রাত ৩:০৯, সোমবার, ২৪শে সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ইং
/ সম্পাদকীয় / অরক্ষিত রেলক্রসিংয়ের দিকে দৃষ্টি দিন
অরক্ষিত রেলক্রসিংয়ের দিকে দৃষ্টি দিন
জানুয়ারি ১৩, ২০১৭

 


অরক্ষিত রেলক্রসিংয়ে ট্রেনের সঙ্গে বিভিন্ন যানবাহনের সংঘর্ষে হতাহতের ঘটনা প্রায়ই ঘটলেও রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ, যানবাহনের চালক এবং জনসাধারণের মধ্যে দায়িত্বশীলতা ও সচেতনতা বৃদ্ধির উল্লেখযোগ্য লক্ষণ দেখা যাচ্ছে না। ফলে একের পর এক দুর্ঘটনায় নিরীহ যাত্রীরা হতাহত হচ্ছেন।

গত রোববার গাজীপুরে এমন একটি লেভেল ক্রসিং পার হতে গিয়ে দুই শিশু সহ এক পরিবারের পাঁচ জনের  প্রাণ গেছে। সহযোগী একটি দৈনিকের প্রতিবেদন অনুযায়ী দেশের দুই হাজার ৮৭৭ কিলোমিটার রেলপথে প্রায় দুই হাজার ৫৪১টি লেভেল ক্রসিং রয়েছে। এর বেশির ভাগে কোনো গেট নেই। কোনো সংকেত বাতি তো দূরের কথা, নেই যান নিয়ন্ত্রণের কোনো কর্মি।

 দেশের রেলক্রসিংগুলো নিরাপদ নয়। নিরাপত্তার অভাবে প্রায়ই রেলক্রসিংয়ে ঘটছে দুর্ঘটনা। তাতে করে অসংখ্য মানুষ প্রাণ দিচ্ছে। একটি দুর্ঘটনার পর সংশ্লিষ্টদের মাঝে বেশ দৌড় ঝাঁপ দেখা যায়। কিন্তু তারপর আবারও পুরনো অবস্থায় ফিরে যায়। বিশেষত যেসব রেলক্রসিংয়ে প্রহরার ব্যবস্থা নেই সেসব জায়গায় ট্রেন চলাচলের সময় প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করা হয় না এবং যানবাহন চালকদের অসতর্কতার কারণে প্রায়ই অঘটন ঘটে।

 যান্ত্রিক ত্রুটির কারণেও কখনও কখনও যানবাহন রেলক্রসিংয়ে আটকে পড়ে দুর্ঘটনার শিকার হয়। রেলক্রসিং পার হওয়ার সময় বাড়তি সতর্কতা দেখাতে হবে। আমরা আশা করব মানুষের জীবন নিয়ে খেলা থেকে যানবাহন চালকরা বিরত থাকবেন। সামান্য সময় বাঁচানোর জন্য মূল্যবান প্রাণের অপচয় কোনোভাবেই মেনে নেওয়া যায় না। পাশাপাশি রেলক্রসিংগুলোতে পাহারাদার নিয়োগের ব্যবস্থা করা জরুরি।

 



লাইক দিয়ে সঙ্গে থাকুন :




Go Back Go Top