সকাল ১০:৩৯, শনিবার, ২২শে জুলাই, ২০১৭ ইং
/ সিলেট / শাবির ছাত্রলীগ সভাপতির বিরুদ্ধে শ্লীলতাহানির মামলা
ছাত্রলীগের কার্যক্রম স্থগিত
শাবির ছাত্রলীগ সভাপতির বিরুদ্ধে শ্লীলতাহানির মামলা
এপ্রিল ১২, ২০১৭

সিলেট প্রতিনিধি,  সিলেটে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সভাপতিসহ সাত-আটজনের বিরুদ্ধে এক ছাত্রীর শ্লীলতাহানিসহ হামলার অভিযোগে মামলা হয়েছে। জেলার নারী ও শিশুনির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে  বুধবার দুপুরে ওই ছাত্রীর মা মামলাটি দায়ের করেন বলে জানান পিপি আব্দুল মালেক। তিনি বলেন, আদালতের বিচারক মোহিতুল হক মামলা আমলে নিয়ে এ বিষয়ে বিচার বিভাগীয় তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন। মামলায় তিনজনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত আরও চার-পাঁচজনকে আসামি করা হয়েছে। বিবাদীরা হলেন – বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সভাপতি পরিসংখ্যান বিভাগের শিক্ষার্থী সঞ্জীবন চক্রবর্তী পার্থ, একই বিভাগের শিক্ষার্থী ছাত্রলীগকর্মী সাজ্জাদ রিয়াদ ও সমাজকর্ম বিভাগের শিক্ষার্থী ছাত্রলীগকর্মী মাহমুদুল হক রুদ্র।

এজাহারের বরাতে বাদীপক্ষের আইনজীবী মশরুর চৌধুরী শওকত বলেন, শনিবার বিকেলে পাঠানটুলা দ্বিপাক্ষিক উচ্চবিদ্যালয় থেকে এসএসসি পরীক্ষা দেওয়া ওই ছাত্রী তার ফুফাত ভাইয়ের সঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয়ে বেড়াতে যান। শহীদ মিনার এলাকায় কয়েকজন ছাত্রলীগকর্মী তাকে উত্ত্যক্ত করার পাশাপাশি শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই সাংবাদিক এর প্রতিবাদ করলে তাদের ওপর হামলা চালান বিবাদীরা। হামলায় আহত বিশ্ববিদ্যালয় প্রেসক্লাবের সহ-সভাপতি নাবিউল আলম দিপু ও সাধারণ সম্পাদক সরদার আব্বাস সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন। তবে ছাত্রলীগ সভাপতি সঞ্জীবন দাবি করেন, শ্লীলতাহানি বা হামলার সঙ্গে আমি বা ছাত্রলীগের কেউ জড়িত না। এ বিষয়ে ভিডিও ফুটেজ দেখে ব্যবস্থা নেওয়া হোক।

শাবি ছাত্রলীগের কার্যক্রম স্থগিত
এক মেয়েকে শ্লীলতাহানি ও দুই সাংবাদিককে মারধরের ঘটনার পর সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগের সাংগঠনিক কার্যক্রম স্থগিত করা হয়েছে। গতকাল বুধবার কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি মো. সাইফুর রহমান সোহাগ ও সাধারণ সম্পাদক এম এম জকির হোসাইন স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।
ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির এক জরুরি সভায় সিদ্ধান্ত হয়েছে বলে বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে। এ বিষয়ে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের দপ্তর সম্পাদক দেলওয়ার হোসেন শাহজাদা বলেন, ‘আমরা ঘটনা তদন্তে দুই সদস্যে কমিটি গঠন করেছি। তাদের তদন্তের ফলাফলের ভিত্তিতে কমিটি স্থায়ী বাতিলের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেব।’ কমিটির দুই সদস্য হচ্ছেন যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক চন্দ্র শেখর মণ্ডল এবং প্রচার সম্পাদক সাইফুদ্দিন বাবুল। কমিটির সদস্যরা শিগগির ক্যম্পাসে গিয়ে তদন্ত শুরু করবেন। ছাত্রলীগের সহ-সম্পাদক নজরুল ইসলাম তাদের সহযোগিতা করবেন জানান এ ছাত্রলীগ নেতা।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :




Go Back Go Top