রাত ২:৪১, শুক্রবার, ২৪শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ইং
/ সম্পাদকীয় / মধ্যম আয়ের পথে এখন দেশের অর্থনীতি
মধ্যম আয়ের পথে এখন দেশের অর্থনীতি
January 3rd, 2017

 

বিজয়ের ৪৫ বছরের বিশ্ব অর্থনীতিতে গুরুত্ব পাচ্ছে বাংলাদেশ। স্বাধীনতা পরবর্তী ক্ষুধার্ত মানুষ আর তলাবিহীন ঝুড়ির বাংলাদেশের পথচলা শুরু হয় শূন্যের অর্থনীতি নিয়ে। কিন্তু বীর বাঙালির উদ্যম আর কঠোর পরিশ্রমে মধ্যম আয়ের দেশের পথে এখন বাংলাদেশের অর্থনীতি।

 

বর্তমান রেমিটেন্স আহরণে কিছুটা ছেদ পড়লেও রিজার্ভে অনন্য উচ্চতায় এখন বাংলাদেশ। জিডিপি প্রবৃদ্ধি ৭ শতাংশ ছাড়িয়েছে। কমেছে অতি দরিদ্রতার হার। রপ্তানিতেও উন্নয়ন লক্ষ্য করা গেছে। মানব সম্পদ রপ্তানি বেড়েছে।

 

 মূল্যস্ফীতিও কমেছে। অর্থনীতির সূচকগুলো এখন অনন্য উচ্চতায়। এসবের পাশাপাশি সুষম উন্নয়ন পরিকল্পনার দেশে ১ কোটি অর্থনৈতিক অঞ্চল স্থাপনের ধারায় অর্থনীতি ও শিল্পায়নে বিশ্বের শক্তিধর দেশগুলো এখন শিল্পায়নে বিনিয়োগে আগ্রহ দেখাচ্ছে। সর্বশেষ চীন বাংলাদেশে বিশাল অংকের বিনিয়োগ চুক্তি স্বাক্ষর করেছে। বিশ্বব্যাংকের মতো প্রতিষ্ঠানও বাংলাদেশে অর্থনৈতিক অগ্রগতির প্রশংসা করেছে।

 

সরকারও ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত দেশের তালিকায় নিয়ে যাওয়ার লক্ষ্যে কাজ করছে। অন্যদিকে বিশ্বের দ্রুতগতিতে অগ্রসরমান দেশসমূহে হাঙ্গেরি রফতানি বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তাই বাংলাদেশসহ দক্ষিণ ও পূর্বের ব্যাপক সম্প্রসারণ দেশসমূহে সহযোগিতা প্রতিষ্ঠা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

 সম্প্রতি অনুষ্ঠিত বাংলাদেশ-হাঙ্গেরি বিজনেস ফোরামের সমাপনি অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন হাঙ্গেরির প্রধানমন্ত্রী ভিক্টর অরবান। ২০১০ সাল থেকে ২০১৫ সাল পর্যন্ত পাঁচ বছরে বাংলাদেশের সঙ্গে যুক্তরাজ্যের ৬৭ শতাংশ জার্মানির সঙ্গে ৫৭ শতাংশ ও ফ্রান্সের সঙ্গে ৬৯ শতাংশ বাণিজ্য বৃদ্ধি পেয়েছে।

 

এই তথ্য থেকে ভালো ভাবে বোঝা যায়, বাংলাদেশে যথাযথ পেশাগত ও প্রযুক্তিগত সুবিধা বিদ্যমান, যার মাধ্যমে অসাধারণ সাফল্য অর্জন করতে যাচ্ছে। গত সাত বছরে বিশ্ব অর্থনীতিতে বাংলাদেশের অবস্থান ৬৮ থেকে নেমে ৪৪তম অবস্থানে এসেছে। ২০৪০ সালে বিশ্বের ২৩তম বৃহত্তম অর্থনীতির দেশ হবে বাংলাদেশ।

 



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :




Go Back Go Top