সন্ধ্যা ৬:১৯, বুধবার, ২৮শে জুন, ২০১৭ ইং
/ রাজশাহী / দশ টাকার চাল কালোবাজারে বিক্রির অভিযোগে গ্রেপ্তার ২
দশ টাকার চাল কালোবাজারে বিক্রির অভিযোগে গ্রেপ্তার ২
এপ্রিল ২০, ২০১৭

সিরাজগঞ্জের তাড়াশে খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির দশ টাকা কেজির ১০ বস্তা চাল কালোবাজারে বিক্রির অভিযোগে স্থানীয় এক ডিলার ও ভ্যান চালককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এরা হলেন-তাড়াশের নওগাঁ ইউনিয়নের মহিষলুটি বাজারের দুলাল সরকারের ছেলে ডিলার সুজন হাসান (২৫) ও কালিদাশনিলি গ্রামের আমজাদ হোসেনের ছেলে ভ্যানচালক রাজিব হোসেন (২২)।

বুধবার বিকালে তাদের আটক করা হয় বলে তাড়াশ উপজেলা খাদ্য পরিদর্শক আব্দুল মান্নান জানান। হত দরিদ্রদের জন্য এ কর্মসূচি চালুর পর থেকে দেশের বিভিন্ন স্থানে নানা অনিয়মের খবর পাওয়া গেছে। এসব অভিযোগে কয়েকজনকে আটক এবং ডিলারশিপ বাতিলের ঘটনাও ঘটেছে।

আব্দুল মান্নান বলেন,“খাদ্য বান্ধব কর্মসূচির বরাদ্ধকৃত চাল ‘কালোবাজারে বিক্রির’ জন্য ভ্যান চালক রাজিবের বাড়িতে সংরক্ষণ করে রাখা হয়েছিল। সেখানে অভিযান চালিয়ে ৩০০ কেজি ওজনের ১০ বস্তা চালসহ রাজিবকে আটকের পর পুলিশে হস্তান্তর করা হয়।”

এরপর রাজিব ও ডিলার সুজনের বিরুদ্ধে বাদী হয়ে থানায় মামলা করেন বলে জানান তিনি। তাড়াশ থানার ওসি মঞ্জুর রহমান জানান, মামলার পর অভিযান চালিয়ে রাতেই সুজনকে গ্রেপ্তার করা হয়। বৃহস্পতিবার দুপুরে তাদের আদালতে পাঠানো হয়েছে।

তাড়াশ উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ জিল্লুর রহমান খান বলেন, “সুজন কার্ডধারীদের ভূয়া মাস্টাররোল তৈরি করে ৩০০ কেজি চাল উত্তোলনের পর কালোবাজারে বিক্রির জন্য ভ্যান চালকের হেফাজতে রেখেছিল।”

‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বাংলাদেশ ক্ষুধা হবে নিরুদ্দেশ’ শ্লোগানে সরকার সেপ্টেম্বর থেকে অতিদরিদ্র জনগোষ্ঠীর জন্য ১০ টাকা কেজি দরে চাল বিক্রি কার্যক্রম শুরু করে। এ কার্যক্রমের আওতায় একজন হতদরিদ্র প্রতিমাসে ১০ টাকা দরে ৩০ কেজি চাল কেনার সুযোগ পাচ্ছে। মার্চ, এপ্রিল, সেপ্টেম্বর, অক্টোবর ও নভেম্বর- এই পাঁচ মাস হতদরিদ্র ৫০ লাখ পরিবার এ সুবিধা পাবে।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :




Go Back Go Top