সকাল ৯:৩৮, শুক্রবার, ২৪শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ইং
/ রাজনীতি / ছাত্রলীগকে ‘খারাপ খবরের শিরোনাম’ না হওয়ার শপথ পড়ালেন কাদের
ছাত্রলীগকে ‘খারাপ খবরের শিরোনাম’ না হওয়ার শপথ পড়ালেন কাদের
December 26th, 2016

নিজেদের ছাত্র সংগঠন ছাত্রলীগকে ‘খারাপ খবরের শিরোনাম’ না হওয়ার শপথ পড়ালেন ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। একই সঙ্গে সাত ঘণ্টার বেশি না ঘুমাতে এবং ভোরে ঘুম থেকে উঠতে বলেছেন তিনি।

বিজয় দিবস উপলক্ষে  সোমবার বাংলা একাডেমির আব্দুল সাহিত্য বিশারদ মিলনায়তনে এক আলোচনায় ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ওবায়দুল কাদের বলেন, ছাত্রলীগ বাজে খবরের শিরোনাম হলে সেটা ভালো লাগে না। ছাত্রলীগকে সুনামের ধারা অব্যাহত রাখতে হবে। ছাত্রলীগ নেতাদের ভোরে উঠার পরামর্শ দিয়ে তিনি বলেন, সকালে ওয়ার্কিং এ প্রধানমন্ত্রীকে পাই অথচ ছাত্রনেতাদের পাই না। দুঃখ লাগে। সাত ঘন্টার বেশি ঘুমের প্রয়োজন নেই। সকাল ১১টায় ঘুম থেকে উঠার প্রয়োজন নেই। খুব ভোরে ঘুম থেকে উঠতে হবে। এক পর্যায়ে উপস্থিত ছাত্রলীগ নেতাদেরকে দাঁড় করিয়ে হাত তুলে শপথ বাধ্য পাঠ করান ওবায়দুল কাদের। তার সঙ্গে সমস্বরে ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা বলেন, আমরা কখনও খারাপ খবরের শিরোনাম হবে না। শপথ পড়িয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, মনে থাকবে তো?।

ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা সমস্বরে বলেন, হ্যাঁ, মনে থাকবে। ওবায়দুল কাদের বলেন, অনুপ্রবেশকারীদের বিষয়ে ছাত্রলীগকে সতর্ক থাকতে হবে। ছাত্রলীগকে সুনামের ধারা অব্যাহত রাখতে হবে। ইতিহাস, ঐতিহ্যে শেখ হাসিনার নেতৃত্ব উজ্জ্বল আগামীর দিকে যেতে হবে। কথা বেশি না বলে বেশি কাজ করার পরামর্শ দিয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, বাংলাদেশে ভাল কথার ফুরিয়ে গেছে। ভাল কথার তুলনায় ভাল কাজ হয় না। তিনি বলেন, এই দেশে যারা বেশি দুর্নীতি, অনিয়মের কথা বলে তলে তলে তারাই বেশি দুর্নীতি ও অনিয়ম করে। আমি ছাত্রলীগ কে সেভাবে দেখতে চাই না নেত্রীও দেখতে চান না। শেখ হাসিনাকে স্টেটসম্যান আখ্যা দিয়ে কাদের বলেন, এত উন্নয়ন এত অর্জন আজ সারা বিশ্বে বাংলাদেশ মডেল। শেখ হাসিনা আজ রাষ্ট্র নায়ক। তিনি একইসাথে পলিটিশিয়ান ও স্টেটসম্যান। শেখ হাসিনার প্রশংসা করে কাদের বলেন, পলিটিশিয়ান ও স্টেটসম্যানের মধ্যে পার্থক্য হচ্ছে পলিটিশিয়ান পরবর্তী নির্বাচন নিয়ে ভাবে, স্টেটসম্যান পরবর্তী প্রজন্ম নিয়ে ভাবে। তিনি এখন ব্যক্তিত্বের নেতৃত্বে সৌরভে গৌরবে অনেক উচ্চতাকে ছুঁয়েছেন। এ সময় বক্তব্য রাখেন অভিনেত্রী ও শহীদ বুদ্ধিজীবী শহীদুল্লাহ কায়সারের মেয়ে শমী কায়দার, ছাত্রলীগের সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ, সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসাইন প্রমুখ।

 



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :




Go Back Go Top