সকাল ৮:৪৩, মঙ্গলবার, ২৫শে এপ্রিল, ২০১৭ ইং
/ আর্ন্তাজাতিক / উত্তপ্ত রুশ-মার্কিন সম্পর্ক: পরস্পরের ৩৫ জন করে কূটনীতিক বহিষ্কার
উত্তপ্ত রুশ-মার্কিন সম্পর্ক: পরস্পরের ৩৫ জন করে কূটনীতিক বহিষ্কার
ডিসেম্বর ৩০, ২০১৬

করতোয়া ডেস্ক: প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে নাক গলানোর সন্দেহে শাস্তি হিসেবে যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থানরত ৩৫ জন রুশ কূটনীতিককে বহিষ্কার করেছে দেশটি। ওয়াশিংটন ডিসি এবং সান ফ্রান্সিসকো কনসুলেটের এসব কূটনীতিক এবং তাদের পরিবারকে ৭২ ঘণ্টার মধ্যে নিজ দেশে ফিরে যাওয়ার নির্দেশ নিয়েছে।


 সেই সঙ্গে মেরিল্যান্ড এবং নিউ ইয়র্কে গোয়েন্দা তথ্য কেন্দ্র হিসেবে ব্যবহৃত হত এমন দুটি রুশ কম্পাউন্ডও বন্ধ করে দেওয়া হবে বলে জানানো হয়েছে। এছাড়া রুশ গোয়েন্দা সংস্থার সাথে সম্পৃক্ত নয়টি সংস্থা ও ব্যক্তির ওপরেও নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। অপর দিকে পাল্টা প্রতিক্রিয়ায় ৩৫ মার্কিন কূটনীতিককে বহিষ্কারের ঘোষণা দিয়েছে রুশ সরকার।

 বারাক ওবামার ঘোষণার কয়েক ঘণ্টা যেতে না যেতেই একই সংখ্যায় জবাব দিলো রাশিয়াও। শুক্রবার দেশটির সংবাদমাধ্যমে রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই ল্যাভরভ যুক্তরাষ্ট্রের সিদ্ধান্তকে ‘ভিত্তিহীন’ বলে অভিযোগ করেন। তিনি বলেন, মার্কিন নির্বাচনের যে ইস্যু নিয়ে তাদের জড়ানো হচ্ছে তা একদমই সঠিক নয়। আরও বলেন, বন্ধ করে দেওয়া হবে মস্কোতে দুইটি মার্কিন তথ্য কেন্দ্রও। ওবামা প্রশাসনের শেষ দিনগুলোতে নেওয়া নতুন এমন সিদ্ধান্ত যে সময়ে এলো, যেখানে সিরিয়া ও ইউক্রেইন নিয়ে দুই দেশের সম্পর্কে স্নায়ুযুদ্ধের পরিস্থিতি। রাশিয়ার আবার পাল্টা জবাবে মোড় আরও ঘুরেই গেলো।

 প্রেসিডেন্ট ভøালাদিমির পুতিনের একজন মুখপাত্র জানিয়েছেন, ক্রেমলিন যে ব্যবস্থা নিতে যাচ্ছে, তা যুক্তরাষ্ট্রকে বড় ধরনের অস্বস্তিতে ফেলবে। আর যুক্তরাষ্ট্রের গোয়েন্দা সংস্থাগুলোর অভিযোগ, প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের সময় হওয়া হ্যাকিংয়ের ঘটনায় রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভøালাদিমির পুতিন সরাসরি জড়িত। সাম্প্রতিক সময়ে ডেমোক্রেটিক পার্টি এবং হিলারি ক্লিনটনের নির্বাচনী প্রচারণা রুশ হ্যাকারদের কবলে পড়েছিল, এমন অভিযোগের প্রেক্ষাপটে প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা রাশিয়ার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেন। যদিও রাশিয়া এসব অভিযোগ নাকচ করে আসছে।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :




Go Back Go Top