সকাল ১০:৩০, বৃহস্পতিবার, ২৭শে জুলাই, ২০১৭ ইং
/ বিনোদন / শবনম-তারিনের সঙ্গে অন্যরকম সময় কাটালেন শাহনাজ
শবনম-তারিনের সঙ্গে অন্যরকম সময় কাটালেন শাহনাজ
জুলাই ১০, ২০১৭

অভি মঈনুদ্দীন : দীর্ঘদিন যাবত নতুন কোন গান যেমন করছেন না ঠিক তেমনি কোথাও আর গান গাইতেও দেখা যায়না জীবন্ত কিংবদন্তী কন্ঠশিল্পী শাহনাজ রহমতুল্লাহ। তবে এবার ঘরোয়া আয়োজনে নিজের মনে আনন্দ নিয়েই গান গাইলেন তিনি। প্রয়াত বরেণ্য গুনী সুরকার সঙ্গীত পরিচালক রবিন ঘোষের সুরের কয়েকটি গান’সহ প্রায় আট নয়টি গান পরিবেশন করেন তিনি।

কিছুদিন আগে নামাজ পড়া শেষে শাহনাজ রহমতুল্লাহ ডান পায়ে প্রচন্ড আঘাত পান। তার স্বামী রহমত উল্লাহ’র সর্বোচ্চ আন্তরিকতায় এ্যাপোলো হাসপাতালের ডাক্তার এম এ আলীর সার্বিক তত্ত্বাবধানে তার ডান পায়ে অপারেশন করা হয়। এখন মোটামুটি সুস্থই বলা চলে। সুস্থ হয়ে উঠার পর দু’জন ব্যক্তিত্বকে শাহনাজ রহমতুল্লাহ তার বাসায় নিমন্ত্রণ করেন।

 একজন রবিন ঘোষের সহধর্মিনী কিংবদন্তী নায়িকা শবনম এবং অন্যজন আমাদের দেশের নাট্যাঙ্গনের অন্যতম নন্দিত অভিনেত্রী তারিন। বলা যায় শবনমেরই চোখের সামনেই একটু একটু করে শাহনাজ রহমতুল্লাহর গায়িকা হয়ে উঠা। আবার শাহনাজ রহমতুল্লাহর একমাত্র ছেলে ফয়সালের সঙ্গে বাদল রহমানের ‘কাঠাল বুড়ি’ চলচ্চিত্রে একসঙ্গে অভিনয় করেছিলেন তারিন। সেই থেকে তারিনকে অনেক ¯েœহের চোখে দেখেন শাহনাজ। তাই কিছুটা সুস্থ হয়ে গত রোববার দুপুরে দু’জন প্রিয় মানুষকে কাছে ডাকেন।

দু’জন মানুষকে কাছে পেয়ে শাহনাজ রহমতুল্লাহ ছিলেন ভীষণ আনন্দিত, উচ্ছসিত। দুপুরে দু’জনই শাহনাজ রহমতুল্লাহর সঙ্গে মধ্যাহ্ন ভোজ করেন। তারিন নিজ হাতে শাহনাজকে খাইয়ে দেন। খাওয়া দাওয়া শেষে শাহনাজ একে একে গেয়ে উঠেন ফুলের কানে ভ্রমর এসে, খোলা জানালায় চেয়ে দেখি, জীবনানন্দ হয়ে সংসারে আজো আমি,  পেয়ার ভারে দু সারমিলে’সহ আরো চার/পাঁচটি গান।

 শবনম বলেন,‘ অনেকদিন পর শাহনাজের কন্ঠে গান শুনে খুবই ভালোলেগেছে।  শাহনাজ খুব ভালো মনের একজন মানুষ। তার মতো শিল্পী এই উপমহাদশেই কম আছে। গানে তার ভাবাবেগ প্রকাশের ধরনই মুগ্ধ করে।’ তারিন বলেন,‘ সেইদিনটি আমার জীবনের অন্যতম স্মরনীয় দিন হয়ে থাকবে। কারণ দু’জন কিংবদন্তী শিল্পীর সঙ্গে একইসময়ে বেশকিছুটা সময় কাটিয়েছি।

দু’জনই যে কতো মহান তা তাদের ¯েœহ, ভালোবাসা, মায়া, মমতা দিয়ে সেই সময়টায় আগলে রেখে যেন তারই দৃষ্টান্ত রাখলেন। সত্যিই এ সময় ভোলার নয়।’ সবশেষে শাহনাজ রহমতুল্লাহ বলেন,‘ আমার বাসায় দু’জন প্রিয় মানুষকে নিমন্ত্রণ করেছিলাম। তাদের কাছে পেয়ে ভীষণ ভালোলেগেছিলো। সেইসাথে অনেকদিন পর মনের আনন্দে গান গেয়েছি।’ ছবি ঃ মোহসীন আহমেদ কাওছার

এই বিভাগের আরো খবর



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :




Go Back Go Top