বিকাল ৩:০৯, রবিবার, ৩০শে এপ্রিল, ২০১৭ ইং
/ Today Lead / র‌্যাবের ব্যারাকে হামলার পর গ্রেফতার সন্দেহভাজনের মৃত্যু
আত্মঘাতি জঙ্গিকে ছেলে দাবি এক নারীর
র‌্যাবের ব্যারাকে হামলার পর গ্রেফতার সন্দেহভাজনের মৃত্যু
মার্চ ১৮, ২০১৭

রাজধানীর আশকোনায় আত্মঘাতী জঙ্গি হামলার পর র‌্যাবের হাতে গ্রেফতার এক যুবক মারা গেছেন। যদিও ওই যুবকের মৃত্যুর আগ পর্যন্ত গ্রেফতারের বিষয়টি গণমাধ্যমকে জানায়নি র‌্যাব। শনিবার বিকালে ওই যুবকের মরদেহ ঢাকা মেডিকেল কলেজ মর্গে পাঠানো হয়। এরপরই গ্রেফতারের বিষয়টি প্রকাশ পায়। তার মরদেহ মরচুয়ারিতে রাখা হয়েছে। আজ রোববার ময়নাতদন্ত সম্পন্ন হবে বলে হাসপাতাল সূত্র জানায়। ওই যুবকের নাম আবু হানিফ মৃধা (৩২) এবং তার বাড়ি বরগুনার আমড়াগাছিয়া বলে প্রাথমিকভাবে জানতে পেরেছেন র‌্যাব কর্মকর্তারা। র‌্যাবের মুখপাত্র মুফতি মাহমুদ বলেন, ‘আবু হানিফের বিস্তারিত পরিচয় পাওয়া যায়নি। তার পরিচয় পাওয়ার চেষ্টা চলছে।’

অন্যদিকে ওই আত্মঘাতি হামলার ঘটনায় ঘটনাস্থলেই নিহত হামলাকারীর পরিচয় নিশ্চিত হওয়া যায়নি। তবে আমিরন নামে এক নারী নিহত ওই জঙ্গিকে নিজের ছেলে রফিক বলে দাবি করেছেন। ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) মর্গে ওই আত্মঘাতি জঙ্গির মরদেহের ময়নাতদন্ত সম্পন্ন হয়।

র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক মুফতি মাহমুদ খান বলেন, আত্মঘাতি হামলার পর শুক্রবার বিকাল সোয়া ৪টার দিকে আশকোনা এলাকা থেকে সন্দেহভাজন হিসাবে এক যুবককে গ্রেফতার করা হয়েছিল। তার দাবি, ‘গ্রেফতারের পরপরই ওই যুবক অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় কিছুক্ষণ পরই সন্ধ্যা পৌনে ৬টার দিকে তার মৃত্যু হয়। এরপর লাশ ওই হাসপাতালেই ছিল।’ এদিকে মৃত্যুর প্রায় ২২ ঘণ্টা পর শনিবার বিকালে ওই যুবকের লাশ  ঢাকা মেডিকেল কলেজ মর্গে পাঠানো হয়। ঢাকা মেডিকেল কলেজের ফরেনসিক বিভাগের প্রধান অধ্যাপক সোহেল মাহমুদ জানান, ‘প্রাথমিকভাবে জানা গেছে, হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে তার মৃত্যু হয়েছে। তবে ভিসেরা পরীক্ষার জন্য নমুনা সংরক্ষণ করা হয়েছে।’

নিহত জঙ্গিকে ছেলে দাবি এক নারীর : রাজধানীর আশকোনায় নির্মাণাধীন র‌্যাব সদর দফতরের ফোর্সেস ব্যারাকে আত্মঘাতী হামলাকারীকে নিজের ছেলে বলে দাবি করেছেন আমিরন নামের এক নারী। তিনি বলছেন, নিহত ব্যক্তির নাম রফিক।  শনিবার আমিরন র‌্যাবের ব্যারাকে যান। সেখানে গিয়ে তিনি র‌্যাবের কাছে দাবি করেন, তাদের বাড়ি পিরোজপুরে। ঢাকায় রফিক চায়ের দোকানে কাজ করতেন। তিনি পাঁচ দিন আগে বাড়ি থেকে বের হন। এরপর থেকে তার কোনো খোঁজ পাওয়া যাচ্ছিলো না। এ বিষয়ে র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক কমান্ডার মুফতি মাহমুদ খান বলেন, ‘একজন নারী এসেছেন। তিনি নিহত ব্যক্তিকে নিজের ছেলে বলে দাবি করেছেন। আমরা যাচাই-বাছাই করছি।’ মুফতি মাহমুদ খান আরও বলেন, ‘ওই নারী কোথাও নিহত ব্যক্তির ছবি দেখে এখানে এসেছেন। তিনি কোথায় ছবি দেখলেন, আমরা জানি না। কারণ, ওনার ছবি কোনো গণমাধ্যমে প্রকাশযোগ্য নয় বলে মনে হয়।’

মামলা : র‌্যাব ফোর্সেস ব্যারাকে আত্মঘাতী হামলার ঘটনায় শনিবার সকালে মামলা হয়েছে। র‌্যাব বাদী হয়ে সন্ত্রাসবিরোধী আইনে বিমানবন্দর থানায় মামলাটি দায়ের করে। বিমানবন্দর থানার ওসি নূরে আজমের ভাষ্য, মামলায় কোনো আসামির নাম উল্লেখ করা হয়নি। নিহত ব্যক্তির পরিচয় উল্লেখ করা হয়নি।

গত শুক্রবার দুপুর একটার দিকে আশকোনা হজক্যাম্প সংলগ্ন র‌্যাবের নির্মাণাধীন প্রস্তাবিত সদর দফতর কাম ফোর্সেস ব্যারাকে আত্মঘাতি হামলার ঘটনা ঘটে। বিকট বিস্ফোরণে আশপাশ কেঁপে ওঠে, হামলাকারীর শরীর ছিন্নভিন্ন হয়ে রক্ত-মাংস সীমানাদেয়ালের বাইরেও ছড়িয়ে পড়ে। হামলার পরে দেশের সব বিমানবন্দর ও কারাগারে সতর্কতা জারি করা হয়। একই সঙ্গে র‌্যাবের সব স্থাপনায় বিশেষ সতর্কতা নেওয়া হয়েছে। এ হামলার পরদিন  শনিবার খিলগাঁওয়ে র‌্যাবের চেকপোস্টে হামলা করতে এসে গুলিতে নিহত হন হামলাকারী। আর র‌্যাবের ব্যারাকে হামলার আগের দিন গত বৃহস্পতিবার চট্টগ্রামের সীতাকুন্ডে জঙ্গি আস্তানায় পুলিশের অভিযানের সময় আত্মঘাতী বিস্ফোরণে শিশুসন্তানসহ জঙ্গি দম্পতি নিহত হন। ওই অভিযানে আরও দুই জঙ্গি নিহত হন। এর আগে গতবছরের ২৪ ডিসেম্বর রাজধানীর আশকোনায় এক জঙ্গি আস্তানায় পুলিশের অভিযানের সময় এক নারী আত্মঘাতী হন।

 

 

 



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :




Go Back Go Top