সকাল ১০:৩৪, বৃহস্পতিবার, ২৭শে জুলাই, ২০১৭ ইং
/ আর্ন্তাজাতিক / যে কারণে ফেঁসে যেতে পারেন নওয়াজ শরীফ
যে কারণে ফেঁসে যেতে পারেন নওয়াজ শরীফ
জুলাই ১৫, ২০১৭

করতোয়া ডেস্ক: পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ নিয়ে সর্বশেষ কেলেঙ্কারির নাম দেয়া হয়েছে ‘ফন্টগেট’। বিতর্কের কেন্দ্রে আছে মাইক্রোসফট ওয়ার্ড প্রোগ্রামের একটি টাইপ ফন্ট ‘ক্যালিব্রি’। এই ফন্টটি কখন সাধারণ ব্যবহারকারীদের জন্য উন্মুক্ত করা হয়েছিল, তার ওপর নির্ভর করছে নওয়াজ শরিফের বিরুদ্ধে একটি দুর্নীতির অভিযোগের ভবিষ্যৎ। গত বছর ‘পানামা পেপারস’ ফাঁস হওয়ার পর জানা যায়, পাকিস্তানের বেশ কয়েকজন গুরুত্বপূর্ণ রাজনীতিক, যার মধ্যে নওয়াজ শরিফও আছেন।

একদল তদন্তকারী এখন এই দুর্নীতির তদন্ত করছে। এই তদন্তে খোঁজা হচ্ছে সেন্ট্রাল লন্ডনে দামী ফ্ল্যাটগুলো যে কোম্পানিগুলোর মাধ্যমে কেনা হয়েছে, সেগুলোর মালিক কারা? পানামা পেপারসে  ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছে নওয়াজ শরিফের মেয়ে মরিয়ম নওয়াজ সেগুলোর মালিক। মরিয়ম নওয়াজই তার পিতার রাজনৈতিক উত্তরাধিকারি হিসেবে দলের হাল ধরবেন বলে মনে করা হয়।

তবে মরিয়ম নওয়াজ দাবি করছেন, তিনি কোম্পানিটির ট্রাস্টি মাত্র। এর সপক্ষে তিনি প্রমাণ হিসেবে যে দলিল পেশ করেছেন, সেটি সই করা হয়েছে ২০০৬ সালে। কিন্তু তদন্তকারীরা বলছেন, মাইক্রোসফটের যে ফন্ট ব্যবহার করে দলিলটি টাইপ করা হয়েছে, সেই ক্যালিব্রি ফন্টটি ২০০৬ সালে সাধারণের ব্যবহারের কোনো সুযোগই ছিল না। এটি উন্মুক্ত করা হয় ২০০৭ সালে।সুতরাং তদন্তকারীরা বলছেন, এই দলিলটি আসলে জাল। তারা মরিয়ম নওয়াজের বিরুদ্ধে জালিয়াতির অভিযোগ করছেন।কিন্তু সামনের সপ্তাহে পাকিস্তানের সুপ্রিম কোর্টের তিনজন বিচারক মিলে তদন্তকারীদের রিপোর্টের ভিত্তিতে এই মামলার ব্যাপারে তাদের রায় দেবেন।

এই বিভাগের আরো খবর



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :




Go Back Go Top