দুপুর ১:২৪, বৃহস্পতিবার, ২৯শে জুন, ২০১৭ ইং
/ ক্রিকেট / কারাগারেই থাকতে হচ্ছে সানিকে
কারাগারেই থাকতে হচ্ছে সানিকে
ফেব্রুয়ারি ১৫, ২০১৭

স্ত্রী হিসেবে পরিচয় দেওয়া এক তরুণীর করা তথ্য-প্রযুক্তি আইনের মামলায় ক্রিকেটার আরাফাত সানির জামিন নাকচ করে দিয়েছেন আদালত।
এর ফলে বাংলাদেশ জাতীয় দলের এক সময়ের এই ক্রিকেটারকে আপাতত কারাগারেই থাকতে হচ্ছে। সানির জামিন আবেদনের শুনানি করে বাংলাদেশ সাইবার ক্রাইম ট্রাইব্যুনালের বিচারক সাইফুল ইসলাম  বুধবার এই আদেশ দেন।

সানির স্ত্রী হিসেবে পরিচয় দেওয়া ওই তরুণীও এদিন আদালতে উপস্থিত ছিলেন। তিনি জামিন আবেদনের বিরোধিতা করেন বলে বাদীপক্ষের আইনজীবী কমাল উদ্দিন জানান।
এ ছাড়া সানি ওই তরুণীকে ফেইসবুকে ‘যেসব ছবি পাঠিয়ে ব্ল্যাকমেইল করার চেষ্টা’ করেছেন, সেসব ছবির ফরেনসিক রিপোর্ট না পাওয়ায় আদালত জামিন নাকচ করে দেয় বলে জানান এই আইনজীবী। ২১ বছর বয়সী ওই তরুণীর ভাষ্য, সাত বছর আগে পরিচয়ের পর সানির সঙ্গে তার প্রেম হয়। ২০১৪ সালের ডিসেম্বরে তারা পরিবারকে না জানিয়ে বিয়ে করেন। এরপর বিয়ের বিষয়টি পরিবারকে জানিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে তুলে নেওয়ার কথা বললেও সানি সময় ক্ষেপণ করতে থাকেন। আনুষ্ঠানিকভাবে তুলে না নিলেও বিয়ের পর তারা বাসা ভাড়া নিয়ে একসঙ্গে থাকার পাশাপাশি একসঙ্গে বিদেশে বেড়াতেও গিয়েছেন বলে দাবি তার আইনজীবী কামাল উদ্দিনের।

তথ্য-প্রযুক্তি আইনের মামলায় ওই তরুণীর অভিযোগ করেছেন, তিনি আনুষ্ঠানিকভাবে স্ত্রী হিসেবে তাকে তুলে নেওয়ার জন্য চাপ দিলে গত বছর জুন মাসে সানি ফেইসবুকে একটি ভুয়া অ্যাকাউন্ট খুলে মেসেঞ্জারে তাদের কিছু অন্তরঙ্গ ছবি পাঠান এবং নানাভাবে হুমকি দিতে শুরু করেন। ওই তরুণী রাজধানীর মোহাম্মদপুর থানায় গত ৫ জানুয়ারি এ মামলা করলেও সে খবর জানাজানি হয় ২২ জানুয়ারি পুলিশ সানিকে গ্রেফতার করার পর । এরপর ২০ লাখ টাকা যৌতুকের জন্য নির্যাতনের অভিযোগ এনে ২৩ জানুয়ারি সানির বিরুদ্ধে যৌতুক আইনে আরেকটি মামলা করেন ওই তরুণী। সবশেষে ১ ফেব্রুয়ারি তিনি নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে আরেকটি মামলা করেন। ওই মামলায় সানির জামিন আবেদন গত ১২ ফেব্রুয়ারি নাকচ করে দেয় ঢাকার হাকিম আদালত।

 



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :




Go Back Go Top