রাত ১:৫৫, রবিবার, ২৩শে সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ইং
/ আর্ন্তাজাতিক / প্রতিরোধে প্রস্তুত হচ্ছে দেড় লাখ রোহিঙ্গা যুবক!
প্রতিরোধে প্রস্তুত হচ্ছে দেড় লাখ রোহিঙ্গা যুবক!
সেপ্টেম্বর ১২, ২০১৭

করতোয়া ডেস্ক: মা, বোন, স্ত্রীর সম্ভ্রম কেড়ে নেওয়া হয়েছে, বোনকে তুলে নেওয়া হয়েছে। বাবা ও ভাইকে হত্যা করেছে মিয়ানমারের সামরিক বাহিনী ও বৌদ্ধ সন্ত্রাসীরা। এমন পরিস্থিতিতে অনেক রোহিঙ্গা যুবকই এখন প্রতিরোধের জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছে গণমাধ্যমকে (সূত্র: আমাদের সময়.কম) জানিয়েছেন বাংলাদেশে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের কয়েকটি সূত্র।

তারা জানিয়েছে, রোহিঙ্গাদের হারানোর আর কিছু নেই। তাই এখন থেকে প্রতিরোধের প্রস্তুতি নিচ্ছে রোহিঙ্গা যুবকরা। সূত্রগুলো জানায়, মিয়ানমার সেনাবাহিনী ও বৌদ্ধ সন্ত্রাসীদের প্রতিরোধে দেড় লাখেরও বেশি রোহিঙ্গা যুবক প্রস্তুতি নিচ্ছে। মিয়ানমারের বিভিন্ন দুর্গম জঙ্গলে পালিয়ে থাকা রোহিঙ্গা যুবকরা প্রতিরোধের জন্য প্রশিক্ষণ নিচ্ছে। বাংলাদেশ-মিয়ানমার সীমান্তের কয়েকটি সূত্রও রোহিঙ্গা যুবকদের প্রস্তুতির বিষয়টি স্বীকার করেছেন।

সূত্রগুলো জানিয়ে, মিয়ানমারের জান্তা বাহিনীর দমনপীড়নের পর থেকে বাংলাদেশে অনুপ্রবেশে রোহিঙ্গা মুসলিমদের ঢল নামে। যাদের বেশির ভাগই নারী, শিশু, মধ্য বয়সী ও বৃদ্ধ। যুবকদের সংখ্যা খুবই কম। যে সব যুবক এসেছে তারা অধিকাংশই সবল নয়। এর মানে হলে-রোহিঙ্গা যুবকরা সেখানেই রয়ে গেছেন এবং সেখানে তারা কিছু একটা করছেন। কিন্তু কয়েকজন রোহিঙ্গা শরণার্থী জানান, মিয়ানমার সেনাবাহিনী ও বৌদ্ধ সন্ত্রাসীরা রোহিঙ্গা যুবকদের হত্যা করেছে।

সহিংসতার শুরু হওয়ার পূর্বেই মিয়ানমার বাহিনীর পরিকল্পনা অনুযায়ী প্রথমে টার্গেট করা হয় রোহিঙ্গা যুবকদের। এবং সেই পরিকল্পনা অনুযায়ী হত্যা করা হয়। তবে স্থানীয় সূত্রগুলো বলছে, রোহিঙ্গা যুবকরা বেশ কয়েক বছর ধরেই মিয়ানমার বাহিনীর বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে প্রস্তুতি নিচ্ছে। তারা মাঝে-মধ্যে সীমান্ত পেরিয়ে বাংলাদেশেও অবস্থান করেছে। হয়তো সামরিক অভিযানের সময় কিছু নিরীহ যুবককে হত্যা করা হয়েছে। তবে বেশি সংখ্যক যুবকই জঙ্গলে অবস্থান করে প্রশিক্ষণ নিচ্ছে।

সূত্রগুলো জানায়, রোহিঙ্গা যুবকরা মিয়ানমার বাহিনীকে উচিত জবাব দিতে সব ধরণের প্রস্তুতি নিচ্ছে। তবে তারা সব কিছু ভেবে-চিন্তে সিধান্ত নিচ্ছে। সময়-সুযোগ বুঝে তারা প্রতিরোধ সৃষ্টি করবে এবং বাংলাদেশসহ বিভিন্ন দেশে শরনার্থী হয়ে থাকা রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিবে। পালিয়ে আসা কয়েকজন রোহিঙ্গাদের কাছে প্রশ্ন রেখেছিলাম, যুবকদের কি হয়েছে? উত্তরে তারা জানান, লড়াই করার জন্য যুবকরা রয়ে গেছে। তারা প্রস্তুতি নিচ্ছে মিয়ানমার বাহিনীকে উচিত জবাব দেওয়ার জন্য। 

এই বিভাগের আরো খবর



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :




Go Back Go Top