রাত ১১:২৩, শনিবার, ২১শে জানুয়ারি, ২০১৭ ইং
/ আইন-আদালত / প্রশিক্ষিত জনবল ও বিচারকের অভাবে মামলাজট : সিনহা
প্রশিক্ষিত জনবল ও বিচারকের অভাবে মামলাজট : সিনহা
January 14th, 2017

প্রশিক্ষিত জনবল এবং বিচারক স্বল্পতাসহ বিভিন্ন কারণে মামলা জট বাড়ে বলে মন্তব্য করেছেন প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা।  শনিবার সুপ্রিম কোর্ট অডিটোরিয়ামে ‘অধস্তন আদালতের মামলা ব্যবস্থাপনা সংক্রান্ত জুডিশিয়াল পলিসি প্রণয়নে বিচারকদের প্রশিক্ষণ কর্মশালা’র উদ্বোধনকালে এ মন্তব্য করেন তিনি। কর্মশালাটির আয়োজন করেছেন সুপ্রিম কোর্ট ও ইউএসএইড। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন সুপ্রিম কোর্টের রেজিস্ট্রার জেনারেল সৈয়দ আমিনুল ইসলাম ও ইউএসএইডের কর্মকর্তা ড. শারমিন নাহার। কর্মশালায় অধস্তন আদালতের ৪০ জন বিচারক ও বিচার বিভাগীয় কর্মকর্তা অংশ নিচ্ছেন।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান বিচারপতি বলেন, ‘বিচার প্রক্রিয়ায় বিলম্ব হওয়াসহ বিভিন্ন কারণে মামলা জট বাড়ে। সেগুলো হলো- সেকেলে প্রশাসনিক প্রক্রিয়া, সেকেলে অফিস প্রযুক্তি, ঐতিহ্যগতভাবে মামলা ব্যবস্থাপনায় আটকে থাকা, মামলার শাখা বিন্যাস, বিকল্প বিরোধ নিষ্পত্তিতে দক্ষতার অভাব, প্রশিক্ষিত জনবল ও বিচারকের স্বল্পতা ইত্যাদি’। তিনি বলেন, ‘অধস্তন আদালতে কোনো পদ খালি হলে সেটি দ্রুত পূরণ করতে হবে। পদ খালি পড়ে থাকলে সেখানে মামলার সংখ্যা বাড়বে। বিচার বিভাগে বর্তমান সময়ে যেসব কর্মকর্তা নিয়োগ পাচ্ছেন, তারা অনেক বেশি দক্ষ। এ বিভাগকে আরও দক্ষ করে গড়ে তুলতে বিচারকদের ট্রেনিংয়ের ব্যবস্থা  করা হচ্ছে’। ‘অধস্তন আদালতের মামলা ব্যবস্থাপনার উন্নয়নে এ কর্মশালার আলোচনা ও প্রশিক্ষণ ও মতামত জুডিশিয়াল পলিসি প্রণয়নে একটি বড় ভূমিকা রাখবে’। আর জুডিশিয়াল পলিসি তৈরি হলে মামলার নিষ্পত্তিতে কর্মপন্থা তৈরি, প্রশাসনিক উৎকর্ষ বৃদ্ধি ও সর্বাধুনিক প্রযুক্তির ব্যবহার নিশ্চিত হবে বলেও মন্তব্য করেন প্রধান বিচারপতি। সৈয়দ আমিনুল ইসলাম বলেন, ‘কর্মশালায় অংশগ্রহণকারীরা মাঠ পর্যায়ের বিচারক।  তারাই মামলা ব্যবস্থাপনার সমস্যগুলো বেশি চিহ্নিত করতে পারবেন। তাই আশা করি, এ কর্মশালায় অংশগ্রহণকারী বিচারকরা এ সমস্যাগুলো তুলে ধরবেন’।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :