দুপুর ১২:২০, শনিবার, ২১শে জানুয়ারি, ২০১৭ ইং
/ রাজশাহী / বগুড়ায় চেয়ারম্যানসহ ৩টি আসনে ভোট গ্রহণ স্থগিত
বগুড়ায় চেয়ারম্যানসহ ৩টি আসনে ভোট গ্রহণ স্থগিত
December 28th, 2016

বুধবার বগুড়ায় জেলা পরিষদের নির্বাচন সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে শেষ হয়েছে। জেলা পরিষদ নির্বাচনে বগুড়ায় চেয়ারম্যান ও সাধারণ আসনের ৩ টি ওয়ার্ডে সদস্য পদে ভোটগ্রহণ স্থগিত করেছে নির্বাচন কমিশন। ফলে চেয়ারম্যান পদে ও সাধারণ আসনে ৬, ১২ ও ১৪ নং ওয়ার্ডের সদস্য পদে নির্বাচন স্থগিত হয়েছে। মামলা থাকায় নির্বাচন কমিশন সচিবালয় থেকে প্রেরিত প্রজ্ঞাপনে একথা জানানো হয়েছে। ২৭ ডিসেম্বর প্রেরিত প্রজ্ঞাপনে জানানো হয় যে, বগুড়া জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান প্রার্থী এটিএম আমিনুল ইসলাম হাইকোর্ট বিভাগে রিট পিটিশন দায়ের করে রুল এবং অন্তবর্তীকালীন আদেশ লাভ করেন। এ ব্যাপারে নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে আপিল করায় আপিল বিভাগ তা শুনানীর জন্য আগামী ৫ জানুয়ারি তারিখ ধার্য করেছেন। এ কারণে চেয়ারম্যান ও জেলার সাধারণ আসনে ৬, ১২ ও ১৪ নং ওয়ার্ডের সদস্য পদে নির্বাচন স্থগিত হয়েছে।

বগুড়ায় ১২ টি ওয়ার্ডে বিজয়ীরা হলেন : সাধারণ আসনে সুলতান মাহমুদ খানঁ রনি (১ নম্বর ওয়ার্ড), মাফুজুল ইসলাম রাজ (২ নম্বর ওয়ার্ড), একেএম আসাদুর রহমান দুলু (৩ নম্বর ওয়ার্ড), মোস্তাফিজার রহমান (৪ নম্বর ওয়ার্ড), এফএম ফজলুল হক (৫ নম্বর ওয়ার্ড), ৬ নং ওয়ার্ড স্থগিত, রেজাউল করিম মন্টু (৭ নম্বর ওয়ার্ড), আনছার আলী (৮ নম্বর ওয়ার্ড),  মিনহাদুজ্জামান লীটন (৯ নম্বর ওয়ার্ড), মারুফ রহমান মনজু (১০ নম্বর ওয়ার্ড), আব্দুল করিম (১১ নম্বর ওয়ার্ড), ১২ নং ওয়ার্ড স্থগিত, এসএম রহুল মোমিন (১৩ নম্বর ওয়ার্ড), ১৪ নং ওয়ার্ড স্থগিত, এসএম জাহিদুল বারী (১৫ নম্বর ওয়ার্ড)।

সংরক্ষিত আসনে মহিলা সদস্য পদে বিজয়ীরা হলেন: ১ নং (১,২,৩) ওয়ার্ডে মাহফুজা খানম, ২ নং (৪,৫,৬) ওয়ার্ডে নাজনীন নাহার, ৩ নং (৭,৮,৯) ওয়ার্ডে সাহাদারা মান্নান, ৪ নং (১০,১১,১২) ওয়ার্ডে ছামছুন্নাহার আকতার বানু ও ৫ নং (১৩,১৪,১৫) ওয়ার্ডে মনজু আরা বেগম।

উল্লেখ্য, বগুড়ায় জেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে ভোট গ্রহণ স্থগিত করা হলেও  বুধবার কেন্দ্রগুলোতে ভোটারদের উপস্থিতি তেমন কমেনি। নির্বাচন কার্যালয়ের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, নির্বাচনে গড়ে ৯৫ শতাংশেরও বেশি ভোট পড়েছে। কোন কোন কেন্দ্রেতো শতভাগ ভোটও পড়েছে। জেলার সিনিয়র নির্বাচন কর্মকর্তা ইউনুচ আলী জানান, সারিয়াকান্দি, সোনাতলা ও দুপচাঁচিয়া উপজেলার কেন্দ্রগুলোতে শতভাগ ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেছেন। শুধু সাধারণ ওয়ার্ডেই নয় কয়েকটি সংরক্ষিত নারী ওয়ার্ডেও শতভাগের কাছাকাছি ভোট পড়েছে। এর মধ্যে সংরক্ষিত ১নং মহিলা ওয়ার্ডে ৯৭ ভাগ এবং পাশের সংরক্ষিত ২নং মহিলা ওয়ার্ডে ৯৯ শতাংশ ভোট পড়েছে।

কেন্দ্রগুলোতে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, সকাল ৯টা থেকেই কেন্দ্রগুলোতে ভোট গ্রহণ শুরু হয়। জেলার সারিয়াকান্দি, সোনাতলা এবং ধুনটে দুপুর ১২টার মধ্যেই ভোট গ্রহণ সম্পন্ন হয়। তবে বগুড়া সদর উপজেলা কেন্দ্রে বেলা ১১টার আগে ভোটারদের তেমন উপস্থিতি চোখ পড়েনি। দুপুর ২টার পর গণনা শুরু হয়।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :