইতিহাসের সেই দেবদাস পার্বতী আর চন্দ্রমুুখীকে নিয়ে তিনি এমন একটি গান গাইবেন, এটা যেন কল্পনাতেও ছিলো না। কিন্তু বাবার কাছ থেকে এমন গান পেয়ে দিঠি অনেকটাই আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন। গানের সুর ুসঙ্গীতায়োজন করেছেন আহমেদ কিসলু। এরইমধ্যে গানটির রেকর্ডিং-এর কাজ শেষ হয়েছে। গানটির রেকর্ডিং শেষে গত ৪ জুলাই আমেরিকা গেছেন দিঠি।

ফেসবুকে যোগযোগ করা হলে গানটি প্রসঙ্গে দিঠি বলেন,‘ গানটি একটি রোমান্টিক গান, কিন্তু ভিন্ন ধরনের একটি রোমান্টিক গান। বাবা বরাবরই গান ভালো লিখেন-এটা নিয়ে আসলে নতুন করে বলার কিছু নেই। কিন্তু এমন একটি গান গাওয়ার সৌভাগ্য যে আমার কখনো হবে এটা কল্পনাতেও ছিলো না আমার। আমি সত্যিই উপমহাদেশের বরেণ্য এই গীতিকবি-আমার বাবার কাছে কৃতজ্ঞ।

 সেইসাথে কিসুল ভাইয়ের প্রতিও শ্রদ্ধা, তিনি অসাধারণ সুর করেছেন। গানটি নিয়ে আমার অনেক বেশি আশা। সেই আশা যেন পূরণ হয়।’ দিঠি জানান আগামী ৯ আগস্ট দেশে ফিরে এর মিউজিক ভিডিও নির্মাণ করা হবে। যথারীতি নিজের গানে নিজেই মডেল হিসেবে থাকলেও এবার নিজেতো থাকবেনই, পাশাপাশি দেবদাস, পার্বতী ও চন্দ্রমুখী চরিত্র তিনটিও থাকবে গানে গানে।

  গত বছরের প্রায় শেষের দিকে বাজারে আসে শ্রোতাপ্রিয় কন্ঠশিল্পী দিঠি আনোয়ারের চতুর্থ একক অ্যালবাম ‘পোড়াচোখ’।  প্লে-ব্যাকে দিঠি প্রথম কন্ঠ দেন গাজী মাজহারুল আনোয়ার পরিচালিত ‘উল্কা’ চলচ্চিত্রে। এরপর তিনি বহু চলচ্চিত্রে গান গেয়েছেন। সর্বশেষ তিনি তারই বাবা নির্দেশিত ‘জীবনের গল্প’ চলচ্চিত্রে প্লে-ব্যাক করেন। দিঠির অন্য তিনটি একক অ্যালবাম হচ্ছে ‘লাল গোলাপের শুভেচ্ছা’, ‘মরণ যদি হয়’ এবং ‘একালের গান সেকালের গান’। ছবি ঃ মোহসীন আহমেদ কাওছার

এই বিভাগের আরো খবর

রাজু আলীমের নির্দেশনায় চঞ্চল ও টয়া

বিনোদন প্রতিবেদক : বাংলা সাহিত্যের কিংবদন্তী কথাসাহিত্যিক ও নির্মাণের মহান কারিগর হুমায়ূন আহমেদ এর ১৯ জুলাই প্রয়াণ দিবস উপলক্ষ্যে তাঁর প্রেমের গল্প অবলম্বনে বিশেষ টেলিফিল্ম রূপার জন্য ভালোবাসা প্রচার হবে ১৯ জুলাই সন্ধ্যা ৭:৫০ মিনিটে চ্যানেল আইতে।

টেলিফিল্মটির চিত্রনাট্য ও পরিচালনা করেছেন রাজু আলীম। চিত্রগ্রহণে রয়েছেন জোবায়েদ হোসেন তুফান। বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেনÑ চঞ্চল চৌধুরী, চ্যানেল আই লাক্স সুন্দরী ঈশানা খান ও মুমতাহিনা টয়া, শহিদুল আলম সাচ্চু, কাজী উজ্জল, ইকবাল বাবু, রিয়াজ হোসেন, মাহবুব আলম, মুনা চৌধুরীসহ আরো অনেকে।

 রূপা ঢাকা ইউনিভার্সিটিতে পড়াশুনা করে। রূপার রূপে মুগ্ধ হয়ে তার প্রেমে পরে এক যুবক। রূপার জন্য সে তার পিছন পিছন ঘুরে বেড়ায় কিন্তু তার ভালোবাসার কথা মুখ ফুটে প্রকাশ করতে পারে না। সে কৌশলে রূপার গাড়ি চালকের কাছ থেকে তার বাসার ঠিকানা সংগ্রহ করে। প্রেমে উন্মাদ হয়ে সে রূপার বাড়িতে গিয়ে আমরণ অনশনে বসে পরে।

রূপার বাড়ির লোকজন বিব্রত হয়। রূপার বাবা তাকে হুমকি দেয় পুলিশে দেয়ার কিন্তু সে তার হুমকিকে পরোয়া করে না। সে ঠায় বসে থাকে বাসার সামনে। রূপার মা তাদের আত্মীয়দের খবর দিতে বলে। বাসায় সবাই এসে হাজির হয়। চলতে থাকে নানান জল্পনা কল্পনা। সবার ধারণা রূপার সাথে নিশ্চয় ছেলেটির সম্পর্ক আছে। রূপা সবাইকে বুঝানোর চেষ্টা করে যে সে ছেলেটিকে চেনে না কিন্তু তার কথা কেউ বিশ^াস করে না।

 বাড়ির দারোয়ান থেকে শুরু করে রূপার বাবা পর্যন্ত ছেলেটিকে বুঝায় কিন্তু সে নাছরবান্দা। সে রূপার ভালোবাসার স্বীকৃতি না পাওয়া পর্যন্ত এই বাড়ি থেকে এক পা নড়বে না। শুরু হয় তুমুল বৃষ্টি। বৃষ্টিতে ভিজতে থাকে সে। রূপার খুব মায়া হয় ছেলেটির জন্য। সব শেষে রূপা নিজেই এসে দেখা করে তার সাথে। ছেলেটি দেখে সে যে মেয়েকে ভালোবাসে এই রূপা সেই রূপা না।

এবার সে নিজেই বিব্রত হয়। শেষে মেয়েটির কাছে ক্ষমা চায় এবং ফিরে যেতে চায় কিন্তু রূপা তাকে বলে এখন যদি সে তাকে বিয়ে না করে তাহলে সে আত্মহত্যা করবে। ছেলেটি কোনো কথা বলে না। চিত্রনাট্য এগিয়ে যায় তার নিজস্ব গতিতে।

এই বিভাগের আরো খবর

দারুণ লিখেন ঢাকার গীতিকবিরা জিৎ গাঙ্গুলী

প্রথমবার বাংলাদেশে আসলেন কেমন লাগছে?
বাংলাদেশের এয়ারপোর্টে নামার পর মনেই হয়নি যে অন্যকোন দেশে এলাম। আসলে কৃষ্টি কালাচারে বাংলাদেশ ও পশ্চিম বঙ্গের মধ্যে এতো মিল যে মনেই হয়না ভিন্ন কোন দেশে এসেছি। আগে থেকেই বাংলাদেশের প্রতি অনেক টান ছিলো। এখানে আসার পর অন্যরকম একটা অনুভূতি কাজ করছে। যা ভাষায় প্রকাশ করতে পারব না।
বাংলাদেশের গান সম্পর্কে আইডিয়া আছে কী?আমরা যারা গানের জগতের লোক তাদের ভিবিন্ন দেশের গানের সম্পর্কেই আইডিয়া রাখতে হয়। কোন দেশ কেমন গান করে বিষয়টি আমাদের মাথায় থাকে। আর এটা তো বাংলাদেশ।বাংলা ভাষায় গান। এ দেশের গান সম্পর্কে শুধু আইডিয়াই না নিয়মিত বাংলাদেশের গানও শোনা হয়।  বাংলাদেশের কোন কোন শিল্পীর গান শোনা হয়?

সিনেমার গান তো অবশ্যই শোনি। তবে বেশি শোনা হয়েছে জেমস আইয়ুব বাচ্চু ও মাইলসের গান। এরা ভারতেও বেশ জনপ্রিয় শিল্পী।এখন তো যৌথ প্রযোনার মতো যৌথভাবে গান ও মিউজিক ভিডিও নির্মাণ হচ্ছে। বিষয়টি আপনি কীভাবে দেখছেন?বাংলাদেশ ভারতের মধ্যে যৌথপ্রযোজনায়  নির্মিত ছবির মতো  ইদানিং গানও হচ্ছে। এটা তো সুখবরই মনে করি আমি।

যেহেতু আমাদের সংস্কৃতি এক, ভাষা এক তাই এগুলোর আদান প্রধান আমাদের দুই দেশের শিল্পীদের জন্যই ভালো দিক। তবে এতে করে যেন দুই দেশেরই স্বার্থ ঠিক থাকে এ বিষয়ের দিকে লক্ষ রাখাটাও গুরুত্বপূর্ণভাবে দেখতে হবে।কলকাতার শিল্পীরা বাংলাদেশে অ্যালবাম প্রকাশ করছে, সিনেমায় গান গাচ্ছে। কিন্তু এ দেশের শিল্পীদের কলকাতায় গানে তেমন একটা দেখা যায়না। এটা কী সহযোগীতার অভাবে?

অবশ্যই না। সিনেমায় কিন্তু এ দেশের অভিনেতা অভিনেত্রীরাও কলকাতায় বেশ সম্মান নিয়েই কাজ করছেন। সেখানকার দর্শকদের জনপ্রিয়তাও পাচ্ছেন। এ দেশের অনেক শিল্পীরাও  ভারতে গিয়ে গান গাচ্ছেন। তবে অনেক সময় যোগাযোগের অভাবে উপস্থিতি কম দেখা যায়। শক্ত মধ্যস্থতাকারী হলে দুই দেশেরই শিল্পীরাই কাজ করে উপকৃত হবেন।তামিল হিন্দি গানের সঙ্গে প্রতিযোগীতা করে টিকে থাকতে হচ্ছে। এ পরিস্থিতিতে কলকাতায় বাংলা গানের বাজার বা চাহিদা কেমন?
এটা তো প্রতিযোগীতা করে টিকে থাকার যোগ। শুধু গান নয়, সকল বিষয় নিয়েই আমাদের মানুষদের প্রতিযোগীতা করে টিকে থাকতে হয়। কলকাতায় অন্য ভাষার সঙ্গে প্রতিযোগীতা করে বাংলা গানকে এগিয়ে নেয়া হচ্ছে তেমনি এ দেশেও কোন না কোন কিছুর সঙ্গে প্রতিযোগিতা করে গান এগিয়ে যাচ্ছে। কলকাতায় এখনও বাংলা গানের বাজার ভালো। অদূর ভবিষ্যতে আরও ভালো হবে বলে আশা করি।

প্রস্তাব পেলে বাংলাদেশের ছবিতে  প্লে­ব্যাক বা বাংলাদেশের গীতিকারদের সঙ্গে কাজের ইচ্ছে আছে কী?অবশ্যই আছে। ভারতে আমি তো সিনেমার গানই বেশি করি। এ দেশের সিনেমার সঙ্গীত পরিচালনা করারও ইচ্ছে আছে। আর এ দেশে অনেক ভালো ভালো গীতিকার রয়েছে। যারা অনেক ভালো ভালো গান লিখছেন। তারা উদ্যোগ নেক। আমি বাংলাদেশের গীতিকার সঙ্গেও কাজ করতে চাই। বাংলাদেশ ও ভারত দুই দেশেই ভিবিন্ন রিয়েলিটি শো’র মাধ্যমে শিল্পী তুলে আনা হচ্ছে। এ প্রক্রিয়াকে আপনার কাছে কেমন মনে হয়?

বিষয়টি অবশ্যই ভালো দিক। এ ধরনের রিয়েলিটি শো’র মাধ্যমে অনেক ভালো ভালো শিল্পী বের হয়ে আসছে। এদের অনেকেই শিল্পী হিসেবে ইন্ডাষ্ট্রিতে প্রতিষ্ঠা পাচ্ছে। তবে ঝড়ে যাওয়ার সংখ্যাও কম নয়। এ ঝড়ে পাওয়ার পিছনেও রয়েছে বিশেষ একটি কারণ। সেটি হচ্ছে তারা যখন প্রতিযোগী হয়ে থাকে। তখন তাদের মধ্যে চর্চাও থাকে। প্রতিযোগীতা শেষ হয়ে গেলেই চর্চা থেকে মুখ ফিরিয়ে নেন। গান হচ্ছে চর্চার বিষয়। এটি না থাকলে গানে সফলতা আসবে না। পাশাপাশি ভাগ্যের সহায়তা তো রয়েছেই।

এই বিভাগের আরো খবর

কাটনারপাড়া সর. প্রা. স্কুলে শুদ্ধভাবে জাতীয় সঙ্গীত প্রশিক্ষণ কর্মশালা

বগুড়া জেলা শিল্পকলা একাডেমির আয়োজনে গতকাল রোববার বিকেলে শহরের কাটনারপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শুদ্ধভাবে জাতীয় সঙ্গীত প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে। ওই বিদ্যালয়ের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীবৃন্দ জাতীয় সঙ্গীত প্রশিক্ষণ কর্মশালায় অংশগ্রহণ করে।

কর্মশালার উদ্বোধন করেন প্রধান শিক্ষক নাসরীন সুলতানা। এ সময় উপস্থিত ছিলেন সহকারি শিক্ষক মনজু আরা বেগম, শাহানাজ বেগম ও আতিয়া রহমান। কর্মশালায় প্রশিক্ষণ প্রদান করেন জেলা শিল্পকলা একাডেমির সাধারণ সঙ্গীত প্রশিক্ষক মনিকা রানি ঘোষ ও ফওজিয়া আকতার পুতুল। তালযন্ত্রে নিখিল চন্দ্র দাস। কাটনারপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ৫৫ জন শিক্ষার্থী এই প্রশিক্ষণ কর্মশালায় অংশগ্রহণ করে। খবর বিজ্ঞপ্তির।

এই বিভাগের আরো খবর

কবে আসবে পপির ‘সোনা বন্ধু’!

বিনোদন প্রতিবেদক : বেশ কয়েকমাস ধরে এফডিসিতে টাঙ্গিয়ে রাখা হয়েছে পপি, পরীমনি ও ডিএ তায়েব অভিনীত ছবি ‘সোনাবন্ধু’র বিশাল পোস্টার। চিত্রপাড়ার গেট দিয়ে প্রবেশের পরই সবার নজরে পড়ে পোস্টারটি। কয়েকমাস আগে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ছবির শুটিং প্রায় শেষের পথে। কিছু শুটিং বাকি। শুটিং শেষ করার পর টেকনিক্যাল কাজ শেষ করে মুক্তির জন্য প্রস্তুত করা হবে।

সে সময় ছবিটির নায়িকা পপির কাছে জানতে চাওয়া হলে তিনিও বলেছিলেন তার কিছু অংশের শুটিং বাকি রয়েছে। এরপরই ডাবিংয়ে অংশ নেব। এমন কথার পর বেশ কয়েকমাস চলে গেলেও এখনও বাকি থাকা শুটিং শেষ করা হয়নি। তিন চার মাস আগে পপির মুখে যে কথা শোনা গেছে এখনও সে কথাই বলছেন। পপির কাছে সোনাবন্ধু ছবির আপডেট কী জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘সামান্য অংশের শুটিং বাকি। কয়েকদিন লাগার কথা।

কিন্তু কেউ তো কিছু বলছেন না। ডাবিংও শুরু হওয়ার কথা। তারও কোনো ডাক আসছে না।’এ ছবিটির মাধ্যমে প্রথমবার একসঙ্গে পপি, পরীমনি ও ডিএ তায়েব অভিনয় করছেন। ঢাকা, টাঙ্গাইল ও দেশের বিভিন্ন স্থানে দৃশ্য ধারণের পর অবশেষে শেষ হয়েছে ছবির নব্বই ভাগ শুটিং। সামাজিক প্রেক্ষাপটের গল্প নিয়ে এগিয়েছে। ছবিতে বারী সিদ্দিকী, মমতাজ, সালমাসহ আরও অনেকের গান রয়েছে।

এই বিভাগের আরো খবর

গানে, অভিনয়ে আর উপস্থাপনার স্বাগতা

বিনোদন প্রতিবেদক : ২০১৫ সালের ২৩ সেপ্টেম্বর বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হয়েছেন স্বাগতা। বিয়ের আগে বেশ কয়েকটি ধারাবাহিক নাটকে কাজ করলেও বিয়ের পর আর নতুন কোন ধারাবাহিকে তাকে অভিনয়ে দেখা যায়নি। বর্তমানে তিনি নতুন একটি ধারাবাহিক নাটকে অভিনয় করছেন। নজরুল ইসলাম রাজু পরিচালিত এনটিভিতে প্রচার চলতি ধারাবাহিক নাটক ‘সানফ্লাওয়ার’এ তিথি চরিত্রে অভিনয় শুরু করেছেন তিনি।

গেলো ঈদে স্বাগতা অভিনীত আলোচিত নাটকের মধ্যে ছিলো সাত পর্বের ধারাবাহিক নাটক ‘সুলতান’ ও খ- নাটক ‘হিরু ভাইয়ের হিরোইন’। তবে নাটকে অভিনয়ের চেয়ে উপস্থাপনাতেই উপস্থিতি ছিলো তার চোখে পড়ার মতো। রমজান মাসজুড়ে ইফতার বিষয়ক বিশেষ অনুষ্ঠান স্বাগতার উপস্থাপনাতেই প্রচার হয়েছে এটিএন বাংলায়।

 বিটিভিতে চার পর্বের বিশেষ ‘ছায়াছন্দ’, এনটিভিতে জেমসের সঙ্গীত বিষয়ক অনুষ্ঠান এবং এশিয়ান টিভিতে ‘এশিয়ান মিউজিক ঈদ স্পেশাল’র উপস্থাপনা করেন তিনি। স্বাগতা বলেন,‘ অভিনয় করতে ভীষণ ভালোলাগে। তবে এবারের ঈদে উপস্থাপনা বেশ উপভোগ করেছি আমি।

যতোগুলো অনুষ্ঠানের উপস্থাপনা করেছি প্রত্যেকটির জন্যই বেশ সাড়া পেয়েছি। ’ স্বাগতা ‘সানফ্লাওয়ার’ এর আগে মাতিয়া বানু শুকুর ‘ধন্যি মেয়ে’ ধারাবাহিকে অভিনয় করেছিলেন। বিয়ের আগে তিনি বারোটি ধারাবাহিকে অভিনয় করতেন। কিন্তু বিয়ের পর নিজেকে নিয়ে এতোটাই ব্যস্ত হয়ে উঠলেন যে অভিনয়ে তাকে কম পাওয়া যায়। এদিকে গত পাঁচ মাস যাবত স্বাগতা বাংলা ভিশনে প্রচার চলতি ‘সোনালী দিনের রূপালী গল্প’ অনুষ্ঠানের উপস্থাপনা করছেন।

অনুষ্ঠানটির ভিন্নতা এখানেই যে , যে সিনেমা সম্পর্কে তথ্য দেয়া হয় সেই সিনেমার নায়িকার মতো সেজে পর্দায় উপস্থিত হন স্বাগতা। এরইমধ্যে অনুষ্ঠানটি দর্শকের মধ্যে বেশ সাড়া ফেলেছে। ছোটবেলায় স্বাগতা ‘লিনজা’ , ‘সতীপুত্র আব্দুল্লাহ’, ‘সম্মান’ এবং ‘টপ মাস্তান’ চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছিলেন। বড়বেলায় এসে তিনি অভিনয় করেন জয়নাল আবেদীনের ‘শত্রু শত্রু খেলা’, নায়ক রাজ রাজ্জাকের ‘কোটি টাকার ফকির’ এবং কাজী হায়াতের ‘অশান্ত মন’ চলচ্চিত্রে।

আখতারুজ্জামানের ‘সূচনা রেখার দিকে’ চলচ্চিত্রেও অভিনয় করেছিলেন। কিন্তু চলচ্চিত্রটি আজো মুক্তি পায়নি। স্বাগতার গানের অ্যালবাম হচ্ছে ‘মুহিনের ঘোড়াগুলি’, ‘স্বপ্নচূড়া’, ‘মহাকাল’ ,‘ভালোবাসি তোমাকে’। স্বাগতা প্রথম অভিনয় করেন আব্দুল্লাহ আল মামুন নির্দেশিত ‘এক জনমে’ ধারাবাহিকে। তার প্রথম একক নাটক ইউসুফ হোসেন অর্ক’র ‘ইচ্ছে পূরণ’।

এই বিভাগের আরো খবর

‘আমরা মানুষ’ এবং অভিনয়েই ব্যস্ত তুষ্টি

অভি মঈনুদ্দীন : অভিনয় শিল্পী সংঘ’র আইন ও কল্যাণ সম্পাদক দর্শকপ্রিয় মডেল ও অভিনেত্রী বর্তমানে তার প্রতিষ্ঠিত ফাউ-েশন ‘আমরা মানুষ’র কার্যক্রম এবং অভিনয়ে বেশ ব্যস্ত সময় পার করছেন। গেলো ঈদে অভিনয়ে যেমন ছিলেন ব্যস্ত ঠিক তেমনি ‘আমরা মানুষ’র কার্যক্রম নিয়েও দারুণ ব্যস্ত সময় পার করেছেন তিনি। গেলো ঈদে বাংলাভিশনে প্রচারিত সালাহ উদ্দিন লাভলু পরিচালিত ‘প্রেম করা নিষেধ’ নাটকে অভিনয় করে বেশ প্রশংসিত হন তুষ্টি। পাশাপাশি ‘অভিনয় শিল্পী সংঘ’র নানা কার্যক্রমের সাথে সবসময়ই সংযুক্ত থেকে সময় দিয়েছেন এই সংঘের জন্য।

 শুধু নির্বাচিতই যে হয়েছেন তিনি এমনটি নয়, সংঘের জন্য কাজও করছেন যথেষ্ট আন্তরিকতা নিয়ে। আজ থেকে দুই বছর আগে প্রজন্ম থেকে প্রজন্ম মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ছড়িয়ে দিতে তুষ্টি নিজে সভাপতি থেকে গড়ে তুলেন ‘আমরা মানুষ’ ফাউ-েশন। এই ফাউ-েশনেরই তত্ত্বাবধানে দেশের সকল স্কুলে স্কুলে গিয়ে তুষ্টি তার তার ফাউ-েশনের কর্মীরা তরুণ প্রজন্মের মধ্যে ছড়িয়ে দিচ্ছেন মুক্তিযুদ্ধের চেতনা। ‘দায়িত্ব আমার-আনন্দ সবার’ এই স্লোগানকে সামনে রেখেই তুষ্টির ‘আমরা মানুষ’ ফাউ-েশনের কাজ এগিয়ে চলেছে। এদিকে মুক্তিযুদ্ধের মতার্দশে উজ্জীবিত হয়ে রাজনীতির সাথে নিজেকে সম্পৃক্ত করেছেন তুষ্টি। তুষ্টি বলেন,‘ আপাতত আমার পরিচয় একজন অভিনেত্রী। তবে আগামীতে নিজের পরিচয়ের অভি’ শব্দটি ফেলে দিয়ে শুধু নেত্রী হিসেবেই পরিচিত হবো আমি।


 এখন অভিনয়ের পাশাপাশি মানুষের জন্য কাজ করে যাচ্ছি। কাজ করে যাচ্ছি প্রজন্ম থেকে প্রজন্ম মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ছড়িয়ে দিতে মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস শুনো-এই শ্লোগানকে সামনে রেখে। আমার বিশ্বাস নতুন প্রজন্মকে রাজনীতিতে গুরুত্ব দিলে আগামীর সমৃদ্ধ এবং উন্নয়শীল বাংলাদেশ গড়ে তোলা সম্ভব।’ এদিকে তুষ্টি এরইমধ্যে নতুন বেশ কয়েকটি ধারাবাহিক নাটকে অভিনয় করছেন। নাটকগুলো হচ্ছে সঞ্জিত সরকারের ‘মজনু একজন পাগল নহে’, শাহজাদা মামুনের ‘শুকনো পাতার নূপুর’, বিপ্লবের ‘টিরিগিরি টক্কা’ ইত্যাদি।

এদিকে গেলো ঈদে কিশোরগঞ্জের একটি হাওরের দেড় হাজার মানুষের মধ্যে ‘আমরা মানুষ’র পক্ষ থেকে ঈদের জামা কাপড় বিতরণ করেন তুষ্টি। আবার ভীষণ অপেক্ষায় আছেন তুষ্টি তার অভিনীত রুহুল আমিন পরিচালিত ‘হাছন রাজা’ চলচ্চিত্রটির মুক্তির। এতে তিনি কুসুম চরিত্রে অভিনয় করেছেন। তার সহশিল্পী হিসেবে আছেন মিঠুন চক্রবর্তী। ছবি : মোহসীন আহমেদ কাওছার

এই বিভাগের আরো খবর

একই ধারাবাহিকে তারা পাঁচজন

বিনোদন রিপোর্টার : পলাশ, খুশী, আশা, হানিফ ও আইয়ূব ‘পোস্ট গ্র্যাজুুয়েট’ ধারাবাহিকের পাঁচটি চরিত্র। আর এই পাঁচটি চরিত্রে যথারীতি অভিনয় করছেন চঞ্চল চৌধুরী, শাহানাজ খুশী, ফারহানা মিলি, সিদ্দিকুর রহমান সিদ্দিক ও মিশু সাব্বির। পাঁচ জনের অভিনীত এই ধারাবাহিকটির আজ ৪০’তম পর্ব প্রচার হবে স্যাটেলাইট চ্যানেল এনটিভিতে রাত ৮:৩০ মিনিটে।

এবারই প্রথম তারা পাঁচজন কোন ধারাবাহিক নাটকে একসঙ্গে অভিনয় করছেন। মোস্তফা কামাল রাজ রচিত ও পরিচালিত এই ধারাবাহিকটি শুরু থেকেই দর্শকপ্রিয়তা পেয়ে আসছে। যে কারণে রাজ এই নাটকটি ১০৪ পর্ব পর্যন্ত নির্মাণ করবেন বলে জানিয়েছেন। নাটকটিতে অভিনয় প্রসঙ্গে চঞ্চল চৌধুরী বলেন,‘ অভিনেতা হিসেবে আমার দায়িত্ব হচ্ছে চরিত্রে মনোযোগী থেকে অভিনয় করে যাওয়া। আমি তাই করছি। আমরা সবাই মিলে একটি ভালো কাজ করার চেষ্টা করছি। বাকীটুকু ভালো বলতে পারবেন দর্শক।

 শাহানাজ খুশী বলেন,‘ আমার চরিত্রটি আমি যথেষ্ট মনোযোগ দিয়ে করার চেষ্টা করছি শুরু থেকেই। ’ ফারহানা মিলি বলেন,‘ ঈদের পর এই ধারাবাহিকে আবারো কাজ করার মধ্যদিয়ে অভিনয়ে ফেরা। সবাই যার যার অবস্থান থেকে ভালো করার চেষ্টা করছি আন্তরকিভাবেই। দর্শকের ভালোলাগলেই আমাদের কষ্ট সার্থক হয়।’ সিদ্দিকুর রহমান সিদ্দিক বলেন,‘ রাজ আমার বন্ধু মানুষ।

যে কারণে তার নির্দেশনায় কাজ করতে গেলে কীভাবে যে কাজ বেরিয়ে আসে তা টেরই পাইনা। তবে সবসময়ই চেষ্টা করি আন্তরকিতা নিয়ে কাজ করতে।’ মিশু সাব্বির বলেন, ‘নাটকটির যারা নিয়মিত দর্শক তারা নাটকটি দেখছেন এবং বেশ ভাল সারা পাচ্ছি’। এদিকে এবারের ঈদে চঞ্চল চৌধুরী দীপু হাজরার ‘উসিলা’, তাইফুজ্জামান আশিক-জসীম মনের ‘হপাই’ ও ‘বিবেক মজিদ’ নাটকে অভিনয়ের জন্য বেশি সাড়া পেয়েছেন।

 অন্যদিকে শাহানাজ খুশী এই তিনটি নাটকে অভিনয়ের জন্য ঠিক তেমন সাড়া পাবার পাশাপাশি সাগর জাহানের ‘নসু ভিলেন’ ধারাবাহিকটির জন্যও বেশ সাড়া পেয়েছেন। এই চারটি নাটকেরই রচয়িতা বৃন্দাবন দাস। চঞ্চল চৌধুরী ও শাহানাজ খুশী সাঈদুর রাসেলের নির্দেশনায় ‘অষ্টধাতু’ ধারাবাহিক নাটকে অভিনয় করছেন। ফারহানা মিলিকে ‘মনপুরা’র পর আর কোন চলচ্চিত্রে অভিনয়ে দেখা যায়নি।

‘পোস্ট গ্র্যাজুুয়েট’-এ তার সহশিল্পী ‘মনপুরা’তে তার নায়ক সেই চঞ্চল চৌধুরীই। দর্শকের কাছে এখনো চঞ্চল-মিলি জুটির এক অন্যরকম গ্রহণযোগ্যতা আছে। এই জুটিকে ‘মনপুরা’র পর বেশ কয়েকটি নাটক টেলিফিল্মে অভিনয়ে দেখা গেছে। ছবি ঃ মোহসীন আহমেদ কাওছার

এই বিভাগের আরো খবর

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার বিতরণ ২৪ জুলাই

বিনোদন প্রতিবেদক : আগামী ২৪ জুলাই ‘জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার-২০১৫’ বিতরণ করা হবে। বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। জানা যায় আগামী ২৪ জুলাই সোমবার বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠান হবে। প্রসঙ্গত, গত ১৬ মে তথ্য মন্ত্রণালয়ের চলচ্চিত্র অধিশাখা থেকে এ পুরস্কার দেওয়ার বিষয়ে প্রজ্ঞাপন জারি হয়। প্রজ্ঞাপনে, বাংলাদেশের চলচ্চিত্র শিল্পে গৌরবোজ্জ্বল ও অসাধারণ অবদানের স্বীকৃতি হিসেবে ২৫টি ক্ষেত্রে চলচ্চিত্র শিল্পী ও কলাকুশলীদের ‘জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার ২০১৫’ দেওয়ার ঘোষণা দেওয়া হয়। ২০১৫ সালের জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার যারা পাচ্ছেন : আজীবন সম্মাননা : যুগ্মভাবে— শাবানা ও ফেরদৌসী রহমান; শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র : যুগ্মভাবে বাপজানের বায়োস্কোপ (পরিচালক : মো. রিয়াজুল মওলা রিজু) ও অনিল বাগচীর একদিন (পরিচালক : মোরশেদুল ইসলাম); শ্রেষ্ঠ প্রামাণ্য চলচ্চিত্র : একাত্তরের গণহত্যা ও বধ্যভূমি (চলচ্চিত্র ও প্রকাশনা অধিদপ্তর); শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র পরিচালক : যুগ্মভাবে মো. রিয়াজুল মওলা রিজু (চলচ্চিত্র : বাপজানের বায়োস্কোপ) ও মোরশেদুল ইসলাম (চলচ্চিত্র : অনিল বাগচীর একদিন)।


শ্রেষ্ঠ অভিনেতা (প্রধান চরিত্রে) : যুগ্মভাবে শাকিব খান (চলচ্চিত্র : আরো ভালোবাসব তোমায়) ও মাহফুজ আহমেদ (চলচ্চিত্র : জিরো ডিগ্রি); শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী (প্রধান চরিত্রে) : জয়া আহসান (চলচ্চিত্র : জিরো ডিগ্রি); শ্রেষ্ঠ অভিনেতা (পার্শ্ব চরিত্রে) : গাজী রাকায়েত (চলচ্চিত্র : অনিল বাগচীর একদিন); শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী (পার্শ্ব চরিত্রে) : তমা মির্জা (চলচ্চিত্র : নদীজন); শ্রেষ্ঠ অভিনেতা/অভিনেত্রী খল চরিত্রে : ইরেশ যাকের (চলচ্চিত্র : ছুঁয়ে দিল মন); শ্রেষ্ঠ শিশুশিল্পী : যারা যারিব (চলচ্চিত্র : প্রার্থনা); শিশুশিল্পী শাখায় বিশেষ পুরস্কার : প্রমিয়া রহমান (চলচ্চিত্র : প্রার্থনা)। শ্রেষ্ঠ সংগীত পরিচালক : সানী জুবায়ের (চলচ্চিত্র : অনিল বাগচীর একদিন); শ্রেষ্ঠ গায়ক : যুগ্মভাবে সুবীর নন্দী (তোমারে ছাড়িতে বন্ধু, চলচ্চিত্র : মহুয়া সুন্দরী) ও এসআই টুটুল (উথাল পাতাল জোয়ার, চলচ্চিত্র : বাপজানের বায়োস্কোপ); শ্রেষ্ঠ গায়িকা : প্রিয়াংকা গোপ (আমার সুখ সে তো, চলচ্চিত্র : অনিল বাগচীর একদিন); শ্রেষ্ঠ গীতিকার :

 আমিরুল ইসলাম (উথাল পাতাল জোয়ার, চলচ্চিত্র : বাপজানের বায়োস্কোপ); শ্রেষ্ঠ সুরকার : এস আই টুটুল (উথাল পাতাল জোয়ার, চলচ্চিত্র : বাপজানের বায়োস্কোপ)। শ্রেষ্ঠ কাহিনীকার : মাসুম রেজা (বাপজানের বায়োস্কোপ); শ্রেষ্ঠ চিত্রনাট্যকার : যুগ্মভাবে- মাসুম রেজা (বাপজানের বায়োস্কোপ) ও মো. রিয়াজুল মওলা রিজু (বাপজানের বায়োস্কোপ); শ্রেষ্ঠ সংলাপ রচয়িতা : হুমায়ূন আহমেদ (অনিল বাগচীর একদিন); শ্রেষ্ঠ সম্পাদক : মেহেদী রনি (বাপজানের বায়োস্কোপ); শ্রেষ্ঠ শিল্প নির্দেশক : সামুরাই মারুফ (জিরো ডিগ্রি); শ্রেষ্ঠ চিত্রগ্রাহক : মাহফুজুর রহমান খান (পদ্ম পাতার জল); শ্রেষ্ঠ শব্দগ্রাহক : রতন কুমার পাল (জিরো ডিগ্রি); শ্রেষ্ঠ পোশাক ও সাজসজ্জা : মুসকান সুমাইকা (পদ্ম পাতার জল) এবং শ্রেষ্ঠ মেকআপম্যান : শফিক (জালালের গল্প)।

এই বিভাগের আরো খবর

আসিফের মহাজাগতিক পথচলা’-র প্রিমিয়ার শো এবং প্রকাশনা উৎসব অনুষ্ঠিত

বিনোদন রিপোর্টার : বিজ্ঞানভিত্তিক প্রামাণ্যচিত্র ‘আসিফের মহাজাগতিক পথচলা’-র প্রিমিয়ার শো এবং প্রকাশনা উৎসব গত ১১ জুলাই মঙ্গলবার সন্ধ্যায় বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘরের কবি সুফিয়া কামাল মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়। প্রামাণ্যচিত্রের মোড়ক উম্মোচন করেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের সংস্কৃৃতি বিষয়ক মন্ত্রী এবং কিংবদন্তী অভিনেতা জনাব আসাদুজ্জামান নূর।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট মিডিয়া ব্যক্তিত্ব রামেন্দু মজুমদার। সভাপতিত্ব করেন লেজার ভিশনের চেয়ারম্যান জনাব এ কে এম আরিফুর রহমান। আহসান হাবীবের পরিকল্পনায় এবং লেজার ভিশনের পরিবেশনায় প্রামাণ্যচিত্রটি গ্রন্থণা, চিত্রগ্রহণ, সম্পাদনা এবং পরিচালনা করেছেন মাহবুবুল আলম তারু।

 দেশের সাধারণ মানুষকে বিজ্ঞান-মনস্ক করে তোলার লক্ষ্যে দীর্ঘ ২৫ বছর ধরে একজন মানুষের নিরন্তর পথচলার সত্য গল্প এই প্রামাণ্যচিত্রে বিধৃত হয়েছে। প্রামাণ্যচিত্রটিতে দেখা যায় বিজ্ঞান-বক্তা আসিফ যিনি ১৯৯২ সাল হতে আজ অবধি বাংলাদেশের প্রত্যন্ত এলাকায় বিজ্ঞানের আলো পৌঁছে দিচ্ছেন, তবে তা দর্শনীর বিনিময়ে। যা আমাদের সমাজে অকল্পনীয় হলেও আসিফ তা সম্ভব করেছেন।

অর্থাৎ বিভিন্ন পেশার মানুষ টাকা দিয়ে টিকেট কেটে আসিফের বিজ্ঞান বক্তৃতা শুনছেন, প্রশ্ন করছেন, উত্তর জেনে নিচ্ছেন ; আর উত্তর মনোঃপুত না হলে আবারও প্রশ্ন করছেন। সাধারণ মানুষের মধ্যে বিজ্ঞানকে নিয়ে প্রশ্ন করার আগ্রহ জাগাতে পেরেছেন আসিফ। একটি অসম্ভবকে বাস্তবে রূপ দিয়েছেন আসিফ।

এই বিভাগের আরো খবর

একসঙ্গে উপস্থাপনায় দেবাশীষ-স্বাগতা

অভি মঈনুদদ্দীন : আগামী  ১৫ জুলাই রাজধানীর বসুন্ধরা আন্তর্জাতিক কনভেনশন সেন্টারে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ‘শর্মিলা ঠাকুর-জিৎ গাঙ্গুলী লাইভ ইন ঢাকা’ শিরোনামের কনসার্ট। এই কনসার্টে অংশগ্রহনের জন্য ঢাকা আসছেন বলিউডের কিংবদন্তী অভিনেত্রী শর্মিলা ঠাকুর ও ভারতের জনপ্রিয় গায়ক ও সঙ্গীত পরিচালক জিৎ গাঙ্গুলী। এই অনুষ্ঠানের উপস্থাপনা করবেন দেবাশীষ বিশ্বাস ও স্বাগতা।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন অনুষ্ঠানের আয়োজক ও চ্যানেল লাইভ এন্টারটেইনম্যান্ট’র সি ই ও অনন্যা রুমা। অনুষ্ঠানে উপস্থাপনা করা প্রসঙ্গে দেবাশীষ বিশ্বাস বলেন, ‘আমি বলিউডের নায়ক রাজেশ খান্নার ভীষণ ভক্ত। রাজেশ খান্নার বিপরীতে বহু চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন শর্মিলা ঠাকুর। আবার রবীন্দ্র ঠাকুরের নাতনী তিনি।

 বাংলা ভাষার চলচ্চিত্রেও অভিনয় করেছেন তিনি। সবমিলিয়ে কেন যেন মনে হয় শর্মিলা ঠাকুর আমাদেরই একজন। সেই প্রিয় মানুষটি আমার সামনে বসে থাকবেন , আর আমি তারই সামনে তাকে তুলে ধরবো এটা ভাবতেই আমার ভীষণ আনন্দ হচ্ছে। আমি আয়োজক কমিটির প্রতি ভীষণ কৃতজ্ঞ। সেইসাথে আমি অনুষ্ঠানটিতে অংশগ্রহণের জন্য নিজেকে প্রস্তুতও করছি।’ স্বাগতা বলেন,‘ অনন্যা রুমা আপুর প্রতি কৃতজ্ঞ যে তিনি আমাকে এই অনুষ্ঠানের সাথে সম্পৃক্ত রেখেছেন। কিছুটা ভয়তো কাজ করছেই , কারণ এতো বড় মাপের একজন কিংবদন্তী নায়িকার সামনে উপস্থাপনা করতে হবে।

 বিষয়টি আমার জন্য চ্যালেঞ্জরও বটে। ছোটবেলা থেকেই শর্মিলা ঠাকুরের বহু সিনেমা দেখেছি। তাকে সামনা সামনি দেখবো, এটা ভেবেও ভালোলাগছে।’ অনন্যা রুমা জানান অনুষ্ঠানে পারফর্ম করবেন শর্মিলা ঠাকুর এবং সঙ্গীত পরিবেশন করবেন জিৎ গাঙ্গুলী। বাংলাদেশের শিল্পীদের মধ্যে তারিন, নিপুণ, চাঁদনী ও নাদিয়া নৃত্য পরিবেশন করবেন। বাংলাদেশী শিল্পীদের অংশটুকু উপস্থাপনা করবেন সিঁথি সাহা।

উল্লেখ্য ১৫ জুলাই ‘শর্মিলা ঠাকুর –জিৎ গ্ঙ্গাুলী লাইভ ইন ঢাকা’ অনুষ্ঠানটি শুরু হবে সন্ধ্যা ছয়টায়। গেট খোলা থাকবে বিকেল চারটা থেকে। উল্লেখ্য ১৪ জুলাই বিকেলে রাজধানীর লা মেরিডিয়ান হোটেলে সন্ধ্যা ছয়টায় শর্মিলা ঠাকুর ও জিৎ গাঙ্গুলীর উপস্থিতিতে এক সাংবাদিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। ছবি ঃ গোলাম সাব্বির

এই বিভাগের আরো খবর

শবনম-তারিনের সঙ্গে অন্যরকম সময় কাটালেন শাহনাজ

অভি মঈনুদ্দীন : দীর্ঘদিন যাবত নতুন কোন গান যেমন করছেন না ঠিক তেমনি কোথাও আর গান গাইতেও দেখা যায়না জীবন্ত কিংবদন্তী কন্ঠশিল্পী শাহনাজ রহমতুল্লাহ। তবে এবার ঘরোয়া আয়োজনে নিজের মনে আনন্দ নিয়েই গান গাইলেন তিনি। প্রয়াত বরেণ্য গুনী সুরকার সঙ্গীত পরিচালক রবিন ঘোষের সুরের কয়েকটি গান’সহ প্রায় আট নয়টি গান পরিবেশন করেন তিনি।

কিছুদিন আগে নামাজ পড়া শেষে শাহনাজ রহমতুল্লাহ ডান পায়ে প্রচন্ড আঘাত পান। তার স্বামী রহমত উল্লাহ’র সর্বোচ্চ আন্তরিকতায় এ্যাপোলো হাসপাতালের ডাক্তার এম এ আলীর সার্বিক তত্ত্বাবধানে তার ডান পায়ে অপারেশন করা হয়। এখন মোটামুটি সুস্থই বলা চলে। সুস্থ হয়ে উঠার পর দু’জন ব্যক্তিত্বকে শাহনাজ রহমতুল্লাহ তার বাসায় নিমন্ত্রণ করেন।

 একজন রবিন ঘোষের সহধর্মিনী কিংবদন্তী নায়িকা শবনম এবং অন্যজন আমাদের দেশের নাট্যাঙ্গনের অন্যতম নন্দিত অভিনেত্রী তারিন। বলা যায় শবনমেরই চোখের সামনেই একটু একটু করে শাহনাজ রহমতুল্লাহর গায়িকা হয়ে উঠা। আবার শাহনাজ রহমতুল্লাহর একমাত্র ছেলে ফয়সালের সঙ্গে বাদল রহমানের ‘কাঠাল বুড়ি’ চলচ্চিত্রে একসঙ্গে অভিনয় করেছিলেন তারিন। সেই থেকে তারিনকে অনেক ¯েœহের চোখে দেখেন শাহনাজ। তাই কিছুটা সুস্থ হয়ে গত রোববার দুপুরে দু’জন প্রিয় মানুষকে কাছে ডাকেন।

দু’জন মানুষকে কাছে পেয়ে শাহনাজ রহমতুল্লাহ ছিলেন ভীষণ আনন্দিত, উচ্ছসিত। দুপুরে দু’জনই শাহনাজ রহমতুল্লাহর সঙ্গে মধ্যাহ্ন ভোজ করেন। তারিন নিজ হাতে শাহনাজকে খাইয়ে দেন। খাওয়া দাওয়া শেষে শাহনাজ একে একে গেয়ে উঠেন ফুলের কানে ভ্রমর এসে, খোলা জানালায় চেয়ে দেখি, জীবনানন্দ হয়ে সংসারে আজো আমি,  পেয়ার ভারে দু সারমিলে’সহ আরো চার/পাঁচটি গান।

 শবনম বলেন,‘ অনেকদিন পর শাহনাজের কন্ঠে গান শুনে খুবই ভালোলেগেছে।  শাহনাজ খুব ভালো মনের একজন মানুষ। তার মতো শিল্পী এই উপমহাদশেই কম আছে। গানে তার ভাবাবেগ প্রকাশের ধরনই মুগ্ধ করে।’ তারিন বলেন,‘ সেইদিনটি আমার জীবনের অন্যতম স্মরনীয় দিন হয়ে থাকবে। কারণ দু’জন কিংবদন্তী শিল্পীর সঙ্গে একইসময়ে বেশকিছুটা সময় কাটিয়েছি।

দু’জনই যে কতো মহান তা তাদের ¯েœহ, ভালোবাসা, মায়া, মমতা দিয়ে সেই সময়টায় আগলে রেখে যেন তারই দৃষ্টান্ত রাখলেন। সত্যিই এ সময় ভোলার নয়।’ সবশেষে শাহনাজ রহমতুল্লাহ বলেন,‘ আমার বাসায় দু’জন প্রিয় মানুষকে নিমন্ত্রণ করেছিলাম। তাদের কাছে পেয়ে ভীষণ ভালোলেগেছিলো। সেইসাথে অনেকদিন পর মনের আনন্দে গান গেয়েছি।’ ছবি ঃ মোহসীন আহমেদ কাওছার

এই বিভাগের আরো খবর

আবারও চলচ্চিত্রে মিলন-মম

বিনোদন প্রতিবেদক : এর আগে দুটি চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন আনিসুর রহমান মিলন ও জাকিয়া বারী মম । ঈদের বিরতির পর ফের কাজে ফিরেছেন শোবিজ জগতের মানুষেরা। আগামী কোরবানির ঈদের ব্যস্ততা যেন এখন থেকেই শুরু। তবে ঈদের পর নাটকের পরিবর্তে সিনেমা নিয়েই ব্যস্ত হয়েছেন আনিসুর রহমান মিলন ও জাকিয়া বারি মম। ৬ জুলাই থেকে মানিকগঞ্জের ঘিওরে শুটিং শুরু হয়েছে অরুণ চৌধুরীর প্রথম ছবি ‘আলতাবানু’র। এ ছবিতে প্রধান দুই চরিত্রে অভিনয় করছেন মিলন ও মম। পরিচালক সূত্রে জানা গেছে, মানিকগঞ্জে ২২ তারিখ পর্যন্ত টানা শুটিং চলবে।

এর পর শুটিং হবে কুমিল্লায়। আলতা ও বানু নামের দুই বোনের জীবনের নানা ঘটনা নিয়ে এগিয়েছে চলচ্চিত্রটির গল্প। এতে দেখা যাবে, বড় বোন আলতার বিয়ের ঘটনার সূত্র ধরে হঠাৎ করে হারিয়ে যায় ছোট বোন বানু। ছোট বোনকে খুঁজতে বের হয় আলতা। এর পরই নানা চড়াই উতরাই পেরোতে হয় আলতাকে। ছবিতে আলতা চরিত্রে অভিনয় করছেন জাকিয়া বারী মম বানু চরিত্রে অভিনয় করছেন নবাগত ফারজানা। আরও আছেন দিলারা জামান, আহসানুল হক ও সাবেরি আলম। ইমপ্রেস টেলিফিল্মের ব্যানারে নির্মিত হচ্ছে ছবিটি। এ বছরই ছবিটি মুক্তি দেয়া হবে বলে জানা গেছে।

এই বিভাগের আরো খবর

যৌথ প্রযোজনার নতুন নীতিমালা নিয়ে ফারুকীর স্ট্যাটাস

বিনোদন প্রতিবেদক : যৌথ প্রযোজনার চলচ্চিত্রের জন্য নতুন নীতিমালার কথা জানিয়েছে তথ্য মন্ত্রণালয়। এমন উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়েছে চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্টরা। নতুন নীতিমালা না হওয়া পর্যন্ত আপাতত যৌথ প্রযোজনার ছবির নির্মাণ কার্যক্রম স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। রোববার বিকেলে চলচ্চিত্র পরিবারের লোকজনের সঙ্গে বৈঠকের পর তথ্য মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে চলচ্চিত্রের সুষ্ঠু বিকাশ ও উন্নয়নের স্বার্থে নতুন নীতিমালার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

অচিরেই তা কার্যকর হবে। এ নিয়ে অনুভূতি ব্যক্ত করেছেন জনপ্রিয় চলচ্চিত্র নির্মাতা মোস্তফা সরয়ার ফারুকী। সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়কে ধন্যবাদ জানিয়ে নতুন নীতিমালার জন্য তিনি কিছু প্রস্তাবনা রেখেছেন। বিষয়গুলো ফারুকী তুলে ধরেছেন তার নিজের ফেসবুক স্ট্যাটাসে। সেখানে তিনি লিখেছেন, তথ্য  মন্ত্রনালয়কে ধন্যবাদ ভারত-বাংলাদেশ যৌথ প্রযোজনার চলচ্চিত্র নীতিমালা মূল্যায়ন ও সংশোধন সুপারিশে নতুন কমিটি  তৈরি করার জন্য।

 এবং আরো ধন্যবাদ জানাই এই কাজের জন্য যোগ্য ব্যক্তিটিকে কমিটির প্রধান করায়। হারুন ভাইয়ের জ্ঞান এবং প্রজ্ঞা আমাদেরকে একটা সময়োপযোগী নীতিমালা দিবে, এই বিষয়ে আমার পূর্ণ বিশ্বাস আছে। পরে কখনো হারুন ভাইয়ের সঙ্গে কথা হলে বিস্তারিত বলবো। তবে এই ফাঁকে কয়টা কথা বলে রাখি। কয় সপ্তাহ আগে যখন কলকাতায় গেলাম তখন বেশ কিছু পত্রিকায় দীর্ঘ সাক্ষাৎকার দিতে হয়েছিলো। সেখানে এই কথাগুলো বলেছি। বাংলাদেশ আর ভারতের মধ্যে সত্যিকার যৌথ প্রযোজনা দুই দেশের জন্যই লাভজনক হবে যদি দুই দেশের অংশগ্রহণে ভারসাম্য থাকে। এখন সেই ভারসাম্য মানে কিন্তু এক ছবিতে দুই  দেশের দুই পরিচালক থাকা না। দয়া করে এই অদ্ভুত বাধ্যতামূলক ব্যাপার পরিহার করেন।

এর কারণেই এই দেশের প্রযোজকের নাম পরিচালক হিসাবে  দেখা যায়। বরং নীতিমালায় এমন ফিল্টার তৈরি করেন যাতে এটা নিশ্চিত করা যায় যে, বছরে দশটা যৌথ প্রযোজনার ছবি হলে ন্যুনতম পাঁচটার গল্প, পরিচালক, এবং লোকেশন যেনো এই দেশের হয়। শিল্পীদের ক্ষেত্রেও ভারসাম্য আনেন। এতে যেটা হবে, ঢাকা বা কলকাতা কোথাও অসন্তোষ তৈরি হবে না।

কেউ ভাববে না, আমাদেরকে কেবল ভোক্তা বানানো হচ্ছে। তখনই কেবল এটা কাজে আসবে। নাহলে এটা দীর্ঘমেয়াদে ফলপ্রসূ হবে না এবং এমনকি এটার জন্য অনাকাংখিত রাজনৈতিক মূল্য দিতে হবে। আর এই সাফটা চুক্তির আওতায় ছবি বিনিময় জিনিসটা পুরোপুরি নিরুৎসাহিত করা উচিত। এটা অনিয়ম এবং ফাঁকিবাজির সুযোগ তৈরি করে এবং আখেরে যা দুই দেশের সম্পর্কে বাজে চাপ ফেলবে।

 এটাকে নিরুৎসাহিত করে যৌথ প্রযোজনাকে উৎসাহিত করেন। আরেকটা কথা, এখন যৌথ প্রযোজনার ছবিকে দুইবার নিরীক্ষণের মধ্য দিয়ে যেতে হয়। একটা কমিটি স্ক্রিপ্ট পড়ে অনুমোদন দেয়। তারপর ছবি তৈরি হলে সেই কমিটি ছবি দেখে অনুমোদন দেয়। তারপর সেটা আবার সেন্সর বোর্ড দেখে। এক মুরগী বারবার জবাই করার এই ক্লান্তিকর পদ্ধতি বাদ দিয়ে সহজ এবং যথাযথ পরীক্ষণের পদ্ধতি বের করুন, দয়া করে। আপনাদের স্বাগত। সবাই আশা নিয়ে তাকিয়ে আছে যাতে নিয়ম-নীতির মধ্যে সুন্দরভাবে ছবিগুলো তৈরি হয়।

এই বিভাগের আরো খবর

বিতর্কের রানী পিয়া বিপাশা!

বিনোদন প্রতিবেদক : শোবিজে পা দিয়ে খুব অল্প সময়েই দর্শকদের কাছে পরিচিতি পেয়েছেন মডেল পিয়া বিপাশা। নাটকে অভিনয়ের পর অভিষেক হয়েছে চলচ্চিত্রেও। তবে নাটক কিংবা চলচ্চিত্রে হোক- অভিনয়ে এসে খুব একটা আলোচিত হতে পারেননি তিনি। তাতে হতাশ হননি। আলোচনায় এসেছেন অন্য উপায়ে। চলনে বলনে লাখ লাখ টাকা সাইনিং মানি নেয়া নায়িকারাও হার মেনে যায় তার কাছে। হাতে কাজ নেই। না নাটক, না সিনেমা।

 চলচ্চিত্রে কাজের আশায় জাজের অফিসেও বেশ ঘুরঘুর করতে দেখা গেছে তাকে। জাজের কর্ণধার আবদুল আজিজের সঙ্গে সেলফি, তিনি সামান্য অসুস্থ হলেও তাকে দেখতে গিয়ে মন গলানোর কৌশলও নিয়মিত প্রয়োগ করেন পিয়া বিপাশা। তাতে অবশ্য কোনো কাজ হয়েছে বলে মনে হয়নি। লাইফ স্টাইল দেখে প্রথম সারির নায়িকাই মনে হবে তাকে। বিয়ে হয়েছিল। ডিভোর্সও হয়েছে। রয়েছে এক কন্যা সন্তানও। সন্তানকে নিজের কাছেই রাখেন। দেশের ধনীর দুলালদের নারী কেলেঙ্কারির বিষয়ে কোনো ঘটনা ঘটলেই প্রথমে নাম আসে পিয়া বিপাশার।

 এছাড়াও তাকে নিয়ে নানা সময়ে নানা অভিযোগের হাওয়া বহে মিডিয়াপাড়ায়। চলছে এখনও। কিছুদিন আগেই নাঈম আশরাফের ধর্ষণ কেলেঙ্কারির ঘটনায় অনেক মডেলের নাম উঠে আসে। সে তালিকায় পিয়া বিপাশার নাম ছিল শীর্ষে। তারও আগে মিডিয়ায় নানা সময়ে নানা অঘটন ঘটিয়েছেন পিয়া। সম্প্রতি আবার নতুন করে আলোচনায় এসেছেন তিনি। সম্প্রতি গৃহকর্মীকে হত্যাচেষ্টার অভিযোগে ‘অস্তিত্ব’ সিনেমার প্রযোজক সালেহ আহমেদ ওরফে কার্লোস সালেহকে রিমান্ডে নিয়েছে পুলিশ। সেখানে ধর্ষণের বিষয়টি স্বীকার করে বেশ কিছু চাঞ্চল্যকর কিছু তথ্য দেন কার্লোস।

 সেই স্বীকারোক্তি থেকেই জানা গেছে বন্ধুদের সঙ্গে নিয়ে নিয়মিত তার ফ্লাটে রুমপার্টি করতেন তিনি। পার্টির আকর্ষণ বাড়াতে সেখানে শোবিজের মডেল ও অভিনেত্রীদের অনেকেই হাজির হতেন। এখানেও তালিকার প্রথমে রয়েছে পিয়া বিপাশার নাম। যা তাকে নতুন করে অভিযোগের কাঠগড়ায় দাঁড় করিয়েছে। অনেকেই বলছেন, এমন মেয়েদের জন্য মিডিয়াকে খারাপ চোখে দেখছেন সাধারণ মানুষ। এ ধরনের গর্হিত কাজের জন্য আলাদা শাস্তির ব্যবস্থা রাখারও পরামর্শ দিয়েছেন মিডিয়াঙ্গনের অনেকেই। পাশাপাশি এদের আয়ের হিসাব এবং উপার্জনের উৎসের খবর রাখাও প্রয়োজন বলে দাবি করেছেন তারা।

এই বিভাগের আরো খবর

আজ মঞ্চে ‘দি জুবলী হোটেল’

বিনোদন ডেস্ক : মঞ্চস্থ হতে যাচ্ছে নাট্যদল আরণ্যকের নাটক ‘দি জুবলী হোটেল’।  আজ সন্ধ্যা ৭টায় শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় নাট্যশালার এক্সপেরিমেন্টাল থিয়েটার হলে মঞ্চস্থ হবে নাটকটি। এটির রচনা ও নির্দেশনায় রয়েছেন মান্নান হীরা। এটি আরণ্যকের ৫৭তম নাট্য প্রযোজনা। নাটকের গল্প প্রসঙ্গে নির্দেশক জানিয়েছেন, জুবলী হোটেলে শহরের সর্বস্তরের মানুষের নিয়মিত আড্ডা চলে।

 হারু মন্ডল নামের এক প্রবীণ নাট্য নির্দেশক তার দলবল নিয়ে এখানে নিয়মিত আড্ডা দেয় আর ‘সুলতানা রাজিয়া’ নামক একটি নাটক করার জন্য মিটিং করে। ২০ বছর ধরে এই প্রক্রিয়া চললেও অদ্যবধি সুলতানা রাজিয়া মঞ্চে আসেনি। কারণ সুলতানা রাজিয়া চরিত্রে অভিনয় করার জন্য কোনো অভিনেত্রী পাওয়া যাচ্ছে না। শহরে আসে যাদুর দল ‘দি ঘোষ ম্যাজিক পার্টি’। সেই ম্যাজিক পার্টির নৃত্যশিল্পী হেমা মালিনীকে দেখে হারু মন্ডলের মনে হয় সেই হতে পারে সুলতানা রাজিয়া।

 হারু মন্ডল তাকে প্রস্তাব দেয় অভিনয় করার জন্য। কিন্তু বাধা হয়ে দাঁড়ায় ম্যাজিক পার্টির সঙ্গে পাকা স্ট্যাম্পে চুক্তি। জুবলী হোটেলের কর্মী মমতা। যে কিনা নানা প্রতিকূলতার মাঝেও সারাক্ষণ একটি সুন্দর সংসারের স্বপ্ন দেখে। কিন্তু পুরুষতান্ত্রিক সমাজের নির্মম ষড়যন্ত্রে তা ভেঙে খানখান হয়ে যায়। জুবলী হোটেলের আরেকজন নিয়মিত আগন্তুক বাউল।

জুবলী হোটেলে বাউল এলে যেন প্রাণের স্পন্দনে পরিপূর্ণ হয়ে ওঠে। বাউলের কণ্ঠে মানব ধর্মের গান শুনে সকলের মনে বোধদয় হলেও ধর্মীয় উগ্রবাদের সঙ্গে যুক্ত কিছু মানুষের তা ভালো লাগে না। তাইতো তাদের রোষানলে পড়ে বাউল। এভাবেই এগিয়ে গেছে নাটকের কাহিনি। ২০১৬ সালের ২৯ নভেম্বর নাটকটির উদ্বোধনী মঞ্চায়ন অনুষ্ঠিত হয়।

এই বিভাগের আরো খবর

তাদের তিনজনের ‘বন্ধুর বালিকা’ এখন ‘বন্ধুর জন্য’

বিনোদন প্রতিবেদক : গেলো এপ্রিলে নির্মাতা আসিফ ইকবাল জুয়েল প্রথমবারের মতো নাঈম, ইরফান সাজ্জাদ ও মেহজাবিনকে নিয়ে নির্মাণ করেছিলেন বিশেষ নাটক ‘বন্ধুর বালিকা’। কিন্তু নিজের রচনায় নির্মিত এই নাটকটির নাম চ্যানেলে জমা দেবার পর পরিবর্তন করে করা হলো ‘বন্ধুর জন্য’।

নির্মাতা আসিফ ইকবাল জুয়েল জানান, ‘আমার লেখা গল্প অনুযায়ী বন্ধুর বালিকা নামটি বেশ চমৎকার ছিলো। কিন্তু শেষতক চ্যানেলের আগ্রহেই নামটি পরিবর্তন করতে হলো। এখনো যে নামটি রাখা হয়েছে তাও গল্পের সাথে বেশ মানিয়েই রাখা হয়েছে। এখন আমার নাটকের নাম বন্ধুর জন্য।

’ বন্ধুর জন্য নাটকে প্রথমবারের মতো একসঙ্গে অভিনয় করেছেন এই সময়ের আলোচিত অভিনেতা নাঈম, ফেয়ার অ্যা- হ্যা-সাম খ্যাত তরুণ দর্শকপ্রিয় অভিনেতা ইরফান সাজ্জাদ এবং লাক্স সুপারস্টার তারকাভিনেত্রী মেহজাবিন চৌধুরী। আসিফ ইকবাল জুয়েল জানান চলতি মাসেই এনটিভিতে নাটকটি প্রচার হবার কথা রয়েছে। তবে তারিখ এখনো চুড়ান্ত হয়নি। নাটকটিতে অভিনয় প্রসঙ্গে নাঈম বলেন,‘ গল্পটা সত্যিই অন্যরকম একটি গল্প। যে কারণে কাজটি করে বেশ ভালোলেগেছে।’ মেহজাবিন বলেন,‘ জুয়েল ভাইয়ের নির্দেশনায় এবারই প্রথম কাজ করেছি। কাজটি আমি বেশ উপভোগ করেছি।

ইরফান সাজ্জাদ বলেন,‘ অনেক ধরনের গল্পেইতো কাজ করা হয়। কিন্তু এই নাটকের গল্পটা একটু অন্যরকম। যে কারণে আমরা তিনজনেই বেশ আন্তরিকতা নিয়ে কাজটি করেছি। ’ এদিকে ঈদ শেষ হলেও এখনো দেশের বাইরে আছেন মেহজাবিন চৌধুরী। অন্যদিকে নাঈম ও ইরফান সাজ্জাদ ঈদের পর ছুটি শেষে আবারো অভিনয়ে নিয়মিত হয়ে উঠেছেন। ছবি : আলিফ হোসেন রিফাত

এই বিভাগের আরো খবর

সরকারের প্রতি অরুনার বিশেষ আহ্বান…

বিনোদন প্রতিবেদক : বেশকিছুদিন দেশের বাইরে ছিলেন গুণী অভিনেত্রী অরুনা বিশ্বাস। ঈদের আগেই তিনি দেশে ফিরেছেন। দেশে ফিরে তিনি আবারো অভিনয়ে নিয়মিত হয়ে উঠেছেন। তবে এবার যুব সমাজকে সচেতন করতে এবং মাদকাসক্ত থেকে রক্ষা করতে যাত্রা শিল্পের প্রতি সরকারের বিশেষ দৃষ্টি দেবার প্রতি বিনীত অনুরোধ করেছেন অরুনা বিশ্বাস। অরুনা বিশ্বাস বলেন,‘ আমাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সবসময়ই শিল্প সংষ্কৃতির প্রতি বিশেষ দৃষ্টি দিয়ে থাকেন।

 যে কারণে আমি মনেকরি দেশের যুব সমাজকে মাদকাসক্ত থেকে রক্ষা করতে , যুব সমাজকে ধ্বংসের হাত থেকে রক্ষা করতে অবশ্যই সরকারের উচিত যাত্রা শিল্পের প্রতি মনোযোগী হওয়া। দেশের প্রতিটি জেলায়, জেলায়, থানায় থানায় যেন যাত্রা প্রদর্শণী ঠিকভাবে করা যায় সেভাবে সময়োপযোগী পদক্ষেপ নেয়া উচিত। যাত্রার মাধ্যমে মাদকের বিরুদ্ধে সচেতন গড়ে তুলে যুব সমাজকে ধ্বংসের হাত থেকে রক্ষা করা সম্ভব।

 তাই এটি করলে একদিকে যেমন আমাদের ঐতিহ্য যাত্রা রক্ষায় হয়, সেইসাথে যুব সমাজও ধ্বংসের হাত থেকে রক্ষা যায়।’ এদিকে দেশে ফিরে অভিনয়ে অরুনা নিয়মিত হলেও অভিনয়ের পাশাপাশি পরিবারকেও যথেষ্ট সময় দেবার প্রতি জোর দিয়েছেন তিনি। অরুনা বলেন,‘ সারা জীবনইতো অভিনয়ে সময় দিয়েছি। সন্তানকে মানুষের মতো মানুষ করার জন্য সন্তানকেও একজন শিল্পীর যথাযথ সময় দেয়া উচিত। তাছাড়া পরিবারের সবাইকেই সময় দেয়া উচিত। ’ অরুনা জানান এখন এমন এমন চরিত্রে অভিনয়ের জন্য মাঝে মাঝে কিছু প্রস্তাব পান যেসসব চরিত্রে অভিনয়ের জন্য মন থেকে সায় দেয়না। আবার কিছু কিছু চরিত্রে কাজ করার প্রস্তাব পেলেও পারিশ্রমিক কম নেবার জন্য অনুরোধ করেন।

 যে কারণে অভিনয়েও অরুনার আগ্রহ কমেগেছে। সবমিলিয়ে অভিনয়ের প্রতি ভালোবাসা থেকেই আজো অভিনয় করে যাচ্ছেন তিনি। অরুনা বিশ্বাস এরইমধ্যে শেষ করেছেন মনতাজুর রহমান আকবরের নির্দেশনায় ‘দুলাভাই জিন্দাবাদ’ ও জাকির হোসেন রাজুর ‘ভালো থেকো’ সিনেমার ডাবিং-এর কাজ। সকাল আহমেদ’র নির্দেশনায় ‘রানী রাজ্য’ ধারাবাহিকের কাজ শুরু করেছেন তিনি। এদিকে নির্মাণ থেকে এখন বেশখানিকটা দূরে আছেন। বাজেট স্বল্পতার কারণেই তিনি দূরে আছেন বলে জানিয়েছেন।

এই বিভাগের আরো খবর

অবশেষে গ্রেফতার অভিনেতা বিক্রম

বিনোদন ডেস্ক : দীর্ঘদিন গা ঢাকা দিয়ে থাকার পরে অবশেষে গ্রেপ্তার হলেন অভিনেতা বিক্রম চট্টোপাধ্যায়। গত ২৯শে এপ্রিল লেক মলের কাছে গাড়ি দুর্ঘটনায় মৃত্যু হয়েছিল মডেল সনিকা সিং চৌহানের। সেই ঘটনায় মদ্যপ অবস্থায় গাড়ি চালানোর অভিযোগ উঠেছিল বিক্রমের বিরুদ্ধে। তার বিরুদ্ধে জামিন অযোগ্য ধারায় পুলিশ মামলা দায়ের করার পর থেকেই পালিয়ে বেড়াচ্ছিলেন বিক্রম।

 শেষ পর্যন্ত নির্দিষ্ট খবর  পেয়ে পুলিশ বৃহস্পতিবার গভীর রাতে কসবায় অ্যাক্রোপলিস মলের সামনে থেকে বিক্রমকে গ্রেপ্তার করে। পুলিশ সূত্রে খবর, বিক্রম ওই এলাকা দিয়ে যেতে পারেন তা জেনেই নাকাবন্দি চালাচ্ছিল পুলিশ। তখনই একটি গাড়ির ভিতর থেকে বিক্রমকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। পুলিশ সূত্রে খবর, নিজের বন্ধুদের সঙ্গে দেখা করতে যাওয়ার সময়েই ধরা পড়েন বিক্রম। গ্রেপ্তার করার পরেই বিক্রমকে টালিগঞ্জ থানায় নিয়ে গিয়ে জেরা করা হয়। কালই তাকে আদালতে পেশ করার কথা।

এই বিভাগের আরো খবর

কাজল ঘোষের নির্দেশনায় চলচ্চিত্রে অনন্যা রুমা ও শতাব্দী ওয়াদুদ

অভি মঈনুদ্দীন : সাংবাদিক কাজল ঘোষ এবারই প্রথম চলচ্চিত্র নির্মাণ করছেন। ‘উর্দি’ নামক স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রটির নির্মাণ কাজ তিনি শুরু করেছেন গতকাল সকাল থেকে বিএফডিসিতে ফেলা একটি সেট-এ। বহুবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত সিনেমাটোগ্রাফার মাহফুজুর রহমান খান ‘উর্দি’র বিভিন্ন দৃশ্য ধারণের কাজ করছেন। হরিপদ দত্তের রচনায় এবং কাজল ঘোষের চিত্রনাট্য ও পরিচালনায় ‘উর্দি’তে প্রথমবারের মতো একসঙ্গে অভিনয় করছেন অনন্যা রুমা ও শতাব্দী ওয়াদুদ। ভিয়েতনাম যুদ্ধ থেকে আসা একটি শার্ট ঘটনাক্রমে একজন রিক্সাওয়ালার ক্রয় করা নিয়েই এগিয়ে যায় ‘উর্দি’ স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রের গল্প।

 এতে রিক্সাওয়ালার চরিত্রে অভিনয় করছেন শতাব্দী ওয়াদুদ এবং একটি বিশেষ চরিত্রে অভিনয় করছেন অনন্যা রুমা। এটি নির্মাণ করা প্রসঙ্গে কাজল ঘোষ বলেন,‘ এটি আমার জীবনের প্রথম নির্মাণ কাজ। সত্যিই এক অন্যরকম অনুভূতি কাজ করছে আমার মনে। নিজের নতুন একটি পরিচয় হলো আমার। তবে এটিই প্রথম এবং এটিই শেষ কী না তা বলতে পারছিনা। চেষ্টা করছি যথেষ্ট আন্তরিকতা নিয়ে কাজটি করতে।

 ’ শতাব্দী ওয়াদুদ বলেন,‘ গল্পটা দারুণ। আমি খুবই আন্তরিকতা নিয়ে মনোযোগ দিয়ে কাজটি করছি।’ অনন্যা রুমা বলেন,‘ কাজল আমার খুব ভালো একজন বন্ধু। তার প্রথম নির্মাণ কাজের সাথে সম্পৃক্ত থেকে ভীষণ ভালোলাগছে আমার, সেটা যেভাবেই থাকছি। ’ কাজল ঘোষ জানান শিগগিরই এটি ইউটিউবে এবং বিভিন্ন চলচ্চিত্র উৎসবে এটি প্রদর্শন করা হবে। ‘উর্দি’ স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রে আরো অভিনয় করছেন জয়িতা মহলানবিশ। ‘উর্দি’র শুটিং শেষ হবে আজ। ছবি ঃ মোহসীন আহমেদ কাওছার

এই বিভাগের আরো খবর



Go Top