রাত ২:৫৩, মঙ্গলবার, ২৯শে মে, ২০১৭ ইং
/ লাইফস্টাইল / নারীদরে রোজকার রুটনিে ফটি থাকতে যে নয়িমগুলো মানা উচৎি
নারীদরে রোজকার রুটনিে ফটি থাকতে যে নয়িমগুলো মানা উচৎি
মার্চ ৩১, ২০১৭

করতোয়া ডেস্ক: কখনও মেয়ে, কখনও প্রেয়সী, কখনও মা, কখনও বোন। অনেক ভূমিকায় ব্যস্ত থাকেন সারাটা দিন। কিন্ত্ত সেই ব্যস্ততার ফাঁকে নিজের যতœ নেওয়া হয় কি? রোজকার রুটিনে কীভাবে ফিট থাকবেন তার সহজ কিছু উপায় বলে দেওয়া হচ্ছে।

ব্রেকফাস্ট ইজ মাস্ট অফিসের তাড়াহুড়ো, সন্তানের স্কুলের প্রিপারেশন, দুধওয়ালা, কাগজওয়ালা সব সামলে অফিস ছুটতে গিয়ে নিজের প্রাতরাশটাই হয়ত স্কিপ করে গেলেন। এটা খুব বাজে অভ্যাস। ডিনার এবং ব্রেকফাস্টের মাঝে অনেকটা সময় কেটে গেছে। তাই ভারী ব্রেকফাস্ট শরীরের পক্ষে খুব জরুরি। ঠিক সময় খেলে মেটাবলিসম ঠিকমত হয়।


সঠিক ঘুম। দিনে ৭-৮ ঘণ্টা সাউন্ড স্লিপ খুব দরকার। সারাদিন বাড়ি, অফিস সব সামলাতে হবে আপনাকেই। তাই লেট নাইট না করে একটা লম্বা ঘুম দিন। ঘুমাতে যাওয়ার একটা টাইম ফিক্সড করুন। সেই সময়ের মধ্যে বাকী সব কাজ সেরে ফেলুন। রাতে টিভি প্রোগ্রামগুলোকে রেকর্ড করে রাখুন, পড়ে দেখার অনেক সময় পাবেন।
কাজ করুন আনন্দে কত কাজ করতে হয়, কেউ আপনার কথা ভাবে না এসব ভেবে ডিপ্রেশনে না গিয়ে নিজের কাজটা আনন্দ সহকারে করুন। কেউ ভাবল কি ভাবল না সেসব ছাড়ুন। বরং এটা ভাবুন দিনের শেষে ডিনারের জন্য আপনার দ্বারস্থই হবে পুরো পরিবার।


পিঠের যতœ নিন পিঠে মাঝে মধ্যেই ব্যথা হয়। অথচ ব্যাপারটাকে তেমন পাত্তা দিচ্ছেন না এমন করলে কিন্তু খুব ভুল করছেন। বেশিরভাগ মহিলারই ব্যাকবোনের সমস্যা হয়। যেটা পড়ে খুব ভোগায়। আজই চিকিৎসকের শরণাপন্ন হন। ভিটামিন ও মিনারেলস সমৃদ্ধ খাবার খান।টেস্ট দ্য কালারস শুধু সন্তানকেই শাকসবজি খাওয়ালেন নিজের বেলা লবডঙ্কা, এমন করবেন না। আপনার শরীরের জন্যও ভেজিস জরুরি। বেশি করে শাকসবজি খান। কালারফুল শাকসবজি শুধু দেখতে ভালো হয় তা না, খেতেও ভালো হয় এবং গুনও প্রচুর।


যোগা করুন নিয়মিত যোগব্যায়াম করুন। নিজের অঞ্চলে কোনও যোগা ক্লাসের সদস্য হতে পারেন। কিংবা কাজের ফাঁকে বাড়িতেই গ্রেফ কপালভাতি করুন। উপকার পাবেন।গল্প করুন দিনের কোনও একটা সময় প্রিয় বন্ধু কিংবা মাকে ফোন করে জমিয়ে আড্ডা দিন। নিজের সমস্যা চেপে রাখবেন না। শেয়ার করুন। তাহলে দেখবেন অনেক হালকা লাগছে। এতে মানসিক শান্তি পাওয়া যায়।গো গ্রিন দিনে অন্তত দু’বার সব চিন্তা ভাবনা ছেড়ে আরাম কেদারায় হেলান দিয়ে গ্রিন টি খান। এর থেকে ভালো কিছু হয় না। তবে মনে অশান্তি নিয়ে ১০ কাপ গ্রিন টি খেলেও তা বিস্বাদ লাগতে বাধ্য।


যতক্ষন না সম্পূর্ণ ঘামছেন ততক্ষন এক্সারসাইজ করে যাবেন এমনটা নয়। তবে দিনে একঘণ্টা ঘাম ঝরালেই হার্টের সমস্যা, লো ব্লাড প্রেসারের মত সমস্যার সমাধান তো হবেই, এছাড়া সারাদিন কাজ করার জন্য এন্থু পাবেন।হ্যাভ সাম বাদামদিনে অল্প পরিমানে আমন্ড বা ওয়ালনাট খেটে ভুলবেন না।  নারীদের জন্য হেলদি অভ্যাস এটা। বাদামে অত্যাবশ্যক ফ্যাট ও প্রোটিন থাকে যা বিশেষত মহিলাদের দেহের জন্য জরুরি। নিজের মেয়েকেও বাদাম খাওয়ান।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :




Go Back Go Top