বিকাল ৪:৪৩, শনিবার, ২১শে জানুয়ারি, ২০১৭ ইং
/ জাতীয় / ট্রাইব্যুনাল স্থানান্তর যতবার নির্দেশনা, ততবার পুনর্বিবেচনার অনুরোধ: আইনমন্ত্রী
ট্রাইব্যুনাল স্থানান্তর যতবার নির্দেশনা, ততবার পুনর্বিবেচনার অনুরোধ: আইনমন্ত্রী
January 4th, 2017

পুরাতন হাই কোর্ট ভবন থেকে যুদ্ধাপরাধ ট্রাইব্যুনাল সরিয়ে নিতে যতবার সুপ্রিম কোর্ট নির্দেশনা দেবে, ততবার তা পুনর্বিবেচনার জন্য  সরকার তরফ থেকে অনুরোধ জানানো হবে বলে জানিয়েছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক। গতকাল বুধবার বিচারপতি প্রশাসন ও প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটে একটি প্রশিক্ষণ কর্মশালার উদ্বোধনের পর সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী এ কথা বলেন। গত ১৮ আগস্ট আইন মন্ত্রণালয়কে চিঠি দিয়ে পুরনো হাই কোর্ট ভবন থেকে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল সরিয়ে নিতে বলে সুপ্রিম কোর্ট প্রশাসন।

এ ব্যাপারে বুধবার এক সাংবাদিক মন্ত্রীর কাছে সর্বশেষ পরিস্থিতি জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমিতো শেষ অবস্থানটা বলতে পারব না। এখান থেকে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল সরিয়ে নেওয়ার যে আদেশ আমাকে সুপ্রিম কোর্ট দিয়েছে, আমি যতবার সেই আদেশ পাই, ততবারই আমি এটা পুনর্বিবেচনা করার জন্য চিঠি পাঠাব। প্রসিকিউশনে পরিবর্তন আসছে বলে মন্ত্রীর আগের এক বক্তব্যের বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে জবাবে আনিসুল বলেন, আমার যখন ট্রাইব্যুনাল শুরু করেছিলাম, তখন আমাদের অভিজ্ঞতা ছিল না। পর্যারক্রমে অভিজ্ঞতা বেড়েছে। আজ বিশেষ স্বীকৃত এই ট্রাইব্যুনাল সুষ্ঠু বিচার আমাদেরকে উপহার দিয়েছে। সেক্ষেত্রে ট্রাইব্যুনালের যারা নন-ফাংশনিং, তাদের বিষয়টা একটা চলমান প্রক্রিয়া। ট্রাইব্যুনাল ও প্রসিকিউশন টিমকে আরও গতিশীল করতে যা দরকার, সেটা আমরা করব। উচ্চ আদালতে বিচারক নিয়োগ হবে কি-না জানতে চাইলে মন্ত্রী বলেন, হাই কোর্ট, সুপ্রিম কোর্টের ব্যাপারে কথা বলতে একটু সাবধানে বলতে হয়, ব্যাপারটা হচ্ছে, আমার মনে হয়, হাই কোর্ট এবং আপিল বিভাগের বিচারপতি সঙ্কট দেখা দিলে আমরা বিচারপতি নিয়োগে রাষ্ট্রপতির কাছে অনুরোধ জানাব। এটা একটা চলমান প্রক্রিয়া। এটা কেবল সঙ্কট থাকলেই যে হবে, সেটা নয়, যখনই প্রয়োজন, তখনই এই বিচারপতি নিয়োগ দেব। মন্ত্রী বলেন, সেখানে দুটো জিনিস আমরা করতে চাই, নিয়োগটা যেন বিতর্কের উর্ধ্বে থাকে এবং যোগ্য লোককে নিয়োগ করার চেষ্টা চালিয়ে যাব। পাশাপাশি আমরা যেটা করছি, একটা দাবিও উঠেছিল, বিচারপতি নিয়োগে আইন এই বছরের মধ্যেই করব।

 



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :