সকাল ৮:২৭, সোমবার, ২৪শে জুলাই, ২০১৭ ইং
/ আর্ন্তাজাতিক / বর্ষবরণ রাতে ইস্তাম্বুল নাইটক্লাবে হামলা, নিহত ৩৯
বর্ষবরণ রাতে ইস্তাম্বুল নাইটক্লাবে হামলা, নিহত ৩৯
জানুয়ারি ১, ২০১৭

করতোয়া ডেস্ক: ইস্তানবুলের ওরকাটয় এলাকায় রেইনা নৈশক্লাবের হামলায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৩৯ জনে দাঁড়িয়েছে। হামলাকারীর খোঁজে অভিযান শুরু হয়েছে। ওরকাটয় এলাকায় রেইনা নৈশক্লাবে শনিবার দিবাগত রাত ১টার পরপর এ হামলা চালায় সন্ত্রাসীরা। স্থানীয় সময় গতকাল শনিবার দিবাগত রাত সোয়া একটার দিকে এই হামলা হয়। দূরপাল্লার আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে একজন সন্ত্রাসী নির্মমভাবে নববর্ষ উদযাপনরত নিরীহ লোকজনের ওপর গুলি চালায়।’


ইস্তানবুলের গভর্নর ভ্যাসিপ শাহিন প্রাথমিকভাবে জানান, বন্দুকধারীর গুলিতে কমপক্ষে ৩৫ জন নিহত হওয়ার পাশাপাশি আহত হয়েছে কমপক্ষে ৪০ জন।পরে রয়টার্স এবং গার্ডিয়ান পুলিশ সূত্রের বরাত দিয়ে  ৩৯ জনের প্রাণহানির খবর নিশ্চিত করে। তুরস্কের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রীর বরাত দিয়ে নিহতদের মধ্যে ১৫ থেকে ১৬ জন বিদেশি নাগরিক থাকার কথা জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম। আর পুলিশ সূত্রের বরাত দিয়ে সুনির্দিষ্ট করে গার্ডিয়ান নিহতদের মধ্যে ১৫ জন বিদেশি নাগরিক থাকার কথা জানিয়েছে। তুরস্কের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সুলেয়মান সয়লু আরও জানিয়েছেন, হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন ৬৯ জন। এদের মধ্যে ৪ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। হামলাকারীর খোঁজে অভিযান শুরু হওয়ার কথাও জানিয়েছেন তিনি। সুলেয়মান সয়লু সাংবাদিকদের বলেন, ‘হামলাকারীকে খোঁজা শুরু হয়েছে। পুলিশ সন্দেহভাজনদের ধরতে অভিযান পরিচালনা করছে। আশা করি শিগগির হামলাকারী ধরা পড়বে।’

 প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাত দিয়ে বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, বর্ষবরণের অনুষ্ঠান চলাকালে তুরস্কের ইস্তানবুল নগরীর নৈশ ক্লাবে হামলা চালানো ব্যক্তি সান্তা ক্লজের পোশাক পড়ে ঘটনাস্থলে এসেছিলেন। শনিবার দিবাগত রাত ১টার পরপর এ হামলা চালায় সন্ত্রাসীরা।
ইংরেজি নতুন বছরের পার্টি শুরুর প্রাক্কালে ইস্তাম্বুলের অভিজাত এলাকা ওরটাকয়ের রেইনা নাইটক্লাবে সশস্ত্র হামলা চালানো হয়। স্থানীয় সময় গতকাল শনিবার দিবাগত রাত সোয়া একটার দিকে এই হামলা হয়। দূরপাল্লার আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে একজন সন্ত্রাসী নির্মমভাবে নববর্ষ উদযাপনরত নিরীহ লোকজনের ওপর গুলি চালায়।’ ইস্তানবুলের গভর্নর ভ্যাসিপ শাহিন নৈশ ক্লাবে গুলির এই ঘটনাকে ‘সন্ত্রাসী হামলা’ হিসেবে বর্ণনা করেছেন প্রাদেশিক গভর্নর। গভর্নর বলছেন, এক ব্যক্তি এই হামলা চালিয়েছে।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :




Go Back Go Top