দুপুর ১২:৪৫, শুক্রবার, ১৮ই আগস্ট, ২০১৭ ইং
/ তথ্যপ্রযুক্তি / দেশের ইন্টারনেট ব্যবহারকারী নারীদের শতকরা ৭৩ শতাংশই নানা ধরনের সাইবার অপরাধের শিকার
দেশের ইন্টারনেট ব্যবহারকারী নারীদের শতকরা ৭৩ শতাংশই নানা ধরনের সাইবার অপরাধের শিকার
মার্চ ২৩, ২০১৭

করতোয়া ডেস্ক: বাংলাদেশের ইন্টারনেট ব্যবহারকারী নারীদের শতকরা ৭৩ শতাংশই নানা ধরনের সাইবার অপরাধের শিকার হচ্ছেন বলে সম্প্রতি জানিয়েছেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম।ঢাকার একটি হোটেলে ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ, সাইবার অপরাধ, নিরাপদ ইন্টারনেট ও ব্রডব্যান্ড’ শীর্ষক দুই দিনব্যাপি আন্তর্জাতিক কর্মশালার সমাপনী অনুষ্ঠানে তিনি এ তথ্য জানান।

তারানা হালিম বলেন, “ডিজিটাল বাংলাদেশ নির্মাণে আমরা খুব দ্রুত গতিতে এগিয়ে গেছি, তবে নিরাপদ ইন্টারনেট নিশ্চিত করার ক্ষেত্রে আমরা তত এগিয়ে যাইনি। এখাতে আমাদের আরও কাজ করার জায়গা আছে।বাংলাদেশে ইন্টারনেট ব্যবহারকারী নারীদের শতকরা ৭৩ শতাংশ সাইবার অপরাধের শিকার হলেও এর ২৩ শতাংশই অভিযোগ করেন না বলে জানান তিনি।

অ্যাসোসিয়েশন অফ মোবাইল টেলিকম অপারেটর অব বাংলাদেশ (অ্যামটব) এর তথ্য অনুযায়ী, ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা ৬ কোটি ৬৮ লাখের মধ্যে ২১ শতাংশ ফেইসবুক, ৩৬ শতাংশ ইউটিউব ব্যবহার করেন। ইন্টারনেট ব্যবহারকারী শতকরা ৪৯ শতাংশ স্কুলশিক্ষার্থী অনলাইনে ‘সাইবার বুলিং’র শিকার হচ্ছেন বলেও জানান প্রতিমন্ত্রী।ইন্টারনেট ব্যবহারকারীদের ৮৪ শতাংশের বয়স ১৮ থেকে ৩৪ বয়সের মধ্যে। বাংলাদেশের ১৬ কোটি মানুষের মধ্যে ৮৪ শতাংশের বয়স ১৮ থেকে ৪৩ বছরের মধ্যে, এই শক্তিকে কাজে লাগাতে চায় সরকার।

স্কুলগুলোতে নিরাপদ ইন্টারনেট সচেতনতা তৈরিতে ক্যাম্পিং করার উদ্যোগ নেওয়া হবে বলে জানান তিনি। কমনওয়েলথ টেলিযোগাযোগ সংস্থার (সিটিও) উদ্যোগ এবং ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগ ও বিটিআরসির সহযোগিতায় এই কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। দুইদিন ব্যাপী এ কর্মশালায় নয়টি পর্ব রয়েছে।
সমাপনী অনুষ্ঠানের আগে ‘সেইফ সার্ফিং ফর চিলড্রেন’ পর্বে ঢাকার ৮টি স্কুলের প্রায় ১০০ জন শিক্ষার্থী অংশ নেয় তারা ইন্টারনেট সার্ফিংয়ে বিভিন্ন সমস্যার কথা বললে সরাসরি তাদের প্রশ্নের উত্তর দেওয়া হয়।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :




Go Back Go Top