রাত ১২:৩১, সোমবার, ২৩শে জুলাই, ২০১৭ ইং
/ রাজনীতি / ৫ জানুয়ারির কর্মসূচিতে বাধা দিলে সরকারই ক্ষতিগ্রস্ত হবে : বিএনপি
৫ জানুয়ারির কর্মসূচিতে বাধা দিলে সরকারই ক্ষতিগ্রস্ত হবে : বিএনপি
ডিসেম্বর ৩১, ২০১৬

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেছেন, ৫ জানুয়ারি ‘গণতন্ত্র হত্যা দিবস’ উপলক্ষে বিএনপির কর্মসূচিতে বাধা দিলে তাদের কোনো ক্ষতি হবে না। বরং এতে সরকারই ক্ষতিগ্রস্ত হবে। কারণ, বাধা দিলে সরকারের মুখোশ ‘নতুন করে’ উন্মোচিত হবে। তবে গণতন্ত্রের প্রতি ন্যূনতম শ্রদ্ধাবোধ থাকলে সরকার বিএনপির কর্মসূচি নিয়ে কোনো টালবাহানা করবে না বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন দলটির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।  শনিবার রাজধানীতে পৃথক অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তারা।

সকালে রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের কবরে শ্রদ্ধা নিবেদনের পর সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে ড. মোশাররফ বলেন, বর্তমান সরকার জনগণের ভোটে নির্বাচিত নয়। কারণ, ৫ জানুয়ারিতে জনগণ ভোট দিতে পারেনি। এটি গণতন্ত্রের জন্য কলঙ্কিত দিন। বিনা ভোটে নির্বাচিত হওয়ায় তারা এই দিনটি নিয়ে ভীত। তারা বলেছে, বিএনপিকে রাস্তায় নামতে দেবে না। একটি স্বৈরাচারি, ফ্যাসিস্ট সরকারই এ রকম কথা বলতে পারে। ৫ জানুয়ারি বিএনপিকে কর্মসূচি পালনে বাধা দিলে জনগণ সেটি বিচার করবে। কৃষক দলের ৩৬তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে সংগঠনটির নেতা-কর্মীদের নিয়ে জিয়ার কবরে ফুল দিয়ে এ শ্রদ্ধা জানান তিনি। অন্যদিকে, দুপুরে নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে রিজভী বলেন, ৫ জানুয়ারি ‘গণতন্ত্র হত্যা দিবস’ উপলক্ষে বিএনপি যে কর্মসূচি ঘোষণা করেছে, ঢাকাসহ সারা দেশে তা পালনের ব্যাপক প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। আমরা কর্মসূচি করবোই নিঃসন্দেহে। ৫ জানুয়ারি ঢাকায় কর্মসূচি না রাখার কারণ জানতে চাইলে তিনি বলেন, দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া সেদিন আদালতে হাজির হবেন। উনি যখন যান, দলের অধিকাংশ নেতাকর্মী রাস্তায় তাকে শুভেচ্ছা জানান। সেই কারণে ওই দিনটি আমরা খালি রেখেছি। সেদিন আমরা ঢাকায় কোনো কর্মসূচি পালন করবো না, ঢাকায় কর্মসূচি করবো ৭ তারিখে।

পুরনো বছরের মূল্যায়ন ও প্রত্যাশা
রিজভী বলেন, আওয়ামী লীগ সরকারে ক্ষমতাসীন হওয়ার পর থেকে বিএনপির নেতা-কর্মীদের ছিন্নভিন্ন করার নির্দয় প্রচেষ্টা চালিয়ে আসছে। আমরা বলতে চাই, বিএনপি ঝড়ের মধ্যেও জীবনপদ্মের পাঁপড়ি মেলে ধরতে পারে। নেতা-কর্মীদের আত্মার বেদীমূলে বহুদলীয় গণতন্ত্র ও জাতীয়তাবাদী দর্শনের যে আলোর প্রদীপ জ্বলে ওঠে, অনির্বাণ তার দ্বীপশিখা। নতুন বছরে মানুষের আশা, নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের তত্ত্বাবধানে সরকারি প্রভাবমুক্ত নির্বাচন কমিশনের অধীনে একটি গ্রহণযোগ্য নির্বাচন হবে। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন-দলের ভাইস চেয়ারম্যান ডা. জাহিদ হোসেন, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আবদুস সালাম, কেন্দ্রীয় নেতা সেলিমুজ্জামান সেলিম প্রমুখ।

 



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :




Go Back Go Top