রাত ৪:০৯, শনিবার, ২১শে জানুয়ারি, ২০১৭ ইং
/ স্বাস্থ্য / বাজার থেকে কেনা মাছ, মশলা, সবজি কতটা স্বাস্থ্যকর?
বাজার থেকে কেনা মাছ, মশলা, সবজি কতটা স্বাস্থ্যকর?
December 20th, 2016

ভালো ভালো খাবার খেয়েও স্বাস্থ্যের বেহাল দশা। অ্যাসিড,অম্বল,ছোঁয়া ঢেকুরে জেরবার জীবন। পেটের রোগ বারোমাস। বাজার থেকে কেনা মাছ,মশলা,সবজি কতটা স্বাস্থ্যকর? তা দেখতেই ছোট্ট একটা পরীক্ষা করেছিলাম আমরা। বাজারভর্তি ব্যাগ ল্যাবরেটরিতে নিয়ে যেতেই চোখ উঠল কপালে। ধরা পড়ল দুধ-দই -মশলায় সবেতেই বিষ।ব্যাগ দুলিয়ে বাজার গেলেন। বাজার সেরে মহানন্দে ঘরে ফিরলেন। কিন্তু আপনার করা বাজার কতটা স্বাস্থ্যকর? চলুন দেখে নেওয়া যাক।

২৪ এর বাজার সফর
বাজার থেকে কিনলাম
হলুদ
লঙ্কার গুঁড়ো
ময়দা
বেসন
দই
নিয়ে যাওয়া হল ল্যাবরেটরিতে।
হলুদ
——-
হলুদে বাড়িতে ব্যবহূত মিউরিয়াটিক অ্যাসিড মেশাতেই বদলে গেলে হলুদের রঙ। মেশানো হয়েছে কেশরি রঙ।
যা থেকে ক্যানসার হওয়ার আশঙ্কা ১০০%
লঙ্কার গুঁড়ো
——-
লঙ্কার গুঁড়োয় মেশানো হল নেল রিমুভার। কয়েক ফোঁটা মেশালেই বেরিয়ে যাবে লঙ্কা গুড়ো আসল না ভেজাল ?ভেজাল থাকলে দ্রবণের তলায় পড়ে থাকবে সাদা গুঁড়ো। তারমানেই মেশানো হয়েছে কাঠের গুঁড়ো।
ময়দা
—-
ময়দায় মেশান সামান্য হাইড্রোক্লোরিক অ্যাসিড। ব্যাস তাতেই কেল্লা ফতে। বেরিয়ে যাবে ভেলকিবাজি। ময়দায় বাবল উঠলেই বুঝতে হবে ময়দায় মেশানো হয়েছে ভেজাল।
বেসন
—–
চপ-মুড়ি বাঙালির প্রিয় সান্ধ্য টিফিন।আর চপ মানেই বেসন। কিন্তু সেই বেসনেই মেশানো থাকছে ভয়ঙ্কর বিষ।
যা থেকে শরীরে বাসা বাঁধছে পেটের রোগ। লিভার ক্যানসার।
বেসনে ভেজাল আছে কিনা তা বাড়িতেই পরখ করা যায়। গোলা বেসনে দিন কয়েক ফোঁটা নেল রিমুভার। দ্রবণের ওপরে ভেসে ওঠবে রঙ।
দই

শেষ পাতে দইয়ের জুড়ি মেলা ভার। চাপ দই দেখে মন খুশির কিচ্ছু নেই। ওখানেই বিপদ। দইকে জমাট ও ঘন বাঁধাতে মেশানো হচ্ছে ক্ষতিকারক বনস্পতি। হলুদ রঙ আনতে মেশানো হচ্ছে রঙ।
ছবি
দইয়ে কয়েক ফোঁটা হাইড্রোক্লোরিক অ্যাসিড দিলেই বেরিয়ে যাবে বুজরুকি। ওপরে ভেসে উঠবে রঙ।
দুধে ভেজাল ধরতে দেখে নিন কী করবেন? তাহলে বুঝুন। ছোট্ট একটা পরীক্ষাতেই বোঝা গেল কেমন বাজার আমার করি। আর প্রতিদিন কী আমরা খাচ্ছি। ব্যাগভর্তি বাজারের ৯০% জিনিসেই মিশছে ভেজাল। বিষ খেয়েই বেঁচে আছি আমরা।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :