রাত ১১:২০, শনিবার, ২৪শে জুন, ২০১৭ ইং
/ অর্থ-বাণিজ্য / ঢাকায় ‘বগড়্যার মেলা’র উদ্বোধন বগুড়ার উন্নয়নে ঐক্যবদ্ধ দাবি তোলার আহ্বান
ঢাকায় ‘বগড়্যার মেলা’র উদ্বোধন বগুড়ার উন্নয়নে ঐক্যবদ্ধ দাবি তোলার আহ্বান
জানুয়ারি ১৩, ২০১৭

উত্তরবঙ্গের প্রবেশদ্বার বগুড়ায় এখনো অনেক সমস্যা রয়েছে উল্লেখ করে বগুড়ার উন্নয়নে দল-মত নির্বিশেষে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে সরকারের কাছে দাবি তুলে ধরার আহ্বান জানিয়েছেন জাতীয় সংসদের বিরোধী দলীয় হুইপ বগুড়া-৬ আসনের এমপি নুরুল ইসলাম ওমর। গতকাল শুক্রবার বিকেলে রাজধানীর শিল্পকলা একাডেমি প্রাঙ্গণে চার দিনব্যাপী ‘বগড়্যার মেলা-২০১৭’ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বগুড়াবাসীর প্রতি এ আহ্বান জানান তিনি। বিরোধী দলীয় হুইপ বলেন, বগুড়ার উন্ন্য়নে ঐক্যবদ্ধভাবে দাবি তুললে তা বাস্তবায়ন সম্ভব। মেলার উদ্ধোধক এটিএন বাংলা ও এটিএন নিউজের চেয়ারম্যান-এমডি মাহফুজুর রহমান বগুড়ার উন্নয়নে দল-মত নির্বিশেষে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করার আহ্বান জানান। ঢাকাস্থ বৃহত্তর বগুড়া সমিতি ও সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট, বগুড়ার যৌথ উদ্যোগে এ মেলা অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

বিরোধী দলীয় হুইপ নুরুল ইসলাম ওমর বলেন, বগুড়ায় বিশ্ববিদ্যালয় ও বিভাগ হওয়া দরকার। আমরা বগুড়ার উন্নয়ন চাই। তবে কী কী উন্নয়ন চাই, সেটা নিয়ে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কথা বলতে হবে। এ সময় বগুড়ায় আরো কী কী উন্নয়ন হওয়া দরকার, সংবাদ সম্মেলন করে সেই সংক্রান্ত দাবিসমূহ সরকারের কাছে তুলে ধরতে বৃহত্তর বগুড়া সমিতির নেতাদের প্রতি আহ্বান জানান তিনি। বগুড়া-৬ আসনের এ সাংসদ বলেন, অবহেলিত বগুড়াবাসীকে উন্নয়নে সচেষ্ট হতে হবে। বগুড়ার সংসদ সদস্যদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে মাহফুজুর রহমান বলেন, আপনারা বগুড়ার উন্নয়নে জাতীয় সংসদে প্রকল্প পাস করান। শুধু ছোট নয়, বড় প্রকল্পও পাস করান। সেসব প্রকল্প বাস্তবায়নে চীন থেকে অর্থায়ন করে দেয়ার কথা জানান এটিএন বাংলা ও এটিএন নিউজের এ চেয়ারম্যান-এমডি।

ঢাকাস্থ বৃহত্তর বগুড়া সমিতির সভাপতি মাসুদুর রহমান রন্টুর সভাপতিত্বে এতে বক্তব্য রাখেন, বগুড়া-৩ আসনের সাংসদ নুরুল ইসলাম তালুকদার, ওয়ানফার্মার এমডি কেএসএম মোস্তাফিজুর রহমান, বগুড়ার টিএমএসএস’র নির্বাহী পরিচালক ড. হোসনে আরা, ঢাকাস্থ বৃহত্তর বগুড়া সমিতির সাধারণ সম্পাদক একেএম কামরুল ইসলাম, মেলা কমিটির আহ্বায়ক শামসুল হুদা, যুগ্ম-আহ্বায়ক তৌফিক হাসান ময়না প্রমুখ। আলোচনা অনুষ্ঠান শেষে ‘আমরা বগড়্যার ছল, পুঁটি মাছ মারবার য্যায়ে ম্যারা আনি ব্যোল’ শিরোনামে বগুড়ার আঞ্চলিক গান পরিবেশন করা হয়। এরপর বগুড়ার ঐতিহ্যবাহী ‘লাঠিখেলা’ অনুষ্ঠিত হয়। এর আগে, বেলুন ও শান্তির প্রতীক কবুতর উড়িয়ে মেলার উদ্বোধন করা হয়। এছাড়া মেলা প্রাঙ্গণে বিভিন্ন লোকজ সংস্কৃতি তুলে ধরা হয়। ঢাকায় প্রথমবারের মতো আয়োজিত এই মেলার স্লোগান হচ্ছে ‘বগড়্যার মেলাত বাজ্যা উঠুক মহামিলনের ছন্দিত সুর।’ মেলায় স্পন্সর করছে-প্রাণ গ্রুপ। কো-স্পন্সরে রয়েছে-গ্যাটকো, ওয়ানফার্মা ও টিএমএসএস। মিডিয়া পার্টনার-এটিএন বাংলা এবং দৈনিক করতোয়া। মেলায় কিউট, সাউদিয়া দই ক্ষীরসা এন্ড সুইটস, বগুড়া লেখক, লেখিকা রোমেনা আফাজের বই প্রদর্শনী, গোয়ালা, গোল্ডেন বাংলাদেশ, বগুড়া থিয়েটারের মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘর, লাইট হাইস, ঐতিহ্য বগুড়া, হিমাচল বুটিক, নাজনীন বুটিক হাউস, টিএমএসএস ও দৈনিক করতোয়ার স্টল রয়েছে। দৈনিক করতোয়ার স্টলে দৈনিক করতোয়া ও ভোরের দর্পণ পত্রিকা, বগুড়ার করতোয়া মাল্টিমিডিয়া স্কুল এন্ড কলেজ, করতোয়া অডিটরিয়াম, করতোয়া প্রিন্টার্স এন্ড পাবলিকেশন, করতোয়া কুরিয়ার সার্ভিস, ন্যাশনাল প্রিন্টিং এন্ড প্রেস সম্পর্কিত তথ্য, করতোয়া ও ভোরের দর্পণের লোগো সম্বলিত সিরামিকের মগ, ক্যাপ, টি-শার্ট, টাই, ব্যাগ, কোর্টপিন ও কলম পাওয়া যাচ্ছে। মেলায় আগত দর্শনার্থীদের সার্বিক সহযোগিতায় ঢাকাস্থ বৃহত্তর বগুড়া সমিতির নিয়ন্ত্রণ কক্ষও খোলা হয়েছে।

দ্বিতীয় পর্বে রাত ৭টায় বৃহত্তর বগুড়া সমিতি শিক্ষা ট্রাস্টের উদ্যোগে বগুড়ার অসচ্ছল ও মেধাবী ছাত্র-ছাত্রীদের মাঝে বৃত্তির চেক বিতরণ অনুষ্ঠান হয়। এরপর বগুড়া ডাইরেক্টরি প্রকাশনা এবং বগুড়া ইয়্যূথ কয়্যার ও ঢাকাস্থ বৃহত্তর বগুড়ার শিল্পীদের পরিবেশনায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান হয়। দ্বিতীয় পর্বে প্রধান অতিথি ছিলেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ইসমত আরা সাদেক। এছাড়া হাডসন ফার্মাসিটিক্যালসের এমডি এসএম শফিউজ্জামানসহ অন্যরা উপস্থিত ছিলেন। প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত মেলা চলবে। আগামী সোমবার মেলার সমাপ্তি ঘটবে। এ মেলার মধ্য দিয়ে বগুড়ার ইতিহাস-ঐতিহ্য, শিল্প-সাহিত্য-সংস্কৃতিকে দেশবাসীর কাছে পরিচিত করানোর আশা আয়োজকদের।

 

 



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :




Go Back Go Top