সকাল ১০:২৯, সোমবার, ২৫শে সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ইং
/ রাজনীতি / রায়ের পর্যবেক্ষণ আড়াল করতে জিয়ার শাসনামলের প্রসঙ্গ টানা : ফখরুল
রায়ের পর্যবেক্ষণ আড়াল করতে জিয়ার শাসনামলের প্রসঙ্গ টানা : ফখরুল
আগস্ট ১৯, ২০১৭

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায়ের পর্যবেক্ষণের মূল বিষয় থেকে জনদৃষ্টি ভিন্নখাতে ফেরাতে ক্ষমতাসীনরা জিয়াউর রহমানের শাসনামলের প্রসঙ্গ টেনে আনার  কৌশল নিয়েছে। তিনি আরো বলেন, এটা হচ্ছে আওয়ামী লীগের সহজাত কৌশল-মূল বিষয়টা  থেকে জনমতকে অন্যদিকে নিয়ে যাওয়া। উল্টো-পাল্টা কথা বলে তারা অন্যদিকে নিয়ে যেতে চাচ্ছে। আমরা রায় সম্পর্কে বলেছি, পর্যবেক্ষণে বর্তমান রাজনীতি সম্পর্কে যে কথাগুলো আছে, সে সম্পর্কেও বলেছি।

শনিবার সকালে জাতীয়তাবাদী স্বেচ্ছাসেবক দলের ৩৭তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে সংগঠনটির সভাপতি শফিউল বারী বাবু ও সাধারণ সম্পাদক আবদুল কাদের ভুঁইয়া জুয়েলসহ নেতাদের নিয়ে রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে জিয়াউর রহমানের কবরে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানোর পর সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন ফখরুল। ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায়ের পর্যবেক্ষণ নিয়ে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের এক বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় বিএনপির মহাসচিব বলেন, শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের শাসন যদি অবৈধ হয়ে থাকে, তাহলে আওয়ামী লীগও অবৈধ। কারণ তার (জিয়াউর রহমান) সরকারের সময় তার বিধিমালা অনুসরণ করে আওয়ামী লীগ রাজনৈতিক দল হিসেবে নিবন্ধন করেছিল। রায় পরিবর্তনে আওয়ামী লীগ বিচার বিভাগের উপর চাপ সৃষ্টি করছে বলে অভিযোগ করে তার নিন্দাও জানান মির্জা ফখরুল। নির্বাচন কমিশনের চলমান সংলাপের ভবিষ্যৎ নিয়ে জানতে চাইলে বিএনপির মহাসচিব বলেন, সংলাপের ভবিষ্যত কী হবে তা সহজেই বুঝা যাচ্ছে। প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) তো বলেই দিয়েছেন, উনি শুনবেন, তারপর উনিই সিদ্ধান্ত নেবেন। সুতরাং এটাকে সংলাপ বলাই যাবে না। আর বিএনপি সংলাপে কী ধরণের প্রস্তাব দেয় তা সংলাপকালীন সময়ে জানতে পারবেন। ‘রাজনৈতিক দলগুলোকে নির্বাচনে আনার দায়িত্ব কমিশনের নয়’, সিইসি’র এমন বক্তব্যেও আপত্তি জানান ফখরুল।

বন্যার্তদের ত্রাণ বিতরণে সরকার সচেষ্ট নয় বলে অভিযোগ করে তিনি বলেন, বন্যায় দূর্গতদের পাশে দাঁড়াতে আমরাই প্রথম কাজ করছি। সরকার কাজ না করে শুধু মুখের  জোরে জনগণকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করছে। এটা আমাদের কথা নয়, বন্যার্ত মানুষের কথা  যে- সরকার দুর্যোগ মোকাবেলা করতে সম্পূর্ণ ব্যর্থ হয়েছে। এ সময় বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস, কেন্দ্রীয় নেতা শামসুজ্জামান দুদু, আমানউল্লাহ আমান, রুহুল কবির রিজভী, হাবিব-উন-নবী খান সোহেল, স্বেচ্ছাসেবক দলের সিনিয়র সহ-সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান, সিনিয়র যুগ্ম-সম্পাদক সাইফুল ইসলাম ফিরোজ প্রমুখ নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। এর আগে, শুক্রবার দিবাগত রাত ১২টা ০১ মিনিটে নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে ৩৭ পাউন্ডের কেক কেটে আনুষ্ঠানিকভাবে স্বেচ্ছাসেবক দলের ৩৭তম প্রতিষ্ঠাবার্র্ষিকী উদযাপন করা হয়। পরে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর কেকটি এতিমখানায় পাঠিয়ে দেয়া হয়। দেশে ভয়াবহ বন্যার কারণে এবার প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অন্যসব আনুষ্ঠানিকতা বাতিল করেছে সংগঠনটি।

এই বিভাগের আরো খবর



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :




Go Back Go Top