সকাল ১০:০৬, রবিবার, ২০শে আগস্ট, ২০১৭ ইং
/ রাজনীতি / ক্ষমতাসীন দল ও আইন কমিশনের বক্তব্য একই সুরে বাধা : বিএনপি
ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায়
ক্ষমতাসীন দল ও আইন কমিশনের বক্তব্য একই সুরে বাধা : বিএনপি
আগস্ট ১০, ২০১৭

সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের পূর্ণাঙ্গ রায় নিয়ে ক্ষমতাসীন দল ও আইন কমিশনের চেয়ারম্যানের বক্তব্য ‘একই সুরে বাধা’ বলে অভিযোগ করেছে বিএনপি। বৃহস্পতিবার বিকেলে রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এই অভিযোগ করেন।

বিএনপির এই নেতা বলেন, অত্যন্ত পরিতাপের সাথে আমরা লক্ষ্য করলাম- সরকার বা সরকারি দল আওয়ামী লীগ কোনো আনুষ্ঠানিক প্রতিক্রিয়া দেওয়ার পূর্বেই সাবেক প্রধান বিচারপতি বর্তমান আইন কমিশনের চেয়ারম্যান এবিএম খায়রুল হক সুপ্রিম কোর্টের রায়ের বিরুদ্ধে বিষোদগার করেছেন। মনে হলো, এই রায়ের ফলে তার গাত্রদাহ শুরু হয়েছে। আইন কমিশনের আসনে বসে তিনি সুপ্রিম কোর্টের রায় এবং মাননীয় প্রধান বিচারপতি সম্পর্কে যেসব উক্তি করেছেন তা শুধু অশালীনই নয়, রীতিমত আদালত অবমাননার শামিল বলে আমরা মনে করি। তিনি বলেন, আমরা স্পষ্টভাষায় বলতে চাই, পঞ্চম ও ত্রয়োদশ সংশোধনী বাতিলের ফলে আজ দেশে যে সাংবিধানিক ও রাজনৈতিক সঙ্কট সৃষ্টি হয়েছে তা গণতন্ত্রকে পুরোপুরি ভঙ্গুর করে ফেলেছে। বিচারপতি খায়রুল হকের (এবিএম খায়রুল হক) বক্তব্য আর আওয়ামী লীগের নেতা ও মন্ত্রীদের বক্তব্যের মধ্যে কোনো অমিল আছে বলে আমরা মনে করি না, একই সুরে বাধা। তার (এবিএম খায়রুল হক) বক্তব্যই আওয়ামী লীগেরই বক্তব্য।

ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায়কে ‘ম্যাগনাকার্টা’ হিসেবে অভিহিত করে বিএনপির মহাসচিব বলেন, ৭৯৯ পৃষ্টার ঐতিহাসিক ও দার্শনিক দিক-নির্দেশনামূলক এই রায়ের মাধ্যমে বর্তমান রাজনৈতিক ও সামাজিক প্রেক্ষাপট এবং রাষ্ট্রের বর্তমান অবস্থা সম্পর্কে এটা ম্যাগনাকার্টা বলে আমাদের কাছে মনে হয়েছে। সত্য উদ্ভাসিত হয়েছে নির্র্ভিকভাবে। হতাশাগ্রস্ত জাতি এই রায়ের মাধ্যমে আশার আলো দেখতে পেয়েছে। এই রায় সুশাসন, ন্যায় বিচার, গণতন্ত্র ও মানবাধিকারের জন্য নিঃসন্দেহে আশার আলো। রায় নিয়ে আওয়ামী লীগের প্রতিক্রিয়ার জবাবে মির্জা ফখরুল বলেন, তারা (আওয়ামী লীগ) যে দানব সৃষ্টি করেছেন, সেই দানবই আজকে তাদেরকে গ্রাস করতে চলেছে।

কিন্তু এখনো তা তারা বুঝে উঠতে পারছেন না। সুপ্রিম কোর্টের রায় নিয়ে সরকারের মন্ত্রীদের বক্তব্যের প্রতি ইঙ্গিত করে তিনি বলেন, গত বুধবারই একজন মন্ত্রী বলেছেন- বিচার বিভাগের হাত এতো লম্বা হয়নি এবং একটা হুমকিও দেয়া হয়েছে যে, এর বেশি উঠবেন না। এগুলো থেকে প্রমাণিত হয়, আওয়ামী লীগের মন্ত্রীদের বা ক্ষমতাসীন দলের নেতাদের মানসিকতাটা কী? রায় দেয়ার সঙ্গে সঙ্গে তারা জ্বলে উঠেছেন কেন আগুনে? গাত্রদাহ হচ্ছে কেন? তারা যে অপকর্ম করেছেন, জোর করে ক্ষমতা দখল করে আছেন, একনায়কের চাইতে খারাপভাবে দেশ পরিচালনা করছেন দানবীয়ভাবে-সেই কথাগুলো এখানে এসে গেছে। এই রায়ের মাধ্যমে দেশের বিচার বিভাগকে রক্ষা করা হয়েছে বলে দাবি করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মওদুদ আহমদ। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন-স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন, জমিরউদ্দিন সরকার, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ভাইস চেয়ারম্যান খন্দকার মাহবুব হোসেন, জয়নুল আবেদিন, আহমেদ আজম খান, নিতাই রায় চৌধুরী প্রমুখ নেতৃবৃন্দ।

 

 

এই বিভাগের আরো খবর



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :




Go Back Go Top