রাত ৮:৫২, সোমবার, ২৪শে জুলাই, ২০১৭ ইং
/ সম্পাদকীয় / বাজারে উর্ধ্বগতি, মনিটরিং চাই
বাজারে উর্ধ্বগতি, মনিটরিং চাই
মে ১৩, ২০১৭

প্রতি বছরই রমজানে বিভিন্ন নিত্য পণ্যের দাম বৃদ্ধির একটি অপচেষ্টা থাকে ব্যবসায়ীদের মধ্যে। প্রচুর পরিমাণ মজুদ থাকার পরও কৃত্রিম সংকট তৈরি করে দাম বৃদ্ধির চেষ্টা, খাদ্যে ভেজাল দেওয়ার মতো কাজও করে থাকে ব্যবসায়ীরা। এসব অপচেষ্টা প্রতিরোধে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের ১৪টি টিম বাজারে তদারকি করবে বলে বাণিজ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে। এর পাশাপাশি জাতীয় ভোক্তা অধিকার অধিদপ্তরের আলাদা মনিটরিং থাকবে বলেও জানা গেছে। বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের এই ১৪টি টিম সারা বছর কাজ করে। তবে তাদের এ বছর ব্যাপী কাজ খুব একটা দৃশ্যমান হয় না বলে অভিযোগ রয়েছে।


 তাই তারা রমজানের আগে বিশেষভাবে কাজ করার পরিকল্পনা নিয়ে থাকে। সারা মাস বিভিন্ন জায়গায় অভিযান পরিচালনা করে। এসব টিম ইতিমধ্যে ঢেলে সাজানো হয়েছে। কেউ যদি অযৌক্তিকভাবে নিত্য পণ্যের দাম বৃদ্ধি করে, পণ্য মজুদ করে রাখে, খাদ্যে ভেজাল প্রদান করে তাহলে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে এসব কমিটি। রমজান আসার আগেই অস্থির হয়ে উঠেছে নিত্য পণ্যের বাজার। চিনি, চাল ও ছোলার দাম বৃদ্ধি পেয়েছে। যদিও সম্প্রতি ব্যবসায়ীরা বাণিজ্য মন্ত্রীর সঙ্গে একাধিক বৈঠকে অংশ নিয়ে কথা দিয়েছিল রমজানে কোনো পণ্যের দাম বৃদ্ধি পাবে না।


 কিন্তু রমজান আসার আগেই এসব পণ্যের দাম বৃদ্ধি পেয়েছে। বাজার সংশ্লিষ্টরা মনে করেন, প্রতি বছর এসব টিম কাজ করলেও রমজান এলেই ব্যবসায়ীরা বিভিন্নভাবে গ্রাহকদের সঙ্গে প্রতারণা শুরু করে দেয়। যা মনিটরিংয়ে সরকারের কোন সংস্থাই কার্যকরি ভূমিকা রাখতে পারছে না। টিসিবি, ট্যারিফ কমিশন, প্রতিযোগিতা কমিশন, বিএসটিআই, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের মনিটরিং টিম মূলত অকার্যকর। রমজানের আগে শুরু হয় এসব সংস্থার কথার তোড়জোড়, কিন্তু দৃশ্যত বাজারে এর কোনো সুফল দেখতে পাওয়া যায় না।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :




Go Back Go Top