দুপুর ২:৫৩, শনিবার, ২২শে জুলাই, ২০১৭ ইং
/ ফুটবল / দুর্নীতির সব অভিযোগ উড়িয়ে দিলেন সালাউদ্দিন
দুর্নীতির সব অভিযোগ উড়িয়ে দিলেন সালাউদ্দিন
ডিসেম্বর ২০, ২০১৬

দু-একটি পত্রিকা এবং টেলিভিশনে নিজের বিরুদ্ধে ওঠা দুর্নীতির অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছেন বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের সভাপতি কাজী মো. সালাউদ্দিন। সোমবার বাফুফে ভবনে অনির্ধারিত মিডিয়া ব্রিফিংয়ে বাফুফে সভাপতি বলেছেন, ‘দু-একটি মিডিয়ায় যে খবর উঠেছে তা মিথ্যা। আমি তো আগেও বলেছি এটা মিথ্যা সংবাদ। এখনো বলছি। ভুয়া ও মিথ্যা সংবাদের জবাব কীভাবে দিতে হয় আমি জানি। সময়মতো সে জবাব দেবো। আমি তো দেখছি কিছু টিভিতে এ নিয়ে প্রপাগান্ডা চলছে।’

এমন খবরকে তার ও তার কমিটির বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র উল্লেখ করে বাফুফে সভাপতি বলেছেন, ‘ফুটবল উন্নয়নে আমরা যে পরিকল্পনা দিয়েছি, সেটা যেন ঠিকভাবে বাস্তবায়ন করতে না পারি সেজন্য একটি গ্রুপ কাজ করছে। আপনারা শুনলে অবাক হবেন- সাংবাদিকদের কেউ কেউ স্পন্সরের কাছে গিয়ে হুমকি দিয়েছেন, যাতে তারা ফুটবলে না আসে। স্পন্সর প্রতিষ্ঠানের লোকজন আমাকে ফোন করে এবং দেখা করে বলেছেন, ভাই ফুটবলে গেলে তো সমস্যা আছে। সময় আসলে এসব ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে সব কিছুই হবে।’

এই যে স্পন্সরদের কাছে গিয়ে কে বা কারা হুমকি দিচ্ছে সেটা কি আপনি নির্দিষ্ট করে একটু বলবেন? ‘অল্পদিনের মধ্যে আমি সংবাদ সম্মেলন করে পূর্ণাঙ্গ সব কিছু জানাবো। এমনকি নামও বলে দেবো। দু-একটা টিভিতে এবং পেপারে অনেক কিছু লেখালেখি হচ্ছে এবং লাফালাফি হচ্ছে। আজ তো ব্রিফিং করলাম। এরপর সংবাদ সম্মেলনে সব কিছু জানিয়ে দেবো’- জবাব সালাউদ্দিনের।

বলছেন আপনার বিরুদ্ধে আনা অভিযোগগুলো অসত্য এবং ভুয়া। তাহলে কি আপনি আইনগত কোনো ব্যবস্থা নেবেন? কাজী সালাউদ্দিন বলেছেন, ‘হ্যাঁ। আমি আইনজীবীর সঙ্গে কথা বলবো, তার কাছ থেকে উপদেশ নিয়ে পরবর্তী পদক্ষেপে যাবো।’

খবরে বলা হয়েছে একটি গোয়েন্দা সংস্থা নাকি এ নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে একটি প্রতিবেদনও দিয়েছে। আপনি কিছু জানেন? ‘চারদিকে যেসব কথাবার্তা হচ্ছে তা মিডিয়ার কাছ থেকেই শুনেছি। অফিসিয়ালি এখনো কিছু জানি না’- বলেন বাফুফে সভাপতি।

কিছু প্রমাণপত্র তো দেখানো হয়েছে। সে বিষয়ে কি বলবেন? কাজী মো. সালাউদ্দিন বলেছেন, ‘দেখুন কেউ একটা পেপার তৈরি করে দিয়ে দিলেই তা প্রমাণপত্র নয়। যে অভিযোগগুলো করা হয়েছে সেটা প্রমাণ হলেই না বোঝা যাবে সত্য।’

সম্প্রতি পাতানো খেলা নিয়েও অনেক কথা উঠছে। নির্বাচনের সময় আপনাদের বিরোধিতা করা পক্ষের একটি ক্লাব শেখ জামাল ও আবাহনীর ম্যাচটি পাতানো ছিল বলে নানাভাবে কথা উঠছে। এমনও শোনা যাচ্ছে, আবাহনী শিরোপা জিতলে তা প্রশ্নবিদ্ধ করা, চট্টগ্রাম আবাহনীকে চ্যাম্পিয়ন হতে না দেয়া এবং বাফুফেকে চাপের মধ্যে রাখার জন্য শেখ জামাল ম্যাচটি ছেড়ে দিয়েছে। এ বিষয়ে কি বলবেন?

‘পাতানো খেলা প্রসঙ্গে মিডিয়ার যে পয়েন্টগুলো আছে সেগুলো নিয়ে পরবর্তী নির্বাহী সভায় আলোচনার পর সংবাদ সম্মেলন করে জানাব’ -বলেছেন বাফুফে সভাপতি।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :




Go Back Go Top