রাত ১০:১৬, রবিবার, ২২শে জানুয়ারি, ২০১৭ ইং
/ জাতীয় / শুভ হোক নতুন বছর
শুভ হোক নতুন বছর
January 1st, 2017


সৈয়দ আহমেদ অটল : স্বাগত ইংরেজি ২০১৭ সাল। শুভ নববর্ষ। জীর্ন পুরাতনকে পেছনে ফেলে আগামীর দিনগুলোতে অনিশ্চয়তা কেটে গিয়ে শুভময়তা ছড়িয়ে যাতে আশাজাগানিয়া হতে পারি সে কথাই সবার মনে, প্রাণে আজ। নানা ঘটনা প্রবাহের মধ্য দিয়ে শেষ হলো ইংরেজি ২০১৬ সাল। মহাকালে মিলিয়ে গেল একটি খ্রিস্ট্রিয় বছর। আজ ২০১৭ সালের প্রথম দিন। সবাইকে নতুন বছরের শুভেচ্ছা। বিশ্বের কোটি কোটি মানুষের সাথে আমরাও সুর মিলিয়ে বলতে চাই- ‘হ্যাপি নিউ ইয়ার’। নতুন বছরটি আমাদের আনন্দে, শান্তিতে কাটুক।  ভরে উঠুক প্রত্যাশার স্বপ্ন। সব মানুষের জীবনে ৫ মৌলিক অধিকার বাস্তবায়িত হোক। বড় বড় দালান-অট্টালিকার আড়ালে যেন বস্তিবাসীর জন্ম না হয়। সমাজ থেকে যেন আর্থিক বৈষম্য দূর হয়। বাস্তবায়িত হোক মুক্তিযুদ্ধের চেতনা। নতুন সমাজ বির্নিমানে মানুষ ঐক্যবদ্ধ হোক। সবার মন বলে উঠুক, ‘আমরা ভয় করবো না ভয় করবো না’।  

নতুন বছর মানেই নতুন বার্তা, নতুন আশা আর তারুণ্যের জন্ম। তারুণ্যই পারে অসম্ভবকে সম্ভব করতে। অতীতের দুঃখ, কষ্ট অতিক্রম করে সামনের দিকে এগিয়ে যাবার প্রেরণা নেবে মানুষ। নতুন বছরে যেন সমাজ জীবন থেকে সকল শোষন-নিপীড়ন দূর হয়। মানুষে মানুষে সকল ভেদাভেদ হাড়িয়ে যায়। প্রতিটি মানুষের মন থেকে যেন হিংসা, লোভ পালিয়ে যায়। সবাই যেন সত্যের বাহক হয়ে ওঠে। আমাদের প্রিয় স্বদেশ যেন সমৃদ্ধির দিকে এগিয়ে যায়। যে দেশকে আমরা প্রাণের চেয়েও বেশি ভালোবাসি। যে ভালোবাসার সাথে যুক্ত হয়ে আছে ত্রিশ লক্ষ শহীদের রক্ত। সেই রক্তের সাথে যেন আমরা বেইমানী না করি।   

ইংরেজি নববর্ষ বাদেও আমাদের আছে পহেলা বৈশাখ, বাংলা নববর্ষের উৎসব। তারপরও আমরা বিশ্ববাসীর সাথে এক সুতায় মালা গেঁথে এগিয়ে যেতে চাই। কেননা সারা পৃথিবীতে শোষন-নিপীড়ন আর অধিকারের প্রশ্ন এক ও অভিন্ন। ঠিক যেমন আমাদের সবার রক্তের রং লাল। যা থেকে মানুষে মানুষে জন্মগত ভাবে কোনো ভেদাভেদ নেই। ভেদাভেদ আছে শুধু সামাজিক আর রাষ্ট্রীয় শোষনে। এই শোষনের বেড়াজাল ভাঙতে হবে। সমাজ থেকে ধনী-দরিদ্রের ব্যবধান দূর না হলে আমরা মানুষ হবো না। নতুন বছরে সকল মানুষের প্রত্যাশা সুখ, শান্তি ও সমৃদ্ধি । হিংসা, বিদ্বেষ, বিভেদ কারো প্রত্যাশা নয়। সেই বিচেনায় বাংলাদেশটা হবে পৃথিবীর একটি সুখী ও সুন্দর মানুষের দেশ। নতুন বছরে প্রত্যাশা ভালো থাকার, সুন্দর থাকার। দেশ হোক অস্থিতিশীলতা-সহিংসতা-নৃশংসতামুক্ত। চাই অর্থনৈতিক উন্নয়ন। চাই সুন্দর স্বাভাবিক জীবন। চাই  শিক্ষাঙ্গণে সুস্থ পরিবেশ। চাই সন্ত্রাসমুক্ত সমাজ। চাই সুষ্ঠু রাজনীতি। সাম্প্রদায়িকতাকে চিরতরের জন্য বিদায় জানাতে চাই। মানুষ মানুষের জন্য হলে সাঁওতালদের আমরা ভিটে-মাটি ছাড়া করতে পারি না। যারা এই দেশের মানুষ। যারা এই মাটির মানুষ। যারা মিলে মিশে একাকার হয়ে এই মাটির মানুষ হতে চাই। আমরা চিরনতুনকে স্বাগত জানাবো। আমরা সবাই একযোগে গেয়ে উঠতে চাই ‘আমার সোনার বাংলা আমি তোমায় ভালোবাসি’।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :