সকাল ৭:৫৩, বুধবার, ২৮শে জুন, ২০১৭ ইং
/ ঢাকা / গাজীপুরে স্ত্রী হত্যার দায়ে স্বামীর যাবজ্জীবন
গাজীপুরে স্ত্রী হত্যার দায়ে স্বামীর যাবজ্জীবন
ফেব্রুয়ারি ২২, ২০১৭

কালিয়াকৈর (গাজীপুর) প্রতিনিধি : গাজীপুরে স্ত্রী হত্যার দায়ে স্বামী  মো. আব্দুস সাত্তারকে যাবজ্জীবন কারাদন্ডাদেশ দিয়েছেন আদালত। সেই সাথে আসামিকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও এক মাসের কারাদন্ডাদেশ প্রদান করেন।

বুধবার দুপুরে গাজীপুর  জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক এ  কে এম এনামুল হক এ দন্ডাদেশ প্রদান করেন।
দন্ডপ্রাপ্ত আসামি আব্দুস সাত্তার ময়মনসিংহ জেলার ফুলবাড়িয়া থানাধীন এনায়েতপুর এলাকার মো. ইব্রাহীমের  ছেলে এবং তার স্ত্রী হাসিনা (৩২) একই এলাকার মৃত. সাহেদ আলী মন্ডলের মেয়ে।

গাজীপুর জজ কোর্টের পিপি এডভোকেট হারিছ উদ্দিন আহমদ জানান, ১৫ বছর আগে ময়নসিংহের ফুলবাড়িয়া থানার এনায়েতপুর এলাকার মৃত সাহেদ আলী মন্ডলের  মেয়ে হাসিনাকে বিয়ে করে আব্দুস সাত্তার। গার্মেন্টসে চাকরির সুবাদে গাজীপুর সিটি করপোরেশনের বাড়িয়ালী এলাকার শাহজাহান ড্রাইভারের ভাড়া বাসায় বসবাস করে স্বামী-স্ত্রী দু’জনই স্থানীয় একটি  পোশাক কারখানায় চাকরি করতেন।

২০১৬ সালের ৫ মার্চ সকাল সাড়ে ৭টার দিকে হাসিনা কর্মস্থলে চলে যায়। কিন্তু ওই রাতে তিনি আর বাসায়  ফেরেনি। পরদিন সকাল ৮টার দিকে গাজীপুর সিটি করপোরেশনের  টেকনগপাড়া এলাকায় পতিত জমিতে গলায় ওড়না  পেচানো অবস্থায় হাসিনার মরদেহ  দেখে পুলিশে খবর  দেন স্থানীয়রা। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ  মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

এ ঘটনায় ৭ মার্চ নিহতের ভাই  মো. রাজ্জাক বাদী হয়ে জয়দেবপুর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করে। পুলিশ মামলার তদন্ত করে সাত্তারকে  গ্রেফতার করে। পরে  সে হত্যার বিষয়টি স্বীকার করে। অবশেষে ৮ জন সাক্ষীর সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে  বুধবার দুপুরে সাত্তারকে যাবজ্জীবন কারাদন্ডাদেশ প্রদান করেন আদালত। এ দম্পতির আকাশ (৯) ও পুস্প (১৩) নামে দুটি সন্তান রয়েছে।
রাষ্ট্রপক্ষে মামলা পরিচালনা করেন পিপি হারিজউদ্দিন আহম্মেদ এবং আসামি পক্ষে ছিলে এডভোকেট এ কে এম মাসুম আল আজাদ।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :




Go Back Go Top