বিকাল ৪:২৮, বুধবার, ২৮শে জুন, ২০১৭ ইং
/ রাজনীতি / আন্দোলন ও নির্বাচন প্রস্তুতিতে তৃণমূলে বিএনপির ৪০ টিম
আন্দোলন ও নির্বাচন প্রস্তুতিতে তৃণমূলে বিএনপির ৪০ টিম
এপ্রিল ২১, ২০১৭

রাজকুমার নন্দী : দ্বন্দ্ব-কোন্দল নিরসন করে তৃণমূলে সংগঠনকে শক্তিশালীকরণ ও সরকারি মামলা-হামলায় জর্জরিত নেতা-কর্মীদের চাঙ্গা করতে সাংগঠনিক সফরে যাচ্ছে বিএনপি। নির্দলীয়-নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচনের দাবি আদায়ে প্রয়োজনে ভবিষ্যতে আবারও আন্দোলনে যেতে চায় দলটি। একইসঙ্গে আগামী নির্বাচনের জন্যও প্রস্তুতি নিতে চায় বিএনপি। এ লক্ষ্যে দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার নির্দেশে কেন্দ্রীয় নেতাদের নেতৃত্বে ইতিমধ্যে ৪০টি দল (টিম) গঠন করা হয়েছে। বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য, ভাইস চেয়ারম্যান, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ও যুগ্ম-মহাসচিবদের টিম লিডার করা হয়েছে। দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতাদের নিজ জেলার বাইরের টিমের প্রধান করা হয়েছে। এসব টিমের নেতারা দেশব্যাপী ৮০টি সাংগঠনিক জেলা সফর করবেন।

গত মঙ্গলবার বিএনপির কেন্দ্রীয় দফতর থেকে দায়িত্বপ্রাপ্ত টিম প্রধানের কাছে এ সংক্রান্ত চিঠি পাঠানো হয়েছে। চিঠি অনুযায়ী আজ শনিবার থেকে এই সাংগঠনিক সফর শুরু হবে, যা আগামী ৭ মে পর্যন্ত চলবে। সফর শেষে টিম লিডাররা বিএনপির কেন্দ্রীয় দফতরে সংশ্লিষ্ট জেলার সার্বিক পরিস্থিতির ওপর সাংগঠনিক প্রতিবেদন জমা দেবেন। পরে সব প্রতিবেদন সমন্বয় করে একটি সার্বিক প্রতিবেদন তৈরি করে দলীয় চেয়ারপারসনের কাছে দেয়া হবে। বিএনপি সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।    

সাংগঠনিক সফর প্রসঙ্গে চট্টগ্রাম জেলা ও মহানগরের দায়িত্বপ্রাপ্ত টিমের প্রধান বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন দৈনিক করতোয়াকে বলেন, আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি- সাংগঠনিক ব্যাপারে কাজ করার জন্য বিভিন্ন জেলায় আমাদের দলের নেতারা যাবেন। আর সফর শেষে সংশ্লিষ্ট জেলার সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে প্রতিবেদন তৈরি করে কেন্দ্রের কাছে জমা দেবেন। দায়িত্বপ্রাপ্ত জেলা ও মহানগরে দ্রুতই কার্যক্রম শুরু করবেন বলে জানান তিনি।

জানা যায়, বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর স্বাক্ষরিত ওই চিঠিতে সফরে নেতাদের করণীয় সম্পর্কে বেশকিছু নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। এতে দলের জাতীয় স্থায়ী কমিটির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী সংশ্লিষ্ট জেলার নেতাদের নিয়ে কর্মিসভা করার কথা বলা হয়েছে। পাশাপাশি জেলার সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকদের সঙ্গে যোগাযোগ করে কর্মিসভার দিনক্ষণ চূড়ান্ত করা এবং বিভাগীয় সাংগঠনিক ও সহ-সাংগঠনিক সম্পাদকদের তা অবহিত করতে বলা হয়েছে। সংশ্লিষ্ট জেলার সব কেন্দ্রীয় নেতাকে টিমে অন্তর্ভুক্ত করার আহ্বান জানানো হয়েছে চিঠিতে। জেলার উদ্যোগে এসব কর্মিসভায় টিম প্রধানদের দেশের বর্তমান রাজনৈতিক পরিস্থিতি, দলের অবস্থান ও দলের ঐক্য সম্পর্কে বক্তব্য রাখার অনুরোধ জানানো হয়েছে।

বিএনপির মহাসচিব স্বাক্ষরিত সাংগঠনিক সফর সংক্রান্ত চিঠি পাওয়ার কথা জানিয়েছেন রাজশাহী জেলা ও মহানগরের দায়িত্বপ্রাপ্ত টিমের প্রধান ও দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়। তিনি সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে আলাপ করে দ্রুত তার কার্যক্রম শুরু করবেন বলে জানান। ফেনি জেলা টিমের দায়িত্বপ্রাপ্ত চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আতাউর রহমান ঢালীও দ্রুত সংশ্লিষ্ট এলাকায় যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছেন বলে জানান।

ভবিষ্যৎ আন্দোলন ও আগামী নির্বাচনের জন্য প্রস্তুত হওয়াই সাংগঠনিক সফরের লক্ষ্য বলে দৈনিক করতোয়াকে জানান যশোর জেলার দায়িত্বপ্রাপ্ত টিমের প্রধান বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল। তিনি বলেন, নেতাদের মধ্যে ছোট-খাটো কোনো সমস্যা থাকলে তা নিরসন করে তৃণমূলকে চাঙ্গা করাও এ সফরের অন্যতম উদ্দেশ্য হবে।

বিএনপির রাজশাহী বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু দৈনিক করতোয়াকে বলেন, সরকারবিরোধী বিগত দু’টি আন্দোলনের পর সরকারি মামলা-হামলা ও নির্যাতন-নিপীড়নে আমাদের সারাদেশের নেতা-কর্মীরা জর্জরিত। এই অবস্থা থেকে তাদের সক্রিয়-উজ্জীবিত করার অংশ হিসেবে এই সাংগঠনিক সফর। কারণ, নির্দলীয়-নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচনের দাবি আদায়ে বিএনপির ভবিষ্যৎ আন্দোলন সফলে আমরা পুনরায় তৃণমূলের নেতাকর্মীদের স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণ চাই।



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :




Go Back Go Top