বিকাল ৪:০৬, শনিবার, ২৭শে মে, ২০১৭ ইং
/ সম্পাদকীয় / উত্তরাঞ্চলে ভূ-গর্ভস্থ পানির স্তর
উত্তরাঞ্চলে ভূ-গর্ভস্থ পানির স্তর
মার্চ ১৩, ২০১৭

দেশে উত্তরাঞ্চলে গত দুই বছরে গড়ে আরো ১০ ফুট নিচে নেমেছে ভূগর্ভস্থ পানি স্তর। সংকটাপন্ন হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে ১৮টি এলাকা। বরেন্দ্র অঞ্চল গবেষণা সংস্থা ডাসকো ফাউন্ডেশন পরিচালিত সমন্বিত পানি সম্পদ ব্যবস্থাপনা প্রকল্পে কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর আলম খান জানান, রাজশাহী চাঁপাইনবাবগঞ্জ ও নওগাঁ জেলার যেসব এলাকা সংকটাপন্ন বলে চিহ্নিত হয়েছে সেসব জায়গায় গত দুই বছরে পানির স্তর নেমে গেছে ৮ থেকে ১২ ফুট। চলতি বছর ফেব্রুয়ারিতে এই অঞ্চলের ১০০টি পয়েন্টে বোরিং করে এ তথ্য পাওয়া গেছে। এর মধ্যে রয়েছে ১৫টি ইউনিয়ন ও তিনটি পৌরসভা।

আর অধিক সংকটাপন্ন এলাকা হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে রাজশাহীর তানোর উপজেলার বাধাইড় ও চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার ঝিলিম ইউনিয়নকে। বোরো মৌসুম শেষে আগামী মে মাসে আবার ১০০টি পয়েন্টে নিরীক্ষার পর পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ে চূড়ান্ত প্রতিবেদন পাঠানো হবে।

বাধাইড় ইউনিয়ন ঝিলাইখোর এলাকায় ২০১৫ সালে ফেব্রুয়ারিতে পানির স্তর ছিল ৯৯ ফুট নিচে। চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে সেখানে পানির স্তর পাওয়া গেছে ১১১ ফুট ৯ ইঞ্চি নিচে। আর চাঁপাইনবাবগঞ্জের ঝিলিম ইউনিয়নে ২০১৫ সালের ফেব্রুয়ারিতে পতি স্তর ছিল ১০১ ফুট নিচে।

 

 চলতি বছর ফেব্রুয়ারিতে সেখানে পানি পাওয়া গেছে ১০৮ ফুট ৯ ইঞ্চি নিচে। এক যুগ আগে এসব এলাকায় ৬০ থেকে ৯০ ফুট নিচে পানি স্তর ছিল। চূড়ান্ত প্রতিবেদনে এসব এলাকা থেকে গভীর নলকূপের পানি দিয়ে বোরো আবাদ দ্রুত বন্ধ করার সুপারিশ করা হবে।

বিকল্প হিসেবে বড় পুকুর ও খাল খনন করে ভূ-উপরিস্থিত পানি বাড়ানোর সুপারিশ করা হবে। বোদ্ধপুর গ্রামের গভীর নলকূপ অপারেটর আব্দুল আজিজ জানান ২০১৫ সাল থেকে তার গভীর নলকূপের পানি কমতে থাকে। আর ২০১৫ সালে পুরোপুরি বন্ধ হয়ে যায়। এর ফলে ২০০ বিঘার বেশি জমি পতিত পড়ে আছে পানির অভাবে।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :




Go Back Go Top