রাত ৯:৩৭, বৃহস্পতিবার, ১৭ই আগস্ট, ২০১৭ ইং
/ আর্ন্তাজাতিক / আফগানিস্তানে সব থেকে বড় মার্কিন বোমায় নিহত ৯৪
আফগানিস্তানে সব থেকে বড় মার্কিন বোমায় নিহত ৯৪
এপ্রিল ১৫, ২০১৭

করতোয়া ডেস্ক : আফগানিস্তানে পরমাণবিক নয় যুক্তরাষ্ট্রের এমন সবচেয়ে শক্তিশালী বোমা হামলায় এপর্যন্ত অন্তত ৯৪ জন আইএস জঙ্গি নিহত হয়েছে। শনিবার আফগানিস্তানের এক কর্মকর্তা এ তথ্য জানিয়েছেন।  বৃহস্পতিবার  আফগানিস্তানের নাঙ্গারহার প্রদেশের আইএসের ঘাঁটি লক্ষ্য করে বিশ্বের সবচাইতে বড় বোমাটি ফেলে যুক্তরাষ্ট্র।নিজেদের সামরিক শক্তি প্রদর্শনের জন্য সিরিয়ায় ক্ষেপণাস্ত্র হামলার এক সপ্তাহ পার হতে না হতেই এ বোমা হামলা চালায় আমেরিকা।
মার্কিন কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, ৩০ ফুটের বেশি লম্বা ও প্রায় ৯ হাজার ৭৯৭ কেজি ওজনের এ বোমার আঘাতে গুহা ও টানেল নেটওয়ার্ক বেষ্টিত জঙ্গিদের ওই আস্তানা পুরোপুরি ধ্বংস হয়ে গেছে।

‘মাদার অফ অল বম্বস’ নামে পরিচিত এই বোমাটির ২০০৩ সালে প্রথম পরীক্ষামূলক বিস্ফোরণ ঘটানো হলেও এর আগে কোনো যুদ্ধে এটি ব্যবহৃত হয়নি।নানগড়হারে ফেলা বোমাটি লম্বায় ৩০ ফুট বোমাটির ওজন ১১ টন, গায়ে লেখা রয়েছে এমওএবি। এমওএবি-র মানে হলো ম্যাসিভ অর্ডন্যান্স ওয়ার ব্লাস্ট, বাংলায় বলা যেতে পারে ব্যাপক বিধ্বংসী বায়ু-বিস্ফোরক।

 তবে এমওএবি-কে বিস্তৃত করলে মাদার অব অল বম্বস-ও হয়। মার্কিন সেনাবাহিনী এই নামেই ডাকে বোমাটিকে। পরমাণু বোমার বাইরে এটিই পৃথিবীর বুকে আছড়ে পড়া সবথেকে বড় বোমা।আর ভয়াবহতার দিক থেকেও এ বোমাটি ভয়ংকর। কারণ এক মাইল এলাকার মধ্যে যে কোন লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হানার পর এটি ১৮ হাজার পাউন্ড টিএনটি ক্ষমতাসম্পন্ন বিস্ফোরণ ঘটাতে পারে।ভূমিতে সবকিছু ধ্বংস করে দিতে সক্ষম এ বোমাটি, এমনটি ভূগর্ভস্থ বাঙ্কার বা টানেলকেও ধ্বংসস্তুপে পরিণত করে দিতে পারে মূহুর্তের মধ্যেই। একেকটি এ ধরনের বোমা তৈরির জন্য ব্যয় হয় প্রায় ১৬ মিলিয়ন ডলার। এর উল্লেখযোগ্য বৈশিষ্ট্য হলো বিস্ফোরণের ভয়াবহতা এক ধরণের আতঙ্ক তৈরি করতে সক্ষম।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :




Go Back Go Top