সকাল ৬:২৩, বুধবার, ২০শে সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ইং
/ ক্রিকেট / শততম টেস্টের প্রথম দিন উজ্জ্বল টাইগাররা
শততম টেস্টের প্রথম দিন উজ্জ্বল টাইগাররা
মার্চ ১৫, ২০১৭

স্পোর্টস ডেস্ক : নিজেদের ক্রিকেট ইতিহাসে শততম টেস্ট খেলছে বাংলাদেশ দল। ঐতিহাসিক ম্যাচে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে সিরিজে সমতায় ফেরার লক্ষ্যে প্রথম দিনটি কিছুটা হলেও নিজেদের করে রেখেছে টাইগাররা। স্বাগতিক লঙ্কানরা দিন শেষে ৮৩.১ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে ?তুলেছে ২৩৮ রান।

২০০০ সালের নভেম্বরে টেস্ট অভিষেক হয় বাংলাদেশের। এরপর টেস্টের নবীনতম সদস্য টাইগাররা দ্রুততম সময়ে খেলছে শততম টেস্ট। ১৬ বছর ৪ মাস ৬ দিন পর বাংলাদেশ নিজেদের শততম টেস্ট খেললো, যা অন্য সব টেস্ট খেলুড়ে দেশের থেকে দ্রুততম সময়ে।

প্রথম সেশনে চার উইকেট নিয়ে বাংলাদেশের শুরুটা দুর্দান্ত হয়। তবে, একপ্রান্ত আগলে রেখে দিনেশ চান্দিমাল ৮৬ রানে অপরাজিত থাকায় পুরোপুরি নিজেদের দিন করে নিতে পারেনি মুশফিক বাহিনী। লঙ্কান দলপতি রঙ্গনা হেরাথ দ্বিতীয় দিন চান্দিমালের সঙ্গে ব্যক্তিগত ১৮ রানে শুরু করবেন। টস জিতে আগে ব্যাটিংয়ে নেমে প্রথম সেশন শেষে স্কোরবোর্ডে চার উইকেট হারিয়ে ২৭.৪ ওভারে ৭০ রান তোলে লঙ্কানরা। দ্বিতীয় সেশনে মোস্তাফিজদের একমাত্র প্রাপ্তি ধনাঞ্জয়া ডি সিলভার উইকেট। তৃতীয় ও শেষ সেশনে বাংলাদেশ আরও ২ উইকেট তুলে নেয়। কলম্বোর পি সারা ওভালে দলীয় নবম ওভারের মাথায় ব্রেকথ্রু এনে দেন মোস্তাফিজুর রহমান। মেহেদী হাসান মিরাজের তালুবন্দি হন দিমুথ করুনারাতেœ (৭)। ১২তম ওভারে কুশল মেন্ডিসকে (৫) স্ট্যাম্পিংয়ের ফাঁদে ফেলে সতীর্থদের উদযাপনের মধ্যমনি বনে যান মিরাজ। ওপেনার উপুল থারাঙ্গাকে (১১) সৌম্য সরকারের ক্যাচ বানিয়ে নিজের দ্বিতীয় শিকারে পরিণত করেন উঠতি স্পিন অলরাউন্ডার মিরাজ। মধ্যাহ্ন বিরতির আগে ২৮তম ওভারে আসিলা গুনারাতেœকে (১৩) এলবিডব্লু করে উইকেটের খাতায় নাম লেখান পেসার শুভাশিস রায়। ৭০ রানে চার উইকেট হারিয়ে চাপের মুখেই পড়ে স্বাগতিক শিবির।

চান্দিমাল-ডি সিলভার ৬৬ রানের জুটি ভেঙে দ্বিতীয় সেশনে প্রথম ব্রেকথ্রু এনে দেন তাসকিন আহমেদের জায়গায় একাদশে সুযোগ পাওয়া তাইজুল ইসলাম। তার স্পিন ঘূর্ণিতে বোল্ড হয়ে সাজঘরে ফেরেন একাদশে ফেরা ধনাঞ্জয়া ডি সিলভা (৩৪)। নিরোশান ডিকওয়েলাকে নিয়ে আরও ৪৪ রান যোগ করেন চান্দিমাল। ডি সিলভার সমান ৩৪ রান করে ফেরেন ডিকওয়েলা। তাকে ক্লিন বোল্ড করে উইকেটের দেখা পান সাকিব আল হাসান। ব্যক্তিগত ৯ রান করে কাটার মাস্টার মোস্তাফিজের বলে সৌম্য সরকারের তালুবন্দি হন দিলরুয়ান পেরেরা। দলীয় ১৯৫ রানের মাথায় স্বাগতিকরা সপ্তম উইকেট হারায়।

গল টেস্টে ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতায় ২৫৯ রানে হার মানতে হয়। সেই হতাশা ভুলে টাইগারদের সামনে দুই ম্যাচ সিরিজে ঘুরে দাঁড়ানোর চ্যালেঞ্জ। মাইলফলকের ম্যাচে সেরা একাদশ নিয়ে মাঠে নেমেছে টিম বাংলাদেশ। মোট চারটি পরিবর্তন এসেছে। ফর্মহীনতায় বাদ পড়েছেন অভিজ্ঞ মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। মুমিনুল হকও দলের বা?ইরে।
পেসার শুভাশিস রায়ের একাদশে থাকা নিয়ে শঙ্কা থাকলেও বাদ পড়েছেন তাসকিন আহমেদ। তার জায়গায় সুযোগ পেয়েছেন স্পিনার তাইজুল ইসলাম। এদিকে, আবারো উইকেটকিপিং গ্লাভস হাতে নিয়েছেন মুশফিকুর রহিম। নেটে ব্যাটিং অনুশীলনের সময় পাঁজরে বলের আঘাতে ছিটকে গেছেন লিটন দাস। লিটনের ইনজুরির সুবাদে ঐতিহাসিক ম্যাচ দিয়ে টেস্ট অভিষেক হয় মোসাদ্দেক হোসেন সৈকতের। মুমিনুল ও মাহমুদউল্লাহর জায়গায় ফিটনেস সমস্যা কাটিয়ে দলে ফেরা ইমরুল কায়েস ও গল টেস্টে সুযোগ না পাওয়া সাব্বির রহমান।

লঙ্কান একাদশে বাড়তি ব্যাটসম্যান হিসেবে যুক্ত হয়েছেন ধনাঞ্জয়া ডি সিলভা। বাদ পড়েছেন পেসার লাহিরু কুমারা।
বাংলাদেশ একাদশ : তামিম ইকবাল, সৌম্য সরকার, ইমরুল কায়েস, সাকিব আল হাসান, মুশফিকুর রহিম (অধিনায়ক ও উইকেটরক্ষক), সাব্বির রহমান, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত, মেহেদী হাসান মিরাজ, তাইজুল ইসলাম, শুভাশিস রায়, মোস্তাফিজুর রহমান।
শ্রীলঙ্কা একাদশ : দিমুথ করুনারাতেœ, উপুল থারাঙ্গা, কুশল মেন্ডিস, দিনেশ চান্দিমাল, অসিলা গুনারাতেœ, ধনাঞ্জয়া ডি সিলভা, নিরোশান ডিকওয়েলা (উইকেটরক্ষক), দিলরুয়ান পেরেরা, রঙ্গনা হেরাথ (অধিনায়ক), সুরাঙ্গা লাকমল, লক্ষণ সান্দাকান।

 



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :




Go Back Go Top