রাত ১:২৪, বৃহস্পতিবার, ২৮শে জুন, ২০১৭ ইং
/ বিনোদন / চলচ্চিত্র শিল্পী, পরিচালকসহ অন্যদের অবস্থান ধর্মঘট
চলচ্চিত্র শিল্পী, পরিচালকসহ অন্যদের অবস্থান ধর্মঘট
জুন ১৮, ২০১৭

বিনোদন প্রতিবেদক : বিগত বেশ কয়েকবছর যাবত বেশ কিছু চলচ্চিত্র নির্মাণ করতে গিয়ে যৌথ প্রযোজনার নামে যৌথ প্রতারণা করা হচ্ছে। বিশেষ করে আসন্ন ঈদে দেশীয় প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান জাজ মাল্টিমিডিয়া থেকে মুক্তি পেতে যাওয়া ‘বস টু’ ও ‘নবাব’ ছবি দুটি প্রসঙ্গে এ কথাটি বেশি আলোচিত হচ্ছে। এদিকে এ ছবি দুটি যেন মুক্তি দেয়া না হয় সেজন্য এফডিসির প্রিভিউ কমিটিকে চিঠি দেয়ার পাশাপাশি গতকাল দুপুর ১২ টায় চলচ্চিত্রের শিল্পী, পরিচালক, প্রযোজকসহ অনান্য সংগঠনের নেতা কর্মীরা এফডিসির ভেতরে ও প্রধান ফটকে অবস্থান নেন।

 এ সময় উপস্থিত ছিলেন চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতির সভাপতি মুশফিকুর রহমান গুলজার, মহাসচিব বদিউল আলম খোকন, মনতাজুর রহমান আকবর, সোহানুর রহমান সোহান, মোহাম্মদ হোসেন জেমি, শাহীন সুমন, বজলুর রশীদসহ আরো অনেকে। সমাবেশে অভিনেতা-অভিনেত্রীদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ফারুক, অঞ্জনা, রুবেল, মিশা সওদাগর, রিয়াজ, পপি, জায়েদ খান, সাইমন, ইমন, পরীমনি, বাপ্পী, শিমুল খান, আরজু, শিপন মিত্র, অমৃতা, নিঝুম রুবিনা, মৌমিতা, জেসমিনসহ আরো অনেকে।

এ সময় শিল্পী সমিতির সভাপতি মিশা সওদাগর বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের হাতে গড়া এফডিসিতে কোনো অনিয়ম চলবে না। এটা আমরা হতে দিব না। জায়েদ খান বলেন, যৌথ প্রযোজনার নামে যৌথ প্রারণার ছবি বন্ধ করতে হবে। শিল্পী সমিতির সহ-সভাপতি রিয়াজ বলেন, যৌথ প্রযোজনার নামে যারা প্রতারণা করছে তারা চলচ্চিত্রের রাজাকার। তাদের ছবি এদেশে চলবে না।

এরপর দুপুর একটার দিকে ধর্মঘটকারীরা এফডিসির গেট থেকে মিছিল নিয়ে ইস্কাটনস্থ সেন্সর বোর্ডের সামনে অবস্থান নেন। এরপর সেখান থেকেই একটি দল তথ্য মন্ত্রাণালয় অভিমুখে যাত্রা শুরু করে। এ সময় পরিচালক সমিতির সভাপতি মুশফিকুর রহমান গুলজার বলেন, এখন আমরা তথ্য মন্ত্রাণালয় অভিমুখে রওনা করেছি। ক্ষমতার অপব্যবহার করে এক শ্রেনীর মানুষ চলচ্চিত্রকে ধ্বংস করতে যাচ্ছে।

 বঙ্গবন্ধুর প্রতিষ্ঠা করা এই এফডিসি বাঁচাতে সরকারের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি। শিল্পী সমিতির কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য ও চিত্রনায়িকা পপি বলেন, আমরা যৌথ প্রযোজনায় ছবি চাই না। যদি যৌথ প্রযোজনায় ছবি হয় তবে নীতিমালা অনুসারে হতে হবে। পরিচালক মনতাজুর রহমান আকবর জানান, তথ্যমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করে এখন এ বিষয়গুলো নিয়ে আলোচনা চলছে। আশা করছি, সরকার বিষয়টি গুরুত্ব সহকারে দেখবেন।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :




Go Back Go Top