রাত ১১:২১, বৃহস্পতিবার, ১৭ই আগস্ট, ২০১৭ ইং
/ সম্পাদকীয় / ভোক্তা স্বার্থ রক্ষা করুন
ভোক্তা স্বার্থ রক্ষা করুন
মার্চ ১৯, ২০১৭

কাজির গরু কেতাবে আছে, গোয়ালে নেই, আমাদের ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন একই দশা। কাগজে কলমে আইনটি বলবত আছে, কিন্তু প্রয়োগ নেই। আইনের প্রয়োগ না থাকায় প্রতিনিয়ত প্রতারিত হচ্ছে ক্রেতা সাধারণ। পণ্য ও সেবার মান যেমন কম, তেমনি দাম ক্রমাগত বাড়ছে। যান্ত্রিক ওজন যন্ত্রেও ত্রুটি বা কারসাজির কারণে ওজনে পণ্য কম পাচ্ছেন ক্রেতারা।

 বিভিন্ন দোকানে মাপে হেরফের পাওয়া যায়। বহু খাদ্য পণ্য আছে যার মোড়কে প্রতিষ্ঠানের নাম থাকলেও ঠিকানা নেই। নির্ধারিত মূল্যে পণ্য বিক্রি করেন না অনেক বিক্রেতা নানা অজুহাতে। দাম লেখা না খোলা পণ্য তো হরেক রকম দামে বিকোয়। ক্রেতা ও ভোক্তা সাধারণ যে ন্যায্য মূল্যে সঠিক পণ্য ও সেবাটি পাবেন, সে জন্য ব্যবসায়ে সততা একান্ত কাম্য।

 আর রাষ্ট্র ও প্রশাসনের দায়িত্ব হচ্ছে যথাযথ আইন-বিধি বিধান দ্বারা একদিকে ব্যবসা বাণিজ্যের পথ সহজ করা এবং নজরদারি ও নিয়ন্ত্রণের মাধ্যমে অতি মুনাফা বাজি কঠোরভাবে দমন করে ভোক্তা সাধারণের স্বার্থ রক্ষা করা। কিন্তু আইনের যথাযথ প্রয়োগ না থাকায় ভোক্তার অধিকার সংরক্ষণে কাজে আসেনি সংশ্লিষ্ট আইনটি। এতে ক্রেতাসাধারণকে বাজারের সঙ্গে পাল্লা দিতে প্রতিনিয়ত হিমশিম খেতে হচ্ছে।

 ভোক্তা অধিকার আইনের ৩৭ ধারা অনুযায়ী, পণ্যের মোড়কের গায়ে সর্বোচ্চ খুচরা বিক্রয় মূল্য, উৎপাদনের তারিখ, মেয়াদোত্তীর্ণের তারিখ লিপিবদ্ধ করার বাধ্যবাধ্যকতা থাকলেও দোকানিরা গায়ে লেখা সর্বোচ্চ খুচরা মূল্য অনেক ক্ষেত্রে মানে না। আইনের এ শর্তগুলো অমান্য করার কারণে কোনো ব্যবসায়ীকে শাস্তি ভোগ করতে হয়েছে তেমন দৃষ্টান্ত বিরল। আমরা চাই ভোক্তা অধিকারগুলো যথাযথভাবে পালিত হোক। দাম দিয়ে ক্রেতা যেন সঠিক পণ্য পায়, সে অধিকার তার নিশ্চিত করতে হবে।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :




Go Back Go Top