সকাল ১১:৫৫, সোমবার, ২৯শে মে, ২০১৭ ইং
/ সম্পাদকীয় / রিজার্ভ চুরির সঙ্গে কারা জড়িত
রিজার্ভ চুরির সঙ্গে কারা জড়িত
এপ্রিল ১২, ২০১৭

যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাংক অব নিউইয়র্ক থেকে বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভের মোট ৮১ মিলিয়ন ডলার ‘গায়েব’ বা হ্যাকড হয়েছে গত বছরের প্রথম দিকে এটা আমরা সবাই জানি। কিন্তু এ ঘটনার সঙ্গে বাংলাদেশ ব্যাংকের বৈদেশিক মুদ্রা শাখায় যারা জড়িত বলে গণমাধ্যমে খবর বের হয়েছিল, তাদের কোনো শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছিল- এম- কোনো তথ্য সাধারণ মানুষের কাছে নেই।

ফেডারেল রিজার্ভ থেকে প্রায় ৮০০ কোটি টাকা হ্যাকাররা কীভাবে নিয়ে গেল তার কোনো সদুত্তর নেই সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে। প্রকাশিত খবর থেকে জানা যায়, বাংলাদেশ ব্যাংকের কিছু কর্মকর্তাকে এ ব্যাপারে নজরদারিতে রাখা হয়। পাসপোর্টও নাকি জব্দ করা হয়েছে, যাতে তারা পালিয়ে যেতে না পারে।


 ধারণা করা হচ্ছে, তাদের মাধ্যমে হ্যাকাররা হিসেবের গোপনীয় সাংকেতিক নম্বর পেয়ে থাকতে পারে। এ ক্ষেত্রে বাংলাদেশ ব্যাংকের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ তৃতীয় একটি দেশের একটি প্রতিষ্ঠানের দিকেও সন্দেহের তীর ছিল। এটা আমরা জানি, বাংলাদেশ ব্যাংকের বৈদেশিক মুদ্রা বিভাগে এসব লেনদেন নানা স্তরে অত্যন্ত শক্তিশালী কোডের মাধ্যমে করা হয়ে থাকে। আর এসব কোড সংরক্ষিত হয় ব্যাংকের ঐ বিভাগে সংশ্লিষ্ট অল্প কয়েকজন কর্মকর্তার মাধ্যমে। এ ঘটনার সঙ্গে ফিলিপাইনে যে সব ব্যাংক কর্মকর্তার বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছিল, তারা তখন পদত্যাগ করেছিলেন।


 তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের প্রক্রিয়া চলছে। আমাদের কিছু টাকা ফেরত আনা হয়েছে। এ ঘটনার জন্য বাংলাদেশ ব্যাংকের সে সময়ের গভর্নর ড. আতিয়ার রহমানকে পদত্যাগ করে চলে যেতে হয়েছে। কিন্তু বৈদেশিক মুদ্রা বিভাগে যাদের ওপর বৈদেশিক লেন-দেন এর দায়িত্ব এবং নিরাপদ নিরাপত্তা সাংকেতিক কোড ব্যবহার করেন তারা এ ঘটনার দায়-দায়িত্ব কীভাবে নিলেন বা আদৌ নিয়েছেন কি-না, তা জাতিকে জানতে হবে। এটাই জবাবদিহিতা শৃঙ্খলতা, এ ঘটনার সঙ্গে বাংলাদেশ ব্যাংকের কেউ জড়িত কি-না তা নিরপেক্ষভাবে খতিয়ে দেখতে হবে।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :




Go Back Go Top